দেখতে দেখতে আরেকটি বছর শেষ হয়ে গেল। কিছুদিন আগেই আমরা ২০২০ সালে পদার্পণ করে ফেললাম। আর প্রতি বছরের মতো গত বছরের ভিডিও গেমস জগতে বেশ উত্থান এবং পতন দুটোই হয়েছে। আর গত বছরের সে রকমই সেরা ভিডিও গেমসগুলো নিয়ে আজকের এই পোষ্ট। ভিডিও গেমস জগতে বর্তমানে গ্রাফিক্সকে বেশি প্রাধান্য দেওয়া হয়ে থাকে, যেটা আজ থেকে ৫/৬ বছর আগেও ছিলো না। আগেরকার সময়ে (২০১০ এর আগে) ভিডিও গেমে গ্রাফিক্সের থেকে গেমপ্লে এবং স্টোরিলাইনের উপর গুরুর্ত্ব দেওয়া হতো বেশি। কিন্তু বর্তমানে আমাদের কাছে পাওয়ারফুল গেমিং ডিভাইস চলে আসায় নির্মাতাদের এখন প্রথমেই গেমের ভালো গ্রাফিক্স নিয়ে মাথা ঘাটাতে হয়। স্বাভাবিকভাবেই ভিডিও গেমসের মূল খেলোয়াররা হচ্ছে ৮ থেকে ১৮ বছর বয়সী। তাদের কাছে ভালো গ্রাফিক্স হলেই গেমটির “গ্রহণযোগ্যতা” শুরু হয়।

তবে ভিডিও গেমস যে অনান্য বছরের তুলনায় কম রিলিজ হয়েছে এটা কিন্তু নয়! সনি, মাইক্রোসফট, Nintendo সহ ছোট ছোট indie নির্মাতা অনেক গেমস এ বছর রিলিজ করেছেন কিন্তু সেরাদের সেরা তো আর সবাই হতে পারে না। বছরের শুরু হয়েছিলো Resident Evil 2 (জানুয়ারী) গেমটির মধ্য দিয়ে, ফেব্রুয়ারীতে ব্যাটল রয়্যাল জগতে ধুম ফেলে রিলিজ হয়েছিলো Apex Legends , মার্চ মাসে DMC সিরিজের লেটেস্ট সংষ্করণ Devil May Cry 5 এভাবেই প্রতি মাসে সিগনেচার গেমস বের হয়েছে। তো চলুন দেখে নেই গত বছরের সেরা ভিডিও গেমসগুলো যেগুলো আপনি এখনো খেলে না থাকলে খেলে নিতে পারেন। উল্লেখ্য যে নিচের গেমসগুলো তালিকাভিত্তিতে দেওয়া হয়নি; মানে লিস্টের ১ম গেমটি সবথেকে সেরা আর লিস্টের শেষের গেমটি সবথেকে খারাপ এমনটি কিন্তু নয়!

Gears 5

মাইক্রোসফটের নিজস্ব গেম এই Gears সিরিজ। সিরিজের লেটেস্ট Gears 5 গেমটি এ বছরের জুলাইয়ে মুক্তি পায়। Gears সিরিজটি ১৩ বছরের পুরোনো আর যেহেতু মাইক্রোসফটের গেম তাই এটাকে শুধুমাত্র Xbox One আর মাইক্রোসফট উইন্ডোজ প্লাটফর্মেই খেলা যাবে। আর বলা বাহুল্য যে, মুক্তির সময় এই গেমটাই বছরের সেরা থার্ড পারসন শুটার গেম ছিলো।

Blood & Truth

ও আরেকটি কথা বলতে ভূলে গিয়েছি। ২০১৯ সালটি VR গেমসের জন্য একটি উল্লেখযোগ্য বছর ছিলো। আর সনির নিজস্ব ফ্ল্যাগশীপ টাইটেল Blood & Truth এ বছরের মে মাসে রিলিজ দেওয়া হয়। যদি আপনার কাছে প্লেস্টেশন ৪ এর PS VR থেকে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনার এই গেমটি একবার পরখ করে দেখা উচিত। চমৎকার কন্ট্রোল, সুন্দর গানফাইটস আর ভালো স্টোরিলাইন সবই রয়েছে এই গেমটিতে।

