কম্পিউটেক্স ২০১৯, বছরের সবচেয়ে বড় কম্পিউটার হার্ডওয়্যার ইভেন্ট, শুরু হতে যাচ্ছে মে ২৮ থেকে, শেষ হবে জুনের ১ তারিখ। বলে রাখা ভাল তাইওয়ানের রাজধানি তাইপে ভিত্তিক এই ট্রেড ফেয়ারকে কেন্দ্র করে বিশ্বের সব বড় বড় হার্ডওয়্যার পণ্য উৎপাদক রা তাদের প্রডাক্ট লঞ্চের পরিকল্পনা করে থাকে। এবারও এএমডি, ইন্টেলের মত শীর্ষস্থানীয় ব্রান্ডগুলো ঘোষণা দেবে তাদের নতুন সব প্রোডাক্ট লাইন আপের।

আর মাত্র দুই সপ্তাহ পরে অনুষ্ঠেয় এই কম্পিউটার প্রেমিদের মিলন মেলার প্রধান প্রধান কি কি আকর্ষন থাকতে যাচ্ছে তার সংক্ষিপ্ত তালিকা নিয়ে আজকের এই লেখা। কম্পিউটার মার্কেটে ঝড় তোলার জন্য জোরেশোরে প্রস্তুতি নিচ্ছে যেসব কম্পানি তাদের মধ্যে এএমডি অন্যতম। এছাড়াও বেশ কিছু ইনোভেটিভ প্রডাক্ট নিয়ে তৈরি হচ্ছে আরো অনেকে। চলুম এক নজরে দেখে নেয়া যাক কি হতে যাচ্ছে কম্পিউটেক্স ২০১৯ প্রধান আকর্ষন সমূহ।

এএমডি কি নোট

কম্পিউটেক্স শুরুর একদিন আগে অর্থাৎ ২৭ মে অনুষ্ঠানটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের আগের দিন একটি কি নোট সেশনের আয়োজনের করেছে এএমডি। যার ইনভাইটেশন লেটার ইতোমধ্যে পিসি বিল্ডার বাংলাদেশের হাতে এসে পৌঁছেছে। যদিও এতে পরিষ্কার ভাবে উল্লেখ নেই এএমডি সিইও ডঃ লিসা স্যু কি নিয়ে কথা বলবেন, তবে ইতোমধ্যেই বিভিন্ন সোর্স থেকে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী ধারনা করা যাচ্ছে যে এএমডি তাদের বহুল প্রতীক্ষিত ৭এনএম রাইজেন ৩০০০ সিরিজের প্রসেসরের ঘোষণা দেবে।

অপেক্ষাকৃত কমদামে শক্তিশালি রাইজেন ২০০০ সিরিজের প্রসেসর দিয়ে গতবছর প্রসেসর মার্কেটে এএমডি বেশ শক্তিশালী অবস্থান অর্জন করে নেয়। ধারনা করা হচ্ছে দীর্ঘ বছর প্রসেসর মার্কেটে একচ্ছত্র আধিপত্য করা ইন্টেলের সাম্রাজ্যের আরো অনেকখানি এএমডি দখল করে নেবে এই রাইজেন ৩০০০ সিরিজের মাধ্যমে। যদিও অপেক্ষাকৃত স্বল্প মূল্যের সুবিধা বাংলাদেশের বাজারে এখনো সেভাবে এএমডি নিশ্চিত করতে পারেনি, তারপরো এই প্রতিযোগিতামূলক বাজারে এএমডির উত্থান আরো অনেক অপশন তুলে দিয়েছে পিসি বিল্ডারদের হাতে।

ইন্টেলের মত প্রসেসর তৈরী করলেও এএমডি এর সাথে সাথে গ্রাফিক্স কার্ডও তৈরী করে থাকে। গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে এবারের কম্পিউটেক্সে এএমডি নাভি ১০ জিপিউ দেখা যেতে পারে।

ইন্টেল কি নোট

২৮ মে, কম্পিউটেক্স ২০১৯ এর প্রথম দিন দুপুর ১.৩০ থেকে ২.৩০ এর মধ্যে ইন্টেল কি নোট এর বক্তব্য দেবেন কোম্পানির সিনিয়র ভাইস প্রেসিডেন্ট এবং জেনারেল ম্যানেজার গ্রেগোরি ব্রায়ান্ট। রাইজেন প্রসেসর গুলো বাজারে আসার পরই ইন্টেলের মার্কেট একটা বড়সড় ধাক্কা খায়। যদিও সবচেয়ে গতিশীল প্রসেসরের তালিকায় শীর্ষে র‍য়েছে ইন্টেলের ৯৯০০কে সিরিজের সিপিউ, কিন্তু বৈশ্বিক বাজারে অপেক্ষাকৃত কমদামে কাছাকাছি মানের প্রসেসর বাজারজাত করে এএমডি বিক্রির দিক থেকে ইন্টেলকে পেছনে ফেলেছে।

