28 C
Dhaka
Friday, September 23, 2022

৩০-৩৩,৪০-৪৫,৫০-৫৫ হাজার টাকার সেরা বাজেট বিল্ড[Updated]

- Advertisement -

আমাদের হেল্পলাইন গ্রুপে ৩০-৪০,৫০-৫৫ হাজার রেঞ্জে প্রচুর পিসি বিল্ড গাইডের জন্য রিকোয়েস্ট আসে প্রতিদিনই। কেও কেও ফ্রিল্যান্সিং,ওয়েব ডেভেলপমেন্ট/ডিজাইন , ব্রাউজিং বা একদমই হালকা কাজের জন্য ৩০-৩৫ হাজার রেঞ্জে স্টাটার পিসি চান, এছাড়াও অনেকে হালকা পাতলা গেমিং, টুকটাক এডিটিং এর জন্য GPU ছাড়া ৪০-৪৫ হাজার বা জিপিউ সহ ৫০-৫৫ হাজার টাকাতেও পিসি বিল্ড করতে চান। বর্তমানে বেশ কিছুদিন ধরে বেশ কিছু কম্পোনেন্ট এর দাম, বিশেষ করে প্রসেসর ও গ্রাফিক্স কার্ডের দাম চোখে পরার মত কমছে, এজন্য অনেকের জন্যই এই সময়টা পিসি বিল্ডের জন্য মোক্ষম একটি সময়।তাদের কথা মাথায় রেখেই আমরা বেশ কিছু বিল্ড গাইড নিয়ে আজ হাজির হলাম। আজকের পর্বে থাকছে ৩টি বাজেট রেঞ্জের ৬টি বিল্ড, আগামী পর্বে থাকবে আরো কয়েকটি বিল্ড।

***প্রাইস ও এভেইলেবিলিটি ২৯ ও ৩০ এপ্রিলের টেকল্যান্ড ওয়েবসাইট এর তথ্যের ভিত্তিতে লেখা হয়েছে। দোকান ভেদে ,সময় ভেদে, দাম কমবেশি হতে পারে, ফুল বিল্ডের ক্ষেত্রে আমাদের উল্লেখ করা মোট খরচ থেকেও কিছু কম দামেও পেতে পারেন ক্রেতা***

- Advertisement -

দ্বিতীয় পর্বঃ ৬০,৭০,৮০,৯০ হাজার ও ১ লাখ টাকার  বিল্ড

বাজেট ৩০-৩২-৩৫ হাজার- জিপিইউ ছাড়া বেসিক ক্যাজুয়াল কাজ,ব্রাউজিং এর জন্য বিল্ডঃ

৩০-৩৫ হাজার বাজেট আজকালকার বাজার, কাজের ধরন, বাজারে এভেইলেবল কম্পোনেন্ট ও কাজের কম্ফোর্ট, সব মিলিয়ে আমাদের কাছে minimum মনে হয়েছে। যদিও আমরা জানি অনেক মানুষ আছেন যাদের বাজেট এর থেকেও কম,তারপরেও মনে হয় ২০২২ সালে এসে pentium,celeron বা athlon প্রসেসর দিয়ে বিল্ড না করে minimum core i3/ryzen 3 দিয়ে বিল্ড করাটাই ভালো।

যাই হোক, আমাদের এই বিল্ডের প্রসেসর হিসেবে আমরা বাছাই করেছি ইন্টেল core i3 10105। এটি 11th gen এর সাথেই লঞ্চ হয়েছিল কিন্ত এটাকে অফিশিয়ালি 11th gen না বলে মুলত 10th gen refresh বলা হয়। তো যাই হোক,14nm lithography based এই প্রসেসরটির কোর সংখ্যা চারটি ও থ্রেড আটটি, base clock 3.7 Ghz ও boost clock 4.4 Ghz। ৬৫ ওয়াট TDP এর প্রসেসরটির ক্যাশ মেমোরি ৬ মেগাবাইট, রয়েছে ১.১ গিগাহার্জ বুস্ট ক্লক এর Intel UHD 630 internal graphics. without gpu একেবারেই কম  বাজেটের বিল্ডে তাই ১০৩০০ টাকা দামের এই প্রসেসরের বিকল্প নেই বললেই চলে।

