আসসালামু আলাইকুম,

বর্তমানে গেইমারদের জন্য গেমিং মাউস এবং মেকানিক্যাল কিবোর্ড এর বিকল্প নেই, একটা সময় মেকানিক্যাল কিবোর্ডের দাম অনেক বেশি থাকলেও বর্তমানে তা অনেকের ই সাধ্যের মধ্যে চলে এসেছে। রেসপন্স টাইম, বিল্ড কোয়ালিটি, লুক, RGB এ সব কারণে মেকানিক্যাল কিবোর্ড ব্যবহারে আগ্রহি হচ্ছে অনেকেই। যেহেতু এটি গতানুগতিক কিবোর্ড এর মত না তাই এটির দাম বেশি লাইফ টাইম ও বেশি, তাই এটি যথাযথ ভাবে ব্যবহারে জন্য নিয়মিত কিছু কাজ করতে হয়। আজ মেকানিক্যাল কিবোর্ড এর ব্যবহার, রক্ষণাবেক্ষণ, রিপেয়ারিং এবং মডিং বিষয় নিয়ে কথা বলা হবে। আমার প্রথম আর্টিকেলে গেমিং মাউস রিপেয়ার নিয়ে কথা বলা হয়েছে চাইলে দেখে আসতে পারেন।

ব্যবহার

মেকানিক্যাল কিবোর্ড বর্তমানে গেইমারদেরই বেশি ব্যবহার করতে দেখা যায়, তবে অনেক কন্টেন্ট ক্রিয়েটর ও ব্যবহার করে। গেমিং বা টাইপিং মেকানিক্যাল কিবোর্ড এনে দেয় এক নতুন মাত্রা। যারা একবার ব্যবহারে মজা পেয়েছে আমার মনে হয় না তারা পুরাতন কিবোর্ড ব্যবহারে আর মজা পাবে। তবে দাম, ব্র্যান্ড, সুইচ টাইপ অনুসারে মেকানিক্যাল কিবোর্ড ব্যবহারে মজা আলাদা। আর যদি কিবোর্ডে আরজিবি থাকে তাহলে তো কথাই নেই, ইচ্ছামত কালার দিয়ে কিবোর্ড কে করা যায় মনের মত।

রক্ষণাবেক্ষণ

মেকানিক্যাল কিবোর্ড গতানুগতিক কিবোর্ডের মত নয়, এটিতে বিশেষ ধরনের সুইচ ব্যবহার হয়, তাই নিয়মিত এর যত্ন না নিলে সমস্যা দেখা দিতে পারে।

ধুলা ময়লা হচ্ছে মেকানিক্যাল কিবোর্ডের সব চেয়ে বড় শত্রু, যদি সুইচের ভিতর ময়লা ঢুকে যায় তখন সুইচ চাপলে ঠিক মত কাজ কারে না, ডাবল কাজ করে বা সুইচ আগের তুলনাই ভাড়ি মনে হয়। তাই ধুলা ময়লা মুক্ত স্থানে ব্যবহার করা উচিত।

অধিকাংশ মেকানিক্যাল কিবোর্ডে ই ওয়াটার রেজিস্ট্যান্স না তাই কিবোর্ডে যাতে পানি প্রবেশ না করে যেদিকে বিশেষ খেয়াল রাখতে হবে। যদি পানি পড়ে যায় তবে দ্রুত পানি পরিষ্কার করে ফেলতে হবে যাতে সার্কিট বোর্ডে পানি যেতে না পারে।

পিঁপড়া অনেক সময় আক্রমন করে যদিও তা খুব বেশি ক্ষতি করতে পারে না তবে সুইচের ভিতরে আটকে থাকলে তখন সমস্যা দেখা দেয়। তাই পিঁপড়া আক্রমনে ওষুধ ব্যবহার করা ভাল।

অধিকাংশ মেকানিক্যাল কিবোর্ডে উপরের অংশ অ্যালুমিনিয়ামের হয় অনেকের কম্পিউটারে সঠিক ভাবে আর্থিং করা থাকে না ফলে অনেক সময় ইলেকট্রিক শক খেতে হয়, তাই নিজের এবং ডিভাইজের সুরক্ষার জন্য সঠিক ভাবে আর্থিং করে নিতে হবে।

রিপেয়ারিং

যেহেতু মেকানিক্যাল কিবোর্ডের সুইচ মেটাল কন্টাক্টের মাধ্যমে কাজ করে তাই সময়ের সাথে সাথে মেটাল ক্ষয়, ময়লা ইত্যাদির কারণে সমস্যা হতে থাকে। মেকানিক্যাল কিবোর্ডের দাম অনেক তাই সবার পক্ষে ছোটখাট সমস্যায় নতুন কিবোর্ড কেনা সম্ভব হয় না, এর জন্য রিপেয়ারিং করা প্রয়োজন পরে।

