ভিডিও গেমস বেশ কয়েক ধরণের রয়েছে। তাদের জন্য অন্যতম জনপ্রিয় একটি ধরণ হচ্ছে হরর বা ভৌতিক গেম। এমন অনেকেই রয়েছেন যারা শুধুমাত্র ভৌতিক গেমসই খেলে থাকেন। আর বর্তমানের ভৌতিক গেমসগুলো আসলেই “ভৌতিক” বা ভয়ংঙ্কর হয়ে উঠছে। আগেরকার দিনের গেমসগুলোর সাথে বর্তমানের ভূতুরে গেমসগুলোর কোনো তুলনাই হয় না! বিশেষ করে Outlast গেমটির পর থেকেই ভৌতিক গেমস জগতে বেশ ভালোই পরিবর্তন আসা শুরু করে। আর তারপর আর কি! তবে আমরা কেবল জনপ্রিয় এবং AAA কোয়ালিটির পাবলিশারদেরই চিনে থাকি। কিন্তু এগুলো ছাড়াও আরো অনেক ছোট ছোট স্টুডিওগুলো বেশ ভালো ভালো ভৌতিক গেমস আমাদেরকে উপহার দিচ্ছে কিন্তু তারা সেভাবে ঢালাও করে গেমসগুলো প্রচার করে না বিধায় আমরা সেগুলো সম্পর্কে তেমন জানতে পারি না। তবে আজকের পোষ্টে সেরকমই ভালো কিন্তু অজনপ্রিয় ভৌতিক গেমসগুলো নিয়ে আলোচনা করা হবে। তো চলুন ভূমিকায় আর কথা না বাড়িয়ে মূল পোষ্টে চলে যাই।

Observer

এটা একটি সাইকোলজিক্যাল হরর টাইপের গেম। অর্থ্যাৎ গেমটি খেললে মন মানসিকতায়ও ভয় ঢুকে যাবে আপনার! যারা যারা সাইবার পাংঙ্ক গেমটি নিয়ে হাইপে রয়েছেন তাদের জন্য এই গেমটি বেশ ভালোই লাগবে। কারণ এটি সাইবারপাংঙ্ক গেমটির হরর ভার্সন হিসেবেও আপনারা আখ্যায়িত করতে পারেন। Unreal Engine 4 দিয়ে তৈরি এই গেমটি ২০১৭ সালের আগষ্ট মাসে বিশ্বব্যাপী মুক্তি দেওয়া হয়। গেমটিতে আপনাকে Daniel Lazarski নামের এক পুলিশ ডিটেক্টিভের ভূমিকায় খেলতে হবে যে কয়েদিদের মনের ভিতরে হ্যাক করে প্রবেশ করতে পারে আর ভিকটিমের মনের ভেতর Augmented Vision নিয়ে মাইন্ড কন্ট্রোল করতে পারে! গেমটি স্টিমে ৯/১০ রেটিংয়ে রয়েছে। গেমটির ওর্য়াল্ড ডিজাইন, চমৎকার সাউন্ড আর মানান সই গ্রাফিক্সের জন্য বেশ জনপ্রিয় এবং প্রসংশিত হয়েছে ।

Siren: Blood Curse


লিস্টের ২য় স্থানে রয়েছে Siren: Blood Curse গেমটি। গেমটিতে আপনাকে একজন হাইস্কুল স্টুডেন্ট হাওর্য়াড রাইটের ভূমিকায় খেলতে হবে যে কিনা নিজে থেকেই জাপানের এক ভৌতিক গ্রামে ভ্রমণে যায়। এমনি এমনি যায়নি তার কাছে একটি রহস্যময় ইমেইল আসে যেটার পরিপ্রেক্ষিতেই সে সেখানের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়। উল্লেখ্য যে উক্ত গ্রাম সম্পর্কে বেশ অদ্ভুত সব ভৌতিক গুজব রয়েছিলো। তবে গেমটিতে আপনি সে গ্রামে গিয়ে জানতে পারবেন যে গুজবগুলো আসলেই সত্য! Siren: Blood Curse গেমটি বেশ আগের, ২০০৮ সালের অক্টোবর মাসে গেমটি মুক্তি দেওয়া হয়। গেমটি একটি সারভাইবাল হরর ভিডিও গেম যেটা মূলত তখনকার সময়ে প্লেস্টেশন ৩ কনসোলের জন্য এক্সস্কুসিভ হিসেবে তৈরি করা হয়েছিলো। গেমটিকে সিরিজের প্রথম গেম Siren এর পরিশিষ্ট হিসেবে সাজানো হয়েছে।

