21 C
Dhaka
Monday, December 6, 2021

২০২১ সালে Ryzen 5 1600 ও RX 570 : সেকেন্ড হ্যান্ড কেনা উচিত?

- Advertisement -asus motherboards

Ryzen 5 1600 হচ্ছে AMD এর 1st Gen Ryzen 5 ফ্যামিলির একটি ৬ কোরের প্রসেসর ,অন্যদিকে RX 570 ২০১৭ সালে লঞ্চ হওয়া AMD এর Polaris আর্কিটেকচারের 500 সিরিজের একটি বাজেট কার্ড। বর্তমানে বাজারে না থাকলেও সেকেন্ড হ্যান্ড মার্কেটে যথেষ্ট চাহিদা সবসময়ই ছিল RX 570 এর, অন্যদিকে Ryzen 5 1600 ও সেকেন্ড হ্যান্ড মার্কেটে লো বাজেটে ভালো একটি কার্ড। GPU শর্টেজ,মার্কেটে হাই প্রাইসের সময় এই প্রসেসর-গ্রাফিক্স কার্ড কম্বো কেমন পারফর্ম করে লেটেস্ট গেমগুলোতে, ভবিষ্যতে কতটুকু সার্ভিস পাওয়া যেতে পারে এই কম্পোনেন্ট গুলো থেকে ও ওভারল ২০২১ সালে Ryzen 5 1600  ও RX 570 কেমন অপশন তা আজকের আর্টিকেলে আলোচনা করার চেষ্টা করেছি।

ভুমিকাঃ

২০২০ সালেই Ryzen 5 1600 ও RX 570 নিয়ে বিশাল একটি আর্টিকেল লিখেছিলাম। ১৫টি গেমের বেঞ্চমার্ক, ওভারল আমার ২ বছরের এক্সপেরিয়েন্সে এই Combo এর পারফর্মেন্স কেমন,টেম্পারেচার,Usage কেমন এগুলো সবকিছু তুলে ধরা হয়েছিল সেখানে।দুটি আর্টিকেল মিলে ৩০+ গেম এর সরাসরি রেজাল্ট, সাথে আরো ১০+গেম সম্পর্কে পারফর্মেন্স এর ধারণা, সব মিলিয়ে এই দুটি আর্টিকেল হতে পারে কমপ্লিট গাইড।  আমার অনুরোধ থাকবে সেই আর্টিকেলটি আগে পড়ে নিতে অথবা এটি পড়ার সাথে সাথে সেটিও পড়তে যাতে এই প্রসেসর,গ্রাফিক্স কার্ড সম্পর্কে আপনাদের ধারণা আরো বেশি পরিষ্কার হয়। লিংকঃ RX 570 and Ryzen 5 1600 in 2020:Long Term Review

স্পেকসঃ

- Advertisement -

অন্যন্য ইউটিউবারদের মত হাই এন্ড মাদারবোর্ড,পর্যাপ্ত র‍্যাম, মার্কেটের সবথেকে পাওয়ারফুল প্রসেসর দিয়ে এই টেস্টগুলো করা হয়নি, বরং আগের বছরের ডিটেইলড রিভিউতে যে স্পেকস ছিল, মোটামুটি এবারের সিস্টেমেও তাই আছে। আর আগের আর্টিকেলে বিস্তারিত বলা রয়েছে যে আমার এই সিস্টেমটি ক্লিন সিস্টেম না, একদম রিয়েল লাইফে ব্যাকগ্রাউন্ডে রেগুলার Bloatwares,antivirus রানিং থাকবে। Available Ram ও থাকবে লিমিটেড। যাতে Demonstration টা বেশি Real Life হয়।

Specs: -Ryzen 5 1600 (6C,12T,3.2Ghz-3.6Ghz,16MB L3 Cache,65W TDP,14nm) on Gigabyte B450M-S2H

-XFX Radeon RX 570 8GB GDDR5 XXX Edition

- Advertisement -

-Corsair Vengeance RGB Pro 8GB 3200 Mhz CL16(পুর্বের টেস্টে র‍্যাম ছিল 2400 Mhz)

-Transcend 110s 256GB PCIe NVMe(System), Seagate Barracuda 1TB 7200 RPM (Game storage). (আগের বছর একটি Low হেলথ এর Western Digital 1TB HDD ছিল,যেটি রিভিউ এর কিছুদিন পর সম্পুর্ণ নষ্ট হয়ে যায়।আর আগেরবার ছিল না কোনো SSD)

-Windows 11(বলা বাহুল্য,আগের বছর উইন্ডোজ ১১ এর অস্তিত্ব ছিল না)।

কি কি থাকছে আজকের আর্টিকেলেঃ

- Advertisement -

মোট ১৭ টি গেমের বেঞ্চমার্ক থাকছে। শুধুই Numbers নয়,আগের বারের মত এবারেও আমি সংশ্লিষ্ট গেমটি খেলার সময় আমার ওভারল এক্সপেরিয়েন্স কেমন ছিল, Smoothness,framedrop,stutters,lag ছিল কি না উল্লেখ করবো।এবারের আর্টিকেলে বেশিরভাগ গেমই সিলেক্ট করা হয়েছে ২০২১-২০২০ এর যাতে প্রসেসর ও মাদারবোর্ড এর Actual ability বোঝা যায়।একই সাথে থাকবে না কোনো বেঞ্চমার্ক টুলের ব্যবহার, সরাসরি গেমপ্লে থেকে বেঞ্চমার্ক করেছি আমি।  ১৭টি গেমের মধ্যে ৯টিই ২০২১-২০২০ এর।। বাকিগুলো ২০১৮,১৯ এর। আজকে মুলত পারফর্মেন্স নিয়েই আলোচনা করেছি,যেহেতু সিস্টেম মোটামুটি একই রয়েছে তাই Temperatures এর ব্যাপারে আলাদা আলোচনা করবো না, আগের আর্টিকেলে বিস্তারিত রয়েছেই এই বিষয়ে।আর শেষে আলোচনা থাকবে এই প্রসেসর-গ্রাফিক্স কার্ড এর ভবিষ্যত কি, কাদের কেনা উচিত, কত দামে কেনা উচিত, সামনের দিন গুলোতে কেমন পারফর্ম করবে,ইত্যাদি। যাই হোক,শুরু করা যাক।

