PHILIPS 21.5” 226V6QSB6/94 AH-IPS LED MONITOR Review

239

৯০ এর দশকে অনেকের বাসাতেই PHILIPS এর টিভি বা ক্যাসেট প্লেয়ার ছিল। সেই আমলে ইলেক্ট্রনিক্স পণ্যের দুনিয়ায় যথেষ্ট সুনাম থাকলেও বর্তমানে PHILIPS এর পণ্য এখন তেমন আর বাজারে দেখা যায়না। আর তাদের কম্পিউটার পণ্যের কথা নাই বা বললাম।

কিন্তু প্রায় সবাইকে অবাক করে দিয়ে Global Brand Private Limited বাংলাদেশের বাজারে নিয়ে এসেছে Phillips এর 21.5” এই IPS ফুল এইচ ডি Monitor, যার ১১ ডিজিটের মোবাইল থুক্কু মডেল নাম্বার টি হচ্ছে 226V6QSB6/94। বাজারে দাম পরবে ৯০০০ টাকা আর কোথায় পাওয়া যাবে তা রিভিউ এর শেষ অংশে থাকা বাটনে ক্লিক করলে জানতে পারবেন।

Specification

AH-IPS LCD,  16:9 Aspect ratio, Full HD 1920 x 1080 resolution @60 Hz

Smart Contrast: 10,000,000:1

Contrast ratio (typical): 1000:1

Display colors: 16.7 M

Brightness: 250 cd/m²

Viewing angle: 178º

Response time (typical): 8 ms

Review

Display

21.5” এই মনিটরটিতে দেয়া হয়েছে AH-IPS Display। Advanced Hyper বা AH IPS ডিসপ্লে হচ্ছে সাধারণ IPS ডিসপ্লের কিছুটা উন্নত ভার্শন। সাধারণ ডিসপ্লেতে যে সকল সমস্যা হয়ে থাকে তা AH-IPS ডিসপ্লেতে কমিয়ে আনার চেস্টা করা হয়েছে। এই AH-IPS ডিসপ্লে থাকায় Viewing Angles নিয়ে আপনাকে তেমন একটা চিন্তা করতে হবে না।

178 Degree পর্যন্ত vivid color এ  নিখুত ছবি দেখতে পারবেন, যা শুধু Photos, movies ও web browsing এর জন্যই নয় লাইট প্রফেশনাল কাজেও আপনার চাহিদা পূরণে সক্ষম হতে পারে। তবে হেভি প্রফেশনাল কাজ যদি করতে চান তাহলে বলব বাজেট আপ করে মনিটর নেবার জন্য।

Resolution & Color

যেহেতু এটি একটি ফুল এইচ ডি মনিটর, এর রেজোল্যুশন হচ্ছে 1920 x 1080 এবং সাধারণ ফুল এইচ ডি মনিটরের মত এতে আছে 16:9 Ratio এবং ৬০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট। অর্থাৎ মনিটরে আপনি সর্বচ্চো ৬০ ফ্রেমস পার সেকেন্ডে কন্টেন্ট দেখতে পারবেন। সাধারণ কন্ট্রাস্ট রেশিও ১০০০ঃ১ হলেও SmartContrast দেয়া হয়েছে ১০ মিলিওন বাই এক। অর্থাৎ খাতা কলমে ফিলিপ্স ডিসপ্লের কালার ও ক্ল্যারিটি নিয়ে তেমন কমতি রাখার চেস্টা করেনি।

Flicker-free technology মনিটরের Brightness কে করেছে স্থিতিশিল চোখের জন্য হবে আরামদায়ক। এছাড়া এটি ব্যাকলাইট ব্লিডিং যেন না হয় তাও কিছুটা নিশ্চিত করেছে।

Bezel & Build Quality

ট্রেন্ড বজায় রেখে অন্যান্য Brand ব্যান্ড গুলোর মত PHILIPS তাদের মনিটরের Bezel টি করেছে ultra-narrow,যার ফলে multi-display এর ক্ষেত্রে হবে মানান সই।

 

তবে ultra-narrow bezel হওয়াতে কিছু মানুষের কাছে মনিটরটি খুবিই ছোট মনে হতে পারে, বডি স্ট্যান্ড সহ সব কিছুই প্লাস্টিকের তাই খুবই পাতলা দেখতে যা কিছুটা সস্তা মনে হতে পারে।

