Why This Casing Buying Guide?

কেসিং বা চেসিস হল বাংলাদেশে পাওয়ার সাপ্লাই ইউনিটের পর সবচেয়ে আন্ডার রেটেড কম্পোনেন্ট। অনেকেই আছেন ‘একটা ভাল দেখে নিলেই হবে’ এমন মনোভাব নিয়ে কেসিং কিনতে যান। কিন্তু যে কোন কম্পিউটারের ক্ষেত্রে এর সৌন্দর্য ফুটিয়ে তুলে আপনি আপনার সিস্টেমের সাথে যে কেসিংটি কিনছেন। তাই যারা নির্দিষ্ট বাজেটে সবচেয়ে সুন্দর এবং ফিচারবহুল কেসিং খুজছেন আপনার ডেস্কটপ কম্পিউটারকে বিউটিফাই করার জন্য ঠিক তাদের জন্যেই আমাদের Computer Casing Buying Guide.

বিঃদ্রঃ কেসিং গুলো কোথায় কিনতে পাবেন তা জানতে মডেলের নামের বাটনে ক্লিক করুন।

Reason Behind Our Choice

সাধারণ কনজুমারের কথা চিন্তা করে আমরা বাজেট লিমিট রেখেছি ১০০০০ টাকা। আর এখানে প্রতিটি বাজেটে আমরা যে Casing গুলো সিলেক্ট করেছি তা করা হয়েছে দাম অনুযায়ী প্রত্যেকটি কেসিঙের লুক, কম্প্যাটিবিলিটি, টেম্পারেচার প্রবাবিলিটি, বিল্ড কোয়ালিটি এবং অনবোর্ড ফিচারের কথা চিন্তা করে। আমাদের সাজেস্ট করা Casing যদি আপনাদের পছন্দ না হয় অবশ্যই আপনারা আপনাদের পছন্দমত বাজেটে নিজের টেস্ট অনুযায়ী Casing কিনে নিতে পারবেন।

Casing Buying Guide:

Budget: 2500 BDT

Model: Golden Field G9B

Price: 2500 BDT

golden field g9b এর ছবির ফলাফল

এই বাজেটের কেসিঙে বেশিরভাগ সময় ভাল ফিচার পাওয়া যায় না অথবা বিল্ড কোয়ালিটি অত্যন্ত খারাপ হয়ে থাকে। কিন্তু যারা একেবারে বাজেট পিসি ক্রেতা আছেন তারা চান এই বাজেটে যতটুকু সম্ভব ফিচারবহুল কেসিং পাওয়ার জন্য তবে লুক্সের দিক থেকেও যেন কম্প্রোমাইজ না করতে হয়। এসব দিক থেকে চিন্তা করে আমাদের সাজেশন Golden Field G9B Casing টি। এর মধ্যে আপনি প্রি ইন্সটল্ড এল ই ডি ফ্যান পাবেন আর ভেতরে ভাল মানের গ্রাফিক্স কার্ড লাগানোর জন্য যথেষ্ট জায়গাও পাবেন। এছাড়াও এটির সাথে আপনারা বোনাস হিসেবে একটি স্টক পিএসইউ তো পাচ্ছেনই। এর দাম পরবে ২৫০০ টাকা আর আমার মতে এটি হচ্ছে এই বাজেটে অন্যতম বেস্ট লুকিং কেইস।

Budget: 4000 BDT

এই বাজেটকে আপনি দুটি ভাগে ভাগ করতে পারেন। আপনি যদি টেম্পারড গ্লাস Casing বা চেসিস কিনতে চান তাহলে আপনাকে বাজেট ৪০০০ হাজার টাকার কাছাকাছি রাখতে হবে কিন্তু যদি আক্রিলিক সাইড প্যানেল নিয়ে সন্তুষ্ট থাকেন তাহলে সাড়ে ৩ হাজার টাকার মধ্যেই ভাল মানের কেসিং পেয়ে যাবেন।

Model : Antec GX 200

Price: 3400 BDT

ক্লিয়ার সাইড প্যানেলের মধ্যে আমাদের সাজেশন Antec GX 200 কেসিংটি। এটির দাম ৩৪০০ টাকা।

প্রি ইন্সটল্ড ব্যাক ফ্যান, প্রায় ১৪ ইঞ্চি গ্রাফিক্স কার্ড লাগানোর জন্য জায়গা থাকা সহ আরো বেশ কিছু ফিচার থাকার কারণে আমাদের মতে এটি হচ্ছে প্রাইস অনুযায়ী বেস্ট ব্যাং ফর ইউর বাক কেসিং। তবে এই বাজেটে আমরা কোন টেম্পারড গ্লাস কেসিং রেকমেন্ড করছি না।