Resident Evil Village(2021) 

গেমটি এই বছরের অন্যতম সেরা একটি গেম। বলতেই হয় Capcom বেশ ভালো কাজ করেছে অপ্টিমাইজেশন এর ক্ষেত্রে। 2021 সালের গেম হিসেবে অবিশ্বাস্য রকমের ভালো পারফর্মেন্স পেয়েছি আমার এই সিস্টেমে। Default Settings এ(নিচে স্ক্রিনশট দিয়ে দেব) indoor-outdoor এ প্রায় ১৫ মিনিটের বেশ অনেকগুলো বেঞ্চমার্কে এভারেজ FPS পেয়েছি ৮৫।Max 123,min 28,1% 58। গেম ছিল সুপার স্মুদ। ফ্রেমরেট বেশিরভাগ সময়েই ৮০-৯০ এর মধ্যে থাকে, ফ্রেমড্রপ ল্যাগ ,স্টাটার একেবারেই ছিল না। Constantly  ফ্রেমরেট ৭০-৯০-১০০ FPS এর মধ্যে উঠানামা করছিল। মনে রাখতে হবে সিস্টেমে ৮ জিবি র‍্যাম রয়েছে যার মধ্যে মোটামুটি ৩ জিবি আগে থেকেই ইউজড। তাই গেমের জন্য যা রয়েছে তা খুবই সামান্য, র‍্যাম লিমিটেশনের জন্য দুই এক জায়গায় ফ্রেমড্রপ হয়েছে বলে আমার মনে হয় কারণ সিস্টেম র‍্যাম ইউসেজ ৮ জিবির কাছাকাছি ই চলে গিয়েছিল। আর গেমটির সবথেকে ডিমান্ডিং সেটিংস মনে হয়েছে Image Quality অপশনটি। আমি Mesh Quality,texture Quality Default থেকে বাড়িয়ে দেখেছিলাম ফ্রেমরেটে তেমন পরিবর্তন পাইনি তবে Image Quality 1.0 থেকে 1.4 এ নিয়ে গেলে ফ্রেমরেট ৫০ এর ঘরে নেমে আসে। তবে বেশ কয়েকটি সেটিংস দেখার পর মনে হয়েছে Image quality 1.3 পর্যন্ত দিয়ে এই সিস্টেমে অনায়াসে ল্যাগ,স্টাটার ছাড়া ৬০+ এফপিএস এ খেলা যাবে। VRAM Usage 6gb পর্যন্ত উঠেছিল। ৮ জিবি VRAM থাকার সুবিধা ভালোমতই পেয়েছি।

তবে ৮ জিবি র‍্যাম এই গেমের জন্য বেশ অনেকটাই কম।

Necromunda Hired Gun(2021)

মাত্রই মাস দুয়েক আগে রিলিজ পাওয়া এই গেমটি আমি খেলেছিলাম High Settings এ। ইন্ট্রো+দ্বিতীয় মিশন(Train mission) টি প্রায় ৫০ মিনিট ধরে খেলার সময় বেশ একটানা অনেকগুলো ছোট,বড় বেঞ্চমার্ক করে গড় রেজাল্ট যা পেয়েছি তা হলোঃ Average 58, max 100,min 10,1% 26. এই গেমটি মোটামুটি ফ্রেমরেট ৫০-৬০ এর মধ্যেই উঠানামা করে। কিছু কিছু ডিমান্ডিং জায়গায় ৫০ এর নিচে ৪০-৪৫ এ নেমে যায়। তবে সমস্যা হচ্ছে ফ্রেমড্রপ,ল্যাগ, স্টাটার প্রায়ই অনেকবার হতে দেখেছি, বিশেষ করে নতুন কোনো লোকেশনে প্রবেশ করলে প্রথম ৪,৫ সেকেন্ড বেশ ল্যাগ করে, ফ্রেমরেট ২৫-১৫ এর দিকে চলে যায় ২/১ সেকেন্ডের জন্য। এজন্যই Min ফ্রেমরেট এসেছে ১০ ও ১% ২৬। তবে ওই জায়গা গুলো বাদ দিলে গেমপ্লে বেশ ভালোই উপভোগ্য ছিল, ৫০-৬০ এর ঘরেই উঠানামা করছিল FPS।

Biomutant(2021)

Biomutant খেলেছিলাম Very High সেটিংসে। গেমটির ফ্রেমরেট জায়গা ভেদে অনেক Fluctuate করে, কিছু কিছু ডিমান্ডিং জায়গা রয়েছে যেখানে ফ্রেমরেট ২৫-৩০-৪০ এর মধ্যে থাকে।  কিছু কিছু জায়গায় ৪৫-৫৫ এর মধ্যে থাকে আর বেশ কিছু জায়গায় ৬০+ ফ্রেমরেট ও উঠে। Very High সেটিংস অনুসারে এই রেজাল্ট খারাপ না,তবে কেও যদি আরো বেটার এক্সপেরিয়েন্স পেতে চান সেক্ষেত্রে সেটিংস High অথবা high-medium মিক্সড করে নিলে ওভারল সব জায়গাতেই ফ্রেমরেট বেশ অনেকটা বুস্ট হবে। তবে ডিমান্ডিং জায়গা গুলোতে সেটিংস যাই হোক না কেন ফ্রেমরেট কিছুটা কমে আসাটা আটকানো যাবে না। min fps ছিল ২৫, 1% Low ছিল ২৮।

