গতকাল হয়ে গেল AMD এর বার্ষিক কর্পোরেট ইভেন্ট ‘New Horizon’ এর ২০১৮ এডিশন। এই ইভেন্টে মূলত বার্ষিক লাভ ও ক্ষতি এবং আপকামিং প্রোডাক্ট ও রিসার্চ নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে। যদিও এই ইভেন্টে নতুন রাইজেন প্রসেসর বা RX সিরিজের জিপিউ নিয়ে আলোচনা করার আশা রাখা হলেও মূলত ডাটা সেন্টার ইকোনমি নিয়েই মূল আলোচনা করা হয়। কিন্তু এই ডাটা সেন্টারের আলোচনার মাঝেই AMD এর প্রেসিডেন্ট ও সিইও লিসা সু অফিসিয়ালি আগামি বছর অর্থাৎ ২০১৯ সালে ৭ ন্যানোমিটারের প্রসেসর ও জিপিউ মার্কেটে আনার ঘোষণা দেন।

AMD 7nm EPYC Processor

যদিও অফিসিয়ালি কোন মেইন্সট্রিম রাইজেন প্রসেসরের ঘোষণা না আসলেও আমরা ৭ ন্যানোমিটারের প্রথম প্রসেসরের ঘোষণা পাই। যারা জানেন না, ডাটা সেন্টার ও কমার্শিয়াল লেভেলে AMD গতবছর রিলিজ করে EPYC সিরিজের প্রসেসর। মাত্র ৫ হাজার ডলারের মধ্যে ৬৪ কোর ও ১২৮ থ্রেডের প্রসেসর সাপ্লাইয়ের কারণে বড় বড় কোম্পানি যেমন ডেল, সিসকো সহ অনেকের কাছে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠে EPYC প্রসেসর। এছাড়াও অনেককে ইন্টেলের জিওন প্রসেসর রিপ্লেস করে EPYC প্রসেসর সিস্টেম দিয়ে তাদের সার্ভার পরিচালনা করা শুরু করেন। ইন ফ্যাক্ট AMD এর পার্টনার হিসেবে সদ্য যোগ দিয়েছে অনলাইন শপিং জায়ান্ট এমাজন। প্রথম জেনারেশনের এপিক প্রসেসর ১৪ ন্যানোমিটার আর্কিটেকচার থাকলেও পরবর্তী জেনারেশনে থাকছে ৭ ন্যানোমিটার আর্কিটেকচার। এতে করে, কম পাওয়ারের মধ্যে সেইম পারফর্মেন্স প্লাস বেটার ওভারক্লকিং ফিচার পাওয়া যাবে প্রসেসরের মধ্যে।

এছাড়াও, ৭ ন্যানোমিটার প্রসেসর আর্কিটেকচার থাকার কারণে বাড়ানো গিয়েছে কোর ডেন্সিটি। যার কারণে আগের জেনারেশনের চেয়ে অর্ধেক পাওয়ারে পাওয়া যাবে ২৫% বেশি পারফর্মেন্স। এই ৭ ন্যানোমিটার আর্কিটেকচার দিয়েই আগামি জেনারেশনের মেইন্সট্রিম রাইজেন প্রসেসর তৈরি করা হবে বলে ঘোষণা করা হয়।

আরো বলা হয় AMD থার্ড পার্টি রিসার্চ ফার্ম TSMC এর সাথে একটি গভীর পার্টনারশিপ গড়ে তুলেছে। আপনারা যারা জানেন না, TSMC ই মূলত AMD এর জন্য ৭ ন্যানোমিটার প্রসেসর আর্কিটেকচার রিসার্চ করেছে এবং ভালো ধরণের ফলাফল ডেলিভার করছে। এই দিক থেকে ইন্টেল অনেকটাই পিছিয়ে আছে। এছাড়া TSMC এর উল্লেখযোগ্য পার্টনার হিসেবে আছে কোয়ালকম যাদের স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসর আর্কিটেকচার রিসার্চও তারা হ্যান্ডেল করে থাকে।

এছাড়াও অফিসিয়ালি এনাউন্স করা হয় যে Zen 3 এর স্যাম্পল অলরেডি এ এম ডি ল্যাবের মধ্যে প্রসেস করা হচ্ছে এবং Zen 4 এর জন্য রিসার্চ শুরু হয়ে গেছে। Zen 4 হতে পারে বিশ্বের প্রথম ৫ ন্যানোমিটারের সিপিউ আর্কিটেকচার।

বিশ্বের প্রথম 7nm জিপিউ

৭ ন্যানোমিটার প্রসেসরের পাশাপাশি AMD অফিসিয়ালি তাদের নতুন ৭ ন্যানোমিটারের জিপিউও ঘোষণা করে। এই VEGA 20 নামের প্রসেসর মেইন্সট্রিম ইউজারদের জন্য না হলেও এটি হতে যাচ্ছে ডাটা সেন্টারের জন্য বিশ্বের মধ্যে সর্বপ্রথম ৭ ন্যানোমিটার আর্কিটেকচারে তৈরি জিপিউ।

এই VEGA 20 আর্কিটেকচারের জিপিউর মধ্যে থাকছে ৬৪ কম্পিউট ইউনিট, ৩২ জিবি HBM 2 মেমোরি, ১ টেরাবিট পার সেকেন্ড মেমোরি ব্যান্ডউইথ এবং আপকামিং পিসিআই ৪.০ সকেট ও লেইন সাপোর্ট। এছাড়া এর মধ্যে পাওয়া যাবে ১৩.২৩ বিলিওন ট্রান্সিস্টর যা থাকবে ৩৩১ স্কয়ার মিলিমিটার ডাইয়ের মধ্যে। এই ডেন্স ডিজাইনের মধ্যে AMD তাদের জিসিএন আর্কিটেকচারকেও অনেকটা উন্নত করেছে যা আগের জেনারেশনের সেইম পাওয়ার ড্রতে অনেক বেশি পারফর্মেন্স দিতে সক্ষম হবে। এছাড়াও, ৭ ন্যানোমিটারের চিপসেট থাকার কারণে ৭.৪ টেরাফ্লপ ডাবল প্রিসিশন কম্পিউট, ১৪.৮ টেরাফ্লপ সিঙ্গেল প্রিসিশন কম্পিউট এবং ২৯.৬ টেরাফ্লপ হাফ প্রিসিশন কম্পিউট পাওয়ার দিতে সক্ষম হতে পারে।

এই VEGA 20 আর্কিটেকচার ব্যাবহার করে এখন রিলিজ করা হচ্ছে দুটি জিপিউ। একটি হচ্ছে MI60 এবং অপরটি হচ্ছে MI50। MI50 জিপিউতে মূলত MI60 হতে অর্ধেক পরিমাণের পাওয়ার ও স্পেসিফিকেশন থাকবে।

আগামি বছর জানুয়ারি মাসে আমেরিকার লাস ভেগাসে অনুষ্ঠিত CES 2019 শোতে AMD এর কী নোট সেশন রয়েছে। AMD এর মেইন্সট্রিম থার্ড জেনারেশন রাইজেন প্রসেসর এবং গেমিং জিপিউর অফিসিয়াল এনাউন্সমেন্ট তখনি হতে পারে। আপডেট আসা মাত্রই আপনাদের জানিয়ে দেয়া হবে।

আপনারা চাইলে ফুল ইভেন্ট দেখে আসতে পারেন নীচের ইউটিউব ভিডিও থেকে।