The Division 2

The Division সিরিজের প্রথম গেমটিকে DLC দিয়ে ভরাট করে দিয়ে আর প্রি-লঞ্চ ফুটেজ ও একচুয়াল গেমপ্লের মধ্যে তফাত থাকার কারণে প্রথম গেমটি নিয়ে বেশ সমালোচনার মুখে পড়েছিলো Ubisoft । কিন্তু মজার ব্যাপার হচ্ছে The Division 2 গেমটিতে তারা তাদের আগের গেমটির অনেকগুলো ভূলকেই শুধরে নিয়েছে। অস্ত্রের ফিলিং, শত্রুদের মারার মজা, মজাদার ইকুইপমেন্ট আর লোকেশন চয়েজের কারণে এবারের The Division গেমটি বেশ ভালো স্কোর করেছে।

Blair Witch

প্রথম বলে নেই যে, এ বছরের আমার ব্যক্তিগত সেরা হরর গেম হচ্ছে এটি। Blair Witch মুভির অনুপ্রেরণায় এই গেমটি নির্মিত হয়েছে। গেমটিতে আপনি Outlast স্টাইলের গেমপ্লে মানে ফাউন্ড ফুটেজ, টোটাল অন্ধকার গা ছমছম করা পরিবেশ ইত্যাদি সবই পেয়ে যাবেন। আর একটা কথা বলতেই হয় যে, গেমটির গ্রাফিক্স আসলেই প্রসংশার যোগ্য, মানে হাই কোয়ালিটি দিয়ে গেমটি খেলতে আপনার মনে হবে যে আপনি বাস্তবেই রাতের বেলায় কোনো ওয়েস্টার্ন জঙ্গলে হারিয়ে গিয়েছেন!

Apex Legends

ব্যাটল রয়্যাল গেমস জগতে PUBG আর Fortnite এর সাথে সরাসরি পাল্লা দিতে এ বছরে রিলিজ পায় Apex Legends। তবে পাবজি আর ফোর্টনাইটের গেমপ্লে উপাদানের সাথে Respawn টেকনিক, চমৎকার FPS কমবাট সহ গেমটির নিজস্ব বেশ কিছু ইউনিক উপাদান থাকায় গেমটি রিলিজের পরপরই বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করে ফেলে! তবে উল্লেখ্য যে, গেমটি একটি Free-to-play গেম।

Call Of Duty: Mobile

এটাকে অনেকেই Apex Legends এর মোবাইল সংস্করণ বলে থাকেন। কারণ এটার গেমপ্লেতে Apex Legends এর মতো কমপ্লেক্স উপাদান ব্যবহার করা হয়েছে। তবে আমার মতো যারা আদিকালের কল অফ ডিউটি প্লেয়ার রয়েছেন তাদের জন্য তো বেশ খুশির খবর যে এখন ছোটবেলার স্মৃতিবিজড়িত কল অফ ডিউটি গেমটির মোবাইল সংষ্করণ বেরিয়েছে, আর আরো খুশির খবর এই যে গেমটিতে সিরিজের আগের সিগনেচার মাল্টিপ্লেয়ার ম্যাপসগুলোও দিয়ে দেওয়া হয়েছে। তবে ওই যে বললাম, এপেক্স লেজেন্ড এর মতো একটু কমপ্লেক্স করে ফেলায় অনেকেই বলছেন যে মোবাইল ডিভাইসের জন্য এত কমপ্লেক্স না বানালেই হতো!

Borderlands 3

জ্বী! অনেক বছর পর আমরা বর্ডারল্যান্ডস সিরিজের আরেকটি গেম দেখতে পেলাম। সেই ২০১২ সালের বর্ডারল্যান্ডস ২ গেমটির সিকুয়্যাল আর সিরিজের চতুর্থ মেইন গেম Borderlands 3 সেপ্টেম্বর মাসে মুক্তি পেয়েছে। চমৎকার ওয়েপন হ্যান্ডেলিং, সিরিজের সবথেকে সেরা ফিজিক্স আর স্লাইড ও লিপ ফিচার সহ বিভিন্ন ফিচারের কারণে গেমটি বেশ ভালোই স্কোর করেছে এবার।

Days Gone

গেমটির Pacing আর ওয়ার্ল্ড ডিজাইন যদি আরেকটু ভালো হতো তাহলে Days Gone গেমটি এ বছরের সেরা “open-world horror” গেম হতে পারবো। কিন্তু কথায় আছে; কেউই ১০০% নয়! তবে গেমটি খেলে আপনার কাছে টিপিক্যাল Zombie টাইপের হরর গেমই মনে হবে। আর বলা বাহুল্য যে, গেমটি PS4 এক্সক্লুসিভ, তাই সবাই চাইলেই গেমটি খেলতে পারবেন না।