Budget: 5000 BDT

Model: Corsair Carbide SPEC 04 – Non TG Edition

Price: 4600 BDT

৪০০০ থেকে ৫০০০ টাকার রেঞ্জের মধ্যে আপনারা হয়ত টেম্পারড গ্লাস কেসিং পাবেন কিন্তু দাম অনুযায়ী লুক, কম্প্যাটিবিলিটি ও ফিচারের কথা চিন্তা করে আমাদের সাজেশন Corsair Carbide Spec 04 কেসিংটি। এই বাজেটে অন্যান্য টেম্পারড গ্লাস কেসিং এর তুলনায় খুব ভাল মানের স্পেস এবং ফিচার পাবেন এই কেসিং এ। এটির দাম ৪৬০০ টাকা।

তবে আপনারা এই চেসিসটির টেম্পারড গ্লাস ভার্শনও পাবেন কিন্তু তার জন্য আপনাকে একটি ভাল মানের প্রিমিয়াম পে করতে হবে যার আমাদের মতে একদমই প্রয়োজন নেই।

Budget: 6000 BDT

Model: Thermaltake View 28 RGB 

Price: 5300 BDT

মূলত ৫ হাজার টাকার উপরের প্রাইস টেগের বেশিরভাগ কেসিঙে কাস্টম লিকুইড কুল্ড বিল্ড করা যায়। আর ৫ থেকে ৬ হাজার টাকার বাজেটে আমাদের পছন্দ থার্মালটেকের View 28 কেসিংটি। থার্মালটেকের নাম যখনই শোনা যায় তখনি মাথার মধ্যে রঙ বেরঙের আর জিবি লাইটিং এর খেলা ভেসে ওঠে। কিন্তু আর জিবি বাদ দেয়া যাক এখন। এই বাজেটে বাংলাদেশে থার্মালটেক তাদের ভিউ এবং কোর সিরিজের অনেক ভাল মানের কেসিং অফার করে। তাদের প্রত্যেকটি কেসিং কারো থেকে কোন কিছু কম অফার করে না। তাই এই বাজেটে কেসিং সাজেস্ট করতে আমাদের একটু বেগ পোহাতে হয়েছে।

কিন্তু এই কেসিঙের স্পেশাল ও ইউনিক লুক এবং ফিচারের কথা চিন্তা করেই আমাদের সাজেশন Thermaltake View 28 কেসিংটি। এছাড়াও এতে রয়েছে ভারটিকাল জিপিউ মাউন্ট সাপোর্ট যা এই বাজেটের কোন কেসিঙ্গেই চোখে পরবে না। এর দাম পরবে ৫৩০০ টাকা। তবে ভিউ সিরিজের ৫ থেকে ৬ হাজারের মধ্যে যে কোন মডেল নিলেও আপনারা ঠকবেন না।

Budget: 7000 BDT

Model: BitFenix Enso TG

Price: 7000 BDT

৬ থেকে ৭ হাজার টাকার বাজেটে আপনারা বিভিন্ন কোম্পানির টেম্পারড গ্লাস কেসিং পাবেন যাদের ইন্টারনাল ফিচার সব একই থাকবে। কিন্তু এই বাজেটে আমাদের সাজেশন হচ্ছে বিটফিনিক্সের এনসো টিজি কেসিং। এটিকে সিলেক্ট করার আমাদের একটাই কারণ আর তা হল ফ্রন্ট প্যানেল আর জিবি যা আপনি নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন যে কোন আর জিবি কন্ট্রোলিং সফটওয়্যার দিয়ে। তবে এটি স্পেশালি আসুসের অরা সিঙ্ক সারটিফাইড। এই কেসিং আপনারা পাবেন সাদা এবং কালো এই দুটি কালারে।

এই চেসিস আসবে ২ টি ১২০ মিমি. এর ফ্যানসহ এবং যে কোন টিজি চেসিসের মত পিএসইউ শ্রাউড তো রয়েছেই। এটি আপনি পাবেন ৭০০০ টাকায়।

Budget: 8000 BDT

Model: Phanteks Eclipse P400S

Price: 7800 BDT

এই বাজেটে আমরা অনেক বেশি কম্পিটিশনের দেখা পেয়েছি। আমরা যে কেসিংটি সিলেক্ট করেছি তার দাম আমরা শুরুতে ভেবেছিলাম ৮৫০০ টাকার উপরে থাকবে কিন্তু সৌভাগ্যবশত ৮ হাজার টাকার নিচেই আমরা এটির সন্ধান পেয়ে যাই আর তা হল এক প্রকারে বলতে গেলে বাংলাদেশের জাতীয় মিড টাওয়ার কেসিং PHANTEKS Eclipse P400S।

 

বিউটি সিমপ্লিফাইড এই কথাটি যদি কোন কিছুর ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হয় তাহলে তা এই কেসিংটির ক্ষেত্রেই সত্যি। সিম্পল এলেগেন্ট লুক, কোন কিছুকে ওভারফিচারড করা হয় নি এখানে। ভেতরের ডিজাইনও একদম সিম্পল এবং কোন ফিচার ও স্পেসের কমতি রাখা হয় নি।

এটি আপনারা বিভিন্ন ধরণের কালার কম্বিনেশনে পাবেন। Eclipse P400S পাওয়া যাবে ৭৮০০ টাকায় এবং নির্দ্বিধায় বলা যায় দাম অনুযায়ী এটা বিশ্বের অন্যতম বেস্ট কেসিং।

