32 C
Dhaka
Thursday, August 11, 2022

পাওয়ার সাপ্লাই (PSU) Buying Guide…..

- Advertisement -

পিসি কেনার সময় আমরা সবথেকে বেশি যেটায় গুরুত্ব কম দেই সেটা হচ্ছে পাওয়ার সাপ্লাই বা PSU । কারণ এটি আরজিবির মতো চোখে পড়ে না কিংবা এসএসডির মতো পারফরমেন্সের সরাসরি কোনো প্রভাব রাখে না। কিন্তু এই জিনিসে কমপ্রোমাইজ করলে আপনার পুরো সিস্টেমটাই বিপদে থাকে সেটা হয়তো আমাদের অনেকেই জানেন না। বিশেষ করে বাংলাদেশের মতো দেশে লোডশেডিং, ভোল্টেজ আপ ডাউন এগুলো অহরহ ঘটে থাকে। এই সকল বিষয় সরাসরি PSU হ্যান্ডেল করে থাকে, নিম্ন মানের PSU ব্যবহার করলে এই ভোল্টেজ এর চাপ কিংবা লোডশেডিং এর প্রেসার PSU ভালোমতো কনট্রোল করতে পারে না বিধায় এগুলো সরাসরি মাদারবোর্ডের উপর প্রেসার দিয়ে থাকে। ইউপিএস থাকলেও সেটা এই বিষয়গুলো হ্যান্ডেল করতে পারবে না। তাই ইউপিএস এর সাথে সাথে PSU এর দিকেও আমাদের বিশেষ খেয়াল রাখা দরকার, বিশেষ করে যারা দামি গ্রাফিক্স কার্ড কিংবা পিসির সাথে অনেকগুলো এক্সট্রা কম্পোনেন্ট (প্রিন্টার, স্ক্যানার ইত্যাদি) ব্যবহার করে থাকেন তাদের জন্য তো অবশ্যই আজকের এই আর্টিকেলটি বেশ কাজে দেবে।

ভূমিকা

- Advertisement -

বাজেট পিসি বিল্ডের সময় দোকানদার কিংবা আমরা নিজেরাই PSU নিয়ে তেমন একটা গুরুত্ব দেই না। কারণ বাজেট পিসিতে ততটা শক্তিশালি PSU এর দরকার হয় না। তবে যে বাজেটই হোক, কখনোই স্টক PSU ব্যবহার করবেন না। মানে কেসিংয়ের সাথে ফ্রিতে যেটাইপের PSU দেওয়া থাকে সেগুলা চাইনিজ ২ নাম্বার PSU এর থেকেও কোয়ালিটিতে বাজে।
কম্পিউটারের একটি গুরুত্বপূর্ণ কম্পোনেন্ট হচ্ছে PSU বা পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিট। এই PSU আপনার পিসির সকল ক্ষেত্রে সঠিকভাবে বিদ্যুৎ সরবরাহ করে থাকে। তাই এই গুরুত্বপূর্ণ জিনিসটি আমরা সচরাচর হেলাফেলা করে থাকি। সকল কিছু কেনার পর PSU এর বেলার দোকানদারকে বলি একটা পাওয়ার সাপ্লাই দিতে সেভাবেই লো কোয়ালিটির PSU আপনার পিসিতে চলে আসে।

PSU কি?