A Plague Tale: Innocence

এ বছরের অন্যতম সেরা একশন এডভেঞ্চার হরর স্টেলথ গেম হচ্ছে এটি। Indie নির্মাতারাও যে সোনার হরিণ বানাতে পারেন সেটারই জ্বলন্ত উদাহরণ হচ্ছে এই গেমটি। ১৩০০ শতাব্দির ফ্রান্স হচ্ছে গেমটির পটভূমি আর গেমটিতে আপনাকে Rune নামের একটি তরুণীর হয়ে খেলতে হবে। রিয়েল ওর্য়াল্ড হিস্টোরীর সাথে সুপারন্যাচরাল বিষয়কে বেশ সুন্দরভাবেই গেমটিতে সংমিশ্রণ করা হয়েছে।

Planet Zoo

নিজের চিড়িয়াখানা নির্মাণ করতে চান? তাহলে এই গেমটি আপনারই জন্য! Zoo Tycoon গেমটির “spiritual successor” হিসেবে Planet Zoo গেমটি সেপ্টেম্বর মাসে রিলিজ পায়। Steam এ গেমটির স্কোর হচ্ছে ৯/১০ মানে বুঝুন কতটা ভালো স্কোর পেয়েছে এই গেমটি। গেমটিতে আপনাকে নিজের মতো করে চিড়িয়াখানা সাজাতে এবং ম্যানেজ করতে হবে, আর একই সাথে আপনি চাইলে আপনার পছন্দের প্রাণীদেরকে জঙ্গলে মুক্তি করে দিতে পারবেন! উল্লেখ্য যে গেমটির কনসোল ভার্সন ২০২০ সালে আসতে যাচ্ছে তবে গেমটিকে আপনি এখনিই পিসিতে খেলতে পারবেন!

Observation

ফটো রিয়েলিস্টিক গ্রাফিক্স দিয়ে সাইন্স ফিকশান এডভেঞ্চার পাজল গেম Observation
মে মাসে রিলিজ পাবার পরেই অনেকেরই মন জয় করে নেয়। আপনি মহাশুন্যে রয়েছে, আপনাকে একটি স্পেস স্টেশনের “AI” এর ভূমিকায় খেলতে হবে; যেখানে স্পেস স্টেশনটি একটি অজানা বিপদের সম্মুখিন হয়। আমাদের বাস্তবিক জীবনে মেশিনের লিমিটেশন এবং মানুষদের এই সব AI দের প্রতি বিশ্বাস স্থাপন আসলেই যৌক্তিক কিনা এই বিষয়গুলো গেমটিতে খুব সুন্দরভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। সাইন্স ফিকশান হরর গেম! বাহ!

Metro Exodus

জনপ্রিয় রাশিয়ান স্টাইলের এডভেঞ্চার ভিডিও গেমস সিরিজ মেট্রোর লেটেস্ট সংস্করণ Exodus এ বছরে মুক্তির আগেই ধুম ফেলে দেয়। কারণ এনভিডিয়ার RTX গ্রাফিক্স কার্ডের উন্মোচন অনুষ্ঠানে গেমটিকে ফিচার করা হয়, আর বলা বাহুল্য যে গেমটি এখন Xbox One X এর অন্যতম একটি ফ্ল্যাগশীপ টাইটেল। Ray Tracing প্রযুক্তির চমৎকার ব্যবহার, পরিবেশ ডিজাইন আর Post-apocalypse সেটিংস দিয়ে নির্মিত এই গেমটি অনেকেরই মন হয় করতে পেরেছে।

Star Wars Jedi: Fallen Order

এই জেনারেশনের “প্রথম” সিঙ্গেল প্লেয়ার Star Wars গেম হচ্ছে এটি। যেহেতু ছায়াছবিটির নিজস্ব আলাদা বড়সড় ফ্যান ফলোয়িং রয়েছে তাই গেমটিও প্রচুর কপি বিক্রি করতে সক্ষম হয়েছে তবে গেমটি নিয়ে সমালোচনাও কিন্তু কম হয়নি। Dark Souls টাইপের কমবাট পাজল, চেকপয়েন্ট, এনিমি Respawns, Uncharted গেমের Dungeon পাজল ইত্যাদি অনেক কিছুরই সংমিশ্রন রয়েছে এই গেমটিতে।