Connectivity

Signal Input হিসাবে রয়েছে মাত্র ২টি পোর্ট : VGA ও DVI-D , যা বর্তমান সময়ের সাথে মানান সই হিসাবে আমার মনে হয় না।

এখন অন্যান্য ব্যান্ডের 21.5” IPS মনিটরে ৩টি ইনপুটি লক্ষ্য করা যায় ,যেমন VGA ও ২টি HDMI, আবার কিছু ব্যান্ডে VGA, HDMI ও DisplayPort দেখা যায়।

যদিও DVI to HDMI cable ব্যবহার করে HDMI সুবিধা নিতে পারবেন। তবুও কমতি তো থেকেই যায়।

Respons Time

মনিটরের রেসপন্স টাইম হচ্ছে ৮ মিলি সেকেন্ড যা খুবই হতাশা জনক, অন্যান্য Brand তাদের সাধারণ IPS panel কে ৫ এমনকি কিছু ক্ষেত্রে ৪ মিলি সেকেন্ড করতে সক্ষম হয়েছে, সে ক্ষেত্রে বলবো PHILIPS এদিকে অনেকটাই পিছিয়ে আছে।

Special Feature

Philips এর দাবি তাদের eco-friendly মনিটর তৈরীতে পরিবেশের জন্য ক্ষতিকারক কোন ক্ষতিকারক বিষাক্ত উপাদান ব্যবহার করা হয়নি, তবে ফিলিপ্সের কারখানায় গিয়ে তা আর কনফার্ম করা সম্ভব হয়ে উঠে নি।

মনিটরে রয়েছে sRGB সার্পোট, কিন্তু কত % তা কোথাও উল্লেখ করা হয়নি তাই তা নিয়ে এখনো কিছুটা সন্দেহ রয়ে গেছে।

Wall Mount & Power Draw

মনিটরে ঘাড় -5 থেকে 20 degree তে বাকা করা যবে, তবে wall mount করলে আপনাকে হিসাব করেই লাগাতে হবে।

12V external power adapter দিয়ে মনিটর টি চলবে, যা অনেকের কাছেই ঝামেলা মনে হতে পারে। কিন্তু এ ধরনের স্লিম মনিটরের ক্ষেত্রে external power adapter এর বিকল্প নেই।

মনিটর টি সর্বোচ্চ মাত্র 25.5w বিদুৎ ব্যবহার করেই চলতে পারবে।

Dead Pixel

মনিটরের ডিসপ্লের মধ্যে ব্ল্যাক ডট অর্থাৎ ডেড পিক্সেল যে কারো জন্যই চিন্তার বিষয়। তবে আমাদের রিভিউর সময় কোন ডেড পিক্সেল চোখে পরে নি।

Body

মনিটর প্যানেল Matte তাই মনে হবে না যে আপনি আয়না নিয়ে বসে আছেন, নিচের দিকে Logoর ডানে বামে কিছু অংশ ও স্টান্ডের কিছু অংশ Glossy লুক দেওয়া হয়েছে। তবে গ্লসি হওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই বডি হয়ে গেছে আঙ্গুল ছাপ চুম্বক।

ডানদিকের নিচে রয়েছে Physical button যা দেখতে তেমন ভাল দেখায় না।

Monitor Stand

মনিটরের স্ট্যান্ডটি হচ্ছে প্লাস্টিকের। এই স্ট্যান্ডে মনিটরটিকে অনেক আন্সটেবল মনে হয়েছে। সামান্য টেবিল নড়াতেই মনিটরটি বেশ ভাল পরিমাণে নড়াচড়া করেছে। তাই মনিটরের কাছে বসে বা শুয়ে মুভি দেখা বা গান শোনার সময় যাদের হাত পা ছোড়ার অভ্যাস রয়েছে তাদের জন্য দুসংবাদ বয়ে নিয়ে আসতে পারে এটি।

Overall Opinion

সব শেষে বলতে চাচ্ছি যাদের খুব টাইট বাজেটে আছেন ও পুরাতন বা গ্রাফিক্সকার্ড বিহীন সিস্টেম ব্যাবহার করছেন তাদের জন্য একটি অপশন হতে পারে ফিলিপ্সের এই ফুল এইচ ডি মনিটরটি।

মনিটরটি কিনতে পারবেন গ্লোবাল ব্র্যান্ড প্রাইভেট লিমিটেড এর শো রুম থেকে

আপনারা সবাই ভাল থাকুন আর সঙ্গে থাকুন পিসিবি বিডির সাথে।