28 C
Dhaka
Monday, July 4, 2022

একটি ইন্টারেস্টিং ব্যাটল রয়্যাল গেম Apex Legends Mobile !

- Advertisement -

মোবাইল গেমিংয়ে ব্যাটল রয়্যালের স্বাদ সবার আগে নিয়ে আসে ফ্রিফায়ার। ২০১৭ সালে ফ্রিফায়ার আসলেও কিন্তু ২০১৮ সালে পাবজি মোবাইল গেমটি ব্যাটল রয়্যাল ধাঁচকে মোবাইলে বেশ জনপ্রিয় করে তোলে। তারপর বাকিটা ইতিহাস। একে একে অনেক নতুন ব্যাটল রয়্যাল গেম মোবাইলে রিলিজ হতে থাকে। ফোর্টনাইট, কল অফ ডিউটি, ওয়ারফেস ইত্যাদি বড় বড় পিসি টাইটেলেরও মোবাইল ভার্সন চলে এসেছে। আর সেই ধারাবাহিকতায় এপেক্স লেজেন্ড পিসি গেমেরও মোবাইল ভার্সন এপেক্স লেজেন্ড মোবাইল ২ সপ্তাহ আগে বিশ্বব্যাপী রিলিজ পেয়েছে।

এপেক্স পিসি ভার্সনের থেকে মোবাইল ভার্সন বেশ কিছু দিক থেকে একদমই আলাদা আর অন্যান্য ব্যাটল রয়্যাল গেমসের থেকে তো আলাদাই!
এপেক্স লেজেন্ড একটি ব্যাটল রয়্যাল গেমস। যেখানে প্লেয়েবল ক্যারেক্টারদেরকে ‘লেজেন্ডস’ বলা হয়। প্রতিটি লেজেন্ডস এর নিজস্ব কিছু ইউনিক এবিলিটি রয়েছে তাদের সমন্বয় করে ব্যাটলে নামতে হয়। প্রতিটি টিম ৩ জন করে গঠিত হয়, আর তাই ৩ জন আলাদা লেজেন্ডস নিয়ে আপনাকে গেমটি খেলতে হবে। পাবজি আর কল অফ ডিউটি মোবাইলে Solo খেলার অপশন থাকলেও এই এপেক্স লেজেন্ডস মোবাইল গেমটিতে সলো খেলার কোনো অপশনই নেই। আপনাকে অবশ্যই বাধ্য হয়েই ৩ জনের টিম হিসেবে গেমটিকে খেলতে হবে।

- Advertisement -

অন্যান্য ব্যাটল রয়্যাল গেমের মতোই ম্যাপে নামার পর আপনাকে সবার আগে নিজের জন্য লুট সংগ্রহ করতে হবে। লুটের মধ্যে অস্ত্র, গুলি, মেডিসিন ইত্যাদি রয়েছে। গেমে জেতার জন্য সর্বশেষ দল হিসেবে টিকে থাকতে হবে। গেমে মরে যাওয়ার ২টি ধাপ রয়েছে। অন্যান্য গেমের মতোই শত্রু আপনাকে কুপোকাত করার পর আপনি নকডাউন হয়ে মাটিতে পড়ে যাবেন, আপনার টিমমেট আপনাকে নকডাউনরত অবস্থায় রিভাইভ করতে পারবে, এভাবে রিভাইভ হবার পর আপনি আপনার সকল অস্ত্র ও লুট আগের মতোই পাবেন।

তবে নকডাউন হবার ১ মিনিটের মধ্যে আপনার টিমের কেউ যদি আপনাকে রিভাইভ না করতে পারে তাহলে আপনি অস্থায়ী ভাবে মরে যাবেন। তার ১ মিনিটের মধ্যে আপনার লুট বক্সে এসে আপনার বিকন (ডগট্যাগ) আপনার টিমের কেউ যদি সংগ্রহ করে নিকটবর্তী রিভাইভ জোনে এসে স্ক্যানের মাধ্যমে আপনাকে আবারো গেমে ফিরিয়ে আনতে পারবে। তবে এক্ষেত্রে একদম শুরুর মতোই খালি হাতে আপনাকে আবারো খেলা শুরু করতে হবে।

- Advertisement -

আর পিসি ভার্সনের মতোই গেম যদি আপনি সোনালি রংয়ের শিল্ড খুজে পান তাহলে টিমমেটের সাহায্য ছাড়াই নকডাউন হয়ে পড়লে আপনি নিজেকে নিজেই রিভাইভ দিতে পারবেন।

ইউনিক গেম কেন?

