গেমস রিফান্ড সিস্টেম

আপনারা জানেন যে সফটওয়্যার এবং ভিডিও গেমসগুলো দুই ভাবে রিলিজ হয়ে থাকে। একটি হচ্ছে ফ্রি এবং অপরটি হচ্ছে পেইড। তবে বিদেশে এই পেইড অ্যাপস এবং গেমসের কেনাবেচা সাধারণ মনে হলেও বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে পেইড অ্যাপস এবং গেমসের ব্যবহারকারীর সংখ্যা খুবই কম! কিন্তু একেবারেই যে নেই তাও বলা যাবে না। বাংলাদেশেরও অনেকেই রয়েছেন যারা পেইড অ্যাপস এবং গেমস ব্যবহার করে থাকেন।

আমরা বাজার থেকে ৫০/৬০ টাকা দিয়ে উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের “9 in 1” জাতীয় যে সকল ডিভিডি কিনে থাকি আসলে সেটা একটি পাইরেট ডিস্ক হয়ে থাকে। কারণ একটি জেনুইন উইন্ডোজ ১০ অপারেটিং সিস্টেমের দাম বর্তমানে কমপক্ষে ১১০ মার্কিন ডলার রয়েছে, যেটা বাংলাদেশি টাকায় সাড়ে ৯ হাজার টাকার কাছাকাছি। একই ভাবে আপনি ৭/৮ ডিস্কের যে ভিডিও গেমটি ৪৫০ টাকায় কিনে নিয়ে খেলছেন সেটির জেনুইন কপির দাম প্রায় ৪ হাজার টাকার মতো। তবে আজ এ ব্যাপারে কথা বলা হবে না, আজ কথা বলা হবে কিভাবে এই পেইড অ্যাপস এবং গেমস থেকে রিফান্ড নেয়া যাবে সে ব্যাপারে! অনেক সময় দেখা যায় যে অ্যাপস এবং গেমস কেনার পরে সেখানে বিভিন্ন বাগ থাকতে পারে বা আপনার গেমটি কেনার পর তেমন ভালো লাগেনি, তাহলে আপনি সে পেইড অ্যাপস এবং গেমস কপির কেনার টাকাটা রিফান্ড বা ফিরিয়ে নিয়ে আনতে পারেন। তবে এ জন্য প্রথমেই যেটার প্রয়োজন সেটা হলো আপনি যে স্টোর থেকে বা যে অনলাইন মার্কেট থেকে অ্যাপ বা গেমটি কিনেছেন সেখানে রিফান্ড সার্পোট করতে হবে।

নিচে কোন কোন অনলাইন স্টোর থেকে আপনি রিফান্ড পাবেন আর কিভাবে পাবেন এবং কোন স্টোরগুলো রিফান্ড সার্পোট করে না সেগুলোর সবই সংক্ষিপ্ত আকারে উপস্থাপন করা হচ্ছে।

Apple’s App Store এবং Mac App Store

বাংলাদেশে এবং বিশ্বে সবথেকে বেশি পেইড অ্যাপ কেনা হয়ে থাকে অ্যাপলের অ্যাপ স্টোরে। কারণ সেখানে কিছু কিছু অ্যাপ রয়েছে সেগুলো অন্য প্লাটফর্মে ফ্রিতে ডাউনলোড করা গেলেও এখানে সেগুলোর জন্য “হালকা” খরচ করতে হয়। অ্যাপলে আপনি সরাসরি রিকোয়েস্ট করে রিফান্ড পেতে পারবেন। আপনি আপনার আইফোন, আইপ্যাড থেকে অ্যাপ স্টোরের ক্রয়কৃত অ্যাপস, ম্যাক থেকে অ্যাপ স্টোরে ক্রয়কৃত অ্যাপস এবং আইটিউনস থেকে কেনা সকল প্রকার ডিজিটাল মিডিয়ার ক্ষেত্রেও আপনি রিফান্ডের সুযোগ পাবেন।
উল্লেখ্য যে অ্যাপল no-questions-asked রিফান্ড পলিসি অনুসরণ করে, তাই এখান থেকে আপনি অন্য প্লাটফর্মের তুলনায় বেশ সহজেই রিফান্ড পাবেন। আপনাকে শুধু “report a problem” সাবমিট করতে হবে এই আর কি। সাবমিট করার ১/২ দিনের মধ্যে আপনি অ্যাপলের কাস্টমার সার্ভিস থেকে রেন্সপন্স পাবেন। যদি স্টোর থেকে ক্রয়কৃত কোনো অ্যাপস বা গেমস যদি কাজ না করে তাহলে তো কথাই নেই, আর নাহলে problem হিসেবে বলবেন যে “App didn’t work properly” অথবা ”App didn’t meet my expectations” তাহলেই হবে।

