28 C
Dhaka
Saturday, September 24, 2022

55k BDT Acer Extensa 15 EX215-52-58SQ Laptop Bangla Review

- Advertisement -

ল্যাপটপের ক্ষেত্রে 50/55 হাজার টাকার বাজেটরেঞ্জটা আমাদের দেশে অত্যন্ত জনপ্রিয়। কোর আই ফাইভ প্রসেসর ফিচার্ড ল্যাপটপগুলো সাধারণত এই রেঞ্জ থেকেই শুরু হয়, কিছু আই থ্রি প্রসেসর যুক্ত ল্যাপটপ ও পাওয়া যায় এই রেঞ্জে।কোর আই ফাইভ প্রসেসর ফিচার্ড ল্যাপটপগুলো সাধারণত এই রেঞ্জ থেকেই শুরু হয়, কিছু আই থ্রি প্রসেসর যুক্ত ল্যাপটপ ও পাওয়া যায় এই রেঞ্জে।ক্যাজুয়াল ইউজ,ভার্সিটি ওয়ার্ক বা অফিস এর কাজের ক্ষেত্রে এই ল্যাপটপ গুলো বেশ ভালো সার্ভিস প্রোভাইড করে। করোনা কালে জিপিইউ প্রাইস বেড়ে যাওয়ার কারণে বা দৈনন্দিন জীবনের প্রয়োজনে গত কয়েক বছরে আরো বেশি হটস্পটে এ পরিণত হয়েছে এই 50-55 হাজারের বাজেট রেঞ্জ টি ।যাই হোক,আজ আমরা রিভিউ করবো এসারের Acer Extensa 15 EX215-52-58SQ ল্যাপটপটি।

Specs:

ল্যাপটপটির স্পেকস এর দিকে এবার একটু তাকানো যাক। ল্যাপটপটিতে প্রসেসর রয়েছে core i5 i5-1035G1 যেটি একটি 4 কোর 8 থ্রেডের প্রসেসর ।15 ওয়াটের টিডিপির এই প্রসেসরটির ক্যাশ মেমোরি 6 মেগাবাইট ও বুস্ট ক্লক স্পিড ৩.৬ গিগাহার্জ।।প্রাইস অনুসারে যা যথেষ্ট ডিসেন্ট বলতে হবে।নেই কোনো ডেডিকেটেড গ্রাফিক্স, তাই ভরসা করতে হবে INTEL UHD তেই।Ram দেওয়া হয়েছে দুটো স্লটে চার জিবি করে মোট আট জিবি । অর্থাৎ অন হ্যান্ডস ডুয়াল চ্যানেল এর সুবিধা পাওয়া যাচ্ছে।দুটি স্লটের মধ্যে একটি স্লটের Ram removable হওয়ায় সেটি রিপ্লেস করে ram মোট ১২ জিবি পর্যন্ত বাড়িয়ে নেওয়া যাবে।।।স্টোরেজ সেকশনে রয়েছে এক টেরাবাইট 5200 আরপিএম এর হার্ডডিস্ক ,সাথে এক্সট্রা M.2 NVMe slot রয়েছে। বাজেট ল্যাপটপে যথেষ্ট স্ট্যান্ডার্ড প্র্যাকটিস হলেও অবশ্যই ২০২২ সালে এসে এসএসডি সহই ল্যাপটপ গুলো শিফট হওয়া উচিত বলে মনে করি।  ডিসপ্লে হিসেবে রয়েছে 15.6″ Full HD ডিসপ্লে যেটি একটি টিএফটি প্যানেল,যা সম্পর্কে একটু পর বিস্তারিত আলোচনা আসছে।

Competition Analysis

- Advertisement -

এই প্রাইসরেঞ্জে রয়েছে বেশ কিছু core i3 11th gen ল্যাপটপ ও core i5 10th gen U series ,g series এর ল্যাপটপ। পারফরম্যান্স এর দিক দিয়ে আই থ্রি এর গুলোর থেকে নিঃসন্দেহে এটি এগিয়ে থাকবে, বরং বেশিরভাগ বাজেট ল্যাপটপগুলো চার জিবি র‍্যাম+extra slot কনফিগে আসে ,সেখানে এসারের এই ল্যাপটপটিতে শুরুতেই dual channel mode এ আট জিবি র‍্যাম পাওয়া যাচ্ছে which is a plus point.অন্যান্য ল্যাপটপগুলোও এই বাজেটে অতিরিক্ত এমডট টু লট অফার করছে,acer ও ব্যতিক্রম নয়। এটির মত অন্য ল্যাপটপগুলোও ডেডিকেটেড জিপিইউ ও অফার করছে না।তবে একই বাজেটে অন্যান্য কম্পিটিটরদের তুলনায় ডিসপ্লে সাইজ, প্যানেল ও কোয়ালিটি, ও ব্যাটারি ক্যাপাসিটিতে রয়েছে উলেখযোগ্য পার্থক্য যা নিয়ে আমরা আলোচনা করার প্রয়োজন বোধ করছি। তবে এসারেরই 58 হাজার টাকাতে, aspire series এর একটি মডেল রয়েছে যেটি core i5 1135g7 , LED Display, Intel IRIS Xe গ্রাফিক্স ফিচার করছে যেটিকে এই মডেলের একটি পারফেক্ট নেক্সট জেন সাক্সেসর বলা যেতে পারে।। উল্লেখ্য ওই ল্যাপটপটিতে আপনি জেনুইন উইন্ডোজ 10 ও পেয়ে যাবেন।

