২০১৯ সালে বেশ কয়েকটি ভিডিও গেমের সিকুয়্যার আসছে। এদের মধ্যে সবগুলোই স্বাভাবিক ভাবে গেমারদের মন জয় করবে না এবং সবগুলোতেই এখন গেমাররা ইন্টারেস্ট দেখাচ্ছে না। যেমন পিসিতে রিলিজ না পেয়েও  The Last of Us গেমটির সিকুয়্যাল Part II এর জন্য এখন থেকেই অনেক গেমাররা মুখিয়ে রয়েছেন এবং অন্যদিকে জিটিএ ৫ এর পর রকস্টার এবার বিশাল ওপেন ওয়ার্ল্ড ম্যাপের Red Dead Redemption II কিছুদিনের মধ্যেই আসছে; এসকল ভিডিও গেমের উপর এখন থেকেই গেমারদের হাইপিং শুরু হয়ে গিয়েছে। ভিডিও গেমের সিকুয়্যাল বেশ ধাঁধাময় একটি জিনিস। অনেক সময় সিকুয়্যালের মাধ্যমেই গেমস সিরিজগুলো জনপ্রিয় হয়ে থাকে আবার অনেক সময় খারাপ সিকুয়্যালের জন্য পুরো সিরিজকেই দুর্ভোগ পোহাতে হয়। তবে সামনের বছরে যে সকল ইন্টারেস্টিং ভিডিও গেমের সিকুয়্যাল আসছে সেগুলো আজকের পোষ্টে আমি সংক্ষেপে দিয়ে দিচ্ছি। এদের মধ্যে কোনটির জন্য আপনি অপেক্ষা করছেন সেটা পোষ্টের নিচের কমেন্ট বক্সে জানাতে পারেন:

Tom Clancy’s The Division 2

ভিডিও গেমের ডিজাইনিংয়ে সবসময়ই টম ক্ল্যান্সি সিরিজের নাম থাকবে। সিরিজের সাম্প্রতিক গেমসগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য টাইটেলগুলো হচ্ছে Ghost Recon: Wildlands, The Division এবং Rainbow Six: Siege । ২০১৫ সালের ডিভিশন গেমটির সিকুয়্যাল দ্যা ডিভিশন ২ আসছে ২০১৯ সালে। ফ্যানরা আশা করছেন The Division 2 গেমটি Ubisoft এর একটি হলমার্ক কোয়ালিটির গেমস হতে পারবে। গেমটি পুরোপুরি একটি অনলাইন গেম হতে যাচ্ছে এবং গেমটিতে একজন প্লেয়ার ইন্টারনেটের মাধ্যমে অন্য প্লেয়ারদের সাথে Co-operate ভাবে গেমটির বিভিন্ন টাস্ক সম্পন্ন করতে পারবে।  একশন রোল ধাঁচের অনলাইন এই গেমটি ২০১৯ সালের মার্চ মাসে মুক্তি পাবার কথা রয়েছে।

Mass Effect Andromeda সিকুয়্যাল

অরিজিনাল  Mass Effect সিরিজটি কিন্তু একটি মাস্টারপিস ছিলো এবং সিরিজটি Electronic Arts এর একটি অন্যতম প্রিমিয়াম ভিডিও গেম ছিলো। অনেকেই Mass Effect কে গত প্রজন্মের অন্যতম সেরা গেমস সিরিজ হিসেবে দেখে থাকেন। কিন্তু ২০১৭ সালের Mass Effect Andromeda গেমটি তেমন ব্যবসা সফল হতে পারেনি এবং অনেকেই মনে করছেন এই গেমটি সিরিজের সবথেকে বাজে গেম। সিরিজের আগের গেমসগুলোর থেকে Mass Effect Andromeda একদমই আলাদা ছিলো এবং গেমটিতে প্লেয়ারকে নিজে ক্যারেক্টার নিজেই তৈরি করে নিতে হতো এবং নিজের স্টোরিলাইনও নিজেকেই সেট করে নিতে হতো। ২০১৯ সালে Mass Effect Andromeda এর সিকুয়্যাল আসছে। এবার দেখার বিষয় সিকুয়্যাল গেমটি গেমারদের মন জয় করতে পারে কিনা।