Google Play

গুগল প্লেস্টোরে সব থেকে সহজ উপায়ে আপনি রিফান্ড পাবেন! অন্তত অ্যাপল স্টোর থেকে তো সহজ হবেই। কারণ গুগল প্লেস্টোরে কোনো পেইড অ্যাপ বা গেম কেনার পর প্রথম ২ ঘন্টার মধ্যে আপনি রিফান্ডের জন্য রিকোয়েস্ট করতে পারবেন এবং অটোমেটিক্যালি রিফান্ড পেয়েও যাবেন! তাই কোনো পেইড অ্যাপস বা গেমস কেনার পর সেটা আপনার ভালো না লাগলে প্রথম দুই ঘন্টার মধ্যে আপনি রিফান্ডের জন্য আবেদন করুন এবং কোনো প্রকার কাস্টমার সার্ভিসের ঝামেলা ছাড়াই আপনি রিফান্ড পেয়ে যাবেন। এ জন্য গুগল প্লেস্টোরে যান, সেখান থেকে Order History অপশনে গিয়ে রিসেন্ট ক্রয়কৃত অ্যাপসের উপর Refund বাটনে ট্যাপ করুন। তবে প্রথম ২ ঘন্টার পর রিফান্ডের জন্য আবেদন করলে আপনাকে সে অ্যাপ বা গেমটির ডেভেলপারের সাথে আলাপ করতে হবে, আর গেমটির বা অ্যাপটি নিমার্তাই ঠিক করবে যে আপনি রিফান্ড পাবেন কি না।

তবে অ্যাপ ডেভেলপারদের কাছ থেকে যথাযথ উত্তর বা রেসপন্স না পেলে আপনি গুগল প্লের কাস্টমার সার্ভিসে যোগাযোগ করতে পারেন। তবে গুগলের কাস্টমার সার্ভিসদের কাছ থেকে রিফান্ড তুলে আনা বেশ কঠিন একটি কাজ যদি না আপনার কাছে রিফান্ডের জন্য শক্তপোক্ত কোনো কারণ না থাকে। এ জন্য গুগল প্লে হেল্প ওয়েবসাইটে চলে যান এখানে ক্লিক করে। তারপর Contact Us > Android apps & games > Request a refund এই অপশনগুলোতে চলে আসুন।

Steam

ভিডিও গেমস কিন্তু গুগল প্লেস্টোরের থেকে স্টিমে তুলনামুলকভাবে বেশি কেনাবেচা হয়ে থাকে। আর অনলাইন ভিক্তিক ডিজিটাল ডিস্ট্রিবিউশন প্লাটফর্ম Steam য়েও রয়েছে রিফান্ড পলিসি। গত ১৪ দিনের মধ্যে বা গত ২ সপ্তাহের মধ্যে কোনো গেমস যদি আপনি কিনে থাকেন এবং গেমটি যদি আপনি ২ ঘন্টার কম সময়ের জন্য খেলে থাকেন তাহলে স্টিমের কাছে আপনি রিফান্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন এবং আপনি রিফান্ড পেয়ে যাবেন। অর্থাৎ গেমটি ১৪ দিনের মধ্যে কেনা থাকতে হবে এবং গেমটিতে ২ ঘন্টার কম সময়ের মধ্যে প্লে টাইম থাকতে হবে। মানে হচ্ছে যদি গেমটি আপনি ১০ মিনিটের জন্য খেলেছেন কিন্তু গেমটি গত বছর কিনেছেন তাহলে হবে না, আবার মাত্র ৩ দিন আগে গেমটি কিনেছেন কিন্তু ইতিমধ্যেই ৪/৫ ঘন্টা ধরে খেলছেন তাহলেও কিন্তু গ্যারান্টি সহকারে রিফান্ড পাবেন না। এই ১৪ দিন এবং ২ ঘন্টার পলিসির মধ্যে আপনি না থাকলেও আপনার রিফান্ড আবেদনটি Steam ঘতিয়ে দেখবে এবং সেখানে আপনাকে একটি শক্তিশালি কারণ দেখাতে হবে যে কেন আপনি রিফান্ড চাচ্ছেন।