 Specwise Purpose:

স্পেকস অনুসারে ও প্রাইস বিবেচনায় আর দশটা ল্যাপটপের মত এটিও কন্টেন্ট ওয়াচিং ,মিডিয়া কনজিওমিং,অফিস ওয়ার্ক,একাডেমিক পারপাস সার্ভ এর জন্যই বানানো হয়েছে ও এক্সট্রা অর্ডিনারি কোনো কিছুই কোনো সেকশনে উল্লেখ করার মত নেই। অবশ্যই এটি দিয়ে হেভি গেমিং এর সুযোগ নেই (হয়তো এটি দিয়ে সে কাজ কেও করতেও চাইবেন না) , টেস্ট যদিও আমরা বরাবর এর মত করে দেখিয়েছি । এডিটিং ও এই ধরনের স্পেকস এর ল্যাপটপ দিয়ে কেমন করা যায় অনেকেরই ধারণা আছে, টেস্ট করে দেখানো হয়েছে।

Outlook inspection

- Advertisement -

বিল্ড কোয়ালিটি ও লুকের কথা যদি বলি,আলাদা চোখে লাগার মত ইউনিক কিছু এখানে নেই, এভারেজ ই বলতে হবে।ল্যাপটপটির ওজন সামান্য বেশিই মনে হয়েছে, 1.90 কেজি।।

Keyboard Touchpad Speaker

কীবোর্ড ও টাচপ্যাড কোয়ালিটিও এভারেজ, কিবোর্ডে ক্লিকি ফিলটা সেরকম পাওয়া যায় না, কিবোর্ডটি পুরাতন আমলের মত এক্সপেরিয়েন্স দেয়।স্পিকার কোয়ালিটি খুব বেশি নয়,কাজ চালানোর মত।পরামর্শ থাকবে ভালো মানের হেডফোন বা ইয়ারফোন ইউজ করার।। ওয়েবক্যাম এর কোয়ালিটিও এই বাজেটের অন্যান্য ল্যাপটপগুলোর মতোই

- Advertisement -

Display

এবার কথা বলা যাক ল্যাপটপটির ডিসপ্লে নিয়ে,এই বাজেট রেঞ্জের ল্যাপটপ গুলো তে Display Specification এর পাশে IPS Panel লেখা থাকলেও সেটার Colour accuracy নিয়ে সকলের মনে প্রশ্ন থেকেই যায়। এই ল্যাপটপটিতে 15.6″ এর 1920×1080 এর TFT LCD screen ব্যবহার করা হয়েছে।

আমাদের spyder 5 Colour test

এটির ডিসপ্লে সর্বোচ্চ 65% sRGB, 47% NTSC, 49% AdobeRGB, এবং 48% Dci-P3 Colour Coverage. 50k-80k বাজেট রেঞ্জে যত IPS Display সহ ল্যাপটপ পাওয়া যায় তাদের সবগুলারই ডিসপ্লে অবস্থা একই 45%-47% NTSC.সে তুলনায় 53k বাজেটে এই ল্যাপটপটির ডিসপ্লে একদমই খারাপ বলা যায় না বেসিক গ্রাফিক্স ডিজাইন এবং এন্টারটেইনমেন্ট এর জন্য কাজ চালিয়ে দেওয়ার মতো

Battery:

ল্যাপটিতে 2-Cell 36.7Wh এর ব্যাটারি ব্যবহার করা হয়েছে। ব্যাটারি ব্যাকআপের কথা বলতে গেলে। হেভি ওয়ার্কলোডে এ সর্বোচ্চ 1hour-1.5hour এর মতো ব্যাকআপ দেয়। এবং পাওয়ার সেভিং মোডে নরমাল ব্যবহারে বড়জোর 2.5hour-3hour এর মতো ব্যাকআপ পাওয়া পসিবল। 

performance test:Productivity

Chinebench R23 টেস্ট এর সময় Multicore এ এ্যাভরেজ CPU Clock স্পীড ছিলো 1.7Ghz এবং Single Core এর এ্যভারেজ CPU Clock স্পীড ছিলো 3.3Ghz এর মতো ল্যাপটপটিতে এডোবি এর মতো সফটওয়্যার গুলোতে Basic Graphic designing er কাজ বেশ ভালো ভাবেই করতে পারবেন তবে বেশি লেয়ার নিয়ে কাজ করতে গেলে এবং ৮জিবি র‍্যাম হওয়ার কারনে কিছু ল্যাগ এর সম্মুখীন হওয়া লাগতে পারে। Adobe premire Pro তে আমাদের 10-Bit 4K 60FPS এর ফুটেজ প্লেব্যাক করতে দিয়ে দিয়েছিলাম,কোনো প্রকার Colour Grid, Effect Presets ছাড়া Lowest Regulation এ প্লেব্যাক করতে গিয়ে প্রচুর, ল্যাগ এবং ফ্রেম ড্রপের সম্মুখীন হতে হয়েছে।

