25 C
Dhaka
Wednesday, February 1, 2023

হয়ে উঠুন অ্যান্ড্রয়েড ১০ প্রো এই কটি অ্যাপস ব্যবহার করে!

- Advertisement -

আপনারা হয়তো ইতিমধ্যেই জেনেছেন যে অ্যান্ড্রয়েড তাদের পরবর্তী মেজর আপগ্রেড বাজারে ছেড়েছে। কথা বলছি অ্যান্ড্রয়েড ১০ নিয়ে। ইতিমধ্যেই গুগল পিক্সেল, Essensial ফোন এবং বেশ কিছু ব্রান্ডের ফ্ল্যাগশীপ ডিভাইসে অ্যান্ড্রয়েড ১০ চলে এসেছে। নতুন এই অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমে থাকছে অনেক নতুন ফিচার এবং আপগ্রেড। কিন্তু কেউই ১০০% নয়, অ্যান্ড্রয়েডের বেলাও সেটা বলা চলে। কিন্তু আমি আজ এমন কয়েকটি মারাত্বক কাজের অ্যাপ নিয়ে এসেছি যেগুলো আপনি ব্যবহার করলে আপনিও হয়ে উঠবেন অ্যান্ড্রয়েড ১০ প্রো বা গুরু! উল্লেখ্য যে, অ্যাপগুলো পুরোনো অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসেও চলবে তবে ৬.০ এর নিচে চলবে কিনা সেটা বলতে পারছি না। তো চলুন দেখে নেই অ্যান্ড্রয়েড গুরু হতে হলে কি কি অ্যাপের প্রয়োজন হচ্ছে:

VolumeSlider

- Advertisement -

অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে ভিডিও কনটেন্ট দেখার জন্য আমরা সবথেকে বেশি ব্যবহার করে থাকি MxPlayer কে। আর সেখানে কোনো ভিডিও দেখার সময় ভলিউম বাড়ানো / কমানোর জন্য আমরা স্ক্রিণের ডান দিকের অংশকে উপরে নিচে ঘঁষে থাকি (স্লাইড) । ভলিউম কীগুলোর দীর্ঘস্থায়ীত্ব রক্ষায় এই ফিচারটি আমাদের বেশ কাজে লাগে। কিন্তু এখন আপনি চাইলে সহজেই পুরো অ্যান্ড্রয়েড সিস্টেমের ভলিউম কে এভাবে স্লাইডার ফিচারে নিয়ে আসতে পারেন। আর সেটা করার জন্য আপনাকে ব্যবহার করতে হবে VolumeSlider নামের এই অ্যাপটিকে। আর শুধুমাত্র ভলিউমই নয়, MxPlayer এর মতো স্ক্রিণের ডান সাইডে স্ক্রল করে আপনি ডিসপ্লে ব্রাইটনেসও কনট্রোল করতে পারবেন। এছাড়াও ডিসপ্লের কোন দিকে ঘঁষা দিলে কি হবে সেটাও আপনি অ্যাপটির সেটিংস থেকে নিজের মতো করে কাস্টমাইজেশন করে নিতে পারবেন! আর সবথেকে ভালো ব্যাপার হচ্ছে এটা ব্যবহার করতে কোনো রুট একসেস লাগে না।

প্লেস্টোর লিংক!

ApowerMirror

- Advertisement -

আমার মতো যারা দিনে অধিকাংশ সময় কম্পিউটারের সামনে থাকেন তাদের জন্য (ব্যাস্ত মানুষ!) বার বার মোবাইল ঘেঁটে নোটিফিকেশন বা কোনো কিছু চেক করা বেশ সময় খরচ এবং বিরক্তিকর ব্যাপার। এ জন্য গত কয়েক দিনের আগের একটি পোষ্ট করেছিলাম, অ্যান্ড্রয়েড নোটিফিকেশন কিভাবে পিসিতে নিয়ে আসবেন। সেখানে কিছু পাশ্বপ্রক্রিয়াও আপনারা ফেসবুকের কমেন্টে বলেছিলেন। আজ আমি সেই পদ্ধতির বিকল্প নিয়ে এলাম। হ্যাঁ কথা বলছি একটি স্ক্রিণ মিররিং অ্যাপ ApowerMirror নিয়ে। এই অ্যাপটির মাধ্যমে আপনি আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের সম্পূর্ণ স্ক্রিণকে পিসিতে মিরর করতে পারবেন। তাতে আপনাকে কোনো নোটিফিকেশন বা অন্য কিছু চেক করার জন্য মোবাইলকে ধরতে হবে না!