যেকোনো ধরনের ইলেকট্রিক ডিভাইস বিদ্যুতের সাহায্যে রান করে থাকে। আর কম্পিউটারও বিদ্যুতের সাহায্যে অপারেট করে থাকে। আর কম্পিউটারে বিদ্যুৎ এই PSU দিয়েই প্রবেশ করে থাকে। পাওয়ার সাপ্লাই আপনার কম্পিউটারের প্রতিটি কম্পোনেন্টে সঠিকভাবে বিদ্যুৎ বন্টন করে থাকে। আর PSU যদি সঠিকভাবে কম্পোনেন্টে বিদ্যুৎ না দিতে পারে তাহলে পিসিতে হাডওর্য়াড / সফটওয়্যার জাতীয় বহু সমস্যার দেখা দেয়। যেমন অটো রিস্টার্ট, হ্যাং হয়ে যাওয়া, পিসি স্লো হয়ে যাওয়া। আর বড় ধরণের সমস্যা বলতে আপনার কম্পোনেন্টস ফেইলও করতে পারে। অনেক বছর আগে এই PSU এর জন্য আমার ২৫৬ মেগাবাইটের গ্রাফিক্স কার্ড ডেড হয়ে গিয়েছিল! তখনকার সময়ে ২৫৬ মেগাবাইটের গ্রাফিক্স কার্ড মানে বর্তমানের ২ জিবির কার্ডের সমান।

ভালো পাওয়ার সাপ্লাই চেনার উপায়

ভালো মানের পাওয়ার সাপ্লাই মানেই হচ্ছে ব্র্যান্ডেড পাওয়ার সাপ্লাই। দাম একটু বেশি হলেও চাইনিজ সস্তা PSU ব্যবহার কখনোই করা উচিত না, কিংবা কেসিংয়ের সাথে ফ্রিতে যেসব PSU দেওয়া থাকে সেগুলোও এভোয়েড করা দরকার।

  • Branded PSU এর মধ্যে একটি ফিচার থাকে যার নাম Overvoltage Protection । এটার কাজ হচ্ছে বিদ্যুৎয়ের চাপ বেশি হয়ে গেলে সে এটাকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারে। কম্পিউটারে চাহিদার অতিরিক্ত ভোল্টেজ চলে গেলে হার্ডওয়ারে অনেক ধরণের সমস্যার দেখা দিতে পারে। তাই পিএসইউ কেনার আগে সেখানে এই ফিচারটি রয়েছে কিনা সেটা চেক করে নিবেন।
  • ভালো মানের PSU তে আলাদা করে Efficiency Rating থাকে। এটা বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে বেশ ভূমিকা রেখে থাকে। কেনার সময় এটাও চেক করে নিতে হবে।
  • সাধারণ PSU ব্যবহারের কারণে যন্ত্রাংশ পুড়ে নষ্ট হয়ে যাবার চান্স থাকে। পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিটে ৫ হাজার টাকা বাঁচিয়ে আপনার ৩০ হাজার টাকার গ্রাফিক্স কার্ড নস্ট হয়ে গেলে আল্টিমেইটলি লস আপনারই।
  • ভবিষ্যৎতে কম্পোনেন্টস আপগ্রেড করার সময় যদি এখন ভালো ব্রান্ডের অতিরিক্ত পাওয়ার সম্পন্ন PSU থাকে তাহলে তখন আলাদা করে PSU নিয়ে আপনাকে ভাবতে হবে না।

কিভাবে সঠিক PSU কিনবেন?

- Advertisement -

পাওয়ার চাহিদা:

একটি পাওয়ার সাপ্লাই নির্বাচন করার সবথেকে প্রধান ইস্যু হচ্ছে আপনার কতটুকু বিদ্যুতের প্রয়োজন সেটা ক্যালকুলেট করা। সাধারণত জিপিইউ ছাড়া বাজেট বিল্ডগুলোতে ৫৫০ ওয়াটের পাওয়ার সাপ্লাই যথেষ্ট। তবে লেটেস্ট হেভি গ্রাফিক্স কার্ড থাকলে ১০০০ ওয়াটের পাওয়ার সাপ্লাই নিলে নিরাপদে থাকবেন।

পাওয়ার ক্যালকুলেটর:

