29 C
Dhaka
Sunday, September 19, 2021

Android TV Box বায়িং গাইডঃ Android TV Box Price in Bangladesh

- Advertisement -asus motherboards

এফটিপি সার্ভারের প্লেলিস্ট হোক বা ইউটিউবের চ্যানেল হোক অথবা পাবলিক স্ট্রিমিং সাইট ই হোক না কেন,অন্যন্য কাজের পাশাপাশি মানুষের টিভি দেখার মাধ্যম হিসেবেও জায়গা দখল করেছে ইন্টারনেট।আগেকার টিভিগুলোর জায়গা নিতে শুরু করেছে LED HD/Smart TV সমুহ। স্মার্ট টিভিতে সরাসরি ইন্টারনেট চালানোর সুবিধা থাকলেও অনেকেই দামের কারণে সেসব স্মার্ট টিভি কিনতে পারেন না।তবে Android TV Box বা Smart TV বক্স কিনে সহজেই যেকোনো HD TV,LED TV কে স্মার্ট টিভি বানিয়ে নিতে পারেন বা সহজেই ইন্টারনেট চালাতে পারেন। আজকে আলোচনা হবে বিভিন্ন বাজেটের Android TV বক্স নিয়ে। কোন দামের গুলো কেনা ভালো হবে, কোনটার পারফর্মেন্স, ফিচার কেমন ইত্যাদি নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হবে।

Android TV Box কি?

যারা এন্ড্রয়েড টিভি বক্স সম্পর্কে জানেন না বা এই প্রথম নাম শুনলেন তাদের জন্য সংক্ষেপে এর সম্পর্কে একটু প্রাথমিক ধারণা দিয়ে রাখার প্রয়োজন বোধ করছি। যাতে এর গুরুত্ব,কাজ,ফিচার সম্পর্কে ধারণা লাভ করতে পারেন তারা।

- Advertisement -

স্মার্ট টিভি বলতে আমরা সাধারণত বুঝে থাকি যেই LED টিভিতে সরাসরি ইন্টারনেট চালানো যায়। ওয়াইফাই চালানো যায়, এতে প্রসেসর,র‍্যাম,স্টোরেজ দেওয়া থাকে ও (সাধারণত Android Based) একটি অপারেটিং সিস্টেম ইন্সটল থাকে। মোটামুটি আপনার স্মার্টফোনের  মত ইন্টারফেস সেখানে থাকে ও সিমকার্ড,Caller, এই ব্যাপারগুলো বাদ দিয়ে একটি স্মার্টফোনের অন্যন্য জিনিসগুলো সেখানে থাকে। অর্থাৎ সিমকার্ড লাগানো,সিমের নেটওয়ার্কে নেট চালানো/কথা বলার সুবিধাকে বাদ দিলে একটি স্মার্টফোন যা, স্মার্ট টিভিও সেরকম কিছুই।

এটিতে প্লে স্টোর থাকে, ফাইল ম্যানেজার থাকে, ব্রাউজার সহ টুকটাক pre installed apps/bloatware থাকে। একটি স্মার্ট টিভিতে সরাসরি ইউটিউব দেখা,ফেসবুক চালানো, ব্রাউজার চালানো, নেটফ্লিক্স /এমাজন এর মত সার্ভিস ট্রিমিং ইত্যাদি  কাজগুলো করা যায়। মুলত ইন্টারনেট এর এক্সেস করে বড় স্কিনের টিভিতে ডিশের বদলে ইন্টারনেট থেকে 1080p,4k,2k স্ট্রিমিং করার জন্যই স্মার্ট টিভি ব্যবহার করা হয়।

