একটা সময় ছিল যখন ১২৮ মেগাবাইট একটা মেমরী কার্ডে আমাদের প্রয়োজনীয় ডাটা রাখতে পারতাম। কিন্তু কালের বিবর্তনে এখন তা ১ টেরাবাইটে পৌছে গিয়েছে। এসডি কার্ড বা সিকিউর ডিজিটাল কার্ড আবিষ্কার হয় ১৯৯৯ সালে। তখন থেকে বর্তমান সময় পর্যন্ত এসডি কার্ডের আকার, গতি এবং ডাটা সংরক্ষনের পরিমাণ অনেক গুণে বেড়েছে। বর্তমানে ১ টেরাবাইটের স্টোরেজ কার্ড পর্যন্ত আছে।

তবে এসডি কার্ড অনেকরকম হয়ে থাকে। আপনার ব্যবহারের ভিত্তিতে বিভিন্ন ধরনের এসডি কার্ড হয়ে থাকে যা বর্তমানে শুধুমাত্র রিড এবং রাইট স্পিডের মধ্যেই সীমাবদ্ধ নেই। যেমন, ফোনের জন্য বা সাধারন ডাটা ট্রান্সফারের জন্য যে ধরনের এসডি কার্ড প্রয়োজন পড়ে থাকে সেই এসডি কার্ড দিয়ে হাই রেজুলেশনে ভিডিওগ্রাফি করা সম্ভব না।

এছাড়াও আমরা এসডি কার্ড কেনার সময় শুধুমাত্র ক্লাস দেখেই কিনে থাকি কিন্তু এখন এসডি কার্ডের ক্লাস ছাড়াও আরও অনেক কিছুই আছে যা এসডি কার্ডের রিড এবং রাইট স্পিড, বাস ইন্টারফেস, ভিডিও স্পিড ক্লাস, ফরম্যাট ইত্যাদি প্রকাশ করে থাকে।

এসডি কার্ড ফরম্যাট
বর্তমান সময় পর্যন্ত চার ধরনের মাইক্রো এসডি কার্ড আবিষ্কার হয়েছে যার মধ্যে microSD, microSDHC, microSDXC, microSDUC।এই চার ধরনের মধ্যে সর্বশেষ microSDUC সংস্করণ আসে ২০১৮ সালে। এক একটি সংস্করণ স্টোরেজ ক্যাপাসিটি নির্দেশ করে থাকে। এক্ষেত্রে,
microSD এর ক্যাপাসিটি ২ জিবি পর্যন্ত।
microSDHC এর স্টোরেজ ক্যাপাসিটি ২ জিবি থেকে ৩২ জিবি পর্যন্ত।
microSDXC এর স্টোরেজ ক্যাপাসিটি ৩২ জিবি থেকে ২ টেরাবাইট পর্যন্ত।
microSDUC এর স্টোরেজ ক্যাপাসিটি সর্বোচ্চ ১২৮ টেরাবাইট পর্যন্ত সমর্থন করে।

এসডি কার্ড ক্লাস কি?
যদিও এই ব্যাপারে অনেকেই জানেন এসডি কার্ড ক্লাস সাধারনত নির্দেশ করে থাকে এসডি কার্ডের স্পিড। এসডি কার্ডের গায়ের উপরে একটি বৃত্তের ভেতরে ক্লাস লেখা থাকে। বর্তমানে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে ক্লাস টেন এসডি কার্ড পাওয়া যায় তবে একসময় ক্লাস ২,৪,৬ ক্লাসের এসডি কার্ডও পাওয়া যেত। ক্লাস টেন এসডি কার্ডের মানে হচ্ছে এটি সর্বোচ্চ ১০ মেগাবাইট পার সেকেন্ড ডাটা ট্রান্সফার করতে সক্ষম।

ইউএইচএস(UHS) কি?
UHS এর মানে হলো Ultra High Speed
এর মানে হলো এসডি কার্ডের ক্লাস ছাড়াও এটিও এসডি কার্ডের রিড এবং রাইট স্পিড নির্দেশ করে থাকে। ইউএইচএস সাধারনত ১ থেকে ৩ হয়ে থাকে। এসডি কার্ডের গায়ে একটি ইউ এর মাঝখানে এর ইউএইচএস কত তা লেখা থাকে।
UHS 1 এর মানে হলো এটি সর্বনিম্ন ১০ এমবিপিএস ডাটা ট্রান্সফার করতে সক্ষম।
UHS 3 এর মানে হলো এটি সর্বনিম্ন ৩০ এমবিপিএস ডাটা ট্রান্সফার করতে সক্ষম।