একই সাথে এর উল্টোটাও করতে পারবেন, মানে পিসির স্ক্রিণকে অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসে মিরর করতে পারবেন! ধরুণ অফিসের পিসিতে কাজ করছেন, ওয়াশরুমে যাওয়ার প্রয়োজন পড়লো, এখন তো আর অফিসের পিসি / ল্যাপটপ নিয়ে ওয়াশরুমে যাওয়া তো পসিবল নয়, মোবাইলে পিসির স্ক্রিণ মিরর করে সাথে নিয়ে গেলেন, এতে করে সবসময়ই পিসির স্ক্রিণের উপর আপনি নজর রাখতে পারবেন।

- Advertisement -

প্লেস্টোর লিংক!

DNS666 (root)

অ্যান্ড্রয়েডের অনেকগুলো এড ব্লকিং অ্যাপস রয়েছে। কিন্তু আমি ব্যাক্তিগত ভাবে DNS666 অ্যাপকে বেশি পছন্দ করি কারণ এটি একই সাথে ব্লকিং আর VPN সার্ভিস দুটোই দিতে পারবে। ভিপিএন এর মাধ্যমে আপনি সিলেক্ট করে নিতে পারবেন কোন কোন ট্রাফিক এই ভিপিএন এর ভেতর দিয়ে যেতে পারবে। এভাবে আপনি আপনার ডিভাইসে সকল প্রকার অ্যাডস, বিরক্তিকর পপ আপস সবই ব্লক করে দিতে পারবেন। তবে দুঃখের বিষয় হচ্ছে এটাকে প্লেস্টোরে আপনি পাবেন না। একে আপনাকে f-Droid এর মাধ্যমে ব্যবহার করতে হবে। আরো একটি বিষয় হচ্ছে এটি রুট একসেস ছাড়া ব্যবহার করতে পারবেন না!

f-Droid ডাউনলোড লিংক। 

Remote Fingerprint Unlock

ফিঙ্গারপ্রিন্ট দিয়ে মোবাইল তো আনলক করেছেন। কিন্তু পিসিকে কখনো ফিঙ্গারপ্রিন্ট দেয় আনলক করেছেন কি? ল্যাপটপে ফিঙ্গারপ্রিন্ট দেওয়া থাকলেও ডেক্সটপে কিন্তু এটা নেই। কিন্তু এখন Remote Fingerprint Unlock অ্যাপটির মাধ্যমে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরটি এখন আপনার ডেক্সটপ পিসির জন্যেও ব্যবহার করতে পারবেন! হ্যাঁ এটা আপনার ফিঙ্গারপ্রিন্টের মতো সিকিউর এবং ফাস্ট! বলা বাহুল্য যে এটা In-Display ফিঙ্গারপ্রিন্ট ওয়ালা ফোনেও কাজ করবে! এটা ফ্রিতে ডাউনলোড এবং ব্যবহার করতে পারলেও এর প্রো সংস্করণে বেশ কিছু ফিচার লক করে দেওয়া হয়েছে । যেমন একাদিক একাউন্ট এবং একাধিক পিসি ব্যবহার করতে হলে আপনাকে প্রো সংস্করণটি কিনে নিতে হবে।

