আপনি যদি মিউজিক লাভার হয়ে থাকেন তাহলে আপনার পিসির হার্ডডিক্সে অবশ্যই হয়তো শত শত কিংবা অনেক ক্ষেত্রে হাজার হাজার গান, প্লে-লিস্ট রয়েছে। আর আপনি যদি রেগুলার আপনার মিউজিক কালেক্টশনে নতুন নতুন গান যোগ করে থাকেন তাহলে “disk almost full” জাতীয় ওয়ার্নিংয়ের দেখা আপনি পেয়ে যেতে পারেন। এক্ষেত্রে অনেক সময় এমনটা হয়ে থাকে যে শত শত মিউজিকের মাঝে মধ্যে কিছু কিছু মিউজিক ফাইলস থাকে যা ডুপ্লিকেট বা ক্লোন হয়ে যায়। যেমন কোনো নতুন গান ডাউনলোড করার সময় আপনার মনে হতে পারে এই গানটা আপনি আগেও শুনেছিলেন কিন্তু আপনি সিউর না। এই ভেবে গানটি পিসিতে সেভ করে রাখলেন, এভাবে আপনার পিসিতে ডুপ্লিকেট সং দিয়ে ভরতে থাকার এক অবস্থায় গিয়ে পিসির স্টোরেজ পূর্ণ হয়ে যায়। আপনি ম্যানুয়ালভাবে কোন গানটির ডুপ্লিকেট রয়েছে সেটা খুঁজে বের করে ডিলেট করাটা একটা ঝামেলার কাজ এবং অনেক সময় এতে ব্যয় হয়ে যায়। তবে ডুপ্লিকেইট গান রিমুভ করার জন্য আলাদা সফটওয়্যার রয়েছে যেটা আপনার উইন্ডোজ ১০, ৮, ৭ কিংবা ম্যাক এর প্লেলিস্ট থেকে ডুপ্লিকেইট মিউজিক (যেমন mp3, m4a, m4p, wma, flac, ogg, ape ইত্যাদি) কে সনাক্ত করতে পারবে এবং ডিলেট করতে পারবে। আজ আমি আপনাদের সাথে সেরা ১০টি ডুপ্লিকেইট সং ফাইন্ডার সফটওয়্যার নিয়ে আলোচনা করবো। তো চলুন শুরু করা যাক।

Duplicate Music Fixer

আমাদের আজকের লিস্টের প্রথম স্থানে রয়েছে Duplicate Music Fixer। এই সফটওয়্যারটি উইন্ডোজ এবং ম্যাক দুটো অপারেটিং সংষ্করণেই আপনি ব্যবহার করতে পারবেন। Duplicate Music Fixer আপনার পিসির সকল মিউজিক ফাইলসগুলোকে স্ক্যান করবে, ডুপ্লিকেইট ফাইলসগুলোকে সনাক্ত করবে এবং ডিলেট করবে আর মিউজিকের সাজানো লাইব্রেরি বিল্ড করবে। এতে রয়েছে auto-mark ফিচার যার মাধ্যমে সরাসরি কোনো প্রকার ম্যানুয়াল ইনপুট ছাড়াই ডুপ্লিকেইট ফাইলস খোঁজতে পারবেন । এছাড়াও আপনি চাইলে ম্যানুয়াল ভাবে গানের বিট রেট, নির্দিষ্ট ফোল্ডারে, ফাইল ফরম্যাট টাইপ এবং ফাইল সাইজের মাধ্যমেও সার্চ দিতে পারবেন।

Duplicate Cleaner Free

ডুপ্লিকেইট ক্লিনার দিয়ে আপনি শুধুমাত্র মিউজিক ফাইলস নয় এর পাশপাশি আপনি সাধারণ ফাইলসগুলোকেও সার্চ করতে পারবেন এবং সনাক্তকরণ করে ডিলেট করতে পারবেন। তবে সফটওয়্যারটির কোনো ম্যাক ভার্সন নেই। সাধারণ ফাইলের পাশপাশি সফটওয়্যারটি mp3, m4a, m4p, wma, flac, ogg, ape ইত্যাদি মিউজিক ফরম্যাটও স্ক্যানিং করতে পারবে। সার্চ অপশন ছোট থেকে বড় করার ফিচারও আপনি এতে পেয়ে যাবেন। আর ডুপ্লিকেইট ফাইলস খুঁজে পাবার পর ডিলেট করার আগে ফাইলসগুলোর ইমেজ প্রিভিউও আপনি দেখতে পারবেন।

Similarity

আমাদের আজকের লিস্টের ৩য় স্থানে রয়েছে Similarity । সফটওয়্যারটির নামের মাধ্যমেই বুঝা যাচ্ছে সফটওয়্যারটি কাজ কি। Similarity দিয়ে আপনি mp3, aac, m4a, ogg, wav, flac, ape, wv, mpc, opus, tta মিউজিক ফাইল ফরম্যাটগুলোকে সার্চ দিয়ে ডুপ্লিকেট ফাইলসগুলোকে সনাক্ত করতে পারবেন এবং ডিলেট করতে পারবেন। এছাড়াও সফটওয়্যারটি দুটি একই জাতীয় ফাইলের মধ্যে কোয়ালিটির পার্থক্য বুঝে নিয়ে তারপরেই ডিলেট করবে। যেমন একটি মিউজিক ফাইলের ডুপ্লিকেট সংষ্করণটিতে উচ্চমানের বিটরেট রয়েছে অর্থাৎ ডুপ্লিকেট ফাইলটির কোয়ালিটি উন্নত, এখন সফটওয়্যারটি মূল ফাইলটিকে ডিলেট করে দেবে। এছাড়াও সহজে ব্যবহারযোগ্য ইউজার ইন্টারফেস রয়েছে সফটওয়্যারটিতে।