Detention

এটা কোনো অনান্য সাধারণ ধরণের কোনো গেম নয়, এটি একটি সাইড স্ক্রলিং এডভেঞ্চার গেম যেটায় রয়েছে বিভিন্ন ভৌতিক উপাদান। উল্লেখ্য যে তাইওয়ানিজ ডেভেলপার স্টুডিও Red Candle Games এর জনপ্রিয় একটি মাস্টারপিস হচ্ছে এই গেমটি। গেমটিতে আপনাকে দুজন স্টুডেন্টকে তাদের স্কুল থেকে বের করে নিয়ে আসতে হবে। কাহিনীর এক পর্যায়ে দুজন স্টুডেন্টের একজন আইটি রূমে টেলিফোনের উদ্দেশ্যে বেরিয়ে পড়ে আর আপনাকে তখন থেকে আরেকজন ছাত্রের ভূমিকায় একা একা কাহিনীতে এগিয়ে যেতে হবে। আর বলা বাহুল্য যে Detention গেমটিও একটি সারভাইবাল হরর ভিডিও গেম তবে এটি একটি দ্বিমাত্রিক (2D) গেম তাই অনেকেই কাছেই গেমটি পছন্দের হবে না। আর ভৌতিকতার পাশাপাশি গেমটিতে তাইওয়ানের বিভিন্ন ধর্মীয় এবং সাংঙ্কৃতিক উপাদানও যুক্ত করে দেওয়া হয়েছে। গেমটি ২০১৭ সালের জানুয়ারীতে মুক্তি পায়।

System Shock 2

এটা বেশ আগের একটি গেম। সেই ১৯৯৯ সালের গেম এটি। আর তখনকার সময়ে ভৌতিক ফার্স্ট পারসন শুটার গেমের সংখ্যা খুবই কম ছিলো। গেমটি একটি একশন রোল প্লেয়িং সারভাইবাল হরর গেম যেটা মূলত পারসোনাল কম্পিউটারের জন্য নির্মিত হয়েছিলো। গেমটি ১৯৯৪ সালের System Shock গেমটির সিকুয়্যাল। ১৯৯৯ সালের গেম অনুযায়ী এই মূহুর্ত্বে গেমটি খেলে গ্রাফিক্স হিসেবে তেমন কোনো স্বাদই আপনি পাবেন না। গেমটির পটভূমি হচ্ছে ২১১৪ সালের স্পেসের একটি স্টারশীপ। গেমটিতে আপনার কাজ হচ্ছে স্টারশীপকে ফিক্সড করা এবং নিজে বেঁচে থাকা।

SOMA

সমুদ্রের নিচের গোপন রিসার্চ সেন্টার! বিষয়টি ভাবতেই কেমন জানি একটা অন্যরকম ফিলিং এসে যায়। ঠিক তাই! গেমটিতে আপনাকে এইরকমই একটি রিসার্চ সেন্টারে Simon Jarret এর ভূমিকায় খেলতে হবে। SOMA গেমটি একটি সাইন্স ফিকশান সারভাইবাল হরর ভিডিও গেম যেটার হরর ছাড়াও স্টেলথ এবং পাজল উপাদানও রয়েছে। গেমটির স্টোরিলাইন এবং ভয়েস এক্টিংয়ের দিক থেকে বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। সাইমন একট গাড়ি দুর্ঘটনার কবলে পড়ে যায় এবং হাসপাতালের পরিবর্তে তার ঘুম ভাঙ্গে একটি আন্ডারওয়াটার রিসার্চ সেন্টারে, আর এখানের সকল মেশিনগুলোই মানুষের মতো ভূমিকায় ব্যবহারে করা শুরু করেছে। আর এই বড়সড় পুরো সেন্টারে আপনিই একমাত্র মানুষ।

Layers Of Fear

সাইকোলজিক্যাল হরর গেমস যদি আপনার পছন্দের তালিকায় থেকে থাকে তাহলে Layers Of Fear গেমটি আপনারই জন্য। কারণ গেমটি নির্মাণ করেছে জনপ্রিয় আউটলাস্ট সিরিজের নির্মাতা স্টুডিও Bloober Team । গেমটি ২১ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ সালে মুক্তি পেয়েছে। আর পরবর্তীতে অক্টোবর মাসে গেমটির একটি সিকুয়্যাল এনাউন্স হয়েছে। গেমটিতে আপনাকে ভিক্টোরিয়ান সময়কালের একজন পেইন্টারের ভূমিকায় খেলতে হবে যে কিনা তার magnum opus পেইন্ট পূর্ণ করার চেষ্টা করছে। কিন্তু তার এই পেইন্টারের চরিত্রের আন্ডারে যে একটি ভৌতিক রহস্য লুকিয়ে রয়েছে সেটাই গেমটিতে সুন্দর ভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে।