- Advertisement -

তবে এই ধরনের স্মার্ট টিভিগুলো, এমনকি নন ব্রান্ড বা চাইনিজ ব্রান্ডগুলোর স্মার্ট টিভি গুলোর দাম ও বেশ অনেক হয়। আমাদের দেশের প্রেক্ষাপটে অনেকেরই বাজেটের বাইরে চলে যায় এই টিভিগুলো। আর অনেক ক্ষেত্রেই এগুলোতে র‍্যাম,স্টোরেজ অনেক কম দেওয়া থাকে, প্রসেসর ও দুর্বল থাকে তাই UI, ওভারল এক্সপেরিয়েন্স ভালো হয় না, ল্যাগ,হ্যাং, একাধিক App চালানোতে সমস্যা হয়,navigate করার এক্সপেরিয়েন্স অত্যন্ত বাজে হয়ে যায় অনেক সময়ই। আর ১/২ জিবি র‍্যাম কখনোই আজকালকার দিনে streaming apps চালানোর জন্য যথেষ্ট নয়, এমনকি যারা ২ জিবির র‍্যামের ফোন চালান তারা ভালো বুঝতে পারবেন যে Facebook,messenger এর মত App গুলোও ২ জিবি র‍্যামের ফোনে চালানো অনেক কঠিন। বরং লাইট Apps এর উপরেই নির্ভর করতে হয়, এর সাথে দুর্বল প্রসেসর ও EMMC স্টোরেজ মিলে ওভারল এক্সপেরিয়েন্স অনেক খারাপ করে দেয়।

এই হিসেবেও এন্ড্রয়েড টিভি বক্স কেনা বেটার অপশন, এতে র‍্যাম রম,প্রসেসর বেটার পাওয়া যায়। আর যাদের নরমাল LED TV তাদের ক্ষেত্রে তো এমনিতেও Android TV বক্স কেনা ছাড়া আর কোনো উপায় থাকে না। এবার সংক্ষেপে এন্ড্রয়েড টিভি বক্স বা Smart tv box সম্পর্কেও জেনে নেওয়া যাক।

- Advertisement -

এন্ড্রয়েড টিভি বক্স একটি ডিভাইস যা সাধারণত একটি স্মার্টফোনের মত ডিসপ্লে,সিম,নেটওয়ার্ক,ব্যাটারির পার্টগুলো ছাড়া একটি Processor+mobo+gpu বা SoC এর সাথে স্টোরেজ,র‍্যাম সহ কাজ করে ও যেকোনো এন্ড্রয়েড স্মার্টফোনের মতই এতে একটি Operating System থাকে। সাধারণত একটি এন্ড্রয়েড টিভি বক্স যেকোনো LED টিভির সাথেই লাগানো যায় ও এর জন্য টিভিটিতে শুধু একটি HDMI পোর্ট থাকলেই হয়। অনেকক্ষেত্রে অন্যন্য পোর্ট থাকলেও তা converter দিয়ে HDMI তে কনভার্ট করে যুক্ত করা যায়।

অর্থাৎ এটি এমন একটি ডিভাইস যা discretely LED টিভির সাথে লাগানো যায় ও তার মাধ্যমে android apps চালানো যায়,ইন্টারনেট এক্সেস করা যায় টিভিটিতে। মোট কথা একটি স্মার্টফোনের environment,features ,টিভিতে এক্সেস করা সম্ভব হয়ে উঠে একটি স্মার্ট টিভি বক্স এর মাধ্যমে। এবার আমরা একদম এন্ট্রি লেভেল থেকে শুরু করে বিভিন্ন বাজেটে কোন কোন এন্ড্রয়েড টিভি বক্স এভেলেবল রয়েছে ,সেগুলোর ফিচারস,পারফর্মেন্স ও কোনগুলো নেওয়া উচিত হবে সেই আলোচনায় যাব।

Android TV Box Price in Bangladesh: Smart TV Box Price in Bangladesh:

বাজেট ২০০০-২২০০

MXQ 4K Android TV Box Smart TV Box: price 2000tk~

এই বাজেটে মোটামুটি ২টি এন্ড্রয়েড টিভি বক্স রয়েছে। একটি হলো MXQ 4K Android TV Box ও আরেকটি X96 Mini।এদের স্পেসিফিকেশন মোটামুটি একই।

-২ জিবি DDR3 র‍্যাম,১৬ জিবি EMMC স্টোরেজ (Extra memory card slot available)

-Amlogic S905 Quad Core Cortex-A53 প্রসেসর

android 7.1.2 nougat operating system

-Ethernet port,HDMI Port,USB Port

– built in Wifi,802.1.1b/g/n

-remote control

কেমন?