The Last Of Us Part II

সনির প্লেস্টেশন ৩ কনসোল যুগের একদমই শেষ দিকে The Last Of Us গেমটি মুক্তি দেওয়া হয়। এবং গেমটির কাহিনীচক্র এবং গেমপ্লের জন্য বেশ জনপ্রিয় হয়ে যায় গেমটি। পরবর্তীতে বর্তমান প্রজন্মের প্লেস্টেশন ৪ কনসোলের জন্যেও গেমটির Remastered সংষ্করণ বের করা হয় আর স্বভাবতই সেটাও একটি ব্যবস্যা সফল গেমে চলে আসতে সক্ষম হয়। ২০১৩ সালে মুক্তি পাওয়া এই গেমটির  রেটিংই এর সম্পর্কে কথা বলে, গেমটির IMDb রেটিং হচ্ছে 9.8/10, Metacritic রেটিং হচ্ছে 95% এবং GameSpot গেমটিতে 9/10 রেটিং দিয়েছে। পরবর্তীতে বিভিন্ন সময় গেমটির সিকুয়্যাল আসতে পারে বলে গুজব শোনা গেলেও অবশেষে ২০১৬ সালের PlayStaiton Experience কনফারেন্সে গেমটির সিকুয়্যাল নিশ্চিত করা হয়। গেমটির সিকুয়্যাল The Last Of Us Part II ২০১৯ সালে বাজারে আসার কথা রয়েছে এবং অনেক গেমারই এই গেমটির জন্য মুখিয়ে রয়েছেন।

Need For Speed Payback সিকুয়্যাল

২০১৭ সালের নিড ফর স্পিড গেম Payback এর সিকুয়্যাল আমরা ২০১৯ সালে পেতে যাচ্ছি। পেব্যাক গেমটিতে pay-to-win লুট বক্স ধাঁচের ফিচার থাকায় পুরো EA কোম্পানিকে নিয়ে সাম্প্রতিক সময়ে ট্রল করা হয়েছে। এছাড়াও পেব্যাক গেমটি অনেকেই কাছে ইন্টারেস্টিং লাগে নি তাই গেমটি তেমন ব্যবসা সফল হয়ে উঠতে পারেনি। দেখা যায় এবার সিকুয়্যাল দিয়ে EA সিরিজে সমতা আনতে পারে কিনা।

Doom: Eternal

বিশ্বের একদমই প্রথম দিকের ফাস্ট পারসন শুটার গেম ছিলো এই Doom সিরিজটি। বিশেষ করে আমার মতো যারা ছোটবেলায় DOOM এবং DOOM 2 খেলেছেন তারাই গেমটির ঐতিহাসিকতা বুঝতে পারবেন। ২০০৪ সালে গেমটির তৃতীয় সংষ্করণও বেশ ব্যবস্যাসফল হবার পর অনেক বছর পরে যখন ২০১৬ সালে গেমটির রিবুট DOOM আসলো তখনও কিন্তু গেমারদের কাছে গেমটি বেশ জনপ্রিয়ই হয়েছে। কারণ রিবুট গেমটিতেও কয়েকটি ফ্রেশ এবং ইউনিক এক্সপেরিয়েন্স ছিলো যা বর্তমান যুগের FPS গেমে অহরহ দেখা যায় না। যারা ৯০ দশকের ক্ল্যাসিক শুটার গেম স্টাইলকে ভালোবাসেন তাদের জন্য মর্ডান যুগের গ্রাফিক্স নিয়ে DOOM গেমটি ২০১৬ সালে বাজারে মুক্তি পায়। এবার আগামী বছর মানে ২০১৯ সালে ডুম সিরিজের রিবুটের সিকুয়্যাল Doom: Eternal আসছে। আর সিরিজে প্রায় অনেকদিন পর এই গেমটির পটভূমি হবে planet Earth । দেখা যাক পৃথিবীতে এরা আমাদেরকে কি কি চমক দিতে পারে।

Beyond Good And Evil 2

২০০৪ সালের Beyond Good And Evil গেমটি কিন্তু মূলত action adventure ধাঁচের গেম বলা হলেও এখানে বেশ কয়েকটি স্টাইল এবং Genre এর গেমপ্লে রয়েছে। কিন্তু গেমটি একদমই কর্মাশিয়াল ভাবে ফ্লপ হবার কারণে এর কোনো সিকুয়্যাল আসবে না ধরে নেওয়াই হয়েছিলো। তবে হঠাৎ করেই গুজব শোনা যাচ্ছিলো যে প্রায় ৬ বছর ধরে Beyond Good And Evil গেমটির একটি সিকুয়্যাল বানানো হচ্ছে, আর সর্বশেষে ২০১৭ সালের E3 ইভেন্টে সিকুয়্যালটিকে আনুষ্ঠানিকভাবে উন্মোচন করা হয়। সিরিজের প্রথম গেমটির ব্যর্থতাকে শক্তিতে পরিণত করে Beyond Good And Evil 2 গেমটির স্টোরিলাইন ও গেমপ্লেতে অনেক চমক আনছেন নিমার্তা প্রতিষ্ঠান UBIsoft