Days Gone(2021)

এই কনসোল মাস্টাররেস গেমটি ২০২১ এ পিসিতে আসে। High-medium মিক্সড সেটিংসে টেস্ট করেছিলাম আমি এটি। রাস্তা,বন জঙ্গল,ক্যাম্প সহ সবরকমের environment এ Running,Combat,Driving সহ সব এক্টিভিটি মিলিয়ে বেশ অনেকগুলো বেঞ্চমার্কের গড় পেয়েছি Average 62. minimum 35, 1% 42.5 ।  কিছু কিছু জায়গায় ফ্রেমরেট ৫০-৫৫ এর দিকে যায়, জঙ্গল সহ সামান্য কিছু intensive জায়গায় ৪৫ পর্যন্ত ও নেমে আসে। এছাড়া সাধারণত ৫৫-৬৫-৭০ এর মধ্যেই থাকে ফ্রেমরেট। গেমটির সবথেকে intense গ্রাফিক্সের জায়গাগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে Copeland Camp. এখানে ৫ মিনিটের বেঞ্চমার্কে গড় ছিল ৫৭। মিনিমাম ৩৫,এখানেও কোনো ল্যাগ,স্টাটার পাইনি। ওভারল এই গেমের এক্সপেরিয়েন্স ছিল অনেক ভালো।গ্রাফিক্স কোয়ালিটি এক কথায় Mind-blowing।সব মিলিয়ে আমার সিস্টেমে এক্সপেক্টেশন এর থেকে বেশি পেয়েছি এখানে।

Dungeons and Dragons Dark Alliance(2021)

এটিও সম্প্রতি রিলিজ হওয়া একটি Action-Adventure-RPG গেম। গেমটির গ্রাফিক্স ডিসেন্ট,তাছাড়া অপ্টিমাইজেশন ও যথেষ্ট ভালো মনে হয়েছে, একেবারেই ডিমান্ডিং নয়। High সেটিংসে টেস্ট করে এফপিএস পেয়েছি গড়ে ১০০। Min ৫২, ১% ৫৪। বিপরীতে Very High সেটিংসে average FPS ছিল ৬৯। অর্থাৎ ৬০ এফপিএস মার্কের যথেষ্ট উপরে। min ৫৭,1% low ৫৬। ওভারল দুটি সেটিংসেই গেম ছিল অনেক স্টেবল,স্মুদ। একফোটা ফ্রেমড্রপ,ল্যাগ দেখতে পাইনি।

Sniper Ghost Warrior Contracts 2 (2021)

বলে রাখা ভালো, এই গেমটি আমি শুধু প্রথম মিশনটিই বেঞ্চমার্ক করেছিলাম।অন্যন্য মিশনে environment,maps এর উপর ভিত্তি করে ফ্রেমরেট অন্যরকম আসতে পারে।High-Medium Settings এ এই মিশনে এভারেজ ছিল ৬৭ এফপিএস, min 44 ও 1% 40। গেমপ্লে মোটামুটি ভালোই স্মুদ ছিল। বেশিরভাগ জায়গায় ৬০-৭৫ এফপিএস এর মধ্যে ছিল ফ্রেমরেট, কিছু ক্ষেত্রে তা ৫০ এর ঘরেও ছিল। অন্যন্য মিশনগুলোতে ফ্রেমরেট ৫০-৬৫ এর মধ্যেই থাকবে বলা যায়। মোটামুটি ভালো এক্সপেরিয়েন্স পাওয়া যাবে সব মিশনেই। ইনডোর ,রুমের মধ্যে এরকম জায়গা গুলোতে ফ্রেমরেট ৮০-৯০ উঠে যায়।

Godfall(2020)

Godfall আমার দেখা অন্যতম Demanding একটি গেম।হাই সেটিংসে এই গেমটির Into the monolith মিশনটি বেঞ্চমার্ক করেছিলাম। High settings এ  ফ্রেমরেট প্রায় পুরোটা সময়েই ৩০-৩৫ এর মধ্যে ছিল। তবে ফ্রেমরেট কম থাকা সত্বেও বেশ স্টেবল ছিল তা বলতে হবে। একেবারেই সামান্য কিছু জায়গায় ফ্রেমরেট ৪০ ক্রস করে ৪০-৫০ এর মধ্যে থাকে, মুলত সেই জায়গাটির জন্যই average fps 41 হয়েছে বেঞ্চমার্কে। Minimum ছিল 21, 1% Low 29।  অত্যন্ত ভারী এই গেমটিতে আরো বেটার এক্সপেরিয়েন্স পাওয়ার জন্য High এর পরিবর্তে কিছু সেটিংস মিডিয়ামে দেওয়া যেতে পারে অথবা AMD এর FSR চালু করলে বেশ অনেকটা ফ্রেমরেট বুস্ট পাওয়া যেতে পারে। আমার ৩/৪ বছরের টেস্টিং এ যেই গেমগুলো একেবারেই কম এফপিএস দিয়েছে তার মধ্যে এটি একটি। Epic Settings এ ইন্ট্রো খেলার সময় বেশ কয়েক জায়গায় ফ্রেমরেট ১৫-২০ এর ঘরে থাকতো যা গেমটিকে প্রায় unplayable করে দিয়েছিল।

