আমাদের কাছে অনেক সময় রিকুয়েস্ট আসে বিভিন্ন বাজেটে নর্মাল কাজ করার জন্য, গেম খেলার জন্য, প্রফেশনাল কাজের জন্য অথবা ট্রেভেলিঙ্গের জন্য ভালো ল্যাপটপ সাজেস্ট করার। কিন্তু একই বাজেটে বিভিন্ন ব্র্যান্ডের সেইম ফিচারের ল্যাপটপ থাকার কারণে এক্সাক্ট মডেল রেকমেন্ড করা মাঝে মাঝে সম্ভব হয়ে উঠে না। আর এক এক জনের টেস্টও হয় এক এক রকম। তাই যারা ল্যাপটপ কেনা নিয়ে কনফিউশনে ভুগছেন তাদের কথা চিন্তা করে আপনাদের জন্য আজ আমরা নিয়ে এসেছি বাংলা ল্যাপটপ বায়িং গাইড ২০১৯। আপনি যদি আগামি রোজার ঈদের আগে ল্যাপটপ কেনার পরিকল্পনা করে থাকেন তাহলে এই বায়িং গাইড হচ্ছে আপনার জন্য। রিসার্চ ও ভয়েসে আমি সিফাত আর স্বাগতম জানাচ্ছি পিসি বিল্ডার বাংলাদেশ ইউটিউব চ্যানেলে।

শুরু করার আগে আপনাদের ল্যাপটপের বাজেটের ক্যাটাগরি সম্পর্কে ধারণা দিয়ে দেই। ল্যাপটপের বাজেটকে আমার মতে মোট চার প্রকারে ভাগ করা যায়। প্রথম বাজেট ৪০ হাজার টাকা পর্যন্ত, এরপর মিড রেঞ্জ যেখানে ৪০ থেকে ৬০ হাজার টাকা বাজেট থাকে, এরপর ৬০ থেকে ৮০ হাজার টাকার লাইট প্রফেশনাল রেঞ্জ আর সবশেষে ৮০ হাজার টাকার উপরে গেমিং ও পিউর প্রফেশনাল ল্যাপটপ ক্যাটাগরি। গেমিং ল্যাপটপকে আবার আপনারা তিন ভাগে ভাগ করতে পারেন। এন্ট্রি লেভেল গেমিং যেখানে বাজেট থাকবে এক লাখ দশ হাজার টাকার নীচে, এরপর হচ্ছে মিড রেঞ্জ গেমিং যার প্রাইস রেঞ্জ এক লাখ সত্তুর হাজার টাকা পর্যন্ত এবং এর উপরের রেঞ্জের ল্যাপটপগুলো হচ্ছে সম্পূর্ণ প্রিমিয়াম লেভেলের ল্যাপটপ।

টাইটেল দেখেই বুঝতে পারছেন আজকে হচ্ছে ভিডিওর প্রথম পর্ব। আজ মূলত গেমিং ল্যাপটপ ছাড়া বাকি সবকিছুর বাজেট রেঞ্জ কভার করা হবে। গেমিং ল্যাপটপ বায়িং গাইড আমাদের পরবর্তী কোন এক ভিডিওতে আসবে। শুরু করে দেই আমাদের বায়িং গাইড। তবে বলে রাখা ভালো, আমাদের রেকমেন্ড করা এক্সাক্ট মডেল না নিলেও অন্যান্য মডেলে আপনারা কাছাকাছি ধরণের স্পেক্স পাবেন। সকল রেকমেন্ডেড মডেলগুলোর স্পেসিফিকেশন ও কোথায় পাওয়া যাবে তা জানতে নীচের ডেসক্রিপশনের লিংক ক্লিক করতে পারেন।

প্রথমে আসা যাক ২০ হাজার টাকার বাজেট রেঞ্জে। এই বাজেটের নীচে ভালো ল্যাপটপ আশা করাটা বোকামি। এই বাজেটে আপনারা পাবেন ইন্টেলের এটম অথবা সেলেরন প্রসেসর, ২ জিবি র‍্যাম ও ৫০০ জিবি লো কোয়ালিটি হার্ডডিস্ক অথবা ৩২/৬৪ জিবি এস এস ডি। এগুলো তৈরি করা হয়েছে ইন্টারনেট ব্রাউজ করা বা ভিডিও দেখার জন্য, আর কিছুই নয়। এই বাজেটে আমাদের রেকমেন্ডেশন হচ্ছে i-Life Zed Air H মডেলটি। এর দাম হচ্ছে ১৯,৯৯৯ টাকা।

i-Life Zed Air H কিনুন এখান থেকে

২৫ হাজার টাকার বাজেট রেঞ্জে আপনারা পাবেন ইন্টেল অথবা এ এম ডির ডুয়াল কোর প্রসেসর, চার জিবি র‍্যাম এবং ৫০০ জিবি হার্ডডিস্ক। ভাগ্য ভালো থাকলে এক টেরাবাইট হার্ডডিস্কও পেতে পারেন। এই বাজেটে আমাদের রেকমেন্ডেশন হচ্ছে Dell Inspiron 15-3573 মডেলটি। এর বর্তমান দাম ২৪৫০০ টাকা।