Rage 2

Doom, Quake এর মতো ক্ল্যাসিক FPS গেমস এবং বর্তমানের হিট সিরিজ Wolfenstein 3D গেমগুলোর নির্মাতা প্রতিষ্ঠান id Software এর আরেকটি FPS গেম ছিলো ২০১১ সালের  Rage । তবে কোম্পানির অনান্য FPS গেমের মতো এই রেইজ গেমটি তেমন ব্যবসাসফল হয় নি তবে গেমটি থেকে বেশ কিছু নতুন ফিচার নিয়ে এবার কোম্পানিটি প্রায় ৮ বছর ২০১৯ সালে গেমটির সিকুয়্যাল  Rage 2 আনতে যাচ্ছে। আর গুজব রয়েছে যে  Rage 2 গেমটি হবে অনেক “বিশাল” সাইজের গেম।

Ghost Recon Wildlands 2

UBIsoft এর প্রায় সকল গেমসগুলোর মধ্যে লক্ষ্য করলে একটি বিষয়ের মিল খুঁজে পাবেন। তা হচ্ছে এই কোম্পানির প্রায় ৯৫% গেমই হচ্ছে ওপেন ওয়ার্ল্ড FPS বা TPS গেম। আর গেমসগুলোতে বড়সড় ম্যাপ, Lookout towers, চমৎকার কালেক্টেবলস এবং সাইড কোয়েস্ট থাকবে। মানে Assassins Creed আর Farcry গেম সিরিজের মধ্যে UBIsoft এর এই উপদানগুলো লক্ষ্য করলে দেখবেন যে এগুলো কিন্তু সবই প্রায় একই! মানে প্রায় একই ধাঁচের উপাদান দিয়ে Ubisoft বিভিন্ন গেম বানাচ্ছে এমন একটি খ্যাতি ইতিমধ্যেই কোম্পানিটি পেয়ে গিয়েছে। আর ২০১৭ সালের  Ghost Recon Wildlands গেমটিও তার থেকে ব্যতিক্রম নয়।  Ghost Recon Wildlands গেমটি ফ্লপ না হলেও অন্যদিকে ব্যবস্যাসফল হতে পারেনি। ২০১৯ সালে গেমটির সিকুয়্যাল  Ghost Recon Wildlands 2 বাজারে আসছে আর মনে হয় এই গেমটিতেও “একই ধাঁচের” উপাদান নিয়ে আসবে Ubisoft !

Mirror’s Edge Catalyst সিকুয়্যাল

২০০৮ সালের অরিজিনাল Mirror’s Edge গেমটি দিয়ে EA এবং Dice গেমিং মার্কেটে নতুন গেমপ্লে স্বাদ আনার চেষ্টা করেছিলো। আর ততটা ব্যবসাসফল না হবার পরেও গেমটির সিকুয়্যাল ২০১৫ সালের Mirror’s Edge Catalyst বের হয় এবং দুভার্গ্যবশত বিভিন্ন টেকনিক্যাল ইস্যু এবং গেমপ্লে অতিরিক্ত পরিমাণের কঠিন করার কারণে Mirror’s Edge Catalyst গেমটিও ব্যবসাসফল হতে পারেনি। পর পর ২টি গেম ফ্লপ খাবার পরেও যখন আরেকটি সিকুয়্যাল আসছে বলে খবর পাওয়া যায় তখন কোম্পানির চেষ্টা সম্পর্কে আর নতুন করে কি বলার আছে? ২০১৯ সালে Mirror’s Edge Catalyst এর একটি ফলো আপ গেম আসার কথা রয়েছে।

এই ছিলো ২০১৯ সালে ইন্টারেস্টিং কিছু গেমস সিরিজের সিকুয়্যাল গেমস। এদের মধ্যে কোনটির জন্য আপনি অপেক্ষা করছেন সেটা নিচের কমেন্ট বক্সে জানিয়ে দিতে পারেন। মনে রাখবেন আজকের পোষ্টটি কিন্তু ২০১৯ সালের সকল সিকুয়্যাল গেমকে নিয়ে করা হয় নি বরং গেমারদের জন্য ইন্টারেস্টিং কিছু গেম নিয়ে আজকের পোষ্টটি সাজানো হয়েছে। তাই তো আজকের পোষ্টে Mount And Blade II: Bannerlord, No Man’s Sky 2, Evil Genius 2, Freedom Planet 2, Agents Of Mayhem 2 ইত্যাদি গেমসগুলো অর্ন্তভুক্ত করা হয়নি।

 

Avatar
Fahad is a freelance writer and editor with nearly 10 years' experience in Bangla Technology Blogging who, while not spending every waking minute selling himself to websites around the world, spends his free time writing. Most of it makes no sense, but when it does, he treats each article as if it were his Magnum Opus - with varying results.