তবে একটি কথা বলতেই হয়, High সেটিংসে আমার টেস্টিং এ ফ্রেমরেট ৩০-৩৫ এর মধ্যে থাকলেও গেম যথেষ্ট স্টেবল ও ভালো স্মুদ ছিল, কারণ এক্ষেত্রে হঠাত করে ল্যাগ,ফ্রেমড্রপ এগুলো হয়নি যা আপনারা 1% Low এর দিকে দেখলেই বুঝতে পারবেন। এই হাই সেটিংসেও গ্রাফিক্স কোয়ালিটি ছিল নজর কাড়া, বুঝার উপায় ছিল না যে এটি ultra/epic এর পরিবর্তে High তে চলছে।

Crysis Remastered(2020)

Crysis Remastered,Godfall,Cyberpunk 2077,Assassin’s Creed Valhalla , এই চারটি গেম আমার দেখা সাম্প্রতিক সময়ের সবথেকে বেশি Heavy,Demanding। এর মধ্যে Valhalla ও Godfall টেস্ট করার কথা ছিল আমার, বিশেষ কারণে Valhalla গেমটি টেস্ট করতে না পারায় শেষ মুহুর্তে আমি Crysis Remastered কেই বেছে নিয়েছি। প্রথম মিশন পুরোটা ও দ্বিতীয় মিশনের অর্ধেক মিলে প্রায় ৫০ মিনিট এর গেমপ্লে এর ৪টি বেঞ্চমার্কে High-medium settings এ এভারেজ এফপিএস ছিল ৫১ (মজার ব্যাপার হচ্ছে প্রত্যেকটি বেঞ্চমার্কের আলাদা আলাদা average ও ছিল এ ক্ষেত্রে ৫১)। Driving, Shooting,running, সবসময়ই ফ্রেমরেট ৫০-৫৫ এর আশেপাশেই ছিল। গেমপ্লে ওভারল স্মুদ পেয়েছি। হয়তো সবগুলো সেটিংস মিডিয়ামে নামিয়ে আনলে ফ্রেমরেট ৬০ এর ঘরে পাওয়া যেতে পারে। তবে হাই,মিডিয়ামেও গ্রাফিক্স কোয়ালিটি ছিল অসাধারণ।

Serious Sam 4(2020)

এই গেমটিকে ডিমান্ডিং বা ইন্টেন্সিভ বলার থেকে extremely unoptimized বলাটাই সঠিক হবে। অত্যন্ত বাজে অপ্টিমাইজেশন,গ্রাফিক্স সেটিংসের অপশনগুলো অত্যন্ত Complicated, সরাসরি Preset,perimeters পরিবর্তন করার বদলে GPU,CPU আকারে সেটিংস গুলো ভাগ করা, বিভিন্ন জটিল perimeters কে গ্রাফিক্স অপশনে রাখা সহ নানাবিধ সমস্যা রয়েছে। যাই হোক, CPU low,GPU Medium,GPU Memory High এ দিয়ে দুটি মিশন মিলে প্রায় ৪০ মিনিটের অনেকগুলো বেঞ্চমার্কে Average FPS পেয়েছি ৫৯। মিনিমাম এফপিএস ১২ ও 1% Low 28 দেখে অনেকেই বুঝে গিয়েছেন এই গেমে এক্সপেরিয়েন্স কেমন ছিল। সত্যি কথা বলতে ফ্রেমড্রপ,ল্যাগ এগুলো খুবই অহরহ হচ্ছিল বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন moment এ। হঠাত করে গেম প্রায় থেমে যাওয়ার মত ফ্রেমরেট ৬০ থেকে ১০-৫ এ ড্রপ করতো। গেম এর সেটিংস গুলোও অনেক কমপ্লিকেটেড হওয়ায় টুইক করা ও সম্ভব হয়নি। DX12,Vulkan API এর অবস্থা ছিল আরো খারাপ। তবে তার পরেও ফ্রেমরেট ৬০-৭০ এর ঘরে অনেক জায়গায়, ৪০-৬০ এর ঘরে অনেক জায়গায় ছিল নিয়মিত ফ্রেমড্রপের সাথে। এজন্যই Average ফ্রেমরেট ৫৯ পাওয়া গিয়েছে। তবে গ্রাফিক্স কোয়ালিটি ছিল ভালো।

The Outer Worlds(2019)

Outer Worlds  গেমটির প্রথম মিশনে লং গেমপ্লে তে বেশ কিছু বেঞ্চমার্ক করে এভারেজ FPS পেয়েছি ৫৩। এখানে ফ্রেমরেট ৬৫+ খুব কমই গিয়েছে। ডিমান্ডিং জায়গা গুলোতে ৪৫-৫০ এর মধ্যে ফ্রেমরেট পাওয়া যাবে, খুব সামান্য কিছু জায়গায় ৪৫ এর নিচে আর বাকি সময় ৫০-৬০ এর মধ্যেই বেশিরভাগ উঠানামা করতে দেখেছি ফ্রেমরেট। এক্সপেরিয়েন্স ছিল মোটামুটি। Very High সেটিংস হিসেবে খুব খারাপ বলার সুযোগ নেই, বরং হাই সেটিংসে খেললে আরো বেটার রেজাল্ট পাওয়া যাবে, গ্রাফিক্স কোয়ালিটি ও হাই সেটিংসে খারাপ লাগবে না। ফ্রেমরেট ড্রপ বা স্টাটার ছিল না বললেই চলে। ইনডোরে এফপিএস ৮০,৯০/১০০ তেও চলে যায়।