যেহেতু ২ জিবি র‍্যাম ,প্রসেসর ও Mediatek বা Snapdragon এর মত ব্রান্ড এর না, সেজন্য এই ধরনের এন্ট্রি লেভেলের স্মার্ট টিভি বক্স এর পারফর্মেন্স বেশ ল্যাগি হয়,খুব বেশি স্মুদ এক্সপেরিয়েন্স পাওয়া যাবে না। একাধিক App চালানো অনেক কঠিন, বরং Youtube এর মত একটি App ই অনেক সময় আটকে যেতে পারে বা হ্যাং করতে পারে, ব্রাউজারের ক্ষেত্রেও তাই। তার পরেও স্মার্ট টিভি বক্স কেনার ক্ষেত্রে একদমই least favorite চয়েস এগুলোই হবে। টুকটাক টিভি দেখা/ইউটিউব দেখা, bongo/toffee/bioscope দিয়ে স্ট্রিম করা ইত্যাদি কাজ করার জন্য নেওয়া যেতে পারে। বরং এই বাজেটে অনেক জনপ্রিয় এটি। ইথারনেট হোক বা ওয়াইফাই,২ ধরনের কানেক্টিভিটিতেই ভালো ব্যান্ডউইথ পাওয়া যাবে।

১৪০০-১৬০০টাকায় 1gb ram,16 gb storage ভার্সন রয়েছে কিন্ত তা একেবারেই রেকমেন্ড করবো না কারণ বলতে গেলে চালানোর অযোগ্য হয় সেগুলো। তাই কিছু টাকা বাড়িয়ে এই ২০০০বাজেটে 2gb ভার্সন ই নেওয়া উচিত।

X96 mini TV Box Price 2000-2200tk

২ জিবি র‍্যাম ১৬ জিবি স্টোরেজের এটি চালিয়ে দেখার অভিজ্ঞতা হয়েছিল আমার। Amlogic S905W up to 2.0GHz,Quad core ARM Cortex-A53 CPU,DDR3 Ram,EMMC স্টোরেজের উপর এন্ড্রয়েড ৭ রান করে। আমার প্রাথমিক অভিজ্ঞতা  সুবিধাজনক ছিল না। ল্যাগি ল্যাগি ভাব,Delay, Hang এগুলো সবই পাওয়া যাবে। তবে এগুলো সহ্য করেই চালাতে হবে আরকি। MXQ এর মতই বাসায় সাধারণত চ্যানেল দেখা,App থেকে টিভি দেখা বা ইউটিউব দেখা, এসব  ক্ষেত্রে কাজ চলে যাবে। দুই একটি এপ্লিকেশনে fullscreen compatibility issues থাকতে পারে যেটি MXQ এর ক্ষেত্রেও সমানভাবে প্রযোজ্য। MXQ এর মতই USB Port, Lan Port,HDMI এগুলো পেয়ে যাবেন। রিমোট কন্ট্রোলটা খুব একটা সুবিধার না। বেশ বেগ পেতে হবে navigate করতে। এক্সট্রা কার্ড স্লটে মেমোরি কার্ড দিয়ে স্টোরেজ এক্সপ্যান্ড করে নিতে পারবেন।ইথারনেট হোক বা ওয়াইফাই,২ ধরনের কানেক্টিভিটিতেই ভালো ব্যান্ডউইথ পাওয়া যাবে।

***একই দামে Tanix এর TX3 Mini-A ও রয়েছে যার স্পেসিফিকেশন ও কমবেশি একই। এটিও নিতে পারেন, কারণ Tanix এর TX6 মডেলটি ব্যক্তিগতভাবে আমি চালাই যা নিয়ে একটু পরেই আলোচনা হবে, সেটির এক্সপেরিয়েন্স আমার কাছে যথেষ্ট ভালো হওয়ায় আমার মনে হয়েছে ২০০০টাকার আশেপাশে TX3 টাও নেওয়া যেতে পারে***

***২৭০০/২৯০০ এরকম দামে বেশ কিছু মডেল রয়েছে বিভিন্ন ব্রান্ডের। তবে সেগুলোর প্রত্যেকটারই storage 16 জিবি ও ram 2 জিবি হওয়ায় পারফর্মেন্স,ফিচারস ও কমবেশি এই উপরে উল্লেখিত মডেলগুলোর মতই হবে। তাই আমি এগুলোকে একেবারেই রেকমেন্ড করবো না বরং নিচে ৩৬০০/৩৬০০+ বাজেটে বেটার স্পেসিফিকেশনের কিছু মডেল নিয়ে আলোচনা করবো।***

বাজেট ৩৫০০~ টাকা

Tanix TX6 Price: 3600 tk

গত মার্চ থেকে এটি আমার বাসাতে চলছে। প্রথমেই স্পেসিফিকেশন সম্পর্কে কথা বলে নেওয়া যাক।

-Ram 4GB, Storage 32 GB

-AllWinner H6, Quad core CPU ,Mali-720 MP2 GPU

-Dual band 2.4Ghz/5Ghz Wifi, 100Mbps Ethernet Port.