- Advertisement -

নেটে বেশ কিছু ওয়েবসাইট রয়েছে সেখানে আপনি পাওয়ার সাপ্লাইয়ের জন্য কতটুকু পাওয়ার প্রয়োজন হয় সেটা ক্যালকুলেট করা যায়। সেখানে গিয়ে আপনি আপনার বিল্ডের সকল যন্ত্রাংশকে সিলেক্ট করবেন তারপর সেটা আপনাকে বলে দিবে কতটুকু পাওয়ার আপনার দরকার।

https://www.coolermaster.com/power-supply-calculator/

https://pcpartpicker.com/list/

সব সময় মনে রাখবেন এই সকল সাইটস কখনোই আপনাকে ১০০% একুরেট রেজাল্ট দিতে পারবে না। যেমন উপরের চিত্রে একটি মডারেট পাওয়ারফুল জিপিইউ থাকা স্বত্তেও আমাকে দেখাচ্ছে যে আমার ৬০৭ ওয়াটের PSU দরকার।
আপনি সবসময় এই ক্যালকুলেশনের থেকে ১০০ বা ১৫০ ওয়াট বেশি ধরে নিবেন।

ভবিষ্যৎ আপগ্রেড:

ভবিষ্যতে মেজর কোনো আপগ্রেড আনার চিন্তা ভাবনা থাকলে ক্যালকুলেট করার সময় ওই ভবিষ্য কম্পোনেন্টও এড করে নিবেন। তাহলে তখন আলাদা করে নতুন পাওয়ার সাপ্লাই কেনার ঝামেলা থাকবে না।

Efficiency রেটিং

পাওয়ার সাপ্লাই কেনার সময় আমরা যে ভুলটা করে থাকি সেটা হলো কেনার সময় শুধুমাত্র এর ওয়াট ক্ষমতা দেখি। বেশি ওয়াট ক্ষমতা থাকলেই যেই পাওয়ার সাপ্লাইয়ের পারফরমেন্স যে ভালো হবে সেটা কিন্তু না। ওয়াটের সাথে সাথে Efficiency Raing ও থাকতে হবে। এই রেটিংয়ের মাধ্যমেই আপনি বুঝতে পারবেন যে PSU টি কি পরিমাণের ডিসি কারেন্ট আপনার পিসিতে সেন্ড করবে এবং হিটের কারণে কতটুকু পাওয়ার লস হবে।

ধরুন একটি পিসি চলার জন্য ৩০০ ওয়াটের পাওয়ারের দরকার হয়। সেখানে আপনি যদি ৮৫% রেটিংয়ের একটি পাওয়ার সাপ্লাই ব্যবহার করেন তাহলে সেটা আপনার পিসিকে ৩৫৩ ওয়াটের পাওয়ার ইনপুট দিতে পারবে। অন্যদিকে ৭০% রেটিংয়ের PSU থাকলে সেটা ৪২৮ ওয়াটের বিদ্যুৎ টানবে। তাহলে ৩০০ ওয়াট লাগলে বাকি ১২৮ ওয়াটের বিদ্যুৎ আপনার জায়গায় দাড়িয়ে অপচয় হচ্ছে, এতে আপনার পিসি হিট হবার সাথে সাথে আপনার বিদ্যুৎ বিলও বেশি হবে।

৮০ প্লাস সার্টিফিকেশন

ব্রান্ডের পাওয়ার সাপ্লাই কেনার সময় দেখবেন যে অধিকাংশতেই 80 PLUS সার্টিফিকেশন দেওয়া থাকে। এটা একটি সার্টিফিকেশন প্রোগ্রাম যেটা পাওয়ার সাপ্লাইয়ের Efficiency রেটিংকে এক ধরণের ওয়ারেন্টি দিয়ে থাকে। ৮০ প্লাস এর বেশ কয়েকটি টাইপ রয়েছে।

গ্রাফিক্স কার্ড থাকলে সবসময় চেষ্টা করবেন ৮০ প্লাস গোল্ড কিংবা এর উপরের লেবেলকৃত পাওয়ার সাপ্লাই কিনতে।