Devil May Cry 5(2019)

গত ৫ বছরের সবথেকে বেশি অপ্টিমাইজড গেমগুলোর মধ্যে একটা নিঃসন্দেহে DMC5। আল্ট্রা সেটিংসে টেস্ট করে এর ফ্রেমরেট পেয়েছি ১২১।1% Low ছিল ৬৩, Minimum 73. ইনডোর সহ বিভিন্ন জায়গায় ফ্রেমরেট ১৭০-১৯০ এরকম ও চলে যায়, আর একদম বেশি ইন্টেন্সিভ জায়গা গুলোতে কিছু ক্ষেত্রে ৮০ এর দিকে নেমে আসে ফ্রেমরেট যা আপনারা চার্টে দেখতে পাচ্ছেন।বেশিরভাগ সময় ফ্রেমরেট ১১০-১৩০ এর মধ্যেই পেয়েছি। গেম ছিল সুপার স্মুদ, তবে আমার ৮ জিবি র‍্যাম এর কারণে এক্সপেরিয়েন্স সামান্য খারাপ হয়েছে, হয়তো ১% লো তে সেটার প্রভাবই পড়েছে।

Far Cry New Dawn(2019)

এই গেমটি Intro এর পরপর Free roam, Combat,Driving সব মিলিয়ে টেস্ট করেছিলাম। এভারেজ ফ্রেমরেট ৬১, Minimum 36, 1% Low 43। ফ্রেমড্রপ ল্যাগ ছিল না, এফপিএস ওভারল নরমাল জায়গা গুলোতে ৬০+ ছিল, কিছু জায়গায় ৪৫-৫৫ এরকম। ইনডোরে যথারীতি বেশি। গ্রাফিক্স কোয়ালিটি ও গেমপ্লে এক্সপেরিয়েন্স দুটিই যথেষ্ট ভালো ছিল।

Detroit Become Human(2018)

এটিকেও আমার খেলা খুবই কম সংখ্যক unplayable গেমগুলোর মধ্যেই হয়তো রাখতে হবে। এভারেজ ফ্রেমরেট ৪৭ আসলেও গেমের বিভিন্ন স্টেজে, বিভিন্ন স্থানে ফ্রেমরেট ছিল ৩০-৩৫ এর ঘরে, অতিরিক্ত ফ্রেম ড্রপ, স্টাটার এর সাথে। যদিও একদম শুরুর ইন্ট্রোর মিশনটা ৫৫-৬০ এফপিএস উঠেছিল। কিন্ত তা বাদে বাকিটা সময় ফ্রেমরেট ৩০-৪৫ এর মধ্যেই উঠানামা করেছে, ফ্রেমরেট যেমনই থাক, এখানে মুল ইস্যু ছিল ফ্রেমড্রপ। Detroit Become Human অত্যন্ত ডিমান্ডিং ও Heavy একটি গেম তা অনেকেই জানেন।

Just Cause 4(2018)

Just Cause 4 টেস্ট করেছিলাম হাই সেটিংসে,রাতের বেলা ইন্ট্রো মিশনটিতে, ও পরেরবার দ্বিতীয় মিশনটি দিনের বেলায়। Gliding,Parachuting,Driving,Gunfight ,explosion সবই এর মধ্যে অন্তর্ভুক্ত ছিল। রাতের বেলায় মিশনটিতে এভারেজ এফপিএস পেয়েছি ৭২, Min 40,1% 51। গেমপ্লে অনেক স্মুদ ছিল, ল্যাগ,স্টাটার,ফ্রেমড্রপ কিছুই ছিল না।

দিনের বেলায় Driving,Gunfight,Gliding,Parachuting সহ গোটা একটি মিশন বেঞ্চমার্ক করেছিলাম, সেখানে ফ্রেমরেট ছিল ৫৭। এখানে বেশ Intensive জায়গাতে, Combat,explosion,Gunfight এ ফ্রেমরেট বেশ কমে আসতো ৪০ এর ঘরে। ড্রাইভিং এ কিছু কিছু জায়গায় ৪০-৫০ এর মধ্যে থাকতো Framerate আবার কিছু জায়গায় ৬০~ পেয়েছি। গ্রাফিক্স কোয়ালিটি যথেষ্ট ভালো ছিল,তবে আমার এক্সপেরিয়েন্স excellent না বলে মোটামুটি এভারেজ বলাটাই ভালো হবে। তবে বেশিরভাগ জায়গায় ৫০-৬০ এফপিএস পাওয়া যাবে তা বলাই যায়।

Battlefield V(2018)

ব্যাটলফিল্ড ফাইভ এখনো বেশ জনপ্রিয় একটি গেম। তার উপর Battlefield V ও 1 সম্প্রতি Amazon এ ফ্রি দেওয়ার কারণে বেশ নতুন করে এই গেমের প্রতি আগ্রহ তৈরী হয়েছে ও প্লেয়ার ও বেড়েছে।। যাই হোক, Battlefield V এর ইন্ট্রোর চারটি প্লেস বেঞ্চমার্ক করেছিলাম সেখানে প্রত্যেকটিতেই Average ফ্রেমরেট ৬৫+ ছিল। ৬৭,৮৯,৯১,১১১ ছিল যথাক্রমে।। যেহেতু এটি একটি অনলাইন সেন্ট্রিক গেম তাই গ্রাফিক্স সেটিংস টুইক করে কোয়ালিটি ও পারফর্মেন্স ব্যালেন্স করে অনেক বেটার পারফর্মেন্স পাওয়া সম্ভব। Antialiasing,shadows সহ অন্যন্য বেশ কিছু সেটিংস কম বেশি করে,অফ করে একটা বড় বুস্ট পাওয়া সম্ভব। অনলাইনে এ সংক্রান্ত প্রচুর গাইড রয়েছে। কম্পিটিটিভে কেওই এই ডিফল্ট সেটিংসে খেলবেন না,সুতরাং ধরে নিন এই গেমে এই নাম্বারগুলোর থেকে আরো অনেক বেশিই পাবেন এফপিএস আপনি।

