ওপেন ওয়ার্ল্ড গেমস সবারই পছন্দের হয়ে থাকে, বিশেষ করে জিটিএ সিরিজের কথা তো না বললেই নয়। কিন্তু আমার মতো অনেকেরই ইচ্ছে ছিলো যদি কেউ ঢাকা সিটি নিয়ে কোনো ওপেন ওয়ার্ল্ড গেম বানাতো! হ্যাঁ এবার আপনার আমার সেই ইচ্ছেটাই পূরণ হতে চলেছে। ঢাকা সিটি নিয়ে ওপেন ওয়ার্ল্ড গেম “আগন্তুক” আসছে যাচ্ছে। আর আরো বড় চমক হচ্ছে এই গেমটি বানাচ্ছেন বাংলাদেশী ডেভলপার টিম! মানে বাংলাদেশীদের হাতে বানানো বাংলাদেশী ওপেন ওয়ার্ল্ড গেম! আগন্তুক একটি থার্ড পারসন ওপেন ওয়ার্ল্ড গেম যেটা নির্মাণ করছে M7 Productions এবং Attrito। গেমটিতে কাল্পনিক ঢাকাকে আপনি পাবেন পটভূমি হিসেবে। পুরো ঢাকা শহরকেই ভিডিও গেমের দুনিয়ায় কার না দেখতে ভালো লাগবে! বিশেষ করে পুরোনো ঢাকায় গেলে আপনার মনে হবে যে আপনি আসলেই পুরোনো ঢাকায় এসেছেন, গুলশানে গেলে মনে হবে আপনি গুলশানেই রয়েছেন আবার সদর ঘাটে চলে গেলে লঞ্চ; বুড়িগঙ্গা নদী দেখে আপনার আসলেই মনে হবে যে গেমে আপনি সদর ঘাঁট অঞ্চলে চলে এসেছেন।

আজ সকালে গেমটির রিভিল গেমপ্লে লঞ্চ হয়েছে তো চলুন আগে দেখে নেই গেমটির সেই রিভিল গেমপ্লে:

গেমটি একটি থার্ড পারসন ভিক্তিক ওপেন ওয়ার্ল্ড “একশন-এডভেঞ্চার” গেম হতে যাচ্ছে। অর্থ্যাৎ গেমটিতে একটি লোমহর্ষক কাহিনী থাকছে। আপাপত গেমটির ডেভলপার টিম স্টোরিলাইন সম্পর্কে খুব একটু আমাকে না বললেও আমাকে এটা বলা হয়েছে যে, গেমটি কাল্পনিক ঢাকা শহরের আদলে নির্মিত হচ্ছে। গেমটির কাহিনী ২০১৪ সালের ঢাকার গ্যাং যুদ্ধ নিয়ে গঠিত হয়েছে, যেখানে গেমটির প্লেয়ার চরিত্রটি ঢাকায় এসে একটি গ্যাং এর সাথে জড়িয়ে যায় এবং গ্যাং যুদ্ধ নিয়ে চরিত্রটির জীবন ধীরে ধীরে পাল্টে যেতে থাকে। অর্থ্যাৎ গেমটিতে আমরা Gang War ভিক্তিক একটি আকর্ষণীয় স্টোরিলাইন পেতে যাচ্ছি।

গেমটিতে আমি ব্যক্তিগতভাবে সদর ঘাটকে দেখে বেশ এক্সসাইটেড হয়ে রয়েছি, কারণ আগে কখনো সদর ঘাটকে ভিডিও গেমে আমি দেখি নি। গেমটি যেহেতু কাল্পনিক ঢাকা শহরের উপরে তৈরি করা হচ্ছে তাই গেমে Dhaka শহরকে Dhacca হিসেবে উপস্থাপন করা হয়েছে। আর বাংলাদেশী ডেভলপার হিসেবে গেমটির গ্রাফিক্স আসলেই প্রশংস্যার যোগ্য, গেমটি বানানো হচ্ছে “Unity” ইঞ্চিণ দিয়ে, সে হিসেবেও গেমটির গ্রাফিক্স দেখার মতো। তবে মনে রাখতে হবে যে গেমটি এখনো নিমার্ণাধীন অবস্থায় রয়েছে, মানে গেমটি এখনো Very early stages of development এ রয়েছে।

গেমটির ওপেন ওয়ার্ল্ড হলেও গেমে আপনি RPG স্টাইল একটু বেশি দেখতে পাবেন। গেমটিতে ১টি ক্যারেক্টার নিয়েই আপনি খেলতে পারবেন (অনেকেই বলেছেন যে GTA V এর মতো মাল্টি ক্যারেক্টার হবে কিনা)। আর আরেকটি প্রশংসার বিষয় হচ্ছে, আপনি গেমটিতে যা যা দেখছেন; মানে গেমটির ডিজাইন থেকে শুরু করে মিউজিক, ভয়েসওভার ইত্যাদির সবকিছুই করা হয়েছে বাংলাদেশে, নির্মাতারা কোনো থার্ড পার্টির কিছু ব্যবহার করেন নি, সব কিছুই নিজেরাই তৈরি করেছেন। মানে গেমটিতে থার্ড পার্টির কোনো কিছু মডিফাই করে জোড়াতালি দিয়ে বানানো হয়নি।