যারা পিসি ভার্সনে গেমটি খেলেন তারা ইতিমধ্যেই জানেন যে এপেক্স লেজেন্ডস একটি বেশ কমপ্লিকেটেড বা জটিল একটি গেম। পিসিতেই খেলার জন্য আপনাকে গেমটি সম্পর্কে অনেক কিছুই জেনে নিতে হবে না হলে গেমে আপনি ডিসএডভানটেজে থাকবেন। আর সেটাই মোবাইলের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। পিসির সেই কঠিন গেমটিই এবার আপনি মোবাইলের স্ক্রিণে খেলছেন, যেখানে মাউস-কিবোর্ডে গেমটি খেলা একটু কঠিন সেখানে মোবাইলের টাচ স্ক্রিণে ভাচুর্য়াল বাটনে খেলতে কেমন লাগবে তাহলে বুঝুন?

- Advertisement -

আপনাকে একই সাথে ক্যারেক্টারকে নড়াতে হবে, ডানে বামে তাকাতে বা Swipe করতে হবে, এনিমিকে এইম করতে হবে, শ্যুট করতে হবে, আপনার স্কিল বাটনে সময়মত প্রেস করতে হবে। আর তাই এটা বেশ জটিল একটি গেম।
এই গেমটি আপনি কখনোই দুই আঙ্গুলে খেলে কুলাতে পারবেন না। এটা নুন্যতম ৪ আঙ্গুলের গেম।

আর এই গেমের Time to Kill রেট অন্যান্য ব্যাটল রয়্যাল গেমগুলোর তুলনায় খুবই বেশি আর অস্ত্রের ম্যাগাজিন সাইজ বেশ ছোট। মানে একজনকে মারতে আপনাকে বেশ সময় নিয়ে পরিশ্রম করতে হবে সাথে সাথে আপনার অস্ত্রের ম্যাগাজিন সাইজও ছোট হওয়ায় বেশ কয়েকবার রিলোড করেই একটি শত্রুকে কুপোকাত করতে পারবেন। আর তাই এটি একটি বেশ ইউনিক একটি গেম।

আর হ্যাঁ মোবাইল ভার্সনে TPP ক্যামেরা ভিউতে খেলার সুযোগও রেখেছে ইলেক্ট্রনিক আর্টস যেটা এপেক্স পিসি ভার্সনে নেই!

সিস্টেম রিকোয়ারমেন্টস

এপেক্স লেজেন্ডস অনান্য ব্যাটল রয়্যালের গেমগুলোর মতো নয়, যেটা তার সিস্টেম রিয়োরমেন্টসেও প্রযোজ্য। সাইজে এই গেম ৩/৪ জিবির মধ্যে থাকলেও এটা কিন্তু বেশ গ্রাফিক্স খাদক একটি গেম। ভালো অপটিমাইজেশন গেমে এখনো আসেনি। অপটিমাইজেশন ভালো থাকার জন্য ১৬ গিগাবাইট সাইজের কল অফ ডিউটি মোবাইল গেমটিকে আপনি ৩ জিবি র‌্যামের অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে খেলতে পারবেন।

অফিসিয়াল তথ্যমতে গেমটি খেলার জন্য আপনাকে অ্যান্ড্রয়েড ৬.০, সাথে ৩ জিবি র‌্যাম আর স্ন্যাপড্রাগন ৪৩৫ / কিরিন ৬৫০ / হেলিও পি২০ কিংবা এক্সিনস ৭৪২০ প্রসেসর ওয়ালা অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস লাগবে। আর অন্যদিকে অ্যাপলের আইওএস ১১, A9 প্রসেসর আর ২ জিবি র‌্যাম ওয়ালা আইফোনে আপনি গেমটি খেলতে পারবেন।

তবে মাত্র 30FPS গতিতে গেমটি লো সেটিংয়ে খেলতে হলেও আপনার স্ন্যাপড্রাগন ৭২০ কিংবা মিডিয়াটেক জি৯৫, ৮ জিবি র‌্যাম ওয়ালা ডিভাইস দরকার। আমি রিয়েলমি ৮ ডিভাইসে মাত্র নরমাল মোড পর্যন্ত আনলক পেয়েছি।

বেসিক টিপস

পোষ্টটিতে বেসিক কিছু টিপস আমি দিয়ে দিচ্ছি, পোষ্টটিতে আপনাদের ভালো সাড়া পেলে এপেক্স লেজেন্ডস মোবাইল গেমের টিপস এ্যান্ড ট্রিক্সস নিয়ে আলাদা ভাবে ধারাবাহিক পোষ্ট সামনে আমি করবো।