ভিডিও স্পিড ক্লাস কি?
এই স্পিড ক্লাস নির্দেশকটি বেশিরভাগ তাদের জন্য যারা ভিডিওগ্রাফির কাজ করে থাকেন। এটি ভিডিও রেকর্ডিং এর ক্ষেত্রে সিকুএনশিয়াল রাইট স্পিড নির্দেশ করে থাকে। এক্ষেত্রে V6, V10, V30, V60, V90 পাঁচ ধরনের সংস্করণ হয়ে থাকে।
V6 এর মানে হলো এসডি কার্ডের রাইট স্পিড ৬ এমবিপিএস।
V10 এর মানে হলো এসডি কার্ডের রাইট স্পিড ১০ এমবিপিএস।
V30 এর মানে হলো এসডি কার্ডের রাইট স্পিড ৩০ এমবিপিএস।
V60 এর মানে হলো এসডি কার্ডের রাইট স্পিড ৬০ এমবিপিএস।
V90 এর মানে হলো এসডি কার্ডের রাইট স্পিড ৯০ এমবিপিএস।

যারা ভিডিওগ্রাফির কাজ করে থাকবেন তাদের জন্য পরামর্শ রইল এই ভিডি স্পিড ক্লাস নির্দেশক দেখে যেন এসডি কার্ড কিনে থাকেন। সাধারন এইচডি ভিডিও রেকর্ডের জন্য V10 যথেস্ট অন্যদিকে 4k ভিডিও রেকর্ড করার জন্য সর্বনিম্ন V30 ক্লাসের এসডি কার্ড দরকার। এক্ষেত্রে V10 দিয়েও 4k ভিডিও শুট করা সম্ভব কিন্তু তা শুধুমাত্র ৩০ ফ্রেমসে।

এপ্লিকেশন পার্ফামেন্স ক্লাস কি?
এপ্লিকেশন পার্ফামেন্স ক্লাস সাধারনত A1 অথবা A2 দিয়ে প্রকাশ করা হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে সর্বনিম্ন রাইট স্পিড হয়ে থাকে ১০ এমবিপিএস এবং এটি প্রকাশ করে থাকে সর্বনিম্ন রিড এবং রাইট স্পিড পরিমাপ করে থাকে। এক্ষেত্রে এপ্লিকেশন পার্ফামেন্স পরিমাপ হয়ে থাকে ইনপুট/আউটপুট অপারেশন্স পার সেকেন্ড(IOPS) হিসেবে।

এসডি কার্ডের গায়ে A1 লেখা থাকলে এর মানে হলো ১৫০০ আইওপিএস র‍্যানডম রিড স্পিড এবং ৫০০ আইওপিএস র‍্যানডম রাইট স্পিড।
A2  লেখা থাকলে এর মানে হলো ৪০০০ আইওপিএস র‍্যানডম রিড স্পিড এবং ২০০ আইওপিএস র‍্যানডম রাইট স্পিড।

বাস ইন্টারফেস
সাধারনত বাস ইন্টারফেস নির্ভর করে এসডি কার্ডের ফরম্যাট যেমন microSD, microSDHC, microSDXC, microSDUC এর উপরে। বাজারে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই UHS-I ফরম্যাটের কার্ডগুলোই পাওয়া গিয়ে থাকে। এক্ষেত্রে
UHS-II, UHS-III, SD Express এই ধরনের হয়ে থাকে। এখানেও রিড এবং রাইট স্পিড নির্ভর করে থাকে সংস্করণের উপরে। তাই সংস্করণ যত বেশি হবে তত বেশি রিড এবং রাইট স্পিড হবে। 

ডাটা সংরক্ষণ ক্ষমতা মানে কত জিবি? 
এই ব্যাপারটা সম্পূর্ন আপনার উপরে আপনি কত জিবির এসডি কার্ড কিনতে ইচ্ছুক। বাজারে ২৫৬ জিবি পর্যন্ত এসডি কার্ড পাওয়া গিয়ে থাকে।