Call Of Duty: Modern Warfare

তাহলে বলা যায় যে ২০১৯ সালটি কল অফ ডিউটির জন্য বেশ সুখকর ছিলো। কারণ কল অফ ডিউটি মোবাইলের জনপ্রিয়তার পর ব্যাক টু ব্যাক আরেকটি হিট গেমস Activision স্টুডিও উপহার দিতে সক্ষম হলো। প্রায় কয়েক বছর সাইন্স ফিকশানে “টুলডুল” খাবার পর যখন স্টুডিওটি World War II গেমে অবশেষে “বাস্তবিক” সাফল্যের মুখ দেখতে পেলো তখন নির্মাতারা বুঝতে পারলেন যে অবশেষে তারা সঠিক পথেই এগোচ্ছেন। একটি পারফেক্ট এবং চমৎকার রিবুট গেম হচ্ছে Call Of Duty: Modern Warfare । সিঙ্গেল প্লেয়ার ক্যাম্পেইন, আকর্ষণীয় স্টোরিলাইন আর Revamped মাল্টিপ্লেয়ার দিয়ে এ বছরের কল অফ ডিউটি যদি আপনি এখনো খেলে না থাকেন তাহলে এক্ষুনি খেলে নিন; তা নাহলে বড় কিছু মিস করবেন।

The Outer Worlds

২০১৯ সালের অন্যতম সেরা RPG গেম হচ্ছে The Outer Worlds। মুক্তির সময় গেমটি সরাসরি Mass Effect Andromeda এর সাথে প্রতিযোগীতায় নেমেছিলো। এটি একটি একশন রোল প্লেয়িং ধাঁচের গেম। চমৎকার গেমপ্লে, আকর্ষণীয় স্টোরিলাইন আর চোখ ধাঁধাঁনো গ্রাফিক্স এর সবই রয়েছে এই গেমটিতে। RPG স্টাইলের গেমে যারা সময় কাটাতে ভালোবাসেন তাদের কাছে গেমটি বেশ ভালোই লাগবে।

Devil May Cry 5

মর্ডান সময়ের সাথে তাল মিলাতে ২০১৩ সালে ডেভিল মে ক্রাই এর রিবুট গেমটি রিলিজ করা হয়েছিলো, আর সেটার মিশ্র প্রতিক্রিয়া থেকে শিক্ষা নিয়েই এবারের গেমটি সাজানো হয়েছে। একশন গেম হবে একশন প্যাক পরিপূর্ণ আর সেটা এই Hack & Slash গেমের থেকে ভালো আর কিই বা হতে পারে। আশা করবো সিরিজের এই গেমটি ২০১৩ সালের রিবুটের সকল সমস্যা ও সমালোচনার শক্ত জবাব দিতে পারবে।

Mortal Kombat 11

এমন কিছু কিছু গেমস সিরিজ রয়েছে সেগুলো আমাদের জন্মের আগে থেকেই শুরু হয়েছিলো,তাদের মধ্যে Mortal Kombat হচ্ছে অন্যতম। তবে MKX গেমটি রিলিজের পর অনেকেই কাছেই মনে হয়েছিলো যে NetherRealm স্টুডিওর কাছে আইডিয়া শেষ হয়ে যাচ্ছিলো। অনেকটাই FIFA সিরিজের মতো; মানে প্রতিবছরের গেমে নতুন করে বেশি ধংস, বেশি ফাইটার এড করে পুরোনোকেই নতুন রংয়ে সাজানো হচ্ছিলো। তবে Mortal Kombat 11 গেমটিতে একটু নতুনত্বের ছোঁয়া আপনি পাবেন।

Control

একশন এডভেঞ্চার এই গেমটি আগষ্ট মাসে রিলিজ দেওয়া হয়। আর গেমটি নির্মাণ করেছে Max Payne , Alan Wake এর মতো জনপ্রিয় সিরিজ নির্মাতা স্টুডিও Remedy Entertainment । তবে ২০১৬ সালের Quantum Break গেমটিকে মাইক্রোসফটের Half-game, half-video এক্সপেরিয়েন্স প্ল্যানের জন্য যে ক্ষতির সম্মুখিন হতে হয়েছিলো, এবারের গেমে সেটা হতে দেওয়া হয়নি। যারা এডভেঞ্চার গেমস পছন্দ করেন তাদের লিস্টে ২০১৯ সালের অন্যতম সেরা এডভেঞ্চার গেম হিসেবে Control কে আমি অবশ্যই সাজেস্ট করবো ।