নতুন লেজেন্ড

মোবাইল ভার্সনের জন্য Exclusive ভাবে নতুন একটি লেজেন্ডস যোগ করা হয়েছে। এর নাম হচ্ছে Fade । যা আপনি পিসি ভার্সনে পাবেন না। নতুন লেজেন্ডস হওয়ায় আপনার টিমমেট এবং শত্রুর অনেক টিমেই এই লেজেন্ডসকে আপনি পাবেন। তাই ভালো রেজাল্ট করতে হলে এই লেজেন্ডস এর ক্যাপাবিলিটিগুলো সম্পর্কে ইউটিউব থেকে জেনে নিন।

সেন্সিটিভিটি

এই গেমে আপনার সবথেকে বড় শত্রু হচ্ছে গেমের সেন্সিটিভিটি। আপনি গেমে প্রো হতে চাইলে কিংবা বড় র‌্যাংকে ম্যাচে টিকে থাকতে হলে সবার আগে গেমের সেন্সিটিভিটি নিজের আয়ত্বে আনতে হবে। তা না হলে গুলি করবেন একদিকে সেটা লাগবে গিয়ে আরেক দিকে। উল্লেখ্য যে, FPP এর থেকে TPP মোডের কনট্রোল সেন্সিটিভিটি বেশ সহজ।

লেজেন্ডস

গেমে প্রতিটি লেজেন্ডস তাদের নিজের দিক থেকে সেরা। আপনাকে প্রথমে যেকোনো একটি লেজেন্ডে মাস্টার হতে হবে, যেকোনো একটি লেজেন্ডসকে আপনার মূল ক্যারেক্টার হিসেবে বেছে নিয়ে তাকে নিয়ে পরপর গেম খেলতে থাকুন। নিজের মূল লেজেন্ডস বাছাই করতে হলে পাবলিক টিডিএম বা নরমাল ব্যাটল রয়্যালে আলাদা লেজেন্ডস নিয়ে খেলে দেখুন।

অস্ত্র

সবসময় আপনি একটি স্নাইপার ও একটি ক্লোজ রেঞ্জ অস্ত্র ক্যারি করবেন। স্নাইপারকে সঠিক ভাবে কাজে লাগাতে হলে আপনার চাই স্নাইপার স্কোপ যা ম্যাপে আপনাকে খুঁজে নিতে হবে। ক্লোজ রেঞ্জ হিসেবে SMG কিংবা অটোমেটিক পিস্তল ব্যবহার করতে পারেন। তবে ভুলেও শটগান ব্যবহার করবেন না। কারণ এই গেমে শটগান ব্যবহার করা বেশ কঠিন।

Cargo Bot

এই জাতীয় গোলাকার উড়ন্ত জিনিস আপনি ম্যাপে উড়তে দেখবেন। নিল, হলুদ, পিং আর লাল এই কয়েকটি রংয়ে ড্রোনটি ৩ সেকেন্ড পরপর পাল্টাতে থাকবে। লাল রং আসলে ড্রোনটিকে আপনি শ্যুট করে নিচে ফেলে সেটাকে আবারো শ্যুট করে বেশ চমৎকার লুট পেতে পারেন, শুধুমাত্র লাল ড্রোনে একটি ভল্ট কী থাকবে। এই ভল্ট কি ম্যাপের কয়েকটি ভল্ট লোকেশনের দরজা খুলতে আপনাকে সাহায্য করবে। ভল্ট রুমে গেমের সর্বচ্চ লেভেলের লুট দেওয়া থাকবে ।

র‌্যান্ডম টিম

এপেক্স লেজেন্ড মোবাইল একটি টিম ভিত্তিক গেম। তাই অবশ্যই আপনি নিজের দুজন বন্ধুর সাথে সবসময় চেষ্টা করবেন গেমটি খেলতে। তবে কোনো কারণে র‌্যান্ডম টিমমেটদের সাথে খেললে সবার আগে খেয়াল করবেন তারা কি ধরণের হিরো নিচ্ছে। একটি আদর্শ টিমে একজন টিম লিডার, একজন স্কাউট আর একজন সার্পোট হিসেবে থাকে। টিম লিডারের কাজ হচ্ছে টিমের পেছনে থেকে টিমকে ম্যাচে গাইড করে নিয়ে যাওয়া। টিম লিডার হিসেবে Bloodhound, Caustic, Mirage ইত্যাদি লেজেন্ড বেশ কাজে দেবে। ব্যক্তিগত ভাবে এই রোলে আমি সবসময় Bloodhound কে নিয়ে থাকি, কারণ এর ট্যাক্টিক্যাল পাওয়ার (এরিয়া স্ক্যান) সবথেকে কাজে দেয়। এছাড়াও পাথ ফাইন্ডারের মতো Bloodhound ম্যাপ বিকনগুলো স্ক্যান করতে পারে ।