Call of Duty Infinite Warfare (2016)

২০১৬ সালের গেম হিসেবে এমনিতেই এই গেম থেকে ভালো পারফর্মেন্স আশা করার কথা সবার। হয়েছেও তাই, বেশ কয়েকটি মিশনে ভিন্ন ভিন্ন environment,situation এ বেঞ্চমার্ক করে এভারেজ পেয়েছি ১০০ এফপিএস।। স্পেসশিপ চালানোর সময় গুলোতে ফ্রেমরেট  ১০৫-১১৫ এর মধ্যে উঠানামা করতো। আর একটি বিষয় উল্লেখ করা উচিত মনে করি, গেমটি সম্ভবত ১২৫ FPS এ লকড। তা না হলে Max Framerate ১৫০-১৬০ ও হতে পারতো। ডিফল্ট সেটিংসের বেঞ্চমার্কে একদম ইন্টেন্স সিচুয়েশন গুলোতে ফ্রেমরেট ৭০-৯০ রেঞ্জে থাকে। গতবছর Call of Duty Advanced Warfare এর ক্ষেত্রেও যেমন অসম্ভব বেশি Video Memory Usage দেখেছি, এখানেও তেমন ছিল। ৮ জিবি VRAM এর সম্পুর্ণটাই ব্যবহ্বত হতে দেখেছি বেশিরভাগ সময়ে। এমনিতে এক্সপেরিয়েন্স অসাধারণ ছিল,গ্রাফিক্স কোয়ালিটি ও। All-maxed-out করে দিলেও গেমটি ভালোভাবেই খেলা যাবে।

Quantum Break(2016)

৫ বছর পুরাতন  হলেও Quantum Break সেই সময়কার একটি সাড়া জাগানো ,একই সাথে খুবই Demanding গেম ছিল। হয়তো রেজাল্ট থেকে কিছুটা আন্দাজ করতে পারবেন পাঠকরা। High-Medium সেটিংসেও এই গেমে বেশিরভাগ সময়ে ৬০এফপিএস বা ৬০+ এফপিএস রাখা অসম্ভব যদি Upscaling চালু না থাকে।। Upscaling ছাড়া গেমটি এই হার্ডওয়্যারে ভালোমত খেলা এক প্রকার অসম্ভবই। Upscaling চালু করেই আমি সম্পুর্ণ গেমটি খেলেছিলাম। অনেকগুলো environment,combat সবকিছু মিলিয়ে ২৫ মিনিটের বেঞ্চমার্কে  Average FPS ছিল ৫৭। আপস্কেলিং থাকা সত্বেও ইন্টেন্স জায়গা গুলোতে ফ্রেমরেট ৪৫-৩০ এর ঘরে চলে আসতো।। বাকি অন্যন্য জায়গা গুলোতে ৫৫-৬৫ এর মধ্যেই থেকেছে ফ্রেমরেট। ইনডোরে ৭০/৮০/১০০ ও উঠতে দেখেছি।

17 Games: At a Glance

এবার এক নজরে ১৭ টি গেমের Average বেঞ্চমার্ক এর কি অবস্থা দেখে নেওয়া যাক (উল্লেখ্য,এখানে ব্যাটেলফিল্ড এর আলাদা আলাদা বেঞ্চমার্ক গুলো, Just cause এর Day,night বা Dark Alliance এর high/very high এর আলাদা বেঞ্চমার্ক গুলো গড় করা হয়েছে)।  মোটামুটি বলা যায় Detroit Become Human,Godfall ,এই দুটি ছাড়া অন্যন্য গেমে Average ফ্রেমরেট ৫০-৬০ এর ঘরেই ছিল। কিছু গেমে তা ১০০/১০০+ ও ৮৫ ও দেখা যাচ্ছে। তবে ৫০-৬০ এর মধ্যেই বেশিরভাগ গেমের Average দেখা যাচ্ছে। সেটিংস টুইক করে প্রতিটা গেমেই আরো বেটার এক্সপেরিয়েন্স পাওয়া সম্ভব।

ফিউচারের জন্য কেমন হবে RX 570  ও Ryzen 5 1600?

সত্য বলতে RX 570 তার বেস্ট টাইম পার করে এসেছে, গত ২ বছরে RTX 20, RTX 30 সিরিজ আসার পর ইন্ডাস্ট্রিতে যে পরিবর্তন ঘটেছে, ডেভেলপাররা এখন আর সেরকম অপ্টিমাইজেশন এর যেমন ধার ধারছে না, তেমনি গেমগুলোকেও টপ এন্ড হার্ডওয়্যারকে টার্গেট করেই বানানো হচ্ছে, অনেক ক্ষেত্রেই মিনিমাম Requirements ও RTX 2060 এর মত লেভেলে চলে যাচ্ছে। ইতিমধ্যেই গত এক দেড় বছরের গেমগুলোতে সেটিংস কিছুটা কমিয়ে,Quality Compensate করে খেলা লাগছে গেমগুলো । RX 570 বর্তমানে একটি High-Medium 60FPS কার্ড। Very High/Ultra তে ৬০ এফপিএস এচিভ করা আজকালকার গেমগুলোতে প্রায় অসম্ভব, ৩০-৪০ এর কোটা তেই থাকবে রেজাল্ট বেশিরভাগ ক্ষেত্রে।