Dell Inspiron 15-3573 কিনুন এখান থেকে

৩০ হাজার টাকার বাজেট রেঞ্জ যদি বিবেচনা করা হয় তাহলে এখানে পাবেন ইন্টেলের পেন্টিয়াম অথবা এ এম ডির লো পাওয়ারের চার কোরের প্রসেসর। র‍্যাম চার জিবিই থাকছে, আর মডেল ভেদে স্টোরেজ পাবেন ৫০০ জিবি অথবা এক টেরাবাইট। এই বাজেটে রেকমেন্ড করছি Asus X407MA ল্যাপটপটি। এর দাম ২৯৫০০ টাকা।

Asus X407MA কিনুন এখান থেকে

এবার আসা যাক ৩৫ হাজার টাকা বাজেট রেঞ্জে। এই বাজেট থেকেই মূলত পেন্টিয়াম প্রসেসর বাদ, এখন আপনারা পাবেন Core I3 প্রসেসর। কিন্তু র‍্যাম ও হার্ডডিস্ক রয়ে যাবে আগের মতই ৪ জিবি ও ১ টেরাবাইট। এই এক টেরাবাইটের ট্রেন্ড গেমিং ল্যাপটপের আগ পর্যন্ত প্রায় সব ল্যাপটপেই পাবেন। ৩৫ হাজার টাকায় আমাদের রেকমেন্ডেশন Acer Aspire A315-51 মডেলটি। এর দাম ৩৪ হাজার ৫০০ টাকা।

Acer Aspire A315-51 কিনুন এখান থেকে

৪০ হাজার টাকা হচ্ছে অনেকটা বাংলাদেশের ল্যাপটপ কেনার জাতীয় প্রাইস রেঞ্জ। ৪০ ও ৪৫ হাজার টাকার বাজেট রেঞ্জ হচ্ছে এরকম, আপনি একটি ফিচার চাইলে আপনাকে আরেকটি ফিচার সেক্রিফাইস করতে হবে। আপনার বাজেট যদি ৪০ হাজার টাকা হয়ে থাকে তাহলে আমাদের রেকমেন্ডেশন হচ্ছে ASUS VivoBook 15 X505BP AMD A9-9420। বেশ লম্বা নাম, কিন্তু এর মধ্যে আপনারা পাচ্ছেন ২ জিবি ডেডিকেটেড এ এম ডি জিপিউ।

ASUS VivoBook 15 X505BP AMD A9-9420 কিনুন এখান থেকে

আর যদি বাজেট বাড়িয়ে ৪৫ হাজার টাকা করতে পারেন তাহলে নিতে পারেন Acer Aspire A515-51G 8th Gen i3 মডেলটি। এর দাম পরবে ৪৪ হাজার টাকা। এর মধ্যে রয়েছে এনভিডিয়ার ২ জিবি ডেডিকেটেড জিপিউ যা এ এম ডির থেকে ভালো।

 

Acer Aspire A515-51G কিনুন এখান থেকে

৫০ হাজার টাকা বাজেট রেঞ্জ থেকে শুরু হয় Core I5 প্রসেসরের ল্যাপটপের স্টার্ট। এর নীচেও হয়ত পেতে পারেন কিন্তু তা হবে অনেক পুরোন জেনারেশনের। এই রেঞ্জে আমাদের সাজেশন HP 14-bs117tx যাতে রয়েছে 8th gen I5 ও ২ জিবি এ এম ডি গ্রাফিক্স। দাম হচ্ছে ৫০০০০ টাকা।