তবে মনে রাখতে হবে যে স্টিমের বাইরে থেকে কেনা যেকোনো গেমস (স্টিমের বাইরে থেকে product key দিয়ে একটিভ করা গেমসগুলো) কে স্টিমের মাধ্যমে রিফান্ড পাবেন না। যেমন অনেক সময় আমরা অপেক্ষাকৃত কম প্রাইসের কারণে বিভিন্ন থার্ড পার্টি লোকাল গেম স্টোর থেকে Steam Keys কিনে থাকি। তবে রিফান্ড এর প্রয়োজন হলে আমি রেকোমেন্ড করবো স্টিমের মাধ্যমেই গেমসগুলো কিনতে।
আরেকটি কথা মনে রাখতে হবে যে, আপনি যদি Steam এ অনেক পরিমাণে রিফান্ড করতে থাকেন তাহলে কর্তৃপক্ষ এটাকে একধরণের “abuse” হিসেবে মার্ক করে নিবে এবং আপনার একাউন্টে রিফান্ড ফিচারটি ব্যান করে দিবে।

তবে জেনুইন ভাবে যদি গেমটি কেনার পর দেখেন যে কিছুদিনের মধ্যেই গেমটির প্রাইসিং কমে গিয়েছে তাহলেও আপনি রিফান্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন এবং এটাকে স্টিম Abuse হিসেবে দেখবে না। যেমন একটি গেমকে আপনি ৬০ মার্কিন ডলার দিয়ে কিনলেন, তারপর দেখা গেল কয়েক দিনের মধ্যে গেমটির উপর ডিসকাউন্ট এলো এবং গেমটি ৩০ মার্কিন ডলারে সেল হওয়া শুরু করলো। এক্ষেত্রে গেমটি যদি ২ ঘন্টার কম সময়ের জন্য আপনি খেলে থাকেন তাহলে রিফান্ডের জন্য আবেদন করতে পারবেন এবং রিফান্ড পাবার পর পরবর্তীতে ৩০ ডলার দিয়ে গেমটি পুনরায় কিনতে পারবেন। আর যে মেথডে গেমটি কিনেছিলেন সেভাবে অর্থ রিফান্ড পেতে পারবেন অথবা সরাসরি স্টিম ওয়ালেটে রিফান্ড পেতে পারবেন। স্টিমের পূর্ণাঙ্গ রিফান্ড পলিসি পড়তে এখানে ক্লিক করুন।

১৪ দিনের মধ্যে গেমটি কেনা হয়ে থাকলে এবং ২ ঘন্টার কম সময়ের জন্য গেমটি চালানো হয়ে আপনি গেমটির রিফান্ড গ্যারান্টি সহকারে পাবেন। রিফান্ড পেতে হলে স্টিম চালু করুন, তারপর হেল্প মেন্যু থেকে Steam Support অপশনে ক্লিক করুন। অথবা সরসরি ওয়েব ব্রাউজার থেকে স্টিম সাপোর্ট ওয়েবসাইটে চলে আসুন এখানে ক্লিক করে, তবে ওয়েবসাইটেও আপনাকে প্রথমে লগ ইন করে নিতে হবে।

এবার Recent Products ঘরেই গেমটিকে আপনি দেখতে পাবেন, যদি না পান তাহলে Purchases অপশনে ক্লিক করুন।

তাহলে স্টিমে আপনার বিগত ৬ মাসের সকল purchase গুলোকে আপনি দেখতে পারবেন। এই পেজে আপনার Steam trading cards সহ স্টিম কমিউনিটি থেকে কেনাবেচাকৃত সকল আইটেমগুলোকেও দেখতে পারবেন। যে গেমটির রিফান্ড নিতে চান সেটিকে সিলেক্ট করুন।

