মাত্র ১০ দিন আগে মুক্তি পেয়েছে কল অফ ডিউটি মোবাইল গেমটি। আর ইতিমধ্যেই ১০০ মিলিয়নের বেশি ডাউনলোড হয়েছে গেমটি। যেটা পাবজি এবং ফোর্টনাইট মোবাইল গেমের রেকর্ডকে ছাড়িয়ে গিয়েছে। নতুন এই গেমটিতে রয়েছে বেশ মজাদার টাইম কিলার ফিচার। কিন্তু গেম নতুন হওয়ায় গেমটিতে রয়েছে বেশ কিছু বাগস আর ইতিমধ্যেই গেমটিও ধীরে ধীরে হ্যাকারদের সংখ্যাও বেড়ে চলেছে। কিন্তু আশার কথা এই যে, গেমটির সিকুরিটি সেক্টরটি Tencent কোম্পানি Activision কে দিয়ে দিয়েছে, তাই বলা চলে যে CODM গেমটিতে আমরা পিসি লেভেলের এন্টি-হ্যাকিং সিকুরিটি পেয়ে যাবো।

আজ আমি CODM গেমটির কিছু টিপস এন্ড ট্রিক্সস নিয়ে এসেছি। প্রথম পর্বে গেমটির বিস্তারিত রিভিউ আর শেষে হালকা কিছু বেসিক টিপস দিয়েছিলাম, আজকের পোষ্টে গেমটিতে কিভাবে এডভান্স হবেন সে ব্যাপারে আলোচনা করা হবে।

১) প্রথম কথা হচ্ছে CODM গেমটি তেমন কোনো গ্রাফিক্স Hungy গেম নয়। আমি ২০১৫ সালের ডিভাইসেও আরামসে গেমটি খেলতে পারি (যদিও BR মোডে একটু ল্যাগ দেয়!) গেমটি সম্পূর্ণ রূপে মাল্টিপ্লেয়ার ভিক্তিক গেম হওয়ায় গেমের দুটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে FPS Speed এবং Network Ping । ৫০-৬০ পিং এর উপরে হলে গেমটির মজাই নস্ট হয়ে যায় আর ৩০ এর নিচের FPS পেলে তো কথাই নেই! পিং নির্ভর করবে আপনার নেটওর্য়াড স্পিড এর আপলোড এর উপর। আর FPS নির্ভর করবে আপনার ডিভাইসের উপর। যদি কখনো মনে হয় যে গ্রাফিক্স সেটিংস এর কারণে কম FPS পাচ্ছেন তাহলে আমার মতে গ্রাফিক্স লো করে দিয়ে খেলাই ভালো। হাই গ্রাফিক্সে 25/30 FPS পাবার থেকে লো গ্রাফিক্স 50/60 FPS পান তাহলে লো গ্রাফিক্সই ভালো। FPS ভালো হলে আপনার গেমপ্লে এমনিতেই ধীরে ধীরে Pro হয়ে যাবে। কারণ মাল্টিপ্লেয়ার গেমে FPS matter most!

২) গেমটিতে প্লেয়ার লেভেলের উপর ৮০% অস্ত্র এবং আইটেম নির্ভর করে। গেমটিতে কোনো প্রকার টাকা পয়সা খরচ করতে না চাইলে আপনাকে Player Level 100+ য়ে চলে আসতে হবে অধিকাংশ অস্ত্র এবং আইটেম আনলক করার জন্য। আর আমার মতে র‌্যাঙ্ক মাল্টিপ্লেয়ার খেলার আগে আপনার উচিত প্লেয়ার লেভেল ৫০+ আপ করে নেওয়া। কারণ লো লেভেলে র‌্যাঙ্ক ম্যাচ খেলতে গেলে দেখবেন আপনার থেকে সর্বোচ্চ ১০ লেভেলের বেশি প্লেয়ার Opponent য়ে পড়তে পারে, তাদের কাছে আপনার থেকে ভালো ডিভাইস (FPS) এবং পিং রয়েছে, আর ভালো অস্ত্র ও আইটেমও রয়েছে। তাই র‌্যাঙ্ক আমাদের কাছে বেশ কঠিন মনে হয়ে থাকে।