সাধারণত যে সমস্যা হয় – মিস বাটন প্রেস, বাটন শক্ত, কিবোর্ড ডিসকানেক্ট, RGB LED Problem

মিস বাটন প্রেস ও বাটন শক্ত

সাধারণত বাটনে ময়লা প্রবেশ করার কারণে এ সমস্যা হয়ে থাকে এ থেকে রক্ষা পেতে নিয়মিত কিবোর্ড পরিষ্কার করতে হবে, এবং সম্ভব হলে Electrical Contact Cleaner Spray ব্যবহার করা যেতে পারে।

কিবোর্ড ডিসকানেক্ট

অধিকাংশ সময় USB Cable লুজ বা নষ্ট হলে এ সমস্যা হয় তাই USB Port পরিষ্কার রাখতে হবে এবং ক্যাবল কিছুর নিচে যাতে চাপ বা অতিরিক্ত ভাজ না হয় সেটিকে খেয়াল রাখতে হবে।

সুইচ সমস্যা

আতিরিক্ত অত্যাচারের ফলে যদি সুইচ নষ্ট বা পিন ভেঙ্গে যায় তবে সুইচ নতুন কিনে লাগানো যায় বা রিপেয়ার ও করে নেওয়া যায়। তবে অভিজ্ঞ লোক দরকার হবে এটি করতে।

RGB LED Problem

সময়ে সাথে সাথে বা ত্রুটি যুক্ত LED র কারণে অনেক সময় RGB LED নষ্ট বা সঠিক রং আসে না। সঠিক রং না আসার কারণ ৩ টি রং এর LED নষ্ট হওয়া বা দূর্বল হয়ে যাওয়া। এ ক্ষেত্রে LED পরিবর্তন করতে হবে, তবে একটি বিষয় হচ্ছে সঠিক RGB LED বাজারে খুজে পাওয়া। aliexpress থেকে সহজে RGB LED অর্ডার করে আনতে পারবেন, তবে অর্ডার করার আগে জানতে হবে কোন টাইপ RGB LED কিবোর্ডে ব্যবহার হয়েছে common anode নাকি common cathode সঠিক RGB LED লাগালে সঠিক রং পাওয়া যাবে। আর যদি SMD RGB LED ব্যবাহর হয় কিবোর্ডে তাহলে আর করার কিছু নেই, নষ্ট RGB LED নিয়েই কিবোর্ড ব্যবহার করতে হবে, কারণ SMD RGB LED পরিবর্তন করা খুবিই কষ্টকর ।

Aliexpress: RGB LED1 , RGB LED2

মডিং

অনেকেই নিজের মত করে মেকানিক্যাল কিবোর্ড তৈরী করে নিতে পচ্ছন্দ করে তবে এই সব জীনিস আমাদের দেশে পাওয়া যায় না, তাই কিছু কাজ করে কিবোর্ডের লুক পরিবর্তন করা সম্ভব।

কী ক্যাপ

কী ক্যাপ পরিবর্তন করা যেতে পারে তবে তা ‍অর্ডার করে আনতে হবে।

সুইচ টাইপ পরিবর্তন

কিবোর্ডের বডি ঠিক রেখে সুইচ টাইপ পরিবর্ত করা যেতে পারে, তবে এতে অনেক খরচ হবে এবং সোল্ডারিং স্কিল ভাল থাকতে হবে তা না হলে সুইচ ও LED নষ্ট হতে পারে।

LED Under Glow

যাদের বাটনের নিচে অতিরিক্ত আলো ভাল লাগেনা তার রং করে আন্ডার গ্লো কমাতে পারেন বা নতুন ডিজাইনের জন্য vinyl wrap paper দিয়ে wrap করে নিতে পারেন, তবে যে কিবোর্ডের সুইচ গুলো রিমুভেবল সে গুলোতে সহজে করা সম্ভব।

যারা নতুন মেকানিক্যাল কিবোর্ড কেনার কথা ভাবছেন তাঁরা কেনার আগে Youtube এ দেখে সঠিক কিবোর্ড এবং সুইচ বাছাই করে নিতে পারেন। সবার পক্ষে সব সময় নতুন কিবোর্ড কেনা সম্ভব হয় না তাই ইচ্ছা করলে 2nd hand কিনতে পারেন বিভিন্ন facebook buy sell group এর মাধ্যমে।

Bangladesh Mechanical Keyboard Community

Gaming Hardware Buying & Selling