-HDMI,2x USB 2.0 Port, 1 USB 3 port

-Android 9,Bluetooth 5.0

৩২ জিবি স্টোরেজের সাথে ৪ জিবি র‍্যাম। স্পেসিফিকেশনে সবথেকে বড় পরিবর্তন এটিই। Amlogic এর পরিবর্তে Allwinner H6 প্রসেসর ও Mali-720 MP2  GPU দেওয়া। এটিও একটি উল্লেখযোগ্য পরিবর্তন। ২টি USB এর সাথে রয়েছে একটি USB 3 পোর্ট যেটিও চোখে পড়ার মত বিষয়। এর ডিজাইনটাও সুন্দর। একটি Antena দেওয়া হয়েছে বডির সাতে। সামনের দিকে একটি Display রয়েছে যেটি অনেকটা ডিজিটাল ঘড়ির ডিসপ্লে এর মত। সেখানে Boot,time ইত্যাদি বিভিন্ন স্টাটাস দেখা যায়।

এবার এক্সপেরিয়েন্স এর দিকে আসি। একটি 2gb র‍্যাম এর X96 Mini চালানোর পর এই TX6 চালাতে গিয়ে আমি স্পষ্ট স্মুদনেস,ভালো রেস্পন্স অনুভব করতে পেরেছি।মোটকথা fluency টা স্পষ্ট লক্ষ করেছি। App ও UI যথেষ্ট Responsive ও Smooth। App হ্যাং করে না একদম। App Startup,Loading ও ২জিবি র‍্যামের ডিভাইস থেকে দেখার মত তাড়াতাড়ি হয়। ৩২ জিবি স্টোরেজ থাকায় বেশি বেশি Apps যেমন ইন্সটল করা যাবে, মুভি/ক্লিপ ও ডাউনলোড করা যাবে বেশি বেশি।ওয়াইফাই যেটি রয়েছে বেশ ভালো সিগনাল ক্যাপচার করতে পারে। USB 3 পোর্টটিও অনেকের পছন্দ হবে।  UI টি Easy To Use মনে হয়েছে আমার কাছে। এর OS আপগ্রেড ও করতে পারবেন তাদের অফিশিয়াল সাইট থেকে।Out of the box Android 9 OS থাকছে এতে। অন্যন্য মডেলগুলোতে 7 বা আরো পুরাতন OS থাকে সাধারণত।

এর নেগেটিভ দিক বলতে একটা জিনিসই চোখে পড়েছে সেটি হচ্ছে রিমোট। বাটন কোয়ালিটি ভালো, খুব শক্ত নয়,নরম কিন্ত তার পরেও ফিচার,অপশন এর ঘাটতি খুবই চোখে পড়বে, মাউস মোড এর সাথে মিনি Mouse Pad দিলে খুবই সহজ হতো Navigate করা। আর দুই একটি App এ Compatibility issues পেয়েছি যেমন Toffee App। এখানে কোনো চ্যানেল ফুলস্ক্রিন করলে কোনো বাটনে ক্লিক করে Back আসা যায় না তেমনি স্ক্রিনের ব্যাক আইকনে ক্লিক করলেও exit fullscreen/back হয় না, সরাসরি হোম বাটনেই ক্লিক করতে হয় যেটি খুবই বাজে।আর বেশ গরম হয় এটি, যদিও বন্ধ হয়ে যাওয়া বা রিস্টার্ট হওয়ার মত ঘটনা কখনোই ঘটতে দেখিনি। ওভারল আমি ১০ এ ৯ দেব একে। আমার মতামত হচ্ছে ৩৫০০টাকার মধ্যে এটিই সেরা চয়েস হবে ও যাদের সম্ভব হবে তারা ২২০০/২৩০০ দিয়ে উপরের ২ জিবি মডেল না নিয়ে এটি নেওয়ার চেষ্টা করবেন।

