গেমিং না প্রফেশনাল? মনিটর কেনা নিয়ে কনফিউশনে আছেন? আমাদের রিভিউ ইউনিট টি হতে পারে আপনার জন্য পার্ফেক্ট সমাধান, চলুন দেখে আসা যাক ডেল এর U2515H মনিটরটি কতদূর আপনার চাহিদা পূরণে সক্ষম।

ডিজাইন

ডেল U2515H এর কালার হচ্ছে ব্ল্যাক এবং সিলভার। বডি এবং স্ট্যান্ড তৈরি হাই কোয়ালিটি পলিপ্রপেলিন দিয়ে। স্ট্যান্ডটি যথেষ্ট স্ট্যাবল। খুবই শক্তিশালী কন্সট্রাকশন ওভারল। বডিটিকে দেয়া হয়েছে ম্যাট ব্ল্যাক ফিনিশ, এর পেছনেই রয়েছে ডেল এর শাইনি সিলভার লোগোটি। সবমিলিয়ে মনিটরটিকে একটা করর্পোরেট লুক দেয়া হয়েছে। এতে দেয়া আছে আলট্রা থিন বেজেল(৭.৯ এমএম), টেস্ট করে দেখা গেছে মাল্টিমনিটর সেটআপে যা ভার্চুয়ালি ইনভিসিবল।

স্ট্যান্ডটি হাইট adjustable এবং tilt ও সুইভেল সাপোর্ট করে। প্রফেশ্নালদের জন্য একটি অতি প্রয়জনিয় ফিচার দেয়া আছে এই মনিটরটিতে, ইচ্ছে করলেই মুহুর্তেই আপনি এটাকে Potrait মোডে শিফট করতে পারবেন। ওয়েব ডেভল্পার অথবা গ্রাফিকস ডিজাইনার জানবেন যে বিভিন্ন টুলস এবং সফটওয়্যার ব্যাবহারের ক্ষেত্রে এই পোর্টেট মোড কতটা ইঊজফুল। সবমিলিয়ে বেশ গুডলুকিং ফর্মাল একটি মনিটর।

পোর্টস

চলুন দেখে নেয়া যাক আইও পোর্টস গুলোকে। প্রথমেই শুরু হয়েছে পাওয়ার PORT দিয়ে, তারপরে দুইটি এইচডিএমআই যেটা এমএইচএল সাপোর্টেড, এরপরেই তিনটি ডিসপ্লে পোর্ট দেখা যাচ্ছে, তারমধে একটা মিনি, এবং একটি হচ্ছে ডিসপ্লে পোর্ট আউট। এরপরেই অডিও পোর্ট, সবশেষে চারটি USB 3.0. আবার মনিটরের পেছনের দিকে আরেকটি usb 3.0 ইনক্লুড করা হয়েছে মোবাইল এবং বিভিন্ন ডিভাইস চার্জিং এর জন্য যেটি অলওয়েজ অন থাকে। সামনের দিকে পাওয়ার এবং কুইক এক্সেস মেনুর জন্য দেয়া আছে পাঁচটি টাচ সেনসিটিভ বাটন। যেটি বেশ কনভিনিয়েন্ট একটি লোকেশন। পিছনের আইও পোর্টগুল ঢেকে রাখার জন্য একটা কভার দেয়া রয়েছে। ডেল মোটামুটি সবধরনের প্রয়জনিয় পোর্ট এতে ইনক্লুড করেছে।

প্যানেল

ডেল ইউ২৫১৫এইচ মনিটরে দেয়া আছে AH IPS প্যানেল। ২৫ ইঞ্চ এই প্যানেলটির রেজুলুশন হচ্ছে ২৫৬০ বাই ১৪৪০ পিক্সেল যেটা চলবে 60 হার্জে। প্যানেলটি হচ্ছে ট্রু ৮বিট প্যানেল, যেটা ১৬.৭৮ মিলিয়ন কালার জেনারেট করতে সক্ষম। এখানে কভার করা আছে ৯৯% SRGB কালার গামুট। CCFL ব্যাক্লাইটের জায়গায় ব্যাবহার করা হয়েছে WLED ব্যাকলাইট এর অর্থ হচ্ছে white ব্যাকলাইট। একদিক দিয়ে এটা যেমন নিশ্চিত করছে লো পাওয়ার কনসাম্পশন, আরেকদিক দিয়ে CCFL ব্যাকলাইটের তুলনায় ELED ব্যাকলাইটের কালার গামুট অনেক বেশি স্ট্যান্ডার্ড। ২৫ ইঞ্চ প্যানেলের মধ্যে ১৪৪০ পিক্সেল হওয়ার কারনে পাচ্ছেন চমতকার পিক্সেল ডেনসিটি। এর DPI হচ্ছে ১১৭ যা একাধারে ফটো এডিটিং, ভিডিও এডিটিং এবং গেমিং এর জন্য সুপেরিয়র। মনিটরটি টেস্ট করা হয়েছে বিভিন্ন পর্যায়ে, বিশেষ করে এর কালার, এককথায় যা অসাধারণ। এছাড়া বেশ কয়েকটি প্রি সেটিংস দেয়া আছে এর মধ্যে আমরা টেস্ট করেছি স্ট্যান্ডার্ড প্রিসেট মোডে, কালার হচ্ছে খুবই ভিভিড। কালার একুরেসির ক্ষেত্রে এটাই বোধহয় আমাদের দেখা সেরা মনিটর।