বি:দ্র: Rank মোডটি খুবই কমপিটিটিভ হয়ে থাকে, তাই যারা একটু একপ্যাক ম্যাচ চান তারা র‌্যাঙ্কে আগে ভাগেই চলে আসতে পারেন, তবে বলে দিচ্ছি যে Veteran 2 কিংবা 3 থেকেই র‌্যাঙ্ক ম্যাচগুলো বেশ কঠিন হতে থাকবে। তবে খেলায় হার জিতের চিন্তা না করলে র‌্যাঙ্ক ম্যাচগুলো খেলে নিয়ে হাত পাকা করে নিতে পারেন।

৩) প্লেয়ার লেভেল ১০০ করতে করতে গেমটির অনেক কিছুই আপনার শেখা হয়ে যাবে আবার এদিকে অধিকাংশ অস্ত্র এবং আইটেমগুলোকে আনলকও করে ফেলতে পারবেন তখন র‌্যাঙ্ক গেম খেলে মজা পাবেন। Player Level 100 করার জন্য ব্যাটল রয়্যাল খেলতে পারেন। ব্যাটল রয়্যাল প্রথম দিকে বেশ সোজা! মনে রাখবেন একটি ব্যাটল রয়্যাল ম্যাচের টপ ৫ পজিশনে থাকতে পারলে ৩টি র‌্যাঙ্ক ম্যাচ জেতার সমপরিমাণ XP পাবেন। মানে ৩টি র‌্যাঙ্ক ম্যাচ জেতার পর যত XP পাবেন তার থেকেও বেশি XP পাবেন যদি ব্যাটল রয়্যালে টপ ১ হন।

৪) ব্যাটল রয়্যালে ক্লাস হিসেবে আমি Ninja ব্যবহার করি। কারণ নিনজা ক্লাসের মূল ফিচার হচ্ছে এখানে পায়ের শব্দ অনেক কম হয়। আর ব্যাটল রয়্যালে সাইলেন্স মুভমেন্ট যে কতটা দরকারি সেটা ইউটিউবে বড় বড় প্লেয়ারদের ভিডিও দেখলেই বুঝতে পারবেন। CODM গেমের অধিাকংশ প্লেয়ারই হচ্ছে বিদেশি, আর তাদের অধিকাংশরাই বড় বড় ভালো হেডফোন ব্যবহার করে। ব্যাটল রয়্যালের ম্যাপের অনেক দূর থেকেও ভালো হেডফোনে সাউন্ড শোনা যায়। অন্য দিকে Hook সিস্টেমটিও আমার বেশ পছন্দের। ব্যাটল রয়্যালের মূল অবজেক্টটিভ হচ্ছে টপ ১ হওয়া, এখানে কিল কতগুলো করেছেন যেটা ফ্যাক্ট নয়। মানে সারভাইব করতে হবে আপনাকে। আমি নিনজা হুক দিয়ে বড় বড় বিল্ডিং বা বড় ট্যাঙ্কির উপরে উঠে গিয়ে 4x / 3x Scope + AR কিংবা সাইলেন্সার যুক্ত স্নাইপার নিয়ে Camp করে থাকি! yes! you need to be a camper to survive!

