করাপ্ট জিপ ফাইল যেভাবে উদ্ধার করবেন

ইন্টারনেট ব্যবহার করেন না এমন লোক খুবই কম রয়েছেন। আর যারা যারা ইন্টারনেট ব্যবহার করেন তাদের মধ্যে ইমেইল বা অন্য যেকোনো পদ্ধতিতে ফাইলস আদান-প্রদান এখন একটি মামুলি ঘটনায় পরিণত হয়েছে। আর একই সাথে অনলাইনে একাধিক ফাইলস আদান-প্রদানের জন্য আমরা জিপ ফাইল সিস্টেম ব্যবহার করে থাকি। যেমন অফিসের ১০টি ডকুমেন্ট আপনাকে আপনার বসের ইমেইলে পাঠাতে হবে কিংবা কায়েন্টের কাছে আপনাকে ২০/৩০ টি স্যাম্পল ফটো সেন্ড করতে হবে। এখন আপনি চাইলে এই ১০টি ডকুমেন্ট বা ২০/৩০টি স্যাম্পল ফটো আলাদা আলাদা ভাবে ইমেইলের আপলোড করে সেন্ড করতে পারবেন কোনো সমস্যা হবে না, তবে যার কাছে পাঠাবেন তার জন্য প্রতিট ফাইলসকে আলাদাভাবে ক্লিক করে করে ডাউনলোড করাটা বেশ বিরক্তিকর একটি পরিস্থিতির সৃষ্টি করবে। কিন্তু একটি Zip ফাইলের ভেতর এই যাবতীয় সকল ডাটা এবং ফটো ফাইলসগুলোকে নিয়ে আসলে আপনারও যেমন বার বার ফাইল আপলোড করতে হবে না ঠিক তেমনই যার কাছে ফাইলসগুলো পাঠাচ্ছেন তারও বার বার আলাদা ভাবে ডাউনলোডর করতে হবে না । আবার বোনাস হিসেবে কমপ্রেসশনের সুবিধা তো পাচ্ছেনই!

কিন্তু মাঝে মাঝে এই জিপ ফাইলসগুলো করাপ্ট হয়ে পড়ে আর এই কারণে আমাদেরকে বেশ ভোগান্তিতে পড়তে হয়। বিশেষ করে যখন ওই জিপ ফাইলের কোনো ব্যাকআপ না থাকে আর জিপ ফাইলের ডাটাগুলো যদি আপনার বেশ প্রয়োজনীয় হয়ে থাকে তখনএই করাপ্ট জিপ ফাইলের কারণে আপনাকে বেশ সমস্যায় পড়তে হবে। অনেক সময় দেখা যায় যে জিপ ফাইলের ভেতরের মাত্র ১টি করাপ্ট ফাইলের জন্য অনান্য ফাইলসগুলোকেও আপনি ওপেন কিংবা unzip করতে পারবেন না। করাপ্ট জিপ ফাইল যখন আপনি ওপেন করতে যাবেন তখন নিচের মতো Error বার্তা দেখতে পাবেন:

আজকের এই পোষ্টের জন্য আমি নিজে থেকেই একটি করাপ্ট জিপ ফাইল তৈরি করেছি। এই জিপ ফাইলের ভেতর কয়েকটি HD ওয়ালপেপার দিয়ে জিপ করা হয়েছে এবং পরবর্তী Notepad++ হেক্স এডিটর দিয়ে জিপ ফাইলটি ওপেন করে সেটার কোডগুলোকে ডিলেট করেছি, আর তাতেই ফাইলটি করাপ্ট হয়ে গিয়েছে। জিপ ফাইলটির ভেতর ৯টি ইমেজ রেখেছিলাম কিন্তু এখন সেটায় মাত্র ১টি ইমেজ দেখাচ্ছে এবং জিপ ফাইলটি উপরের ছবির মতো করাপ্ট দেখাচ্ছে।

করাপ্ট জিপ ফাইল রিকোভার করার সবথেকে সিম্পল টুল হচ্ছে WinRar। এই সফটওয়্যারটির ভেতরে একটি বিল্ট-ইন রিপেয়ার টুল দেওয়া রয়েছে যার মাধ্যমে আপনি করাপ্টেড জিপ এবং rar ফাইলকে রিপেয়ার করতে পারবেন। এ জন্য প্রথমে করাপ্ট ফাইলটি ওপেন করুন, তারপর Tools মেন্যুতে ক্লিক করে Repair Archive অপশনে ক্লিক করুন। এবার রিকোভারকৃত আকার্ইভকে কোথায় সেভ করতে চান সেটা নির্ধারণ করে দিন এবং ফাইলটি Zip নাকি Rar ফরম্যাটে সেভ করবেন সেটাও সিলেক্ট করে OK বাটনে ক্লিক করুন। WinRar এর এই বিল্ট ইন রিপেয়ার টুলটি দিয়ে জিপ ফাইলের ৯টি ছবির মধ্যে ৭টি ছবিকে উদ্ধার করা গিয়েছে।

তবে যারা WinZip বা 7-Zip কমপ্রেস সফটওয়্যারগুলো ব্যবহার করেন তাদের কেও এই Winrar ব্যবহার করতে হবে কারণ WinZip এবং 7-Zip সফটওয়্যারগুলোতে বিল্ট ইন রিপেয়ার টুল নেই। তবে আপনি Winrar ছাড়াও নিচের টুলসগুলা ব্যবহার করতে পারেন:

DiskInternals Zip Repair: জিপ ফাইল রিকোভার করার একটি ফ্রি টুল হচ্ছে এটি। আমাদের করাপ্টকৃত জিপ ফাইলের ৯টি ছবির মধ্যে এই টুলটি ৮টি ছবিকে উদ্ধার করতে পেরেছে। তবে মনে রাখতে হবে যে এই টুলটি দিয়ে আপনি শুধুমাত্র জিপ ফাইলকেই রিকোভার বা রিপেয়ার করতে পারবেন। আর Winrar এর মতো মেন্যুর বদলে এই টুলটিতে Wizard-style prompt ডিজাইন ব্যবহার করা হয়েছে।

Zip2Fix : কোনো প্রকার এক্সট্রা ক্লিক ছাড়াই জিপ ফাইল রিপেয়ার করার চমৎকার একটি টুল হচ্ছে Zip2Fix । টুলটি চালু করে Open বক্সে ক্লিক করুন এবং আপনার করাপ্টেড জিপ ফাইলটি সিলেক্ট করুন ব্যাস! টুলটি এরপর নিজে থেকেই করাপ্ট ফাইলটি রিপেয়ার করবে এবং source directory তে রিকোভারকৃত ফাইলসগুলোকে স্টোর করে রাখবে। আর এই টুলটি দিয়ে ৯টি ছবির মধ্যে ৮টি কে উদ্ধার করা গিয়েছে।

এই দুটি টুল ছাড়াও আমাদের টেস্টে অনান্য কয়েকটি টুলও সমজাতীয় রিপেয়ার রেজাল্ট দেখাতে পেরেছে কিন্তু সেগুলো পেইড সফটওয়্যার হওয়ায় পোষ্টে সেগুলোকে আমি উল্লেখ করতে পারলাম না, কারণ সেখানেও আপনি একই জাতীয় রেজাল্ট দেখতে পাবেন এবং সেখানে রিকোভারকৃত ফাইলসগুলোতে একসেস করতে চাইলে আপনাকে ১০ থেকে ৩০ মার্কিন ডলার গুনতে হবে, মানে প্রিমিয়াম সংষ্করণ কিনতে হবে।

বোনাস

একটি জিপ ফাইল করাপ্ট বা ওপেন করতে না পারার আরেকটি কারণ হচ্ছে এর পাসওর্য়াড ভূলে যাওয়া! জ্বি! একটি পাসওর্য়াড প্রটেক্টেড Zip ফাইলের পাসওর্য়াড যদি আপনি না জানেন কিংবা পাসওর্য়াডটি যদি আপনি ভূলে যান তাহলে সেই জিপ ফাইলটি করাপ্ট ফাইলের মতোই আপনার কাছে “useless” হয়ে পড়বে। এখন আপনি যদি জিপ রিপেয়ার টুলসগুলো দিয়ে এই পাসওয়ার্ড প্রটেক্টেড জিপ ফাইলসগুলোকে রিপেয়ার করতে চান তাহলে সেখানে রিপেয়ার তো করতে পারবেন কিন্তু রিপেয়ারকৃত জিপ ফাইলেও আপনাকে পাসওর্য়াডটি দিতে হবে।

আর পাসওর্য়াড ক্র্যাক বা বাইপাস করতে চাইলে সেটার জন্যেও আলাদা টুল রয়েছে। এদের মধ্যে iSeePassword টুলটি আমার টেস্টে সবথেকে বেশি কার্যকর হয়েছে। তবে এটি একটি পেইড টুল এবং এর জন্য ৩০ মার্কিন ডলার আপনাকে খরচ করতে হবে। তবে চাইলে আপনি টুলটির crack ভার্সনও ব্যবহার করতে পারেন, তবে এই পোষ্টে টুলটির ক্র্যাক লিংক আমি শেয়ার করতে পারবো না কারণ এটা আমাদের ব্লগের নিয়মের বাইরে পড়ে।

তবে আপনি ফ্রি তে জিপ ফাইলের পাসওর্য়াড ক্র্যাক করতে চাইলে নিচের দুটি টুলকে ব্যবহার করে দেখতে পারেন। Rar ফাইলের পাসওয়ার্ড ক্র্যাক করার জন্য RAR Password Crackers টুলটি ডাউনলোড করে নিন এবং জিপ ফাইলের পাসওর্য়াড ক্র্যাক করতে চাইলে ZIP Password Crackers টুলটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

বি:দ্র: একটি কথা মনে রাখতে হবে যে একটি করাপ্টকৃত জিপ ফাইলকে ১০০% রিকোভার করা অনেকসময়ই সম্ভব হয় না। এবং করাপ্টকৃত জিপ ফাইলের রিকোভার করার চান্স কয়েকটি বিষয়ের উপর নির্ভর করবে, এগুলো হচ্ছে ১) কোন রিকোভার টুল আপনি ব্যবহার করছেন, ২) জিপ ফাইলের কনটেন্ট এর উপর এবং ৩) কতটুকু বা কি পর্যায়ের করাপ্ট হয়েছে এই বিষয়গুলোর উপর।