এনভিডিয়ার লেটেস্ট গ্রাফিক্স কার্ড সিরিজ RTX 2000 এখন বাজারে এসেছে। নতুন এই সিরিজটি বাজারে আসার কিছুদিন আগেই এনভিডিয়ার আগের প্রজন্মের গ্রাফিক্স কার্ডগুলো দাম বেশ কমে যায়। তবে এই নতুন RTX ২০০০ সিরিজটি সহ আগের প্রজন্মের GTX 1080 বা GTX 1050 গ্রাফিক্স কার্ডগুলোই আমাদের মতো সাধারণ গেমারদের হাতের নাগালের বাইরে। কারণ এই কার্ডগুলোর দাম তুলনামূলকভাবে বেশি এবং খোদ এই গ্রাফিক্স কার্ডদের দাম দিয়েই মোটামুটি মানের একটি পিসি বিল্ড করে ফেলা যাবে! সীমিত বাজেটের মধ্যে আমার মতো সাধারণ গেমাররা অনেকসময়ই একটু পুরোনো মডেলের গ্রাফিক্স কার্ড ব্যবহার করে থাকে। আর আজ কথা বলবো বেশ পুরো একটি গ্রাফিক্স কার্ড Nvidia GTX 750 কে নিয়ে। ২০১৪ সালের ফেব্রুয়ারী মাসে এই গ্রাফিক্স কার্ডটি বাজারে আছে। ৪ বছরের পুরোনো হলেও এই কার্ডটি কিনতে গেলে আপনাকে এখনো ৮ থেকে ১৩ হাজার টাকা (সেকেন্ড হ্যান্ড-নতুন) খরচ করতে হবে। তো এই GTX 750 কি বর্তমানের গেমসগুলোকে হ্যান্ডেল করতে পারবে? সেটা নিয়ে আমার আজকের এই পোষ্ট।

যে পিসি কনফিগারেশনে গেমসগুলো টেস্ট করা হয়েছে:

  • Windows 10 Pro
  • Intel i5 8400 2.8GHz
  • Gigabyte Z370 HD3P
  • Geforce GTX 750 2GB
  • 16Gb RAM 2400Mhz

Project Cars 2

প্রথম যে গেমটি টেস্ট করবো সেটা হচ্ছে Project Cars 2 । বেশ হাই গ্রাফিক্স আর দারুণ গেমপ্লের এই গেমটিকে আমরা এখন জিটিএক্স ৭৫০ কার্ডে চালিয়ে দেখবো। উপরের ছবিতে দেখতে পাচ্ছেন যে রেজুলেশন সেট করা হয়েছে 1920×1080, টেক্সচার রেজুলেশন হাই দেওয়া রয়েছে, টেক্সচার ফিল্টারিং দেওয়া হয়েছে Anisotropic 16x, MSSA দেওয়া রয়েছে Medium । Shadow Detail আর Reflections ছাড়া বাকি সকল সেটিংস High য়ে দেওয়া রয়েছে।

তো দেখা যাচ্ছে যে এই গ্রাফিক্স কার্ডে Project Cars 2 গেমটিতে 1920×1080 রেজুলেশনে মোটামুটি হাই গ্রাফিক্স সেটিংয়ে 60FPS পাওয়া যাচ্ছিলো না। তবে রেজুলেশন কমিয়ে আনলে হয়তো তা পাওয়া যাবে কিন্তু ২০১৪ সালের গ্রাফিক্স কার্ড হিসেবে এই গেমটিতে এভারেজে FPS ছিলো ৪০ যা খারাপ নয়। তাছাড়া কোনো প্রকার ল্যাগ ছিলো না।

PUBG

এবার বর্তমানের অন্যতম জনপ্রিয় গেম পাবজি টেস্ট করার পালা। পাবজি একটি বেশ গ্রাফিক্সফুল গেম। তাই এই গেমটির সবকিছুকেই সর্বোচ্চ Low সেটিংস দিয়ে রাখা হয়েছে তবে রেজুলেশন 1920×1080 তেই রাখা হলো। কারণ ভালো রেজুলেশন ছাড়া এই জাতীয় গেমস খেলে মজা পাবেন না এবং কম রেজুলেশনে অনেক সময় চোখের ক্ষতিও হতে পারে, বিশেষ করে যখন অনেক দূরের শত্রুদের মুভমেন্ট ফলো করতে যাবেন তখন চোখের পেইনটি বোঝা যাবে!

তো দেখা গেল যে সব গ্রাফিক্স সেটিংস লো করে দিয়েও জিটিএক্স 750 গ্রাফিক্স কাডে পাবজি গেমটি কোনো ভাবেই 45 FPS এর উপরে নেওয়া যায় নি। গেমটির গড় স্পিড ছিলো 35FPS। অনলাইন গেম 60FPS ছাড়া খেললে আপনি সবসময়ই অন্যদের থেকে হালকা পিছিয়ে থাকবেন।

Farcry 5

এবার ফার ক্রাই সিরিজের লেটেস্ট গেম ফারক্রাই ৫ টেস্ট করার পালা। ফারক্রাই ৫ ও বেশ হেভি গ্রাফিক্সের গেম। আর স্বাভাবিক ভাবেই এই গ্রাফিক্স কার্ডে গেমটি হাই সেটিংস দিয়ে খেলা যাবে না। তাই এখানে গ্রাফিক্স কোয়ালিটি সবগুলো সেটিংসকে Low তে দিয়ে রাখা হয়েছে।

