Samsung Galaxy S9 & S9+! The Next Flagship of Flagships?

আপনারা জানেন আগামি ২৫ ফেব্রুয়ারি অফিসিয়ালি আনভেইল হতে যাচ্ছে Samsung এর পরবর্তী জেনারেশনের ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন Samsung Galaxy S9 এবং S9+। গত কয়েকমাস ধরে এই ফোনের স্পেসিফিকেশন এবং দাম নিয়ে বহু জল্পনা কল্পনা হচ্ছিল। কিন্তু সবকিছুর অবসান ঘটানোর জন্য পিসিবি বিডি যোগাযোগ করে Samsung এর সাথে এবং তারাও আমাদের আনভেইলিঙ্গের আগে যতটুকু তথ্য দেয়া সম্ভব তা সরবরাহ করে। আজকে আমরা দেখে নেব নিশ্চিত কি কি পাচ্ছেন এই নেক্সট জেনারেশন ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন দুটিতে!

General Specification

ডিটেইল্ড স্পেসিফিকেশনে যাবার আগে দেখে নেয়া যাক Samsung Galaxy S9 এবং S9+ এর মধ্যে সাধারণভাবে কি কি পাবেন।

দুটি ফোনই GSM, HSPA ও LTE নেটওয়ার্ক টেকনোলজি রেডি যা সাপোর্ট করবে আপটু ১২০০ মেগাবিট পার সেকেন্ড ইন্টারনেট। Galaxy S9 এ আপনারা পাবেন ৬৪ জিবি রম ও ৪ জিবি র‍্যাম আর S9+ এ পাবেন ১২৮ জিবি রম ও ৬ জিবি র‍্যাম। দুটি ফোনই হবে IP68 রেটেড। IP68 রেটিং হচ্ছে ফোন দুটি সম্পূর্ণ পানি ও ধুলা ময়লা প্রুফ এবং আপনি আপনার ফোনকে দেড় মিটার পানির নিচে ৩০ মিনিট পর্যন্ত রাখতে পারবেন। প্রত্যেক সেটের সাথেই দেয়া হবে 3500 mAh নন রিমুভাবল ব্যাটারি। ব্যাটারি নন রিমুভাবল রাখা হয়েছে মূলত IP68 রেটিং বজায় রাখার জন্য।

IP68 এর ছবি ফলাফল

Body Design

Samsung এর গেলাক্সি সিরিজের ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোনে S6 মডেল থেকেই আমরা তৎকালীন সময়ের এজ ও বর্তমান সময়ের প্লাস ভার্শন দেখে আসছি। প্লাস ভার্শনগুলো নর্মাল ভার্শন থেকে একটু বড় সাইজের হয়ে থাকে এবং Samsung Galaxy S9 ও S9+ এও আমরা এর বেতিক্রম দেখব না।

samsung galaxy s9 specs এর ছবি ফলাফল

Samsung Galaxy S9 এর ডাইমেনশন হবে 5.81 x 2.70 x 0.33 ইঞ্চি এবং S9+ এ পাবেন 6.21 x 2.91 x 0.33 ইঞ্চির বডি। দুটি ফোনের বডিতেই এলুমিনিয়াম ফ্রেমের মধ্যে গরিলা গ্লাস ৫ ব্যাবহার করা হবে। আর ফোনে দেয়া হয়েছে হাইব্রিড ডুয়াল সিম সিস্টেম। তবে যদি আপনি মাইক্রো এস ডি কার্ড ব্যাবহার করতে চান তাহলে একটি সিম স্লট ব্যাবহার করতে পারবেন না। যেহেতু অফিসিয়ালি এখনো রিলিজ হয় নি তাই এক্সাক্ট ওয়েট এখন বলা যাচ্ছে না।

Display

এবার আসা যাক ফোনের অন্যতম প্রধান আকর্ষণ ‘ডিসপ্লের’ দিকে। S9 এ পাবেন ৫.৮” এবং S9+ এ পাবেন ৬.২” এর বেজেললেস ডিসপ্লে। দুটো ফোনেই দেয়া হয়েছে সুপার AMOLED ক্যাপাসিটিভ টাচ স্ক্রিন যা আপনার চোখকে একেবারে ১৬ মিলিয়ন কালার দেখাতে সক্ষম।