- Advertisement -

এখানে আমরা core i3 12100 ব্যবহার করতে পারছি না তার প্রধান কারণ হলো প্রসেসরে তো বাড়তি ৩ হাজার গুনতে হবেই, সাথে মাদারবোর্ড এন্ট্রি লেভেলের নিতে গেলেও খরচটা চলে যাবে ১০০০০ টাকার আশেপাশে  কারণ Asus,Gigabyte,MSI এর H610 মাদারবোর্ড গুলোর দাম ও ৯০০০-১০০০০/১১০০০ টাকা।তাতে সব মিলিয়ে খরচ ৪০ এর আশেপাশে চলে যেতে পারে,যেই বাজেটে আবার better build রয়েছে যা একটু পরেই আলোচনা করা হবে।

***তবে, কেও যদি আসলেই এই দামেই latest gen i3 এর স্বাদ নিতে চান , ryzen 5 3600 সহ অন্যান্য অনেক হাই এন্ড প্রসেসরকে বিট করা 12100 ব্যবহার করতে চান, পরবর্তীতে DDR5 সিস্টেমে আপগ্রেডের ও সুযোগ নিতে চান সর্বনিম্ন খরচে, তাদের জন্য আমার সাজেশন হবে 12100 ১৩ হাজার টাকা দিয়ে biostar এর H610 মাদারবোর্ডটি নিতে পারেন, ৭৫০০ টাকা দামের এই বোর্ডটিই বর্তমানে আমাদের জানামতে সবথেকে কমদামী H610 মাদারবোর্ড***

***আরো একটা ব্যাপার, আমাদের হেল্পলাইন গ্রুপে অনেকেই স্টোরেজ, হার্ড ড্রাইভ বাদ দিয়ে , একদমই লো এন্ড h510/410 বা একদমই কম দামের B560/460 মাদারবোর্ড দিয়ে কোনো রকমে করা core i5 10400/11400 এর  35-36 হাজার টাকার বিল্ড সাজেস্ট করছেন বা নিজে বিল্ড করতে চাচ্ছেন। আমরা এরকম কিছু এজন্য এখানে সাজেস্ট করছি না কারণ বিল্ড মানেই সবসময় সর্ব্নিম্ন খরচ,sacrifice এর ব্যাপার নয়, বিল্ড এর একটা নুন্যতম স্টান্ডার্ড,ব্যালেন্স থাকা উচিত এবং আমরা সেটা ভিডিও,আর্টিকেল সব জায়গাতেই ধরে রাখার চেষ্টা করি, আর যারা খোজ খবর রাখেন তারা তো এমনিতেও জানেন 10th gen থেকে শুরু করে,বিশেষ করে 11th gen এর ক্ষেত্রে বাজেট মাদারবোর্ডগুলোর রয়েছে বহুবিধ সমস্যা, Weak VRM, Power limit ইস্যুর কারণে এরকম অনেক। মাদারবোর্ড রয়েছে যা core i3 ই সামলাতে পারেনা ঠিক করে, তা কোনো মতে পারলেও core i5 এর সর্বোচ্চ পারফর্মেন্স বের করে আনতে অনেক মাদারবোর্ডই একেবারেই ব্যর্থ। এজন্যই আমরা এই ধরনের বিল্ড আমাদের আর্টিকেলে রাখছি না। আমাদের কাছে মনে হয়েছে Intel এর core i5 প্রসেসরের  জন্য মাদারবোর্ড এর সর্বনিম্ন খরচ হওয়া উচিত ১০-১১ হাজার টাকা ও স্টান্ডার্ড হচ্ছে ১৩ হাজার টাকা। আমাদের আর্টিকেলে পরবর্তী বিল্ড গুলোতেও  এটি প্রতিফলিত হবে***

মাদারবোর্ডঃ

- Advertisement -

মাদারবোর্ড হিসেবে আমরা বেছে নিয়েছি MSI H510M PRO-E MATX মাদারবোর্ডটি। বেশি কিছু বলার নেই এই বাজেট বোর্ডটি নিয়ে, ২টি র‍্যাম স্লট, চারটি sata3 port, পর্যাপ্ত পরিমাণ I/O পোর্টস সমৃদ্ধ এই মাদারবোর্ডটির দাম ৭৪০০ টাকা। ক্রেতা চাইলে প্রায় কাছাকাছি দামে gigabyte এর h510 মাদারবোর্ড ও নিতে পারেন। এই বাজেটে যেকোনো H510 বোর্ডই নিতে পারেন ক্রেতা, কোনোটাতেই পাফর্মেন্সে কোনো বিশেষ লাভ/ক্ষতি হবার সম্ভাবনা নেই বললেই চলে।