পাওয়ার সাপ্লাইয়ের মূল কাজ হচ্ছে আপনার বাসার বিদ্যুৎ সকেট থেকে এসি পাওয়ার কে টেনে নিয়ে ডিসি পাওয়ারে কনর্ভাট করে আপনার পিসির যন্ত্রাংশে পৌছে দেওয়া। আর Efficiency রেটিং এর মানে হচ্ছে কতটুকু যথাযথভাবে এই বিদ্যুৎকে ওয়াট হিসেবে ডিস্ট্রিবিউশন করা হচ্ছে সেটার কোয়ালিটি। যেমন একটা ৫০০ ওয়াটের ৫০% Efficiency রেটিং যুক্ত PSU বিদ্যুৎতের সকেট থেকে ১০০০ ওয়াট বিদ্যুৎ টেনে নিবে কিন্তু পিসিতে পৌছে দেবে ৫০০ ওয়াট। বাকি ৫০০ ওয়াট এই প্রসেসে (হিট) নষ্ট হবে।
৮০ প্লাস রেটিংযুক্ত PSU গুলো ২০, ৫০ এবং ১০০% লোডের সময় আপনাকে নুন্যতম ৮০% Efficiency দিতে সক্ষম হয়। অর্থাৎ একটা ৮০% Efficiency রেটিং যুক্ত ৫০০ ওয়াটের পিএসইউ বিদ্যুৎতের সকেট থেকে সর্বোচ্চ ৬২৫ ওয়াট বিদ্যুৎ টেনে নিবে। এক্ষেত্রে হিট জেনারেট কম হবে এবং বিদ্যুৎ বিলও অনেক কম আসবে।

৮০+ এর কয়েকটি টাইপ রয়েছে। ৮০ প্লাস, ব্রোঞ্জ, সিলভার, গোল্ড, প্লাটিনাম এবং টাইটানিয়াম। যত উপরের দিকে যাবেন তত Efficiency বেশি থাকবে আর দামও তত বেশি হবে। বাজেট বিল্ডেও আপনি নুন্যতম ৮০ প্লাস রেটিং যুক্ত PSU নিবেন। গ্রাফিক্স কার্ডের উপর ভিত্তি করে ৮০ প্লাস ব্রোঞ্জ / সিলভার নিতে পারেন। ফ্ল্যাগশীপ জিপিইউ ব্যবহার করলে গোল্ড নিবেন।
অন্যদিকে 80 PLUS Platinum এবং টাইটানিয়াম সাধারণত ওয়ার্কস্টেশন বা সার্ভার পিসিগুলোতে ব্যবহার করা হয়। ওগুলো জেনারেল কনজিউমারদের জন্য প্রযোজ্য নয়।

 

 

কেসিংয়ে ধরবে তো?

এটা সাধারণ জ্ঞান। আপনার কেসিংয়ে চয়েজকৃত পাওয়ার সাপ্লাইটি ঘাপ খাবে কিনা সেটা খেয়ালে রাখতে হবে। কারণ পাওয়ার সাপ্লাইটি আপনার কেসিংয়ের ভেতরে থাকবে তাই বড় বা ছোট হবে কিনা সেটা অবশ্যই খেয়াল রাখবেন।

ফ্যানের শব্দ

পাওয়ার সাপ্লাইয়ের ভেতর দিয়ে আপনার পিসিতে বিদ্যুৎ চলাচল করে। আর তাই অনান্য যন্ত্রাংশের মতো psu ও বেশ হিট জেনারেট করে বা গরম হয় । আর পাওয়ার সাপ্লাই সঠিক ভাবে চলার জন্য এতে ফ্যানের ব্যবহার করা হয় যাতে এটা ঠান্ডা থাকে। আপনার পিসি যদি অপেক্ষাকৃত কম সাউন্ডের রুমে থাকে তাহলে PSU এর ফ্যানের আওয়াজ কানে আসতে পারে। এক্ষেত্রে বড় ফ্যানযুক্ত পাওয়ার সাপ্লাই অপেক্ষাকৃত কম শব্দ জেনারেট করবে।

