হয়তো আপনারকে আর বলতে হবে না AMD অনেক পাওয়ার হাংগ্রি জিপিউ।।

AMD তাদের নতুন আর্কিটেকচার Polaris এর ঘোষনা দিয়েছে CES 2016 এ ।। সফল্ভাবে আবিষ্কৃত তাদের এই আর্কিটেকচারের জিপিউ সমমানের কোন জিপিউর থেকে অর্ধেক পাওয়ার খরচ করবে।।

এমডির নতুন জিপিউর সাথে ভাল পাওয়ার সাপ্লাই কিনতে হয় এমনি একটা ট্রেন্ড ছিল কারন তাদের অন্ত্যত একটই মিড রেঞ্জ জিপিউ চালানোর জন্য ব্রান্ডেড ৫০০ ওয়াটের পাওয়ার সাপ্লাইয়ের দরকার পড়ে। তাই নতুন এমডি জিপিউর সাথে অনেকেরই নতুন পাওয়ার সাপ্লাই কিনতে হয়। পোলারিস আর্কিটেকচারের জিপিউর ক্ষেত্রে এমনটা হবে না।।

CES 2016 এর আগে থেকেই এমডির নতুন আর্কিটেচারের জিপিউর প্লানিং চলছিল। Raja Koduri, এমডির চিফ আর্কিটেক এবং RTG(Radeon Technologies Group)এর লিডার তারা কাস্টমার,ইউজার আর ডেভলপারদের কথা মাথায় নিয়েই কাজ করছে।
AMD তাদের আর্কিটেকচারে নতুন ধারা নিয়ে আসলো যাতে করে Nvidiar সাথে আরো জোরালোভাবে প্রতিযোগিতা করতে পারবে।
এর মানে এই নয় AMD,Nvidia থেকে দুর্বল তারা তাদের অবস্থানটা আরো শক্ত করার জন্যই তাদের এই প্রোচেষ্টা।।

যাইহোক Polaris আর্কিটেকচার সম্পর্কে বলা যাক,
২০১৬ সালের মিড থেকে এমডিএর যত জিপিউ আসবে এই পোলারিস আর্কিটেকচারের উপর ভিত্তি করেই।।
এর কিছু ফিচারস,
1. 4th generation graphicd core next(GCN) যাতে HDMI 2.0a, DisplayPort 1.3,4k h.265 encode/decode
2. optimized implementation of FinFET
3. A historic leap in performance per watt for Radeon GPU’s

4th gen বেসড জিপিউ হবে AMD এর ৪০০ সিরিজের গ্রাফিক্স কার্ড গুলো। মুলত GCN 1.3 = Arctic Islands আর 2.0 = Polaris আর্কিটেকচারের জিপিউ থাকবে এই সিরিজে।
যাতে ১৪ ন্যানোমিটারের FinFET(ট্রান্সসিস্টর টাইপ) ম্যানুফাকচারিং প্রোসেস থাকবে যা Polaris এর জন্য। Arctic Islands এর জন্য ১৬ ন্যানোমিটার হতে পারে।। যাতে 2nd জেনের হাই ব্যান্ডউইথ মেমরি,HDMI 2.0a এবং Displayport 1.3 HBR3 সাপোর্ট।
এই ফ্যামিলিতে তিন ধরনের চিপস থাকবে Ellesmere(Polaris 10 architechture),Baffin(Polaris 11 architechture) এবং Greenland(Vega 10 architechture) ।

পোলারিস আর্কিটেকচারের জিপিউ হবে AMD এর সবচেয়ে কম পাওয়ার(ওয়াটেজ) খরচ করা জিপিউ।
AMD তাদের আর্কিটেকচারে আইল্যান্ডের নাম বিদায় জানিয়ে এখন থেকে তারা,গ্রহ নক্ষত্র এর নাম ব্যবহার করবে এবং Polaris দিয়েই তাদের এই যাত্রা শুরু।
ফিউচারে vega আর্কিটেকচার আসতে পারে যা AMD এর হাই এন্ড কার্ডে দেখা যেতে পারে এই vega নামটিও এসেছে একটি ঊজ্জ্বল তারার নাম থেকে। এর ব্যাপারে এখনো কিছু বলা যাচ্ছে না।

যাইহোক, Polaris আর্কিটেকচারের জিপিউ হবে এনার্জি এফিসিয়েন্ট।
এতদিন Nvidiar ম্যাক্সওয়েল কার্ডগুলোকেই এনার্জি এফিসিয়েন্ট বলা হত কিন্তু এর সাথে যুক্ত হচ্ছে AMD পোলারিসের নাম।
অবশেষে AMD সফল হল তাদের এনার্জি এফিসিয়েন্ট প্রোডাক্ট বানাতে।।
যাইহোক পার্ফারমেন্স এর ভিত্তিতে বলা যাক,
যেখানে ১৯২০*১০৮০ রেজুলেশন আর ৬০ এফপিএস এ ১৪০ ওয়াট খরচ হয় সেখানে পোলারিস আর্কিটেকচারের জিপিউ খবচ করে ৮৬ ওয়াট।

ঊদাহরনস্বরুপ যেখানে Nvidia GTX950 প্রায় 90w পাওয়ার খরচ করে সেখানে পোলারিস আর্কিটেকচারের জিপিউ তার প্রায় অর্ধেক পরিমান পাওয়ার কনসাম করবে।। (সুত্রঃAnandtech.com)

অপরদিকে Nvidia তাদের প্যাসকেল আর্কিটেকচারের জিপিউ আনছে।। হাড্ডা-হাড্ডি লড়াই হবে এই দুইয়ের মধ্যে এবার।।

ওয়েল,আমি Nvidiar ফ্যানবয় কিন্তু অতটা পাগল ফ্যানও না। tongue emoticon
কিন্তু এই আর্কিটেকচার সম্পর্কে লিখতে গিয়ে AMD কে আরো বেশি ভাল লাগছে।। আশা রইল AMD থেকে ভাল কিছু পাবার।।

সুত্রঃ http://www.anandtech.com/…/amd-reveals-polaris-gpu-architec…
http://www.amd.com/…/who-w…/corporate-information/events/ces

 

লেখকঃ ফাহিম হোসেন আতুল