র‍্যামঃ

র‍্যাম হিসেবে আমাদের সাজেশন প্রাইমারিলি Corsair vengeance 3200mhz 8gb হলেও তার দাম বর্তমানে বেশি হওয়ায় বর্তমানে Kingston Fury Beast বা Apacer Panther এর 3200 Mhz 8GB কিট নিতে বলবো। এগুলোর দাম ৩২০০-৩৩০০ টাকা।

স্টোরেজঃ

আমাদের ইউটিউব চ্যানেলের বিল্ড ভিডিও গুলোতে স্টোরেজ স্পেসিফাই করে দেওয়া হয় না বিশেষ কিছু যৌক্তিক কারণে কারণ এক এক জনের চাহিদা,preference,প্রয়োজন আলাদা আলাদা ,কারো অনেক বড় ক্যাপাসিটির হার্ডডিস্ক দরকার হয়, কারো অনেক বড় এসএসডির দরকার হয়, কারো এসএসডি,হার্ডডিস্ক উভয়েরই দরকার হয়, কারো ক্ষেত্রে বা শুধু একটা ১২০ জিবি এসএসডিতেই হয়ে যায়।

তবে আমি সাধারণত বিল্ডে একটা ১ টেরাবাইট হার্ডডিস্ক এর সাথে ১২০/২৫৬ গিগাবাইটের এসএসডি দেওয়াই স্টান্ডার্ড হিসেবে ধরি ও বিল্ডগুলোও এই হিসেবেই করে থাকি। এখানে এই বিল্ডে Seagate 1TB 7200 RPM Hard disk drive ও Adata AS340X 120GB সাজেস্ট করছি যে দুটোর দাম বর্তমানে যথাক্রমে ৩৮০০ ও ১৯০০, এসএসডি এটি বাদ দিয়ে ক্রেতা চাইলে Netac/Teutons/HP এর এসএসডি ও নিতে পারেন যেগুলো এখন ২২০০ টাকাতে পাওয়া যাচ্ছে। অবশ্যই বিল্ড শেষে নোটে স্টোরেজ সিলেকশন নিয়ে আরো কথা হবে।

PSU:

পাওয়ার সাপ্লাই হিসেবে আমাদের চয়েস Corsair CV/CX 450W PSU টি। থাকছে ৫ বছরের ওয়ারেন্টি, বাংলাদেশের বাজারে সবথেকে বেশি বিক্রি হওয়া PSU গুলোর মধ্যে এটা একটা, এই বিল্ডের জন্য এটি safe ও more than enough, পরবর্তীতে মিড বাজেটের GPU লাগালেও সমস্যা হবে না।এটির দাম ৩৫০০ টাকা।  এখানেও বলে রাখছি,ক্রেতার বিশেষ কোনো মডেল পছন্দ থাকলে নিতে পারেন।

Casing:

কেসিং এর ব্যাপারটা একেবারেই নৈব্যক্তিক, আপেক্ষিক, লুক-এয়ারফ্লো মিলিয়ে ক্রেতা যেকোনোটাই পছন্দ করতে পারেন। এই বিল্ডের জন্য ২৫০০-৩০০০ রেঞ্জে যেসব Value top casing গুলো পাওয়া যায় বা অন্যান্য যেসব কেস পাওয়া যায় সেগুলোই যথেষ্ট,goldenfield G7B/G9B ও যথেষ্ট ভালো কেস। আমার সাজেশন থাকবে Revenger A1 কেসটি,বর্তমানে ২৯০০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে এটি,সাইজ,ভেতরে স্পেস,ক্লিয়ারেন্স ,লুক সবই ডিসেন্ট এটির, রয়েছে ৪টি প্রি ইন্সটলড ফ্যান।

Last updated on 3rd July 2022

দ্রষ্টব্যঃ মোট খরচ ও cost cutting এর কিছু জায়গা

আমাদের default selection এ এই বিল্ড এর খরচ আসছে ৩৩০০০-৩৩৪০০ টাকা মত।এটাকে standard ধরে  এখানে আমরা আর কি কি modification করা যায় তা নিয়ে একটু সংক্ষেপে আলোচনা করতে পারি।

প্রথমেই আসা যাক র‍্যামের ব্যাপারে, কেও যদি চান, বাজেট যদি পর্যাপ্ত থাকে সেক্ষেত্রে আরেকটি স্টিক র‍্যাম যোগ করে নিতে পারেন,যদিও এই বিল্ডে যেসব কাজ হবে, ৮ জিবি র‍্যাম দিয়েই কাজ প্রাথমিকভাবে চলে যাবে, কিন্ত বাজেট থাকলে from day 1 আপনি চাইলেই dual channel 16gb এর সুবিধা নিতেই পারেন। সেক্ষেত্রে এই বিল্ডের খরচ গিয়ে ঠেকছে ৩৬ হাজারে।

