27 C
Dhaka
Wednesday, May 22, 2024

অপরিচিত মোবাইল নম্বরের তথ্যাদি বের করার ম্যাজিক অ্যাপ!

- Advertisement -

মোবাইলে অচেনা নম্বর থেকে কল আসলে আমরা কমবেশি সবাই শুরু দিকে একটু চিন্তায় পড়ে যাই কে বা কারা কল দিলো কেন দিলো। বিশেষ করে মেয়েরা এই সমস্যায় বেশি ভুগে থাকেন। বর্তমান এই তথ্যপ্রযুক্তির যুগে, ডিজিটাল বাংলাদেশের যুগে এই সমস্যার বেশ চমৎকার একটি সলিউশন আছে। আর আজ সেটা নিয়েই সংক্ষেপে আলোচনা করতে চলে এলাম।
ধরুন আপনি মিটিংয়ে আছেন, কিংবা জরুরী অফিসের কাজে ব্যস্ত, চিকিৎসা কার্য চালাচ্ছেন অথবা ড্রাইভ করছেন তখন অপরিচিত নম্বর থেকে কল আসলে একটু বিরক্তই হতে হয়। আবার অনেকেই আছেন অফিস বা গুরুত্বপূর্ণ সেবামূলক সংস্থায় কাজ করেন তাদের ফোনে দিনে শতশত আনসেভ নম্বর থেকে কল আসে। তারা যদি Truecaller বা এই জাতীয় অ্যাপ ফোনে ব্যবহার করেন তাহলে এই সমস্যা থেকে বেশ সহজেই মুক্ত পেতে পারবেন।

ধরুন অচেনা কোনো নাম্বারে ডায়াল করবেন কিংবা অচেনা নাম্বার থেকে কল আসলো, এই জাতীয় অ্যাপ ইন্সটল করা থাকলে সরাসরি ওই নাম্বারের ব্যক্তির নাম এবং ছবি (যদি দেওয়া থাকে) আপনার সেটে ভেসে উঠবে! ব্যাপারটা দারুণ না? অপরিচিত নাম্বার থেকে কল আসলে যদি সেই কলারের নাম আপনি জানতে পারেন তাহলে কলটি ধরতে বা কলারটিকে চিনতে আমাদের বেশ সহজ হয়ে যাবে। চলুন ভূমিকায় আর কথা না বাড়িয়ে মূল পোষ্টে চলে যাই:

- Advertisement -

Truecaller

Truecaller বিশ্বের এক নম্বর জনপ্রিয় এবং বহুল ব্যবহৃত কলার আইডি ও কল ব্লকিং অ্যাপ। এই অ্যাপ ব্যবহারের মাধ্যমে আপনি মোবাইলে সেভ করা না থাকলেও অচেনা নাম্বার থেকে কল আসলে কিংবা অচেনা নাম্বারে ডায়াল করার সময় কলারের নাম/ছবি দেখতে পারবেন!

যা যা লাগবে:
১) কল আসা কিংবা নাম্বার ডায়ালের পূর্বে সেটে ইন্টারনেট সংযোগ থাকতে হবে। মূলত অ্যাপটি ইন্টারনেটের মাধ্যমেই কাজ করে। আমরা কমবেশি সবাই বাসায়, বাইরে সব জায়গাতেই এখন নেট ব্যবহার করে থাকি।
২) অ্যাপটিকে আপনার সেটের Default কলিং অ্যাপ হিসেবে সেট করে নিতে হবে।

- Advertisement -

৩) অফিসিয়াল ভাবে অ্যান্ড্রয়েড ৮ এর নিচের সংস্করণে এটা কাজ করে না।

এছাড়াও তাদের ওয়েবপেজ থেকেও আপনি অচেনা নাম্বার দিয়ে তার তথ্যাদি জেনে নিতে পারবেন।

- Advertisement -

সেটআপ:
১) প্রথমে Truecaller অ্যাপটি প্লেস্টোর থেকে ডাউনলোড করে নিন।
২) অ্যাপটি চালু হলে Get Started বাটনে ট্যাপ করুন।

৩) তারপর আপনার ফোন নাম্বারটি অ্যাপে এন্টার করুন। ডুয়াল সিমের ক্ষেত্রে আপনার মূল সিম নাম্বারটি দিয়ে একাউন্ট খুলে নিন। পরবর্তীতে ২য় সিমটিও এড করতে পারবেন।

৪) নাম্বার দেওয়ার পর অ্যাপ থেকে আপনার নাম্বারে কল আসবে ভেরিফিকেশনের জন্য। আপনার কিছুই করতে হবে না এটা অটো ভেরিফাইড হয়ে যাবে। শুধুমাত্র সিমটি আপনার সেটে থাকলেই হবে।

 

৫) এবার আপনাকে একাউন্ট খুলে নিতে হবে। সহজেই একাউন্ট খুলে নেবার জন্য ফেসবুক বা গুগল অপশটি সিলেক্ট করতে পারেন। সাজেশন থাকবে ফেসবুক অপশটি চয়েজ করার।

ব্যাস সেটআপ হয়ে গেল!

স্যামসং, Huawei, ASUS এবং যেসব সেটে ভ্যানিলা অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহৃত হয় সেইসব সেটে আলাদা করে Truecaller এর নোটিফিকেশন অন করে দিতে হবে।

আর অবশ্যই অবশ্যই Truecaller অ্যাপকে আপনার ডিফল্ট অ্যাপ হিসেবে সেট করে দিতে হবে।

আইফোনের ক্ষেত্রে বাকি সব ঠিক আছে শুধুমাত্র ইন্সটলের সময় Allow Permissions দিতে হবে।

এছাড়াও Settings>Phone>Call Blocking & Identification>Truecaller অপশন থেকে এটাকে অন করে দিতে হবে।

এছাড়াও এটার আরেকটি ফিচার হচ্ছে কল রিজন। কি কারণে কাউকে কল করছেন সেটা আপনি এখানে সেটআপ করে নিতে পারবেন। যাকে কল দিবেন তার Truecaller অ্যাপে কল যাওয়ার জন্য কল রিজনটাও ভেসে উঠবে! প্রেমিক যুগলদের জন্য এই ফিচারটি বেশ দারুণ!

প্রিমিয়াম


অনান্য অ্যাপের মতো এখানেও প্রি ও পেইড অপশন রাখা হয়েছে। প্রিমিয়াম ভার্সনে এক্সট্রা কিছু ফিচার দিয়ে রাখা হয়েছে। চাইলে পেইড অপশনটিও দেখতে পারেন তবে আমজনতাদের জন্য ফ্রি ভার্সনই যথেষ্ট।

পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া

এতক্ষণ এই অ্যাপের সুবিধাগুলো বললাম এবার অসুবিধাগুলো বলছি।

১) কথিত আছে এই কোম্পানি ইউজাদের তথ্য অন্য কোম্পানির কাছে বিক্রি করে থাকে।
২) আপনার দেওয়া নাম/ছবি অন্যদের অ্যাপেও কলিংয়ের সময় ভেসে উঠবে, এতে আপনারও প্রাইভেসি নস্ট হতে পারে। এক্ষেত্রে ছদ্মনাম/ছবি ব্যবহার করতে পারেন।
৩) সবসময় ইন্টারনেট সংযোগ থাকা লাগে

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here