ফারক্রাই ৫ গেমটিতেও এই গ্রাফিক্স কার্ড ৩৩ FPS এর বেশি আমাদের কে দিতে পারে নি। তবে ৩০ FPS ও আপনি এই রেজুলেশনে খেলতে পারবেন যেহেতু এটি একটি অফলাইন গেম। তাছাড়া রেজুলেশন কমিয়ে নিলে FPS আরো বাড়বে।

Witcher 3

২০১৫ সালে মুক্তি পেলেও Witcher 3 গেমটি কিন্তু বেশ সুন্দর গ্রাফিক্সওয়ালা গেম। ১০৮০P রেজুলেশনে এই গ্রাফিক্স কার্ডে হাই গ্রাফিক্স সেটিংসে গেমটি ল্যাগ দিচ্ছিলো তাই গ্রাফিক্স সেটিংসগুলোকে Medium সেটিংস দিয়ে রাখা হয়েছে।

আর এখানেও দেখা যাচ্ছে যে ফারক্রাই ৫ এর মতোই এই গেমটিতেও জিটিএক্স ৭৫০ কার্ডটি আমাদেরকে 35 FPS এর বেশি স্পিড দিতে পারছে না। ক্ষেত্র বিশেষে FPS ড্রপ করে ২৮/২৭ ও হয়ে গিয়েছিলো। তো গেমটি স্মুথ করে খেলতে হলে আমাদেরকে গ্রাফিক্স সেটিংস একদমই Low করে খেলতে হবে।

Fortnite

পাবজির তুলনায় কাটুর্নের মতো গ্রাফিক্স হলেও হাই গ্রাফিক্স সেটিংসয়ে গেমটি এই জিটিএক্স ৭৫০ গ্রাফিক্স কার্ডে ল্যাগ দিচ্ছিলো। তাই সকল গ্রাফিক্স সেটিংসকে Medium করে রাখা হয়েছে।

আজকের সকল গেমের মধ্যে একমাত্র এই গেমটিতেই জিটিএক্স 750 গ্রাফিক্স কার্ডটি 60 FPS স্পিড দিতে পেরেছে। এবং শুধু তাই নয় ক্ষেত্র বিশেষে স্পিড 70FPS য়েও চলে এসেছিলো।

AC: Origins

এসাসিন্স ক্রিড সিরিজের লেটেস্ট গেম অরিজিনস কিন্তু বেশ হেভি গ্রাফিক্সযুক্ত একটি গেম। গেমটির গ্রাফিক্স এতই হাই যে এই গেমটির জন্য এনভিডিয়া আলাদা করে একটি গ্রাফিক্স কার্ড বাজারে ছেড়ে ছিলো। আর জিটিএক্স ৭৫০ দিয়ে মিডিয়াম সেটিংয়ে FPS 12/15 হচ্ছিলো তাই গ্রাফিক্স সেটিংসগুলোকে Low দিয়ে রাখা হয়েছে।

তো দেখা গেল যে 1080P রেজুলেশনে গ্রাফিক্স সেটিংস লো করে দেবার পর গেমটির FPS ৩০ থেকে ৪০ এর মধ্যে থেকেছে যা দিয়ে খেলা যায়। আর গ্রাফিক্স লো করে দিলেও প্রকৃতপক্ষে কিন্তু তেমন লো হয় না। বিশেষ করে ২০১৭ সালের পর থেকে ভিডিও গেমসগুলোতে লো সেটিংস থাকলেও বাস্তবে ততটা লো করার সিস্টেম রাখা হয়নি।

Battlefield 1

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের উপর বানানো চমৎকার গ্রাফিক্সের এই গেমটি আজকে আমাদের GTX 750 কার্ডের টেস্টের শেষ গেম। ব্যাটলফিল্ড ১ গেমটির গ্রাফিক্স হাই দিলে গেমটি বেশ ল্যাগ করছিলো তাই গ্রাফিক্স সেটিংসগুলোকে Medium দিয়ে রাখা হয়েছে।

মিডিয়াম গ্রাফিক্স দিয়ে 30-35 FPS তেমন একটা খারাপ নয়। তবে 60FPS এর থেকে ভালো নয় সেটা তো আর বলা লাগবে না। তবে গেমটিতে কোনো কিছু বিস্ফোরন হলে তখন FPS একটু ড্রপ হচ্ছিলো, তাছাড়া আর কোনো সমস্যা দেখা যায় নি।

আজকের সবগুলো গেমসকেই কিন্তু 1920×1080 রেজুলেশনে খেলানো হয়েছে। তাই একমাত্র GTA 5 এবং Fortnite গেমে একদম স্মুথ স্পিড পাওয়া গিয়েছে। তবে আপনি যদি এর থেকে কম রেজুলেশনে খেলতে পারেন বা খেলে অভ্যাস থাকে তাহলে লো এবং মিডিয়াম গ্রাফিক্স সেটিংসয়ে এনভিডিয়া জিটিএক্স ৭৫০ কার্ডটি আপনাকে ভালোই সার্ভিস দিবে। তবে এই কার্ডটি দিয়ে আগামী বছরের গেমসগুলো মিডিয়াম গ্রাফিক্সেই চালানো কঠিন হয়ে পড়তে পারে। তাই যারা যারা নতুন গ্রাফিক্স কার্ড কিনবেন তারা আরেকটু বাজেট বাড়িয়ে জিটিএক্স ৯০০ কিংবা ১০০০ সিরিজে চলে আসতে পারেন।