Duplicate Music Files Finder

Duplicate Music Files Finder সফটওয়্যারটি রয়েছে আমাদের আজকের লিস্টের ৪র্থ স্থানে। কারণ এই সফটওয়্যারটি আপনার পিসির শুধুমাত্র mp3 ফাইল ফরম্যাটগুলোকে খুঁজে বের করতে পারবে। তবে একটি মাত্র ফাইল ফরম্যাট সার্পোট করায় সফটওয়্যারটি ব্যবহার করা খুবই সহজ। আর সবথেকে মজার ব্যাপার হচ্ছে দুটি ডুপ্লিকেইট মিউজিক ফাইলের file name এক না হলেও সফটওয়্যারটি ডুপ্লিকেট মিউজিক ফাইলগুলোকে খুঁজে বের করতে সক্ষম। আর ডিলেট করার আগে সফটওয়্যারটি আপনাকে গানটি প্লে করার অপশন দেবে যাতে আপনি নিশ্চিত হতে পারেন এই দুটি ফাইলে ডুপ্লিকেট রয়েছে।

Easy Duplicate Finder

সফটওয়্যারটির নামের মতোই বোঝা যাচ্ছে যে সফটওয়্যারটি ব্যবহার করা বেশ সহজ। সহজের পাশপাশি এই টুলটি বেশ শক্তিশালিও বটে।  Easy Duplicate Finder দিয়ে আপনি একই সাথে মাল্টিপল স্ক্যান করতে পারবেন আবার প্রোগ্রামটিকে আপনি নির্দিষ্ট ফাইল টাইপস কেও দেখিয়ে দিতে পারবেন। এছাড়াও আপনার পিসির মিউজিক ফাইলস ছাড়াও আপনি টুলটি দিয়ে অনলাইট স্টোরেজেও স্ক্যান করাতে পারবেন যেমন Google Drive এবং Dropbox ।

dupeGuru

লিস্টের ৫ম স্থানে রয়েছে dupeGuru । এটি একটি ওপেন সোর্স প্রোগ্রাম, সফটওয়্যারটিকে আপনি উইন্ডোজ এবং ম্যাক দুস্থানেই ব্যবহার করতে পারবেন। dupeGuru দিয়ে আপনি মিউজিক ফাইলের সাথে সাথে প্রায় সকল প্রকারের ফাইলসই ডুপ্লিকেট স্ক্যান করতে পারবেন। আপনি আপনার হার্ডডিক্সে ফাইলের নাম দিয়ে অথবা কনটেন্ট দিয়ে স্ক্যান করতে পারবেন। তবে বিরক্তিকর ব্যাপার হচ্ছে কোনো সার্চ রেজাল্টে আপনাকে নিজে থেকে ডুপ্লিকেট ফাইলসগুলোকে একটা একটা করে সিলেক্ট করে তারপর ডিলেট করতে হবে। এতে বেশ সময়ের দরকার হতে পারে যদি আপনার পিসিতে অনেকগুলো ডুপ্লিকেট ফাইল থাকে।  অন্যদিকে উইন্ডোজে এই প্রোগ্রামটি চালাতে হলে আপনার পিসিতে লেটেস্ট Visual Basic C++ ইউটিলিটি ইন্সটল করা থাকতে হবে।

CCleaner

টেকনিক্যাল ভাবে বলতে গেলে CCleaner কিন্তু একটি ডুপ্লিকেইট ফাইন্ডার নয়, বরং এটি একটি পিসি ক্লিনিং সফটওয়্যার আর এটা অনেকেই তাদের পিসিতে এবং স্মার্টফোনে CCleaner ব্যবহার করে থাকেন। ক্লিনিংয়ের সাথে সাথে উইন্ডোজের রেজিস্ট্রি ফাইলসগুলোকেও ক্লিন করতে পারে CCleaner । তবে CCleaner এর টুলস সেকশনে আপনি Duplicate Finder নামের টুলটি পেয়ে যাবেন আর এই টুলটির মাধ্যমেই CCleaner কে আপনি একটি ডুপ্লিকেট ফাইল ফাইন্ডার হিসেবে ব্যবহার করতে পারবেন। এখানে আপনি ফাইলের নাম, সাইজ, ডেট এবং কনটেন্ট এর মাধ্যমে সার্চ করতে পারবেন আর স্পেসিফিক ফোল্ডারগুলোকেও ignore করে দিতে পারবেন। স্ক্যান রেজাল্ট থেকে ডুপ্লিকেট ফাইলগুলোকে আপনি ডিলেট করতে পারবেন এবং রেজাল্টকে text file এও সেভ করতে পারবেন।

 

Avatar
Fahad is a freelance writer and editor with nearly 10 years' experience in Bangla Technology Blogging who, while not spending every waking minute selling himself to websites around the world, spends his free time writing. Most of it makes no sense, but when it does, he treats each article as if it were his Magnum Opus - with varying results.