স্কাউট রোলের কাজ হচ্ছে সবসময় টিমের সামনে থেকে টিমকে ম্যাচের আশেপাশের পরিবেশ সম্পর্কে ধারণা দেওয়া। স্কাউট রোলেও আপনি Bloodhound কে ব্যবহার করতে পারবেন। এই রোলে Fade, Octane, Wraith মান যে হিরোদের মুভমেন্ট স্পিড বেশি যেগুলো নিয়ে খেললে বেশ সুবিধা পাবেন। আর সবশেষে থাকে সার্পোট। সার্পোটদের রোল একটি ম্যাচে বেশ গুরুত্বপূর্ণ। টিমকে ইনটেন্স গানফাইটে সার্পোট দেওয়া, নকডাউন টিমমেটকে রিভাইভ দেওয়া, গুরুত্বপূর্ণ লুট লোকেট করা ইত্যাদি একজন সার্পোটের কাজ। এই রোলে Lifeline, Caustic, Gibraltar, Bangalore বেশ কাজের।

FPP বনাম TPP

এখানে একটি সমস্যা আছে। অন্য গেমের থেকে এটা একটু আলাদা। কারণ এপেক্স লেজেন্ড মোবাইলে FPP আর TPP মোডের র‌্যাঙ্ক সিস্টেম একদমই আলাদা। মানে TPP মোডে ডায়মন্ডে গেলে আপনাকে FPP মোডে প্রথম র‌্যাঙ্ক থেকে শুরু করতে হবে। তাই যেকোনো একটি মোড চয়েজ করে খেলুন। তবে প্রফেশনাল ভাবে এই গেমটি খেলতে হলে FPP মোডে খেলার অভ্যাস করুন।

লেজেন্ড পয়েন্টস

এই ফিচারটি মোবাইল ভার্সনে নতুন হিসেবে এসেছে। এই ফিচারটি আপনি পিসিতে পাবেন না। লেজেন্ডের আলাদা করে কিছু এবিলিটি এখানে আনলক করে ব্যবহার করতে পারবেন। তবে মনে রাখতে হবে যে এটা শুধুমাত্র নরমাল ব্যাটল রয়্যালে কাজ করবে, এটা র‌্যাঙ্ক মোডে কাজ করবে না।

পরিশিষ্ট

মোবাইল ব্যাটল রয়্যাল দুনিয়ায় এপেক্স লেজেন্ডস মোবাইল বেশ ইউনিক কিছু আপনাকে উপহার দেবে। গেমটি সঠিক ভাবে উপভোগ করতে হলে প্রথমেই আপনাকে গেমটির কনট্রোল স্কিমকে নিজের আয়ত্বে আনতে হবে, তারপর লেজেন্ডদের এবিলিটি এবং সঠিক সময়ে সঠিক অস্ত্র ব্যবহার করতে পারলেই গেমটির স্বাদ আপনি নিতে পারবেন। যেহেতু টাইম টু কিল এখানে বেশি আর অস্ত্রের ম্যাগাজিন সাইজও বেশ কম তাই হিরোগিরি করে একাই পুরো স্কোয়াডের বিরুদ্ধে লড়তে যাবেন না যেন!
পোষ্টটিতে আপনাদের ভালো সাড়া পেলে এপেক্স লেজেন্ডস মোবাইলের বিস্তারিত টিপস এন্ড টিক্সস নিয়ে সামনে আরো কয়েকটি পোষ্ট নিয়ে আসবো। আজ এ পর্যন্তই। আর হ্যাঁ আরেকটি কথা, গেমটি প্রচুর চার্জ খাবে, পাবজির থেকেও গেমটি অনেক বেশি চার্জ খায়।

- Advertisement -
Fahad Hossain
Fahad Hossain
Fahad is a freelance writer and editor with nearly 10 years' experience in Bangla Technology Blogging who, while not spending every waking minute selling himself to websites around the world, spends his free time writing. Most of it makes no sense, but when it does, he treats each article as if it were his Magnum Opus - with varying results.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here