Intel Cascade Lake-X! Successor of Skylake-X

গত বছর অনেকটা কনজুমার হেটের মধ্যেই রিলিজ হয় ইন্টেলের ওয়ার্কস্টেশন এবং প্রফেশনাল কম্পিউটার ক্যাটাগরির প্রসেসর সিরিজ Skylake-X। ডুয়াল চ্যানেল মেমোরির I5 ও I7 এর সাথে সাথে কোয়াড চ্যানেল মেমোরির I7 ও I9 এর একেবারে ১৮ কোর ও ৩৬ থ্রেডের সুপার পাওয়ারফুল এবং সাধারণ মানুষের সাধ্যের বাইরের প্রসেসর রিলিজ করা হয়। তাই আমরা অনেকটাই জানতাম এর নেক্সট জেনারেশনের প্রসেসরে সেইম দামের মধ্যেই আমরা কোর ও থ্রেড কাউন্টের উন্নতি দেখতে পারব। কিন্তু কম্পিউটেক্সে এমন ভাল মানের উন্নতি যে দেখা যাবে তা কারো পক্ষে কল্পনা করা সম্ভব হয় নি। কম্পিউটেক্স ২০১৮ তে এনাউন্স হল এবং দেখা মিলল ইন্টেলের পরবর্তী জেনারেশনের ওয়ার্কস্টেশন ক্যাটাগরির প্রসেসর সিরিজ Cascade Lake-X এর ম্যাসিভ ২৮ কোরের সিপিউ যা আসুসের বুথে চলছিল ৫.০ গিগাহার্টজ স্পীডে।

এই Cascade Lake-X প্রসেসর সিরিজ হবে ইন্টেলের প্রিমিয়াম ওয়ার্কস্টেশন ও প্রফেশনাল ক্যাটাগরির প্রসেসর। ঠিক কত কোর থেকে এই সিরিজ শুরু হবে তা এখনো বলা যাচ্ছে না। তবে যেহেতু ইন্টেলের ৮ কোরের সাধারণ কনজুমার লেভেলের প্রসেসর এবং Z390 মাদারবোর্ড কিছুদিনের মধ্যেই বাজারে আসতে যাচ্ছে তাই বলা যাচ্ছে এই সিরিজ শুরু হতে পারে ১০ কোর থেকে।

তবে সকল প্রসেসরের দেখা কম্পিউটেক্সে না মিললেও দেখা মিলল একেবারে মোস্ট প্রিমিয়াম ম্যাসিভ ২৮ কোর ৫৬ থ্রেডের Cascade Lake-X প্রসেসরের। এমন ভারী প্রসেসরের স্পীড ৪.০ গিগাহার্টজের উপরে তুলতেই অনেক পাওয়ার ড্র এর প্রয়োজন হয়। কিন্তু এই প্রসেসরকে আসুস ও EKWB এর কম্বাইন্ড সিস্টেমে তুলে আনা হয়েছে একেবারে ৫ গিগাহার্টজ স্পীডে। এ এম ডির থ্রেডরিপার ২ এর এনাউন্সমেন্ট আগামীকালই হতে পারে। তাই এ এম ডির এনাউন্সমেন্টের অনেকটা প্রতিপক্ষ হিসেবে এই প্রসেসর শো কেইস করা হয়ে থাকতে পারে। অফিসিয়াল দাম এখনো প্রকাশ না করা হলেও এই বছরের Q4 অর্থাৎ শেষ ৩ মাসের মধ্যে মার্কেটে আসতে পারে এই সিরিজের প্রসেসর।