প্লেস্টোর লিংক।

VMOS

অ্যান্ড্রয়েড ১০ হচ্ছে নতুন অপারেটিং সিস্টেম। একই সাথে আপনি নতুন স্মার্টফোন কিনলেন যেটায় সদ্য রিলিজ পাওয়া অ্যান্ড্রয়েড ১০ দেওয়া রয়েছে। এখন আপনি চাইলেও অ্যান্ড্রয়েড ১০ কে এখনি রুট করতে পারবেন না। কারণ এর রুট করার সিস্টেম এখনো বের হয়নি আর সেটা বের হতে হতে কয়েক মাস লেগে যাবে। তাহলে কি অ্যান্ড্রয়েড ১০ এ রুটেট অ্যাপ চালাতে পারবেন না? হতাশ হবার কিছুই নেই। কারণ VMOS অ্যাপটি আপনার ডিভাইসে ভাচুর্য়াল অ্যান্ড্রয়েড নিয়ে আসবে যেটায় আপনি রুট একসেস পেতে পারবেন। এটা হচ্ছে একটি Virtual Android সিস্টেম। মানে আপনার অ্যান্ড্রয়েডের মধ্যেই আরেকটি অ্যান্ড্রয়েডকে ভার্চুয়াল ভাবে আপনি চালাতে পারবেন, এবং ভাচুর্য়াল অ্যান্ড্রয়েডেই আপনি System Wide রুট একসেস একটিভ করে নিতে পারবেন। তবে মনে রাখবেন যে এই অ্যাপটিতে অ্যান্ড্রয়েড ৫.১.১ ললিপপ দেওয়া রয়েছে। তাই অনেক এডভান্স অ্যাপ এটাকে নাও চলতে পারে, আর একই সাথে বিভিন্ন ফাইল এক্সপ্লোরারেও আপনি দেখছেন যে এইখানে রুট একসেসে আপনি যেতে পারবেন। তবে ভয়ের কিছু নেই, এটা আপনার মূল অ্যান্ড্রয়েডের কোনো কিছুকে মডিফাইড করবে না।

প্লেস্টোর লিংক।

EVA Facial Mouse

আপনার চেহারা দিয়েই মোশন সৃষ্টি করে আপনার ডিভাইসকে কনট্রোল করতে পারবেন! যাদুর মতো মনে হলেও এটা এখন আপনি নিজেও ট্রাই করে দেখতে পারেন। এটার জন্য আপানকে EVA Facial Mouse নামের একটি অ্যাপকে ব্যবহার করতে হবে। এটা প্রথম প্রথম একটু কস্টকর হলেও একবার আয়ত্বে আনতে পারলে আপনাকে আর হাত দিয়ে ফোন ব্যবহার করতে হবে না। এটা আপনার ফ্রন্ট ক্যামেরার সাহায্যে আপনার ফেসিয়াল মোশনের মাধ্যমে স্ক্রিণকে কনট্রোল করতে দিবে। আর স্ক্রিণে পিসির মতো একটি মাউসও এসে যাবে।

প্লেস্টোর লিংক।

Heart Rate Monitor

আমাদের আজকের লিষ্টে সবথেকে শেষে রয়েছে হার্ট রেট মনিটর অ্যাপ। প্লেস্টোরে অনেক অ্যাপ রয়েছে যেটার নাম দেখলেই যে কেউ বলে দিতে পারবে যে এটা একটা ভূয়া অ্যাপ! এই Heart Rate Monitor অ্যাপটির রিভিউ দেখেও প্রথমে আমি সেটাই ভেবেছিলাম। কিন্তু পরে ট্রাই করে দেখার পর আমি নিজেই অবাক!
আপনার মোবাইলের পেছনের ক্যামেরার ফ্ল্যাশ লাইটকে আপনার শরীলের যেকোনো অংশে কিছুক্ষণের জন্য ধরে রাখুন, আর তাতেই এই অ্যাপটি আপনার হার্ট রেট বের করে দেবে।

আর আরো মজার ব্যাপার হচ্ছে এই হার্ট রেট অনেকটাই একুরেট। চিত্রে বাম দিকে অ্যাপটির দেওয়া স্কোর দেখুন আর ডান দিকে একচুয়াল হার্ট রেট সেন্সরযুক্ত ডিভাইসের রেট দেখুন। দুটো রেজাল্টই অনেক কাছাকাছি।

প্লে-স্টোর লিংক।

- Advertisement -

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here