আপনারা ইতিমধ্যে জানেন হুয়াওয়ের ভবিষ্যৎ রিলিজের ফোনগুলোতে আর এন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম পাওয়া যাবে না। আর ইতিমধ্যেই গুগোল, ইন্টেল এবং কোয়ালকম সহ মোট পাচটি কোম্পানি হুয়াওয়ের সাথে তাদের ব্যবসায়িক সকল ধরণের সম্পর্ক বাতিল করে ফেলেছে। কিন্তু হুয়াওয়ে অনেক আগেই এই বিপদের আঁচ পেয়ে গিয়েছিল। তাই এই এন্ড্রয়েডবিহীন অবস্থাকে কাউন্টার দেয়ার জন্য তারা নিয়ে এসেছে নিজস্ব Hongmeng OS যা ক্লেইম করা হচ্ছে এন্ড্রয়েডের থেকে বেটার অপ্টিমাইজেশন এবং পারফর্মেন্স দিতে সক্ষম হবে।

হুয়াওয়ের এই Hongmeng OS ২০১২ সাল থেকেই ডেভেলপমেন্ট করা হচ্ছিল বলে জানা গিয়েছে। কিন্তু সম্পূর্ণভাবে ফাইনাল ভার্শনের কাছে এখনো না পৌঁছানয় গুগোলকে তারা এন্ড্রয়েডের লাইসেন্স ফি দিয়ে আসছিল। কিন্তু এখন যখন গুগোল তাদের সাথে সকল ধরণের সম্পর্ক ছিন্ন করেছে তাই এই অপারেটিং সিস্টেম ডেভেলপমেন্টে বেশ তোর জোর এসে যাবে। তবে হুয়াওয়ে প্রতিনিধি থেকে পিসিবি বিডি জানতে পেরেছে যে, এই অপারেটিং সিস্টেম ডেভেলপমেন্ট প্রায় শেষের দিকে এবং খুব শীঘ্রই আপকামিং মডেলগুলো যেমন Huawei Y10, Mate 30 Pro, Honor 9 ইত্যাদি ফোনে এই Hongmeng OS ব্যবহার করা হবে।

তবে বলে রাখা ভালো Hongmeng OS হচ্ছে শুধুমাত্র ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট নেইম। ফাইনাল ভার্শন রিলিজ হলে এই অপারেটিং সিস্টেমের নাম কি একই থাকবে নাকি এটি নিয়ে কোন প্রকার তথ্য এখনো পাওয়া যায় নি। তবে নিজস্ব মোবাইল অপারেটিং সিস্টেম ডেভেলপমেন্ট তেমন নতুন কিছু নয়। স্যামসাঙ্গের স্মার্ট টিভি ও ওয়াচে রয়েছে Tizen OS যা অবশ্য মোবাইল ইন্ডাস্ট্রিতে তেমন একটা পাত্তা পায় নি। এছাড়াও এমাজন সার্ভিস Kindle গুগোলের ওপেন সোর্স ভার্শন ব্যবহার করে। তবে হুয়াওয়ের এই নতুন অপারেটিং সিস্টেম কতটুকু পারফর্মেন্স দিতে সক্ষম হবে তা রিলিজের পরেই বলা যাবে।

হুয়াওয়ের ব্ল্যাকলিস্ট হবার সকল তথ্য পড়ে নিন এখান থেকে