Anatomy

মজার ব্যাপার হচ্ছে এই Anatomy গেমটিতে কোনো জোম্বি নেই, কোনো দৈত্য নেই, নেই কোনো ভয়ংকর কোনো কিছু, হঠাৎ করে লাফ দিয়ে কোনো কিছু আপনার স্ক্রিণের সামনে চলে আসবে না। কিন্তু তারপরেও গেমটি একটি সুন্দর হরর গেম। Anatomy একটি সাইকোলজিক্যাল হরর ভিডিও গেম যেখানে আপনাকে একটি শুণ্য ঘরে বন্দি অবস্থায় খেলতে হবে। ঘরে আপনাকে হিন্ট দেবার জন্য রয়েছে বিভিন্ন ক্যাসেট টেপ রেকর্ডিং। তার মানে হচ্ছে এই ঘরটিতে আপনার আগেও কেউ একজন ছিলো আর সেইই এই টেপগুলো রেকর্ড করে গিয়েছে। যিনি এই টেপগুলো রেকর্ড করেছেন তিনি এই বাড়িটিকে একটি মানুষের বডি এবং মনের সাথে তুলনা করেছেন। গেমটি একটি বেশ ছোট দৈর্ঘ্যের গেম, মাত্র ৩০ মিনিটের মধ্যেই গেমটি ওভার করে ফেলতে পারবেন। আর গেমটির দামও রাখা হয়েছে মাত্র ২ মার্কিন ডলার।

DreadOut

আমাদের আজকের লিস্টের ২য় স্থানে রয়েছে DreadOut গেমটি। এটি একটি indie সারভাইবাল হরর ভিডিও গেম যেটা মাইক্রোসফট উইন্ডোজ, ম্যাক ওএস এবং লিনাক্স ও প্লেস্টেশন ৪ কনসোলের জন্য ২০১৪ সালে রিলিজ করা হয়েচিলো। গেমটির স্টোরিলাইন ইন্দোনেশিয়ার একদল স্কুল স্টুডেন্টসদের কে নিয়ে যারা একটি পরিত্যাক্ত শহরে ভিজিটে যায় আর সেখানে গিয়ে বিভিন্ন আদিভৌতিক এবং ভূতদের মুখোমুখি হয়। আর গেমটির প্লেয়ার চরিত্র Linda শহরটির বিভিন্ন ডার্ক সিক্রেটসগুলোকে গেমটিতে উন্মোচন করতে থাকে। এটি একটি থার্ড পারসন হরর গেম আর গেমটির ভূতগুলো ইন্দোনেশিয়ার সেটিংসে সাজানো হয়েছে। গেমটি স্টিমে ৭/১০ রেটিং পেয়েছে।

Call Of Cthulu: Dark Corners Of The Earth

শালর্ক হোমস গেমসে যদি রেসিডেন্ট ইভিলের গেমপ্লে ঢুকিয়ে দেওয়া হয় তাহলে কি রকম হবে? জ্বি ঠিক সেরকমই একটি গেম হচ্ছে Call Of Cthulu: Dark Corners Of The Earth । গেমটি বেশ আগের হলেও ব্যক্তিগতভাবে আজকের লিস্টের আমার সবথেকে প্রিয় গেম হচ্ছে এই গেমটি। পাজল, মিস্টেরি এবং ভৌতিক এই সবগুলোই রয়েছে এই গেমটিতে। মাস্টারপিস এই গেমটি মুক্তির সময় মাত্র ৫০০০ কপি বিক্রি করতে সক্ষম হয়েছিলো। গেমটিতে আপনাকে পুলিশের গোয়েন্দা অফিসার Jack Walters এর ভূমিকায় খেলতে হবে। আর আপনাকে Innsmouth শহরের একটি মিসিং কেইসের জন্য যেতে হবে। আর বলা বাহুল্য যে Innsmouth শহরটি কিন্তু কোনো সাধারণ শহর নয়। রহস্যময়ী শহরে রহস্যের উৎঘাটন করতে হবে আপনাকে এই গেমটিতে, আর তাই আমাদের আজকের লিস্টের ১ম স্থানে রয়েছে এই গেমটি।

Avatar
Fahad is a freelance games journalist who, while not spending every waking minute selling himself to websites around the world, spends his free time writing. Most of it makes no sense, but when it does, he treats each article as if it were his Magnum Opus - with varying results.