HP 14-bs117tx কিনুন এখান থেকে

৫৫ হাজার টাকার বাজেটে আপনি চার জিবি ও আট জিবি দুই সাইজের র‍্যামের ল্যাপটপ পাবেন, তবে আমরা হাইলি রেকমেন্ড করব আট জিবি র‍্যাম ভার্শনের মডেল নেয়ার জন্য। এই ক্ষেত্রে হয়ত মাইনর কিছু দিক থেকে সেক্রিফাইস করতে হতে পারে কিন্তু এক্সট্রা যে চার জিবি র‍্যাম পাচ্ছেন তা অনেক। আর এই বাজেট থেকে অবশ্যই ডেডিকেটেড জিপিউ ছাড়া ল্যাপটপ নেয়া রেকমেন্ডেড নয়। ৫৫ হাজার টাকায় আমাদের রেকমেন্ডেড মডেল হচ্ছে Lenovo IP320 I5 8th gen ভার্শন। এই ল্যাপটপটি চয়েজ করার কারণ হচ্ছে এতে আপনারা পাচ্ছেন ৮ জিবি র‍্যাম, ২ জিবি ডেডিকেটেড Nvidia MX150 জিপিউ যা ডেস্কটপ GT 1030 এর সমান প্রায় ও ২ টেরাবাইট হার্ডডিস্ক। এর বর্তমান দাম হচ্ছে ৫৫ হাজার টাকা। আর এটি কিনলে ৬০ হাজার টাকার মধ্যে থাকা অন্য ল্যাপটপ কেনা লাগবে না।

Lenovo IP320 I5 ভার্শন কিনুন এখান থেকে

এবার আসা যাক ৬০ থেকে ৭০ হাজার টাকা বাজেটের মধ্যে। এই বাজেট হচ্ছে ল্যাপটপ ক্রেতাদের জন্য সবচেয়ে কনফিউজিং বাজেট। অনেক ল্যাপটপেই অনেক ফিচার পাওয়া যায় কিন্তু কোন এক দিক দিয়ে কিছু মেজর ফিচার বাদ পরে যায়। তাই আমরা চেষ্টা করেছি এই বাজেটে আপনাদের দুটো বেটার ল্যাপটপ সাজেস্ট করার যা কিনলে বাজেট অনুযায়ী আপনাদের মেজর কিছু বাদ পরবে না। বাজেট যদি ৬৫ হাজার টাকার মধ্যে হয় তাহলে নিতে পারেন Asus X542UN 8th Gen i5 ভার্শন। এটির দাম ৬৩৫০০ টাকা। এতে পাবেন ৮ জিবি র‍্যাম ও ৪ জিবি ডেডিকেটেড এনভিডিয়া গ্রাফিক্স।

Asus X542UN 8th Gen Core i5 কিনুন এখান থেকে

বাজেট যদি বাড়িয়ে ৭০ হাজার টাকার আশে পাশে নিতে পারেন তাহলে আমাদের রেকমেন্ডেড মডেল হচ্ছে Asus VivoBook S510UN ল্যাপটপটি। এর দুটি ভার্শন রয়েছে, একটিতে এক টেরাবাইটের হার্ডডিস্কের পাশাপাশি ১২৮ জিবি এস এস ডি, অপরটিতে ২৫৬ জিবি। ১২৮ জিবি ভার্শনের দাম হচ্ছে ৬৭ হাজার টাকা, ২৫৬ জিবি ভার্শনের দাম হচ্ছে ৬৯ হাজার টাকা। তবে এই মডেল দুটিতে ২ জিবি ডেডিকেটেড জিপিউ পাচ্ছেন।

Asus VivoBook S510UN 128 GB ভার্শন কিনুন এখান থেকে

Asus VivoBook S510UN 256 GB ভার্শন কিনুন এখান থেকে

সবশেষে আসা ৭০ থেকে ৭৫ হাজার টাকার বাজেট রেঞ্জে। আপনাদেরকে শুরুতে বলেছিলাম যে ৮০ হাজার টাকার নীচে গেমিং ল্যাপটপ নেই। কিন্তু হঠাত করেই আমাদের চোখে পরে যায় Acer Nitro AN515-52 59E4 গেমিং ল্যাপটপটি। ৮০ হাজার টাকার নীচে এটি আপনাকে বেশ ভালোই স্পেক্স অফার করছে। ফুল এইচডি আইপিএস ডিসপ্লের পাশাপাশি পাচ্ছেন ডেস্কটপ গ্রেডের 4GB GTX 1050 ti জিপিউ। সাথে রয়েছে গিগাবিট ইথারনেট। Acer Nitro AN515-52 59E4 এর বর্তমান দাম ৭৬ হাজার টাকা।

Acer Nitro AN515-52 59E4 কিনুন এখান থেকে

তো এই ছিল আমাদের ল্যাপটপ বায়িং গাইডের প্রথম পর্ব। গেমিং ল্যাপটপ বায়িং গাইড নিয়ে শীঘ্রই আশা করছি আমাদের ইউটিউব চ্যানেলে ভিডিও আসবে। আপনারা কি ল্যাপটপ ব্যবহার করছেন বা কেনার পরিকল্পনা করছেন তা ভিডিওর কমেন্টে জানাতে ভুলবেন না। আপনারা সবাই ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন আর সঙ্গে থাকুন পিসিবি বিডির সাথে।