৫) ব্যাটল রয়্যালে অস্ত্রের কম্বোটাও জানা জরুরী। আমি ShotGun + AR এর কম্বো ব্যবহার করে থাকি। শটগান আমার জন্য মাস্ট! কারণ ব্যাটল রয়্যালের ৭০% এনেমি আমি পেয়েছি শটরেঞ্জে আর Shot Range এর জন্য শটগানের থেকে ভালো কোনো অস্ত্র হয় না, আর শটগানে Striker কে ব্যবহার করুন। মাত্র দেড় সেকেন্ডের মধ্যে ৫/৬টা গুলি বের হবে এর থেকে আর সামনে যেই থাকুন যদি শট লাগাতে পারেন তাহলে তার কেল্লা ফতে যাবে!

৬) Sniper, Rocket Launcher গ্রেণেড লাঞ্চার এগুলোর ব্যবহার করতে না জানলে এগুলোকে পিক না করাই শ্রেয়। বিশেষ করে যারা 30FPS এর নিচে স্পিড পান BR য়ে তারা স্নাইপার না নেওয়াটাই ভালো। তবে আমি সাইলেন্সার পেলে স্নাইপারকে মিস করি না।

৭) ব্যাটল রয়্যালে নেমেই প্রথমে চেষ্টা করবেন যেকোনো অস্ত্রের High Mag আইটেমটি খুঁজে পেতে, তারপর চেষ্টা করবেন scope খুঁজে নিতে। আর আপনি যে স্কোপ নিয়ে খেলতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন সেটাই ব্যবহার করুন, তাহলে দেখবেন BR মোডটি আপনার জন্য ইজি হয়ে গিয়েছে। তাহলে 3x স্কোপ দিয়ে আপনি 4x স্কোপের থেকে ভালো কিল করতে পারবেন।

৮) ব্যাটল রয়্যালে Chip আপগ্রেড টার্মিনাল এবং AirDrop এর মধ্যে কোনটায় আগে যাবেন নিয়ে কনফিউশনে পড়লে আমি বলবো আগে এয়ারড্রপে চলে যান, তবে মনে রাখবেন এয়ারড্রপের আশেপাশে এনিমি থাকার সম্ভাবনা ৯০% হয়ে থাকে।

৯) অবশ্যই আপনার নিজের মতো করে কনট্রোল সেটিংস করে নিবেন। আর সেটা ট্রাই করার জন্য AI প্রাকটিস মোডে সময় দিবেন। যেমন নতুন কোনো অস্ত্র বা স্নাইপার আনলক হলে যেটা নিয়ে তখনই নরমাল বা র‌্যাঙ্কে ঝাপিয়ে পড়া ঠিক নয়।

১০) গেমের প্রতিটি ম্যাপের রয়েছে নিজস্ব Weapon প্রাধান্যতা। কিছু কিছু ম্যাপে আপনি স্নাইপার নিয়ে খেলতে ভালো খেলতে পারবেন, আবার কিছু ম্যাপে হেভি মেশিন গান নিয়ে ক্যাম্প করলে বেশি কিল পাবেন। আবার কিছু ম্যাপে আপনাকে SMG নিয়ে দৌড়ে দৌড়ে Hit and Run এর মতো খেলতে হবে। যেমন আমি Killhouse ম্যাপে স্নাইপার ব্যবহার করি, Crash ম্যাপে SMG ব্যবহার করি , Crossfire ম্যাপে মেশিন গান নিয়ে ক্যাম্পিং করি ইত্যাদি! গেমটিতে আপনি ৬টি ভিন্ন ম্যাপ পাবেন:

Crash – Call of Duty 4: Modern Warfare
Crossfire – Call of Duty 4: Modern Warfare
Killhouse – Call of Duty 4: Modern Warfare
Firing Range – Call of Duty: Black Ops
Hijacked – Call of Duty: Black Ops
Nuketown – Call of Duty: Black Ops
Standoff – Call of Duty: Black Ops 2