তারপর I would like a refund বাটনে ক্লিক করুন।

এখন গেমটি যদি আপনার পিসিতে ভালো মতো না চলে কিংবা কোনো বাগ বা অনান্য ইস্যু থাকলে সেটার জন্য উপরের অপশনটিকে সিলেক্ট করতে পারেন। তবে যদি আসলেই রিফান্ড চান তাহলে নিচের I’d like to request a refund বাটনে ক্লিক করুন।

তারপর স্টিম চেক করে দেখবে যে আপনি রিফান্ড পাবার উপযুক্ত কিনা, তারপর আপনি রিফান্ড মেথড সিলেক্ট করতে পারবেন। তবে রিফান্ড পবার উপযুক্ত না হলেও আপনি রিকোয়েন্স দিয়ে রাখতে পারেন, ভাগ্য ভালো থাকলে রিফান্ড পেয়েও যেতে পারেন বলা যায় না।

এবার নিচের Reason বক্স থেকে আপনার রিফান্ড নেবার কারণটি সিলেক্ট করুন এবং Notes ঘরে এক্সট্রা কিছু বলতে চাইলে সেটা লিখে ফেলুন। তারপর Submit request বাটনে ক্লিক করে প্রসেসটি সম্পূর্ণ করুন।

এবার আপনার ইমেইলে দুটি মেইল আসবে। প্রথমটি হবে আপনার রিকোয়েস্ট স্টিম কর্তৃপক্ষ গ্রহণ করেছে।

আর দ্বিতীয় মেইলটি আসবে আপনার রিফান্ড হয়ে গিয়েছে এই মর্মে, আর এই মেইলটি আসলেই আপনার রিফান্ড প্রক্রিয়া কমপ্লিট হয়ে যাবে!

 

Origin

“If you don’t love it, return it” এই প্রোমো EA Origin ওয়েবসাইটে দেওয়া থাকলেও অরিজিনের সকল গেমসেই কিন্তু আপনি রিফান্ড পাবেন না, শুধুমাত্র সকল EA গেমস এবং কিছু কিছু থার্ডপার্টি গেমসের ক্ষেত্রে আপনি রিফান্ড পাবেন। অরিজিনে রিফান্ড পাবার শর্তগুলো হচ্ছে গেমটি ৭ দিনের মধ্যে ক্রয়কৃত হতে হবে এবং গেমটি যদি আপনি চালু করে থাকেন বা Launch করে থাকেন তাহলে লঞ্চ করার ২৪ ঘন্টার মধ্যে আপনাকে রিফান্ডের জন্য আবেদন করতে হবে। এক্ষেত্রে স্টিমের চাইলে এক সপ্তাহ কম দেওয়া হলেও প্রথম ২৪ ঘন্টার মধ্যে যতক্ষণ খুশি আপনি গেমটি ট্রায় করে নিতে পারেন যেখানে স্টিমে লিমিট হচ্ছে মাত্র ২ ঘন্টার।

আরেকটি কথা হচ্ছে শুধুমাত্র ডিজিটাল ডাউনলোড কপিগুলোর ক্ষেত্রে আপনি রিফান্ড পাবেন, কোনো প্রকার ফিজিক্যাল বা ডিভিডি বক্স গেমসগুলোর ক্ষেত্রে আপনি রিফান্ড পাবেন না। এছাড়াও অরিজিন থেকে কেনার সময় গেমটির নিচে Great Game Guarantee অপশনে Eligible কথাটি লেখা থাকলেই গেমটি রিফান্ড আপনি পাবেন। তবে কোনো প্রকার DLC জাতীয় গেম কনটেন্ট এর জন্য আপনি রিফান্ড পাবেন না।

অরিজিন থেকে গেমস রিফান্ড নেওয়ার জন্য, EA এর ওয়েবসাইট থেকে Request a refund page লিংকে চলে আসুন এবং আপনার অরিজিন একাউন্টে সাইন ইন করুন। তারপর দেখবেন যে অরিজিনে আপনার আইডিতে যতগুলো গেমস রয়েছে সেগুলোর লিস্ট দেখতে পাবেন। এবার গেমের নামের পাশের সিলেক্ট বাটনে ক্লিক করুন যে গেমটির রিফান্ড আপনি পেতে চান।

পরবর্তী উইন্ডোতে গেমটি কেন রিফান্ড করতে চান সেই কারণটি সিলেক্ট করুন, আপনার কারণটি যদি বক্সে দেওয়া না থাকে তাহলে Other অপশনটি সিলেক্ট করে Confirm বাটনে ক্লিক করুন।