এবার আসা যাক স্টোরেজ প্রসঙ্গে, এখানে cost cutting এর সুযোগ রয়েছে। কেও চাইলে শুধু এসএসডি বা শুধু হার্ডড্রাইভ রাখতে পারেন, সেক্ষেত্রে এই বিল্ডের খরচ ৩০/৩১ এ নেমে আসবে। আরেকটি কাজ করা যায়, খরচ এক রেখে র‍্যাম বাড়িয়ে নিতে চাইলে হার্ডড্রাইভ টা বাদ দিয়ে র‍্যাম লাগানো যায়,সেক্ষেত্রে খরচ একই আসবে।

আর সবশেষ আসা যাক 12th gen এর ব্যাপারে, default selection এ খালি প্রসেসর 12100 আর biostar mobo দিলে খরচ আসছে ৩৬ হাজার। যার পক্ষে সম্ভব হবে নিতে পারেন। আর যদি cost same রাখতে চান, সেক্ষেত্রে এসএসডি টা বাদ দিলে খরচটা ৩৩ হাজারেই নেমে আসছে।

বাজেট ৪০-৪৫ হাজারঃ APU build for lite gaming, editing (যারা কয়েকবছর GPU ছাড়া চালাতে চান)

অনেকেই আছেন যাদের বাজেট ৪০-৪৫ হাজার ও গ্রাফিক্স কার্ড নেওয়ার পরিকল্পনা নেই বরং iGPU দিয়েই টুকটাক এডিটিং,গেমিং করার ইচ্ছা আছে। তাদের জন্যই এই বিল্ডটি।

processor:

সদ্য বাজারে আসা Ryzen 5 4650G কেই আমরা পুর্বে সাজেস্ট করতাম। তখন ১৫০০০ টাকায় GPU ছাড়া বিল্ডের জন্য প্রসেসর হিসেবে এক প্রকার অপ্রতিদ্বন্দ্বী ছিল এটি।তবে পরবর্তীতে বাংলাদেশের জাতীয় প্রসেসর Ryzen 5 5600g এর দাম কমে ২১ হাজার ও বর্তমানে ১৯ হাজারে নেমে আসায় আমাদের কাছে ৫৬০০জি কেই বেটার মনে হয়েছে।  ৬ কোর ১২ থ্রেড ,4.4 Ghz বুস্টক্লক বিশিষ্ট এই Apu টির GPU section এও আছে ৭ কোরের Radeon vega gpu যার clock 1.9 Ghz।এটি দিয়ে esports games গুলো, যেমন Valorant,PUBG PC,APEX LEGENDS, CSGO,DOTA, LEAGUE OF LEGENDS,FIFA ইত্যাদি ভালোমতোই খেলা যাবে, সাথে এডিটিং এর কাজ ও করা যাবে।
5600G এর পিসি বিল্ড আমাদের চ্যানেলেও রয়েছে। দেখতে পারেন।

 

motherboard:

মাদারবোর্ড হিসেবে আমরা GIGABYTE B450M DS3H V2 Ultra সাজেস্ট করছি, এটি একটি decent motherboard, 450 board হওয়ায় GPU OC ও করা যাবে এটি দিয়ে। এটির দাম ৭৩০০ টাকা, এই বাজেটে অবশ্য অপশনের অভাব নেই, রয়েছে অনেকগুলো A520 বোর্ড,B450 board আর কিছুটা বেশি দামে কয়েকটি B550 বোর্ড ও পাওয়া যায়।

ram:

যেহেতু APU বিল্ড সেজন্য এখানে সিঙ্গেল চ্যানেল র‍্যাম ব্যবহার করা বোকামী, AMD এর APU গুলোর পারফর্মেন্স ram channel এর উপর বেশ অনেকটাই নির্ভর করে ,তাছাড়া যেহেতু এসব ক্ষেত্রে ram টাই VRAM হিসেবে ব্যবহ্বত হয়, dual channel ram ব্যবহার করাটাই যৌক্তিক। র‍্যাম হিসেবে থাকছে KINGSTON এর FURY BEAST 3200 mhz এর দুটি kit। (৬৫০০ টাকা)

PSU:

PSU হিসেবে এই বিল্ডের জন্য ৪৫০ ওয়াট more than enough। আমাদের সাজেশন Corsair CV/CX 450W BRONZE PSU । ৫ বছরের ওয়ারেন্টি যুক্ত এই পাওয়ার সাপ্লাইটি bronze certified। যদিও Antec CSK ও নিতে পারেন চাইলে।

storage:

storage হিসেবে আমাদের সাজেশন একটি SATA SSD. 1900 টাকায় APACER এর AS340X নিতে পারেন।  অবশ্যই এটি ছাড়া অন্য অনেক মডেল আছে,নিতে পারেন যেকোনোটাই। একই সাথে seagate 1tb hdd ও থাকছে।

casing:

casing হিসেবে ৩০০০ টাকায় ANTEC NX 290 রয়েছে যেটি টেকল্যান্ডে এভেইলেবল আছে বর্তমানে। এই কেসটি লো বাজেটে বেশ ভালো মনে হয়েছে।এই দামে অন্যান্য র‍্যান্ডম ব্রান্ডগুলোর কেসগুলো থেকে এই কেসিংটির ডিজাইন,premium-ness, features সবই বেশ ভালো।

আগের বিল্ডঃ

last updated on 3rd July 2022

বর্তমান সাজেশনঃ

as of 14th July(price 44k total***)

বাজেট ৪০-৪৫/৪৬( পরে GPU লাগানো হবে যে বিল্ডে)

প্রসেসর টির দাম পরবে ১৭৫০০ টাকা। এখানে খরচ কমাতে চাইলে মাদারবোর্ড Gigabyte এর DS3H/MSI B560M PRO WIFI নেওয়া যেতে পারে।

as of 14th July

 

আলোচনাঃ

এখানে প্রথমেই প্রশ্ন আসতে পারে র‍্যাম একটা কেন। সহজ হিসাব, বাজেট ৪৫/৪৬ হাজার এর মধ্যে রাখার জন্য, যার সামর্থ থাকবে অবশ্যই তিনি ২টি স্টিকই নিবেন, দ্বিতীয়ত, যেহেতু এই বিল্ডের ক্রেতা কয়েক মাস পর বা কিছু সময় পর গ্রাফিক্স কার্ড লাগাবেনই, সেই সময় বা পরবর্তীতে আরো টাকা যোগ করে তার কাছে দ্বিতীয় একটি স্টিক নিয়ে নেওয়ার সুযোগ থাকছেই। একই কথা স্টোরেজের জন্য ও প্রযোজ্য। গ্রাফিক্স কার্ড যোগ হবে বলেই এখানে ৫৫০ ওয়াট পাওয়ার সাপ্লাই দেওয়া হয়েছে, এবং 11400 এর সাথে 1660 Super/1660 Ti/RX 6600 কিংবা RTX 3050,2060 12G এর pair হবে সবথেকে ভালো, এই GPU গুলোকে সেজন্য standard ধরে 550 ওয়াট পাওয়ার সাপ্লাই দেওয়া হয়েছে, ৬৫০ নিলে খরচ আরো বাড়তো।

আর কেন ১৩ হাজার টাকা মাদারবোর্ড এর পেছনে খরচ করা হলো তা নিয়ে একটু আগেই সংক্ষেপে বলা হয়েছে। যেহেতু Graphics card লাগানো হবে, তাই ধরে নেওয়াই হয়েছে এই বিল্ডটি ক্রেতা Video editing,Rendering,Graphics Designing বা 1080p gaming,streaming করবেন, সেজন্যই প্রসেসরের পারফর্মেন্স ভালো যাতে হয় তা নিশ্চিত করতে এই মাদারবোর্ড সাজেস্ট করা হয়েছে (একই বাজেটে Gigabyte Aorus Elite 560, MSI B660 Pro-A ও রয়েছে সেগুলোও খুবই ভালো  অপশন)। কেসিং ক্রেতা পছন্দমত নিতে পারেন, তবে যেহেতু  পরবর্তীতে GPU যোগ হবে, সেজন্য ভালো এয়ারফ্লো,পর্যাপ্ত জায়গা, ফ্যান যাতে থাকে তা নিশ্চিত হয়ে নিবেন।