ক্যাবল ম্যানেজমেন্ট

সাধারণত ফ্ল্যাগশীপ পাওয়ার সাপ্লাইগুলোতে পূর্ণাঙ্গ মডিউলার ক্যাবলস দেওয়া থাকে। অন্যদিকে বাজেট পাওয়ার সাপ্লাইগুলোতে ফিক্সড ক্যাবলস থাকে। আর মিডরেঞ্জে আপনি সেমি মডিউলার ক্যাবল সিস্টেম পাবেন। আপনি যদি কেসিংয়ে ফিক্সড ক্যাবল এর ঝামেলা সহ্য করে সুন্দর ক্যাবল ম্যানজেমেন্ট করতে পারেন তাহলে হাই এন্ড পাওয়ার সাপ্লাইয়ে যাওয়ার প্রয়োজন নেই।
তবে আপনি যদি কেসিংয়ে নুন্যতম ক্যাবল চান তাহলে আপনাকে ফুল বা সেমি মডিউলার ক্যাবল সিস্টেমে যেতে হবে।

উচ্চ মানের Efficiency = কম শব্দ

Efficiency নিয়ে আরেকটা প্যারাগ্রাফ লিখতে হচ্ছে। কারণ বর্তমানে লোকজন বুঝতে শুরু করেছে যে পিসির ওভারঅল নয়েস আউটপুটে পাওয়ার সাপ্লাইয়ের ভূমিকা অনেক। পিসি হেভি লোডে চলার সময় আপনার ভালো পাওয়ার সাপ্লাই অনেক কম সাউন্ড আউট করতে সাহায্য করবে।
এজন্য বেশি Efficiency যুক্ত পাওয়ার সাপ্লাই কেনা উচিত যদি শান্তশিষ্ট সাউন্ডের পিসি চান। কারণ যত বেশি PSU Efficiency হবে তত কম থার্মাল লোড হবে। আর তখনই ফ্যানগুলো বেশি স্পিডে ঘুরার প্রয়োজন পড়বে না।

পরিশেষ

একটি শর্টকাট শিখিয়ে দিচ্ছি। ধরুন আপনার পিসিতে ৩০৬০ টিআই গ্রাফিক্স কার্ডটি রয়েছে। এখন গুগলে গিয়ে PSU – 3060ti লিখে সার্চ দিন। ব্যাস! আপনি রেজাল্টে আপনার জন্য বেস্ট কিছু পাওয়ার সাপ্লাইয়ের মডেল দেখতে পাবেন। তবে বলা বাহুল্য যে এই মডেলগুলো আপনি দেশে নাও পেতে পারেন। অন্যদিকে যদি ভালো কোনো শপে পিসি বিল্ড করেন তাহলে দোকানদারেও সহায়তায় সঠিক ক্যালকুলেশন করে সঠিক পাওয়ার সাপ্লাই বেছে নিতে পারেন।

আমার এক বন্ধু ৩ হাজার টাকায় একটা পাওয়ার সাপ্লাই কিনেছিল, সেটা মাত্র ৬ মাসের মাথায় মারা যায়। পরবর্তীতে উস্কানি দিয়ে তাকে ১৬ হাজার টাকায় ভালো ব্রান্ডের ইউনিট কিনে দেই। এখন অলরেডি ৪ বছর হয়ে গিয়েছে, আর কোনো সমস্যা হয় নি।

মনে রাখবেন, পিসি বিল্ডের একটি গুরুত্বপূর্ণ পার্ট হচ্ছে PSU কিন্ত এটা সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ পার্ট নয়। তাই সবথেকে ‘বেষ্ট’ PSU না কিনে ‘একটি ভালো’ পিএসইউ কিনবেন। আপনার দরকার ৬৫০ ওয়াট আর আপনি RGB ওয়ালা ১৫০০ ওয়াটের কিনে টাকা অপচয় করার কোনো মানে নেই।

- Advertisement -
Fahad Hossain
Fahad Hossain
Fahad is a freelance writer and editor with nearly 10 years' experience in Bangla Technology Blogging who, while not spending every waking minute selling himself to websites around the world, spends his free time writing. Most of it makes no sense, but when it does, he treats each article as if it were his Magnum Opus - with varying results.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here