বিশেষ করে Godfall,Valhalla,Cyberpunk 77 এর গেমগুলো ম্যাক্সড আউট/আল্ট্রা সেটিংসে খেলা এক কথায় অসম্ভব। তবে গত দেড় বছরের AAA গেমগুলো Settings High/High+Medium করে বেশ ভালোভাবেই কোনো সমস্যা ছাড়াই খেলা সম্ভব তাও উপরে দেখিয়েছি। ৬০ এফপিএস যদি টার্গেট হয়, তার জন্য যদি ইউজার সেটিংস কিছুটা কমাতে রাজি থাকেন, RX 570 এখনো একটি Great অপশন।

আগামী বছরগুলোতে কি অবস্থা হবে? অপ্টিমাইজেশন এর গুরুত্বঃ 

আগামী ২/৩ বছর এই গ্রাফিক্স কার্ড দিয়ে চালিয়ে নেওয়া সম্ভব। তবে এখানে বেশ কিছু যদি কিন্ত রয়েছে। যেহেতু আমরা একটু আগেই আলোচনা করলাম যে বর্তমানে এই কার্ডটির বয়স ৪ বছর ও 20 series,30 সিরিজ পার হয়ে সামনের বছরে ৪০ সিরিজের কার্ড ও আসবে।। সামনের দিন গুলোতে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই আমরা এইসব গেম থেকে কিরকম পাব তা নির্ভর করবে গেমের গ্রাফিক্স কোয়ালিটি,ডেভেলপারদের অপ্টিমাইজেশনের উপর। অপ্টিমাইজেশন অনেক গুরুত্বপুর্ণ ভুমিকা পালন করবে সামনের দিন গুলোতে, আমরা দেখেছি অপ্টিমাইজেশন যদি ভালো হয় তাহলে এই গ্রাফিক্স কার্ড থেকে সেটিংস না কমিয়েই Very high/Ultra তেই  টপ নচ আউটপুট পাওয়া সম্ভব। উদাহরণস্বরুপ 2021 সালের Days Gone,Resident Evil Village এর কথা বলা যায়।। অত্যন্ত রিচ গ্রাফিক্স হওয়া সত্বেও এই গেমগুলোতে ৬০+এফপিএস,৮০+ এফপিএস পাওয়া সম্ভব হয়েছে।। আবার DMC 5 এর কথা বলা যায় যেটিতে আল্ট্রা সেটিংসে ১২০ এফপিএস আউটপুট পাওয়া গিয়েছে।

সামনের দিন গুলোতেও এরকম হবে যে যেসব গেমের অপ্টিমাইজেশন ভালো তা মোটামুটি হায়ার সেটিংসেই ভালো পারফর্ম করবে যদি প্রসেসর ডিসেন্ট থাকে ও র‍্যাম ১৬ জিবি থাকে। আর অপ্টিমাইজেশন খারাপ হলে বেশ অনেক কাঠখড় পোড়াতে হবে।

E-sports:

আমার উচিত ছিল একটি হলেও Esports/Online Battle-Royale গেম এর বেঞ্চমার্ক যোগ করা। যদিও তা আমি করতে পারিনি, তবে নেট থেকে আমার এক্সাক্ট এই CPU-GPU কম্বোর বেঞ্চমার্ক আমি তুলে ধরছি যাতে আপনারা যারা মুল টার্গেট করছেন PUBG,Fortnite,Valorent,Apex Legends  এর মত গেম, তারা আইডিয়া পান।

Valorant High: 90-150 FPS(Depends on map,situation)

Fortnite (Competitive 150avg)

PUBG(80-90 High,low 100++)

APEX Legends(Competitive 90-150avg)

Warzone(high 85AVG)

এখানকার বেশ কিছু ভিডিওতে চার জিবির RX 570 ব্যবহার করা হয়েছিল, সেক্ষেত্রে ৮জিবির কার্ডে পারফর্মেন্স আরো কিছুটা স্মুদ,বেশি এফপিএস পাওয়া যেতে পারে (সেটিংস এর উপর ডিপেন্ড করে)। ওভারল বলা যায় যারা উপরের এই গেমগুলো খেলার জন্য কার্ড নিতে চান তারা চোখ বন্ধ করে নিতে পারেন ,Online Esports, এগুলোর পাশাপাশি Dota 2,LOL,Paladins ইত্যাদি গেম ১০০-১৫০ এফপিএস এ চলবে কোনো সমস্যা ছাড়াই।। অর্থাৎ মোটকথা যারা স্মুদলি অনলাইন গেম খেলতে চান তাদের ক্ষেত্রে সমস্যা হবে না একেবারেই।

আর যারা স্পোর্টস গেম যেমন ফিফা,ক্রিকেট খেলতে চান তারাও FIFA 20,21 ,PES 21 ছাড়াও সামনের বছরের আপকামিং গেম গুলো হাই/ভেরি হাই সেটিংসে কোনো সমস্যা ছাড়াই খেলতে পারবেন।।