গেমটির নির্মাণ কাজ শুরু হয় ৩ বছর আগে, তবে অফিসিয়াল ভাবে গেমটির কাজ শুরু হয় গত বছরের শেষের দিকে। উল্লেখ্য যে, গেমটির নির্মাতা প্রতিষ্ঠান M7 Production একটি “অভিজ্ঞ” প্রতিষ্ঠান। তাদের নিমার্তা টিমও বেশ অভিজ্ঞ। এই গেমের আগে তারা NFS এর উপর অনুপ্রাণিত হয়ে একটি রেসিং গেম বানিয়েছেন “Unbounded”।

Unbounded গেমের কাজ শেষের পরই আগন্তুক নিয়ে বিস্তারিত ভাবে কাজ শুরু করা হয়। নির্মাতারা আমাকে জানিয়েছেন যে শীঘ্রই তারা গেমটির সিস্টেম রিকোয়ারমেন্ট, গেমটির রিলিজ ডেট এবং আরো বেশি তথ্য তাদের ফেসবুক পেজে দিয়ে দেবেন। তবে এটুকু আমি বলতে পারি যে, গেমটি যেহেতু বাংলাদেশীরা বানাচ্ছেন; তাদের মাথায় অবশ্যই গেমটি “পটেটো” পিসিতে চালানোর বিষয়টিও তাদের মাথায় রয়েছে। আর আমাকে বলা হয়েছে যে গেমটির মূলত তারা পিসি প্লাটফর্মে বানানোর চেষ্টায় রয়েছেন, PS4 ভার্সনও আসতে পারে তবে গেমটির কোনো মোবাইল সংষ্করণ আসবে না বলে আমাকে নিশ্চিত করা হয়েছে।

আর গেমটি আলফা টেস্ট, ক্লোজ বেটা এবং বেটা টেস্টিংও করা হবে পূর্ণাঙ্গ রিলিজের আগে, তবে কবে করা হবে সেটা শীঘ্রই নিমাতাদের ফেসবুক পেজে বলে দেওয়া হবে।

গেমটির ভয়েস কাস্ট নিয়ে অনেকেই সোশাল মিডিয়া অভিযোগ করছেন। তাদের উদ্দেশ্যে নিমার্তারা বলেছেন যে গেমটির কাজ এখনো শেষ হয়নি, একদম early স্টেজে রয়েছে তাই ভয়েস আপনাদের কাজে এমন মনে হচ্ছে, ফাইনাল রিলিজের আগে অবশ্যই স্টুডিওতে ভয়েস এ্যাক্টগুলোকে কাস্ট করা হবে। আর মিউজিক হিসেবে গেমটিতে নিজস্ব OST সহ গাড়ীর রেডিওতে বিভিন্ন আলাদা গানও থাকবে।

M7 Production এবং Attrito কে পিসি বিল্ডার বাংলাদেশের পুরো টিম থেকে অভিনন্দন জানাচ্ছি আর গেমটি নিয়ে শুভ কামনাও জানাচ্ছি, একদম শুন্য থেকে গেমটির কাজ শুরু করা হয়েছিলো। বাংলাদেশ নিয়ে বাংলাদেশীদের গেম এই প্রথম এবং সেটাও বেশ ভালো হয়েছে। গেমটি আজ (১৫ নভেম্বর) ইন্ডিয়ার একটি ইভেন্টে (Unite India 2019) প্রিমিয়ার হবে তবে আজ সকালেই ইউটিউব এবং ফেসবুকে গেমটির প্রিমিয়ার হয়ে গেল!

পোষ্টটি নির্মাণে আমাকে একান্ত ভাবে সহায়তা করেছেন M7 Production এর CEO মেহেরাজ মারুফ ভাই। গেমটির নিমার্তরা হচ্ছেন:

 

বি:দ্র: গেমটি নিয়ে ইতিমধ্যেই ফেসবুকে অসংখ্য ভূয়া পেজ এবং গ্রুপ সৃষ্টি করা হয়েছে। আপনারা গেমটি নিয়ে শুধুমাত্র M7 এর অফিসিয়াল পেজ https://www.facebook.com/AgontukTheGame কেই ফলো করতে বলা হয়েছে, ভূয়া পেজ থেকে আপনাদের বিকাশে টাকা সেন্ড করার ঘটনা ইতিমধ্যেই দেখা যাচ্ছে  তাই এগুলো থেকে একটু সাবধান থাকতে নির্মাতাদের থেকে বলা হয়েছে।

 

Avatar
Fahad is a freelance writer and editor with nearly 10 years' experience in Bangla Technology Blogging who, while not spending every waking minute selling himself to websites around the world, spends his free time writing. Most of it makes no sense, but when it does, he treats each article as if it were his Magnum Opus - with varying results.