Budget: 10000 BDT

Model: NZXT S340 Elite

Price: 8300 BDT

এবার আসা যাক ৮ থেকে ১০ হাজার টাকার বাজেটে। আর এই বাজেটে একেবারে চোখ বন্ধ করে যে মডেলের কেসিঙের নাম সবার মুখে চলে আসে তা হচ্ছে NZXT S340 Elite।

৩৬০ মিমি. সাপোর্ট এবং ভারটিকাল জিপিউ মাউন্ট ছাড়া বাকি যত ধরণের সাপোর্ট কল্পনা করা সম্ভব সব পাবেন এই কেসিঙে। এমনকি ফ্রন্ট প্যানেলে ভিআর হেডসেটের জন্য দেয়া হয়েছে HDMI 2.0 পোর্ট যা কানেক্ট করা যাবে আপনার সিস্টেমে থাকা জিপিউর সাথে। এছাড়া সর্বচ্চো ২৮০ মিমি. রেডিয়েটর সাপোর্ট, গ্রেট কেবল ম্যানেজমেন্ট সাপোর্ট, স্লিক লুক এবং প্রিমিয়াম ফিলের কারণে এই বাজেটে প্রায় সব কনজুমারের পছন্দ NZXT S340 Elite Casing টি।

বাংলাদেশে আপনারা এটি পাবেন ৯৫০০ টাকায় এবং এটি পাওয়া যাবে ফুল ব্ল্যাক, ব্ল্যাক/রেড, ব্ল্যাক/ব্লু এবং পিউর হোয়াইট এই ৪ টি কালারে।

Model: In-Win 305 ATX

এই বাজেটে আমাদের দ্বিতীয় পছন্দ হচ্ছে In-Win এর 305 ATX Casing। আনকম্প্রোমাইজড সেন্স অফ বিউটি এই কথাটিকে মিথ্যা প্রমাণ করে নি ইন উইন।

ভেতরের ইন্টিরিওর ডিজাইনকে যেমন দেয়া হয়েছে ইউনিক লুক তেমনি ফ্রন্ট প্যানেলকে করা হয়েছে সম্পূর্ণ এলেগেন্ট। পিউর সাদা প্যানলের ডানে কাঠের সুন্দর আই/ও প্যানেল যা দেখতে একদম এক্সকুইজিট লাগে।

বাংলাদেশে এটি আপনারা পাবেন ৯ হাজার টাকায়। আর আমার জানামতে এটির ফুল ব্ল্যাক ভার্শনও আছে তবে তা নিতে রেকমেন্ড করব না।

Budget: 10000+ BDT

১০ হাজার টাকা উপরের দামে যারা কম্পিউটারের জন্য চ্যাসিস নেয়ার চিন্তা করছেন তাদের সিস্টেমকে অবশ্যই প্রিমিয়াম হিসেবে ধরে নেয়া যায়। আর বাজারে অনেক প্রিমিয়াম চ্যাসিস রয়েছে যা অনেক কিছু অফার করে। তাই এই ক্ষেত্রে আমরা নির্দিষ্ট বাজেটে নির্দিষ্ট চ্যাসিস অফার না করে বরং বাংলাদেশে এভেল্যাবল থাকা ব্র্যান্ডগুলো থেকে কিছু কেসিং সিলেক্ট করে আপনাদের সাজেস্ট করছি। এদের মধ্যে যে কোন কিছু নিলেই আমরা আশা করছি আপনাদের প্রিমিয়াম সিস্টেমের প্রিমিয়াম লুক বজায় থাকবে। কোথায় পাওয়া যাবে এবং দাম জানার জন্য ভিডিও চেক করুন অথবা বাটনে ক্লিক করুন।

Corsair

Corsair Crystal 470X RGB

Corsair Crystal 570X

Phanteks

Phanteks Enthoo Evolv ATX

Cooler Master

HAF H500P

Cosmos C700P

Cougar

Cougar Conquer

Thermaltake

View 71

Core P90

Core P5 Snow Edition

Conclusion

আমাদের বায়িং গাইডে আমরা কখনোই বলি না আমাদের সিলেক্ট করা কম্পোনেন্ট হচ্ছে সবচেয়ে বেস্ট, যদিও মিস্টেকেনলি ৮৫০০০ টাকার বায়িং গাইডের ভিডিওতে মুখ ফসকে ‘বেস্ট’ শব্দটি বের হয়ে গিয়েছিল। আমাদের বায়িং গাইড মূলত আপনাদের জন্য সাজেশন হিসেবে কাজ করে। কারণ, দিন শেষে আপনারা নিজের কষ্টার্জিত ইনকাম দিয়েই প্রোডাক্ট কিনছেন। তাই আমরা চাই আপনারা যেন সব সময় খরচের পরে সবচেয়ে বেস্ট প্রোডাক্টটি পান।

আর আপনারা চাইলে পড়ে আসতে পারেন আমাদের গ্রাফিক্স কার্ড বায়িং গাইড ২০১৮