পুরাতন গেমে এখনো কিংঃ

তবে একটা কথা না বললেই না, যাদের ২০১৬-২০১৯ পর্যন্ত বা বিগত বছরের যেসব গেম রয়েছে সেগুলো খেলা মুল টার্গেট ,তাদের জন্য বলি RX 570 এখনো একটি Masterpiece এসব গেমের ক্ষেত্রে। Witcher Series,GTA ,Watch Dogs,Call of Duty,Battlefield,Devil May Cry,Darksiders,Need For Speed Series, Forza,Dirt,Grid,F1 Series, Far Cry Series সহ প্রচুর সিরিজ রয়েছে,শত শত গেম রয়েছে গত কয়েক বছরের। এর মধ্যে দুই একটি Exception বাদে প্রায় সবই RX 570 তে Ultra/Very হাই সেটিংসে  ৬০-১২০ এফপিএস এ চলবে (Depending on other components)। সুতরাং যারা পুরাতন অনেক গেম খেলবেন,তাদের জন্য এটা এখনো একটি গ্রেট অপশন।

কাদের জন্যঃ

যারা এই ব্যাপারগুলো ভালোমত বুঝছেন ও যাদের মুল টার্গেট ফ্রেমরেট ও যারা সেটিংস কমিয়ে মোটামুটি কোয়ালিটিতেই গেম খেলতে  অভ্যস্ত ও খেলতে পারেন, যাদের পুরাতন বিগত বছরের গেম গুলো বেশি টার্গেট, বা যারা অনলাইনে Battle Royale গেমগুলো খেলবেন বেশি বেশি,আগামী দিনের  নতুন গেম গুলো যারা মোটামুটি সেটিংসে স্মুদলি খেলতে চাচ্ছেন তাদের জন্য RX 570 এখনো ভালো একটি ডিল।  সিস্টেমে ১৬ জিবি র‍্যাম থাকলে আর যদি প্রসেসর Ryzen 3300x/3100/i3 10100 এর মত ও হয়,তাও আমার এই সিস্টেমের থেকে বেশ অনেকটা বেটার পারফর্মেন্স পাবেন RX 570 দিয়ে ।

চার জিবি কার্ডের ক্ষেত্রে?

ভবিষ্যতে যে গেমগুলো আসবে সেগুলোর  ক্ষেত্রে তো বটেই,শেষ ২ বছরের বেশিরভাগ গেমের ক্ষেত্রেই চার জিবি Video Memory যথেষ্ট নয়, ৮ জিবির তুলনায় এক্ষেত্রে ফ্রেমরেট কম আসা, ল্যাগ,স্টাটার হওয়া খুবই স্বাভাবিক।।ভবিষ্যতে যে গেমগুলো আসবে সেগুলোর ক্ষেত্রেও বলা যায় চার জিবি VRAM এর জন্য অনেক সমস্যা হবে। এক্ষেত্রে 8GB এর কার্ডটি নেওয়ার পরামর্শ থাকলো।

কত দামে কেনা যায়ঃ 

বর্তমানে GPU এর শর্টেজ চলছে, দাম ও অনেক হাই।তাই যারা এসময় এমার্জেন্সি GPU কিনবেন ,তাদের স্বাভাবিক এর থেকে কিছুটা হলেও বেশি খরচ করার মানসিকতা,প্রস্ততি থাকাই লাগবে,Scalpers দের কথা বাদ দিলেও সাধারণ গেমারদের মধ্যে যারা এখন নিজেরা GPU আপগ্রেড করতে চান,তাদের পক্ষে মোটেও সম্ভব হচ্ছে না কম দামে নিজের GPU টি বিক্রি করার,কারণ এক্ষেত্রে তার যে নতুন GPU টার্গেট, তার দাম ও MSRP থেকে অনেক অনেক বেশি। এজন্য একপ্রকার গেমার রাও বাধ্য হচ্ছেন সেকেন্ড হ্যান্ড মার্কেটে নিজের GPU টার বেশি দাম চাওয়ার। স্বাভাবিক অবস্থায় সেকেন্ড হ্যান্ড মার্কেটে কন্ডিশন,Model,VRAM এর উপর ভিত্তি করে RX 570 সেল হতো ১১-১৪ হাজার এর মধ্যে।। সেক্ষেত্রে এখন কেও নিতে চাইলে ১৮-২২ হাজার টাকা পর্যন্ত খুবই ডিসেন্ট ডিল আমার কাছে মনে হয়েছে। এর মধ্যে কোনো ডিল পেলে নিয়ে নিতে পারেন, অবশ্যই চেষ্টা করবেন ৮জিবি ভির‍্যাম এর কার্ডটি নেওয়ার। যেহেতু 1650Super,1650 এখনো ৩৪-৪০ হাজার রেঞ্জে বিক্রি হচ্ছে। ২০ হাজার টাকাতেও RX 570 একটি মোটামুটি ডিল বলেই আমি মনে করি।

CPU:

এদিকে CPU মার্কেটেও লো এন্ড CPU গুলোর দাম সামান্য বেশি। core i3 10100 ছিল ১১ হাজারের আশেপাশে, Ryzen 3100 ও প্রায় তাই।। 3300x ও ১২/১৩ হাজারেই বিক্রি হতো। 10100f এর দাম নেমে এসেছিল ৮০০০ এর কোটায়। কিন্ত এগুলোর দাম ও কিছুটা বাড়তি।

সাধারণত Ryzen 5 1600 এর সেকেন্ড হ্যান্ড মার্কেটে দাম ৫০০০-৬৫০০ এর মত। (i3 এর মত এটির 4cores 8threads না, ৬ কোর ১২ থ্রেড)।  বর্তমানের প্রাইস হাইক এর সময় এটির পেছনে সর্বোচ্চ ৭৫০০-৮০০০টাকা পর্যন্ত খরচ করতে পারেন আপনি।

- Advertisement -asus graphics card
Soaad Bin Zaman Shoron
Gamer | Memer | Tech Enthusiast | Sports Lover | Food Hunter | JUST PHYSICS 2018

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here