আপনারা জানেন ডোনাল্ড ট্রাম্পের সরকার আমেরিকায় হুয়াওয়েকে নিষিদ্ধ করে দিয়েছে। যার কারণে আমেরিকায় থাকা সকল ইলেক্ট্রনিক ব্র্যান্ডের সাথে হুয়াওয়ের ব্যবসা বন্ধ হয়ে যাওয়ার অবস্থা হয়েছে। ইতিমধ্যে গুগোল অফিসিয়ালি হুয়াওয়ের সাথে তাদের সকল সম্পর্ক ছিন্ন করেছে। অর্থাৎ এখন থেকে হুয়াওয়ের ফোনে আর এন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম এবং ফিচার পাওয়া যাবে না।

এন্ড্রয়েড ব্যানের খবরটি পড়তে ক্লিক করুন এখানে 

তবে গুগোলের পর অন্য কোন কোম্পানির সম্পর্ক ছিন্ন করা আশা না করা গেলেও কিছুক্ষণ আগেই খবর পাওয়া গিয়েছে এই চাইনিজ ফোন উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের সাথে সকল প্রকার ব্যবসায়িক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে সিপিউ এবং মাইক্রোচিপ উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান ইন্টেল এবং কোয়ালকম।

Bloomberg এর রিপোর্ট হতে জানা গিয়েছে হুয়াওয়ে অফিসিয়ালি আমেরিকায় ব্ল্যাকলিস্টেড হওয়ার কিছুক্ষণ পরেই এই খবর আসে। উল্লেখ্য ইন্টেল হুয়াওয়েকে তাদের ল্যাপটপ এবং সার্ভারের জন্য সিপিউ এবং চিপসেট সাপ্লাই দিয়ে থাকে। অপরদিকে কোয়ালকম হুয়াওয়ের বাজেট ফোনের জন্য স্ন্যাপড্রাগন সিপিউ সাপ্লাই করে থাকে যার লেটেস্ট এডিশন আমরা সম্প্রতি রিলিজ হওয়া Y Max ফোনের মধ্যে দেখতে পেয়েছি। কিন্তু এমনটি হবার কারণে হুয়াওয়ে তাদের চিপসেট সাপ্লাই মার্কেটে বেশ বড় ধরণের একটি ধাক্কা খেল।

এছাড়াও আরো দুটি কোম্পানি Broadcam এবং Xilinx ও হুয়াওয়ের সাথে সকল সম্পর্ক ছিন্ন করার ঘোষণা দিয়েছে। অপরদিকে গুগোল তাদের অফিসিয়াল এন্ড্রয়েড টুইটার একাউন্ট থেকে এনাউন্স করেছে কারেন্ট মার্কেটে এভেল্যাবল থাকা সকল ফোনই গুগলের এন্ড্রয়েড এপস এবং ফিচার ব্যবহার করতে পারবে। তবে ভবিষ্যৎ এন্ড্রয়েড ওএস আপডেট আর পাওয়া যাবে না এবং আপকামিং ফোনগুলো এন্ড্রয়েড ব্যবহার করতে পারবে না।