Video Export এ 2:30 মিনিট এর ফুটেজ রেন্ডার হতে সময় নিয়েছে প্রায় ১ঘন্টারও বেশি। অর্থাৎ এই ল্যাপটপ টি দিয়ে 1080p Footage মোটামুটি ভালো ভাবেই এডিট করা পসিবল হলেও 4k ভিডিও এডিট করা বেশ কষ্টকর। ওভারঅল ল্যাপটপটি দিয়ে টুকটাক ভিডিও এডিটিং, প্রেগ্রামিং, গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজ গুলো বেশ ভালো ভাবেই করতে পারবেন। ওভারঅল ল্যাপটপটি দিয়ে টুকটাক ভিডিও এডিটিং, প্রোগ্রামিং, গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজ গুলো বেশ ভালো ভাবেই করতে পারবেন। তবে প্রোফেশনাল দের জন্য Not recommended.

Thermal Performance:

এবার কথা বলা যাক ল্যাপটপ টির থার্মাল পারফরম্যান্স নিয়ে। Core i5-1035G1 By Default একটি 15w CPU তবে Intel TurboBoost Technology ব্যবহার করে এবং ওয়ার্কলোডের উপর ডিপেন্ড করে সর্বোচ্চ 33W পর্যন্ত পাওয়ার কনজিউম করতে পারে।10min Prime95 Stress Test এ maximum সিপিইউ Temperature 79° এবং এ্যভারেজ CPU Temp 70°. Adobe Premier Pro টেস্টে Video Export এর সময় Maximum Temperature ছিলো 81 এবং Average Temperature 71 Temperature দেখে অনেকেই হয়তো ভাবছেন ল্যাপটপটির কুলিং সিস্টেম বেশ ভালো, আসল ঘটনা হলো এই ল্যাপটপ টি CPU Temperature 82° এর মধ্যে রাখতে গিয়ে হেভি ওয়ার্কলোডে CPU ক্লক স্পীড কমিয়ে 1.6Ghz করে দিচ্ছে যার ফলে ল্যাপটপটিতে বেশ পারফরম্যান্স ড্রপ দেখা দিচ্ছে। CPU Throttle এরাতে ল্যপটপ টি তার সিপিইউ ক্লক স্পীড কমিয়ে Temperature maintain করছে। যেটা সকল ল্যাপটপ এর ধর্ম বা সীমাবদ্ধতা বলা যায়।

verdict:

বর্তমানে পিসি পার্টসের সাথে সাথে ল্যাপটপ এর প্রাইস ও দিন দিন বেড়ে চলছে আগে যেখানে 38k-45k তে Core i3 Laptop, 50k-70k তে i5 ল্যাপটপ এবং 70k+ বাজেটে i7 ল্যাপটপ পাওয়া যেতো এখন সেখানে একটা ভালোমানের i3 laptop কিনতে গেলে প্রায় ৬০ হাজার টাকা খরচ পরে। মার্কেটের এমন পরিস্থিতি তে এই Acer Extensa ল্যাপটপ টি এক পশলা বৃষ্টির মতো। যারা মূলত বেসিক গ্রাফিক্স ডিজাইন, প্রোগ্রামিং, ব্রাউজিং এবং রেগুলার কন্টেন্ট কনজিউম করবেন, 55k বাজেট রেঞ্জে Acer Extensa আপনার জন্য হতে পারে বেস্ট ডিল।

full video:

 

- Advertisement -
Soaad Bin Zaman Shoron
Soaad Bin Zaman Shoron
Gamer | Memer | Tech Enthusiast | Food Hunter | JUST PHYSICS 2018

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

55k BDT Acer Extensa 15 EX215-52-58SQ Laptop Bangla Reviewল্যাপটপের ক্ষেত্রে 50/55 হাজার টাকার বাজেটরেঞ্জটা আমাদের দেশে অত্যন্ত জনপ্রিয়। কোর আই ফাইভ প্রসেসর ফিচার্ড ল্যাপটপগুলো সাধারণত এই রেঞ্জ থেকেই শুরু হয়, কিছু আই থ্রি প্রসেসর যুক্ত ল্যাপটপ ও পাওয়া যায় এই রেঞ্জে।কোর আই ফাইভ প্রসেসর ফিচার্ড ল্যাপটপগুলো সাধারণত এই রেঞ্জ থেকেই শুরু হয়,...