১১) মানে হচ্ছে আপনি যদি কল অফ ডিউটি সিরিজটি পিসিতে আগেই খেলে থাকেন তাহলে এই ম্যাপগুলো আপনার পরিচিত হবেই। তবে সমস্যা হচ্ছে কল অফ ডিউটি মোবাইল গেমটিতে আপনাকে নতুন করে ম্যাপগুলো চিনে নিতে হবে, কারণ এর কনট্রোল পিসি ভার্সনের কনট্রোলের থেকে একদমই আলাদা। ভালো FPS আর পিং ছাড়া গেমটিতে Rush – and – kill ভাবে আপনার খেলা বেশ কস্টকর হয়ে পড়বে।

১২) মুভমেন্ট এ মাস্টার হতে হবে আপনাকে। যদি আগেভাগেই র‌্যাঙ্ক ম্যাচ খেলতে চান তাহলে আপনাকে অবশ্যই Move and Shoot বিষয়টি শিখতে হবে। আর এটা এমন একটি বিষয় যেটা আমি আপনাকে এখানে লিখে শেখাতে পারবো না। র‌্যাঙ্ক ম্যাচে মুভ না করে বলদের মতো শ্যুট করতে থাকলে যখন যে এনেমির সাথে কিলশট খাবেন তা বুঝতেও পারবেন না। আর তাই মুভ এন্ড শ্যুট আয়ত্ব করতে প্রথমেই আপনাকে সেটিংস থেকে আপনার প্রেফারেবল সেন্সিটিভি আর কনট্রোল কাস্টমাইজেশন করে নিতে হবে।

১৩) গেমটিতে আপনি ৩ প্রকারের Weapon XP কার্ড পাবেন। আর এগুলোর সৎ ব্যবহার আপনাকে করতে হবে। লেভেল আপের সাথে সাথে যদি নতুন অস্ত্রের উপর আপনার এই কার্ডগুলো খরচ করে ফেলেন তাহলে দরকারী সময়ে অস্ত্র আপগ্রেড করতে গিয়ে ঝামেলায় পড়বেন আপনি। তাই প্রথমে অস্ত্রটি নিয়ে AI প্রাকটিস মোডে চলে আসুন, অস্ত্রটি কেমন সেটা আগে টেস্ট করুন। তারপর না হয় সেটাকে আপগ্রেড করবেন।

১৪) দ্রুত লেভেল আপ করার জন্য ব্যাটল রয়্যাল খেলতে পারেন, BR পছন্দ না হলে Domination কিংবা SND যেটায় স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন সেটা খেলুন। তবে আপনার ফ্রেন্ডস রা প্রো হলে আপনি যেকোনো মোডই খেলতে পারেন, কারণ জেতাটাই মূল কথা এখানে। তবে ফ্রেন্ডস এর সাথে খেলার সময় র‌্যাঙ্কে বা নরমাল ম্যাচে ট্রাই করবেন কম মরতে। কারণ আপনি নুব হলেও আপনার টিম জিতার একটা সম্ভাবনা থাকে যদি আপনি নিজে কম মরে থাকেন, যত কম মরবেন প্রতিপক্ষ টিমের স্কোর ততই কম হবে আর কিল করতে পারলে তো অন্যকথা, তবে আপনি কিল করতে না পারলে চেষ্টা করবেন নিজে কম মরার।

১৫) র‌্যাঙ্ক ম্যাচে অবশ্যই ভালো হেডফোন ব্যবহার করবেন, চেষ্টা করবেন অলওয়েজ Move and Shoot স্কিলটি আয়ত্ব করতে। অর্থ্যাৎ এক স্থানে দাঁড়িয়ে গুলি করার থেকে অস্ত্র তাক করে মুভ করতে করতে গুলি করুন এতে আপনার কিল করার চান্স বহুগুণে বেড়ে যাবে এবং অপর প্লেয়ারের গুলি থেকে বেঁচে থাকতে পারবেন। এছাড়া ক্যাম্প করার সময়েও একই স্থানে বেশিক্ষণ থাকবেন না, Hunter Drone কিংবা যাকে মেরেছেন সে নিজে এসেও আপনাকে পেছন দিক থেকে মেরে ফেলতে পারে।

