আগামী ১৪ই মে আনুষ্ঠানিকভাবে মুক্তি পেতে যাচ্ছে ওয়ানপ্লাস ৭ সিরিজের নতুন দুটি স্মার্টফোন ওয়ানপ্লাস ৭ ও ওয়ানপ্লাস ৭ প্রো যা ওয়ানপ্লাস এর পক্ষ থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে। এবারই প্রথমবারের মত ওয়ানপ্লাস একই সাথে বেঙ্গালুরু, নিউ ইয়র্ক আর লন্ডনে একই সাথে লঞ্চিং ইভেন্টের আয়েজন করছে।

ভারতের স্থানীয় সময় রাত ৮:১৫, নিউ ইয়র্কের স্থানীয় সময় সকাল ১১ টা এবং লন্ডরের স্থানীয় সময় বিকেল ৪টায় ইভেন্ট তিনটি অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া শুধুমাত্র চায়নাতেই দুটি ডিভাইসের জন্য আলাদা ইভেন্টের আয়েজন করা হবে ১৬ই মে স্থানীয় সময় দুপুর ২টা থেকে।

আগের ওয়ানপ্লাস ফোনগুলোতে ফুল এইচডি ৬০ হার্টজের ডিসপ্লে থাকলেও এবার শোনা যাচ্ছে যে ওয়ানপ্লাস ৭ ফোনটিতে থাকছে কোয়াড এইচডি প্লাস ৯০ হার্টজের ডিসপ্লে। তাছাড়া এবারই ওয়ানপ্লাস প্রথমবারের মত ৬.৬৪ ইঞ্চের কার্ভড ডিসপ্লে ব্যবহার করছে যা অনেকটা স্যামসাং এর ফ্ল্যাগশিপ ফোনগুলোর মত। আর সেই ডিসপ্লের উপর দিয়ে থাকছে পপ আপ সেলফি ক্যামেরা।

গুজব রয়েছে যে ওয়ানপ্লাস এবার তাদের ফ্ল্যাগশিপে ট্রিপল ক্যামেরা দিচ্ছে যা ট্রু ৪৮ মেগাপিক্সেলের ছবি তুলতে সক্ষম। তাছাড়া উড়ো খবর রয়েছে যে ওয়ানপ্লাস ৭ ভ্যারিয়ান্টে স্টেরিও স্পিকার দিলেও ৭ প্রো ভ্যারিয়ান্টে কাস্টমারদের জন্য থাকছে থাকছে অরাল (৭.১ সারাউন্ড) এক্সপেরিয়েন্স। তাছাড়া প্রো ভ্যারিয়ান্টে ৪০০০ mAh ব্যাটারি থাকার সম্ভাবনার কথাও শোনা যাচ্ছে। তবে এসবই এখনো গুজব। আনুষ্ঠানিক ঘোষণার আগে এর কোনটিই এখন পর্যন্ত নিশ্চিত করে বলা সম্ভব হচ্ছেনা।

ওয়ানপ্লাস তাদের স্টেটমেন্টে জানিয়েছে যে এই ইভেন্টগুলো তাদের ইতিহাসের সবচেয়ে বড় ইভেন্ট হতে যাচ্ছে। আগের সবগুলো ইভেন্টের মত এবারও ওয়ানপ্লাস টিকেট এর মাধ্যমে অ্যাটেন্ড করার ব্যবস্থা করেছে। আগামী ২৫ এপ্রিল থেকেই এসব ইভেন্টের টিকিট ওয়ানপ্লাসের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে সংগ্রহ করা যাবে। তাছাড়া তাদের অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেল থেকেও ইভেন্টটি সরাসরি লাইভ স্ট্রিম করা হবে।