এবার একটি মেসেজ পাবেন যে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে EA থেকে আপনি ইমেইল পাবেন যদি আপনি রিফান্ডের উপযুক্ত হন।

আর আপনার রিফান্ড ইস্যু করা হয়ে গেলে একটি ফাইনাল ইমেইল পাবেন। তবে EA থেকে রিফান্ড পেতে কিছুদিন ওয়েট করতে হবে আপনাকে। আপনার রিফান্ড ইস্যুটি কমপ্লিট হবার জন্য ৭ থেকে ১০ দিন অপেক্ষা করতে হবে। তবে ১০ দিনের মধ্যে টাকা ফেরত না আসলে EA support য়ে যোগাযোগ করুন।

অনান্য অনলাইন স্টোর

এগুলো ছাড়াও বিভিন্ন অনলাইন স্টোর রয়েছে, তাদের মধ্যে কোনগুলো রিফান্ড পলিসি ফলো করে আর কোনগুলো করে না সেগুলো নিচে সংক্ষিপ্ত আকারে দিয়ে দিলাম:

  1. Blizzard: Blizzard থেকে কোনো রিফান্ড পলিসি না থাকলেও কাস্টমার সার্পোট পেজে আপনি Refund game purchase অপশনটি পাবেন, এটায় ট্রাই করে দেখতে পারেন ।
  2. GOG: GOG স্টোরটির নিজস্ব “money back guarantee policy” রয়েছে। মানে হলো GOG এর মাধ্যমে বিক্রিত সকল গেমসের উপর রিফান্ড পাওয়া যাবে। তবে এতে শর্ত হচ্ছে গেমটি কেনার পর গেমটির কোনো সমস্যা বা বাগস যদি GOG সার্পোট স্টাফরা ঠিক করতে না পারে তাহলে আপনি ফুল রিফান্ড পাবেন। এখানে গেমটি খেলে ভালো লাগেনি বা “ভুলবশত” কেনা হয়েছে এই জাতীয় কারণ কাজ করবে না। এছাড়াও গেমটি কেনার প্রথম ৩০ দিনের মধ্যে রিফান্ড পাওয়া যাবে। রিফান্ড পেতে GOG কাস্টমার সাপোর্টে যোগাযোগ করুন।
  3. Humble Store: এই স্টোরের রিফান্ড পলিসিতে বলা রয়েছে “refunds are issued on a discretionary basis’’। স্টোর থেকে কেনা কোনো গেমসের রিফান্ড পাবেন কিনা সেটা জানতে তাদের অফিসিয়াল নির্দেশনাটি ফলো করুন।
  4. Microsoft Store (Apps): উল্লেখ্য ডিজিটাল এক্সবক্স গেমসে আপনি কখনোই রিফান্ড পাবেন না। তবে মাইক্রোসফট স্টোর থেকে গেমস ছাড়া সফটওয়্যার (যেমন windows 10 apps) এর ক্ষেত্রে রিফান্ড পেতে পারেন।
  5. Amazon Appstore: আমাজন অ্যাপস্টোর থেকে আপনি রিফান্ড পাবেন না। তবে ভুলবশত Kindle eBooks কেনার ক্ষেত্রে রিফান্ড পাবেন।
  6. Nintendo eShop: এখানে রিফান্ড সিস্টেম নেই।
  7. Sony PlayStation: আশ্চর্য্য হলেও সত্যি যে সনি প্লেস্টেশন স্টোর থেকে কোনো প্রকার রিফান্ড আপনি পাবেন না। বিস্তারিত জানতে তাদের terms of service টি পড়ে আসতে পারেন।
  8. Ubisoft Uplay: Uplay থেকেও কোনো প্রকার রিফান্ড আপনি পাবেন না, তাই আমি রেকোমেন্ড করবো একই গেম Uplay এবং Steamয়ে থাকলে আপনি গেমসগুলোকে স্টিম থেকে কিনুন।
Avatar
Fahad is a freelance writer and editor with nearly 10 years' experience in Bangla Technology Blogging who, while not spending every waking minute selling himself to websites around the world, spends his free time writing. Most of it makes no sense, but when it does, he treats each article as if it were his Magnum Opus - with varying results.