এর এক্সেলেন্ট  ব্ল্যাক ডেপথের কারনে এই প্যানেলটি মেইন্টেইন করছে ইম্প্রেসিভ স্ট্যাটিক কন্ট্রাস্ট।

মুভি দেখার অভিজ্ঞতা মাইন্ডব্লোয়িং। 16:9 এস্পেক্ট রেশিও ভিডিও এডিটিং এর ক্ষেত্রে খুবিই সহায়ক। ভিউয়িং এঙ্গেল নিয়েও কমপ্লেন করার কোন উপায় নেই। আবার প্যানেলের উপর একটি হাল্কা কোটিং থাকার কারনে চলন্ত অবস্থায় কোন রিফ্লেকশন ই দেখা যায় না।

ভিডিও

ভিডিও দেখার ক্ষেত্রে কালার একুরেসি চোখে পড়ার মত। ডার্ক সিন গুলো বেশ স্পষ্ট, যেটা এমনকি ভিডিও এডিটিং এর ক্ষেত্রেও বেশ সহায়ক। একটা কথা না বললেই নয়, শুধু মাত্র প্রফেশনালরাই নয় মুভিখোরদের জন্যেও এই মনিটরটি হয়ে উঠতে পারে এক্সট্রিম্লি এডিক্টিভ। এছাড়া দৈনন্দিন ব্যাবহারে টেক্সট গুলো খুবই শার্প এবং ইউটিউব ভিডিও গুলো কোন সেটিংস ছাড়াই খুবই সুন্দরভাবে দেখা যায়।

গেমিং

এখন আসি গেমিং নিয়ে, এই মনিটরটির রেসপন্স টাইম নরমাল মোডে ৮এমএস। কিন্তু ডেল এবার এতে ইনক্লুড করেছে ‘ফাস্ট মোড’ নামে একটি নতুন অপশন, যেটি রেসপন্স টাইম কমিয়ে নিয়ে আসবে ৬এমএস এ যেটা গেমিং এর জন্য ভাল কাজে আসবে। রেসপন্স টাইম নিয়ে একটি সাধারন পরীক্ষা চালানো হয়েছে PixperAn এ chase টেস্ট দিয়ে। পিক্সপারএন এর পরীক্ষার রেজাল্টটি ছিল ডিসেন্ট, তবে আমরা মেইন পরীক্ষা চালাব গেমিং এর ভিতর দিয়েই। গেমিঙয়ে আসার আগে কিছু সেটিংস নিয়ে কথা বলি। গেমিং এক্সপেরিয়েন্সকে ভাল করার জন্য কিছু সেটিংস আমরা এপ্লাই করেছিলাম। প্রথমে কালার অপশনে আমরা দিয়েছি প্রিসেট মোডে গেম মোড। কালার ফরম্যাট ছিল RGBতেই। ডিসপ্লেতে ডায়নামিক কন্ট্রাস্ট আমরা অন করেছি, এর ঠিক নিচেই রেসপন্স টাইমে আমরা দিয়েছি ফাস্ট রেসপন্স, এর নিচে ডীপী ১.২ এনাবল করে দিয়েছি, এক্ষেত্রে লক্ষ্য রাখতে হবে গ্রাফিক্স কার্ডে ডিসপ্লে পোর্ট ১.২ সাপোর্টেড কিনা। বাকি আর সেটিংস এ কোথাও হাত দেয়া হয়নি। ৮বিট কালার ডেপথের কারনে গেমিং এর এক্সপেরিয়েন্স এই মনিটরে অসাধারণ। ফাস্ট মোডএ অনেক সাহায্য করেছে গেমিং এর সময়। মনিটরটি খুবই ব্রাইট, এক্ষেত্রে বরং কিছুটা ব্রাইটনেস কমাতে হয়েছে গেম মোডে। সবশেষে এটাই বলা যায়, ডেলের এই গর্জিয়াস প্যানেলে গেমিং এর এনভায়রনমেন্ট পুরোপুরি অনুভব করা সম্ভব।

তো শুরুতে যা বলছিলাম, সেম মনিটর প্রফেশনাল এবং গেমিং চাহিদা পূরণে সক্ষম কিনা। DELL U2515H প্রত্যেকটা পরীক্ষায় সফল, বলা যায় এটি গেমার এবং প্রফেশনালদের জন্য পার্ফেক্ট একটি সল্যুশন। চোখ বন্ধ করে রেকমেণ্ড করছি ডেল U2515H ফর বোথ প্রফেশ্নালস আন্ড গেমারস।

তাহলে কেমন লাগল আমাদের রিভিউ করার এই মেথড, আপনাদের ফিডব্যাক আমাদের সাহায্য করবে আরও ভাল কাজ করার জন্য।