Resident Evil 2 Remake

বছরের অন্যতম সেরা ভিডিও গেম আর একটি পুরোনো গেমকে কিভাবে সঠিকভাবে রিবুট করে সাজাতে হয় সেটা আপনি Resident Evil 2 গেমটি না খেললে বুঝতে পারবেন না। কারণ গেমটিতে ১৯৯৮ সালের গেমের টেক্সচারগুলোকে 4K তে আপগ্রেড করা হয়নি, বরং ক্যামেরা এঙ্গেল, গ্রাফিক্স, টেক্সচার, স্টোরিলাইন, ভয়েস এক্ট, বস ফাইট ইত্যাদি সব ক্ষেত্রেই গেমটি সফল হয়েছে। ১৯৯৮ সালে বর্তমানের মতো প্রযুক্তি থাকলে এরকমই গেম তখন বের হতো।

Death Stranding

ভিডিও গেমস জগতে Hideo Kojima হচ্ছেন একটি জনপ্রিয় নাম। তবে এবার প্রায় ২০ বছরের মধ্যে তাকে এই প্রথম Metal Gear সিরিজের বাইরের কোনো আলাদা গেমে কাজ করতে দেখা গেল। হ্যাঁ কথা বলছি Death Stranding গেমটিকে নিয়েই। এ বছরের অন্যতম “ইউনিক” গেম হিসেবে Death Stranding কে আখ্যায়িত করা যায়।

Man of Medan

সিনেমাটিক হরর গেমস যদি আপনার পছন্দের তালিকায় থাকে এবং আপনার কনসোল বা পিসি যদি শক্তিশালী হয় তাহলে Man of Medan গেমটি আপনারই জন্য। Man of Medan হচ্ছে একটি Interactive Drama Survival Horror ভিডিও গেম। তার মানে হলো গেমটি খেলার সময় আপনার মনে হবে যে আপনি কোনো ভিডিও গেমস খেলছেন না, বরং কোনো হলিউডের হরর সিনেমা দেখছেন।

Sekiro: Shadows Die Twice

আমাদের আজকের লিস্টের সবথেকে শেষে রয়েছে Sekiro: Shadows Die Twice গেমটি। আর এই গেমের ব্যাপারে নতুন করে কিছু বলার নেই। ২০১৯ সালের সেরা ভিডিও গেম হচ্ছে এটি। এই রকম Rare ধাঁচের গেম আপনি সচারচর খুঁজে পাবেন না। Sekiro গেমটির মধ্যদিয়ে FromSoftware স্টুডিও তাদের সর্বোচ্চ দিতে চেষ্টা করেছে। তবে গ্রাফিক্সের জন্য গেমটি জনপ্রিয় নয়, বরং গেমটির গেমপ্লের জন্যই ২০১৯ সালের সেরা ভিডিও গেমের খেতাব Sekiro: Shadows Die Twice অর্জন করতে পেরেছে।

পরিশিষ্ট

প্রতি বছর হাজার হাজার ভিডিও গেমস দুনিয়া ব্যাপি রিলিজ পেয়ে থাকে। তাদের মধ্যে আমাদের সামনে কেবল মাত্র ২০০/৩০০ গেমস চলে আসে, এদের মধ্যে শুধুমাত্র ৫০টির মতো ফ্ল্যাগশীপ লেভেলের Triple A গেমস আমরা দেখে থাকি আর খেলার ব্যাপারতো আরো পরে আসে। কিন্তু কিছু কিছু গেমস আছে যেগুলো গেমার হিসেবে একবার না খেললেই নয়। আশা করবো আজকের লিস্ট থেকে ২০১৯ সালের সেরকমই সেরা গেমসগুলোকে আমি উপস্থাপন করতে পেরেছি। ব্যক্তিগতভাবে যদি আমি বলি তাহলে আমার লিস্টে সবার উপরে থাকবে Blair Witch গেমটি!

Avatar
Fahad is a freelance writer and editor with nearly 10 years' experience in Bangla Technology Blogging who, while not spending every waking minute selling himself to websites around the world, spends his free time writing. Most of it makes no sense, but when it does, he treats each article as if it were his Magnum Opus - with varying results.