বাজেট ৫০-৫৫ হাজার টাকা- GPU সহ বিল্ড ও GPU ছাড়া বিল্ড

৫০-৫৫ হাজার টাকার বাজেট রেঞ্জটার ডিমান্ড অত্যন্ত বেশি, একসময় GTX 1650s দিয়ে বিল্ড সম্ভব হতো, মাঝে গ্রাফিক্স কার্ড মার্কেটে খুবই খারাপ একটা সময় গিয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হচ্ছে তাই আবার ও GPU দিয়ে এই বাজেটে বিল্ড করা সম্ভব। একদিকে Ryzen 7 4750G দিয়ে জিপিইউ ছাড়া বিল্ড ,আরেকদিকে core i3 12th gen +GTX 1650 দিয়ে বিল্ড। দুটি বিল্ডের মাদারবোর্ড প্রসেসর ছাড়া বাকি কম্পোনেন্ট গুলো মোটামুটি একই। তবে প্রাইস কমবেশি করা সাপেক্ষে পরিবর্তন করা যেতে পারে বেশ কিছু কম্পোনেন্ট।

যেমন GPU বিল্ডের ক্ষেত্রে যদি তার বাজেট 56-57 হাজার করতে পারেন সেক্ষেত্রে একটা হার্ড ড্রাইভ নিয়ে নিতে পারেন। অথবা একটা র‍্যাম স্টিক নিয়ে নিতে পারেন।

***GPU বিল্ডটিতে ক্রেতা যদি DDR5 এর সুবিধা পরবর্তীতে না চান ও শুধুমাত্র বেশি cores,threads চান সেক্ষেত্রে ১৩৫০০ টাকায় Ryzen 5 5500 নিতে পারেন ও 6000-7000 রেঞ্জের  B450 motherboard যেমন gigabyte s2h/ds3h নিতে পারেন। তবে গেমিং সহ অনেক এপ্লিকেশনেই অনেক হাই এন্ড প্রসেসর এর সমান বা কাছাকাছি পারফর্ম করে Core i3 12100f***

***আরেকটি কথা, PCIe4 সাপোর্টেড মাদারবোর্ড যেহেতু আমরা ব্যবহার করছি, অনেকেই RX 6500XT ও চাইলে নিতে পারেন যদি বাজেট আর ১/২ হাজার extend করা সম্ভব হয়।তবে মনে রাখবেন, Limited PCIe lane এর কারণে RX 6500 XT এর রয়েছে performance issue, editing,rendering যারা করবেন ,তারা NVENC এর মত encoder পাবেন না,AV1 encoder ও নেই। অনেকক্ষেত্রে PCIe4 এও এই জিপিইউ এর পারফর্মেন্স সুবিধাজনক না মাথায় রাখবেন***

GPU ছাড়া বিল্ডের ক্ষেত্রে ক্রেতা যদি চান Aorus Elite মাদারবোর্ড নিবেন না বরং আরো কমদামে b450m এর বেশ কিছু বোর্ড রয়েছে যেমন gigabyte b450m s2h v2/ds3h/v2 ultra (৬২০০/৬৩০০/৭৩০০) তাহলে ৩/৪ হাজার টাকা সেভ করতে পারেন। তবে যেহেতু 4750G একটি ভালো, পাওয়ারফুল প্রসেসর ও ৮টি কোর বিশিষ্ট,  সেজন্য ভালো মানের মাদারবোর্ড নেওয়াটাই উত্তম মনে করি। তবে উল্লেখিত মাদারবোর্ডগুলোতেও কোনো ইস্যু ছাড়াই চলবে 4750G।

 

বাজেট ৫০-৫৫ হাজার টাকাঃ GPU পরবর্তীতে যোগ করা হবে

আপডেট ১ জুলাই, ২টি র‍্যাম এর মোট খরচ ৫০০ টাকা বেড়েছে

এই বিল্ডটিতে চাইলে ক্রেতা র‍্যাম একটি স্টিক নিয়ে খরচ কিছুটা কমাতে পারেন, স্টোরেজ হিসেবে হার্ড ড্রাইভ আপাতত বাদ দিয়েও বিল্ড সাজাতে পারেন যাতে পরবর্তীতে GPU নেওয়ার সময় র‍্যাম/স্টোরেজ আপগ্রেড করে নিতে পারেন। সেক্ষেত্রে প্রাথমিকভাবে এই বিল্ডের খরচ ৫০ হাজারের নিচে বা ৫০ হাজারেও  নামিয়ে আনা সম্ভব।

দ্বিতীয় পর্বঃ ৬০,৭০,৮০,৯০ হাজার ও ১ লাখ টাকার  বিল্ড

- Advertisement -
Soaad Bin Zaman Shoron
Soaad Bin Zaman Shoron
Gamer | Memer | Tech Enthusiast | Food Hunter | JUST PHYSICS 2018

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here