বর্তমানের সেরা অস্ত্র

কল অফ ডিউটি গেমে আপনাকে ৫টি ভিন্ন ভিন্ন ইনভেনটরি দেওয়া থাকবে যেখানে আপনি ৫টি ওয়েপন এবং সেকেন্ডারি ওয়েপন স্লট পেয়ে যাবেন। আর এগুলোর সৎ ব্যবহার তখনই করা যাবে যখন আপনি জানবেন গেমের কোন কোন অস্ত্রগুলো সেরা। নিচে আমি বর্তমানের সেরা ৫টি অস্ত্রকে দেখিয়ে দিচ্ছি, “বর্তমানের” বললাম কারণ ভবিষ্যৎতে Activition এই অস্ত্রগুলোর Buff বা Nerf করে দিতে পারে।

MSMC – বর্তমানের গেমে সবথেকে সেরা Fire Rate ওয়ালা SMG অস্ত্র হচ্ছে এটি। তাই আপনি যদি হিট এন্ড রান টাইপের প্লেয়ার হয়ে থাকেন তাদের জন্য সেরা ক্লোজ রেঞ্জ অস্ত্র হবে এটি। মনে রাখবেন এটা শুধুমাত্র ক্লোজ রেঞ্জেই আপনি ব্যবহার করতে পারবেন, তাই সে রকম টাইপের প্লেয়ার না হলে এই অস্ত্র ব্যবহার না করাই উত্তম।

DL Q33 – যারা স্নাইপার প্রো রয়েছেন তাহলে এই DL Q33 বেস্ট অস্ত্র হবে। এটি মিডিয়াম এবং লং রেঞ্জে আপনার খুবই কাজে দেবে। তবে উচ্চ র‌্যাঙ্কে এটা দিয়ে ক্লোজ রেঞ্জে শট নেওয়া বেশ কঠিন হয়ে যাবে।

S36 – যারা মেশিন গান নিয়ে ক্যাম্প করতে ভালোবাসেন তাদের জন্য এটি। বর্তমানে গেমটির সেরা LMG অস্ত্র হচ্ছে S36G । আর এই গানটি আনলক করতে হলে আপনাকে ১১০+ লেভেল হতে হবে, এর Recoil বেশ অল্প তাই ফায়ারের সময় বেশ সুবিধা পাবেন।

Type 25 – এটা বর্তমানের সেরা AR ! এটা বেশ দ্রুত ফায়ার করে তাই একে ক্লোজ রেঞ্জেও ব্যবহার করতে পারবেন, এর ডেমেজও বেশ ভালো, Recoil ও কম তাই মিডিয়াম থেকে লং রেঞ্জেও সমস্যা হবার কথা না। আর এটা নিয়ে বেশ জোরে দৌড়াতেও পারবেন। এটা অলরাউন্ডার অস্ত্র হচ্ছে এটি।

AK117 – বর্তমানে গেমের সেরা অস্ত্র হচ্ছে এটি। Type 25 এর থেকে লং রেঞ্জে ভালো সার্পোট আপনি এতে পাবেন। তবে Type 25 এর মতো ক্লোজ রেঞ্জে সুবিধা না পেলেও অভারঅল ভাবে বলতে গেলে AK117 নিয়ে আপনি বেশ ভালো পারফরমেন্স করতে পারবেন।

সেরা এটাচমেন্ট

যেকোনো অস্ত্র থেকে ভালো পারফরমেন্স পেতে হলে আপনাকে অবশ্যই যেটায় এটাচমেন্ট যোগ করতে হবে। আর আমি এখানে কথা বলবো গেমটির সেরা অস্ত্রের এটাচমেন্টগুলোকে নিয়ে যেগুলো আপনি সব ধরণের অস্ত্রেই ব্যবহার করতে পারবেন।