গত এক দশকের মধ্যে প্রসেসরের বাজারে ইন্টেলের এরকম অভিজ্ঞতা একদমই নতুন। তাই ধারনা করা যাচ্ছে ইন্টেলও এবার প্রতীযোগিতাকে আরেকটু জমিয়ে তুলতে যথেস্ট প্রস্তুতি নিচ্ছে। যতদুর শোনা যাচ্ছে গত সিইএসে ঘোষণা দেয়া ইন্টেলের  ১০এনএম সানি কোভ এবং আইসলেক প্রসেসর গুলো আকর্ষনের কেন্দ্রে থাকবে।

এনভিডিয়া সেশন

গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকেই এনভিডিয়া তাদের টুরিং আর্কিটেকচার এর কঞ্জিউমারগ্রেড গ্রাফিক্স কার্ডগুলো বাজারে সরবরাহ করছে। মোটামুটি সব প্রাইস সেগমেন্টেই এনভিডিয়ার নতুন গ্রাফিক্স কার্ড এভেলেবেল থাকায় এবারের কম্পিউটেক্স এ কঞ্জিউমারগ্রেডের নতুন কিছু ঘোষনা দেবার সম্ভাবনা খুবই কম।

যদিও গুঞ্জন আছে এনভিডিয়া তাদের ৭ এনএম এম্পিয়ার গ্রাফিক্স কার্ড নিয়ে কাজ করছে। তবে এত তাড়াতাড়ি তার কঞ্জিউমার গ্রেডের জিপিউ এনভিডিয়া বাজারজাত করবে বলে কোন সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে না। বরঞ্চ এআই(AI) ভিত্তিক প্রফেশনাল গ্রেডের ওয়ার্কস্টেশন গ্রাফিক্স কার্ডের ঘোষণা আস্তে পারে বলে ধারনা করা যায়।

আসুস আরওজি

তাইওয়ান ভিত্তিক বিশ্বের অন্যতম বৃহত কম্পিউটার ব্রান্ড আসুস যারা গেমিং ল্যাপটপ থেকে, গ্রাফিক্স কার্ড এবং মাদারবোর্ড মোটামুটি সকল ধরনের কম্পিউটার পণ্যই তৈরি করে থাকে।  গত সিইএস থেকে তাদের এখন পর্যন্ত কিছুটা চুপচাপ থাকা, কম্পিউটেক্স কে ঘীরে বিশাল প্রস্তুতির ইঙ্গিত দেয়।

তাদের আর্লি স্নিকপিক এবং কি নোটের ইনভাইটেশন পিসি বিল্ডার বাংলাদেশের কাছে এসে পৌঁছালেও বিস্তারিত বলার মত কোন তথ্য এখনো পাওয়া যায়নি। তবে আশা করা যাচ্ছে গত সিইএসে আলোচনার শীর্ষে থাকা আরওজি মাদারশীপ হাতের নাগালে পাওয়া যাবে।

এমএসআই

বিগত বছরে গডলাইক মাদারবোর্ড এবং আরটিএক্স ২০৮০টাই লাইটনিং গ্রাফিক্স কার্ড দিয়ে চমক দেখানো এমএসআই গত কম্পিউটেক্স ২০১৮ তে সেরা মনিটর এবং গেমিং ল্যাপটপ সহ দারুন কিছু বেস্ট প্রডাক্ট এওয়ার্ড ঘরে তুলে নেয়। তারই ধারবাহিকতায় এবারো চোখ থাকবে এমএসআই বুথে।

এছাড়াও থাকছে এসরক, গ্যালাক্স, মাইক্রোসফট, ডেল, এইচপি, স্যামসাং সহ আরো অনেক নামিদামি কম্পানির বুথ। থাকছে কুলিন গোত্রের কম্পানি থেকে বিভিন্ন স্টার্টাআপের ইনোভেটিভ বিভিন্ন প্রোডাক্ট।

কম্পিউটেক্স ২০১৯ কাভার করতে দ্বিতীয়বারের মত পিসি বিল্ডার বাংলাদেশ টিম থাকছে তাইওয়ানে। গতবারের মত এবার থাকবে বিভিন্ন বুথ এবং প্রোডাক্ট কাভারেজ ভিডিও। নতুন স্ংযোজন বলতে এবার দর্শকদের অংশগ্রহণের জন্য আলাদা কিছু পর্ব নিয়মিত রাখার কথা পর্যালোচনা করছে পিসিবি বিডি টিম।