***৩৯০০টাকায় H96 MAX X2 32GB এডিশন রয়েছে যার স্পেকস ও ফিচারস মোটামুটি TX6 এর মতই,যদিও আমার সাজেশন হবে ৩৫০০টাকায় TX6 ই নেওয়ার অথবা বাজেট আরো এক হাজার বাড়িয়ে নিচের মডেলগুলোর দিকে যাওয়ার। তবে H96 Max X3 নামের মডেল রয়েছে যেটির ডিজাইন অনেক ডিফারেন্ট, অনেকটা আগেকার Walkman গুলোর মত স্টাইল। সেটির দাম ও ৩৯০০টাকা, পছন্দ হলে নিতে পারেন।***

 

বাজেট ৪৫০০টাকা~

H96 Max X3 Price in bd: 4500tk

H96 Max X3, Max X2 এই দুটি মডেলেরই স্পেকস প্রায় সেম। ৬৪ জিবি স্টোরেজ ও চার জিবি DDR4 র‍্যাম এর সাথে X2 তে Amlogic S905X2 প্রসেসর ও X3 তে Amlogic S905X3 প্রসেসর রয়েছে। দুটিই Android 9 OS এ চলে। অবশ্য H96 Max X3 8K পর্যন্ত সাপোর্টেড ও এর ডিজাইন ও অনেক ডিফারেন্ট। আগেকার Walkman ডিস্ক এর মত ডিজাইনের কারণে অনেক স্টাইলিশ ও প্রিমিয়াম লাগে একে। ফিচার ও কমবেশি সেম।

এই দুটিরই দাম ৫০০০টাকার আশেপাশে কিন্ত বর্তমানে PC House এ ৪৪০০-৪৫০০টাকায় ডিসকাউন্টে বিক্রি হচ্ছে। আমার মনে হয়েছে এই দুটির যেকোনো একটা নেওয়া যেতে পারে, ৪ জিবি DDR4 র‍্যাম ও বড় স্টোরেজের কারণে বেটার এক্সপেরিয়েন্স পাওয়া যাবে।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ

এতক্ষণের আলোচনা পড়ার পর অনেকের চোখ কপালে উঠতে পারে বা ভ্রু কুচকাতে পারে এই ভেবে যে কি ব্যাপার এই সম্পুর্ণ আলোচনায় বহুল আলোচিত ও পরিচিত Xiaomi এর Mi TV Stick, Amazon এর Firestick নেই কেন। কারণটা খুবই সিম্পল, সেগুলো ভালো ব্রান্ডের হতে পারে, তাই OS, UI এর এক্সপেরিয়েন্স বা অপ্টিমাইজেশন কিছুটা ভালো পাওয়া গেলেও, Native App পাওয়া গেলেও এগুলোর বেশিরভাগ মডেলেরই র‍্যাম মাত্র ১ জিবি ও স্টোরেজ ৮ জিবি।

সুতরাং এরকম স্পেসিফিকেশনে আদৌ কিরকম পারফর্মেন্স পাওয়া যাবে, কিরকম এক্সপেরিয়েন্স পাওয়া যাবে, দামের পরিবর্তে কি পরিমাণ ল্যাগ,স্টোরেজ এর সম্মুখীন হতে হবে তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়। Xiaomi এর TV Box 3 এর দাম যেমন ৪৮০০টাকা, কিন্ত র‍্যাম স্টোরেজ ২/১৬। আবার Xiaomi TV Box S এর ক্ষেত্রেও ৮ জিবি স্টোরেজ ও ২ জিবি র‍্যাম, বিপরীতে দাম ৫৫০০টাকা। Xiaomi Mi MDZ-24-AA TV Stick এর ক্ষেত্রেও একই কথা প্রযোজ্য।

- Advertisement -asus graphics card
Soaad Bin Zaman Shoron
Gamer | Memer | Tech Enthusiast | Sports Lover | Food Hunter | JUST PHYSICS 2018

2 COMMENTS

  1. আমার বাসায় একটা ভিজিএ ক্যাবল ওয়ালা মনিটর আছে। এটা কি Tanix TX6 এ HDMI to VGA Converter ইউজ করে ব্যাবহার করা যাবে?

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here