Laser Sight – যারা Hip ফায়ার করে থাকেন SMG এবং AR দিয়ে আর হিট এন্ড রান মোডে তাদের জন্য এটা একটি ক্রুশিয়াল এটাচমেন্ট। ক্যাম্পিংয়ের জন্য এটা নয়। এতে আপনার শুটিং একুরেসি বেশ সুক্ষ হবে। আমি এটাকে Shotgun য়ে বেশি ব্যবহার করি।

Stock – AR এবং SMG এর জন্য ফ্যান্টাস্টিক একটি এটাচমেন্ট হচ্ছে স্টক। এর কাজ হচ্ছে Scoped করা অবস্থায় এটা আপনাকে দ্রুত মুভ করতে সহায়তা করবে। টিপস অংশে বলেছিলাম যে সবসময় রাশ খেলতে গেলে move and shoot করতে থাকবেন, আর সেটা করতে হলে অবশ্যই আপনার উচিত Stock এটাচমেন্টকে ব্যবহার করা।

Extended Mag – আমার ব্যক্তিগত পছন্দের শীর্ষে রয়েছে এই Extended Mag এটাচমেন্টটি। রাইফেল, স্লাইপার রাইফেল এবং শটগানে আপনি এই এটাচমেন্টটি ব্যবহার করে প্রতিটি ম্যাগাজিনের ৭ থেকে ১৫টি বেশি গুলি রাখতে পারবেন (অস্ত্র ভেদে)। তার মানে ধরুণ, একটি মেশিনগানে এক ম্যাগাজিনে গুলি রয়েছে ৬৫টি। সেখানে Extended Mag ব্যবহার করলে সেটা বেড়ে দাড়াবে ৭৫টিতে!

Quickdraw – SMG কিংবা AR অস্ত্রে এই এটাচমেন্টটি ব্যবহার করলে আপনি দ্রুততর ভাবে স্কোপ করতে পারবেন। এটা ছাড়া কোনো রাইফেল দিয়ে শত্রুকে স্কোপ করতে গেলে আপনার মনে হবে আপনি স্কোপ করে টার্গেট লগ করতে করতে শত্রু আপনাকে মেরে ফেলবে!

Foregrip – এটা ব্যবহার করলে আপনার রাইফেলের Recoil অনেকটা নিয়ন্ত্রণে থাকবে, তাতে আপনার শ্যুট করতে বেশ সুবিধা হবে। নিজে একবার ব্যবহার করলেই এটার মর্ম বুঝে যাবেন। যারা মেশিনগান নিয়ে ক্যাম্প করেন তাদের জন্য এটা তো অবশ্যই ব্যবহার করা উচিত।

বি:দ্র: চেষ্টা করবেন প্রতিটি অস্ত্রেই নিজের খেলার স্টাইল অনুযায়ী Scope সিলেক্ট করে নিতে।

পরিশিষ্ট:

গেমটিতে কোনো প্রকার অর্থনৈতিক ইনভেস্ট করতে না চাইলে আপনার মূল অবজেক্টটিভ হবে দ্রুত লেভেল আপ করা। অন্তত পক্ষে ৫০ লেভেলে গিয়ে দেখুন কতগুলো ভালো অস্ত্র, Park, Scoresteaks এবং আইটেম আনলক হয়। একই সাথে ম্যাচে ভালো কঠিন প্রতিপক্ষ চাইলে এখুনি নেমে পড়তে পারেন র‌্যাঙ্ক ম্যাচে। আর হ্যাঁ আর যাই করেন, অন্তত গেমটিতে হ্যাক ব্যবহার করবেন না, তাহলে এই সুন্দর গেমের আসল মজা আপনি নিজেও হারাবেন এবং অন্যদেরও খেলা নস্ট করবেন। আর যেকোনো সময়ে একাউন্ট ১০ বছরের ব্যান খাওয়ার চান্স তো রয়েছেই! 😉