Samsung AMOLED Display এর ছবি ফলাফল

দুটো ফোনের ডিসপ্লে রেজোল্যুশন রাখা হয়েছে ১৮.৫ঃ৯ রেশিওতে ১৪৪০X২৯৬০ পিক্সেল যার পিক্সেল ডেন্সিটি হবে আনুমানিক ৫৩১ পিপিআই। ডিসপ্লে হবে মাল্টিটাচ সাপোর্টেড এবং তা প্রটেক্ট করার জন্য থাকছে গরিলা গ্লাস ৫। এছাড়া ডিসপ্লেতে দেয়া হয়েছে 3D টাচ সিস্টেম তবে তা কেবল হোম বাটনের জন্য।

OS, Processor & Graphics

ফোন দুটি আসবে এন্ড্রয়েড ৮.০ ওরিয় অপারেটিং সিস্টেম সাথে নিয়ে। তবে ওএস আপগ্রেডিবিলিটির কথা চিন্তা করেই ফোন দুটিকে তৈরি করা হয়েছে।

Android 8.0 oreo এর ছবি ফলাফল

Samsung তাদের মার্কেটকে দুটি রিজিওনে ভাগ করে রাখে সবসময়। আমেরিকা (উত্তর ও দক্ষিণ) ও চায়না হচ্ছে এক রিজিওনে এবং ইউরোপ, অস্ট্রেলিয়া, আফ্রিকা, মিডল ইস্ট ও এশিয়া হচ্ছে অপর রিজিওনে। রিজিওনের উপর ভিত্তি করে তাদের ফোনের প্রসেসর ও গ্রাফিক্স স্পেসিফিকেশনও আলাদা হয়ে থাকে।

আপনি যদি আমেরিকা ও চায়না রিজিওন থেকে Samsung galaxy S9 বা S9+ কেনেন তাহলে প্রসেসর ও গ্রাফিক্স হিসেবে আপনি পাচ্ছেন Qualcomm MSM8998 Snapdragon 845 Octa-core Kryo 385 (4×2.8 GHz Cortex-A75 & 4×1.8 GHz Cortex-A55) প্রসেসর এবং Adreno 630 জিপিইউ।

snapdragon 845 এর ছবি ফলাফল

আবার আপনার কেনার জায়গা যদি অন্য রিজিওনে হয় তাহলে পাবেন Exynos 9810 Octa-core (4×2.9 GHz & 4×1.9 GHz Cortex-A55) প্রসেসর এবং Mali-G72 MP18 জিপিইউ।

exynos 9810 এর ছবি ফলাফল

Camera

এবার Samsung নিজে থেকেই তাদের ফ্ল্যাগশিপ ফোনের সবচেয়ে বেশি যে দিকটির দিকে হাইপ ক্রিয়েট করেছে তা হল ক্যামেরা। এমনকি তাদের প্রমোশনাল ভিডিওতেও তারা ‘The Camera Reimagined’ এই শ্লোগানটি ব্যাবহার করে গিয়েছে। আপনারা চাইলে ভিডিওটি দেখে আসতে পারেন এখানে। বাস্তবিকতায় ক্যামেরা কোয়ালিটি কেমন হবে তা রিলিজ হবার পরেই বোঝা যাবে কিন্তু কি ধরণের ক্যামেরা Samsung Galaxy S9 ও S9+ এ থাকবে তার কনফার্মেশন অলরেডি পাওয়া গিয়েছে।

samsung galaxy s9 এর ছবি ফলাফল

বরাবরের মত এবারো আপানারা পাচ্ছেন পেছনে ডুয়াল ক্যামেরা সিস্টেম। প্রাইমারি ক্যামেরা হিসেবে পাচ্ছেন ১২ মেগাপিক্সেল অটোফোকাস ক্যামেরা। এই ক্যামেরার মধ্যে আলাদা ফিচার হিসেবে পাচ্ছেন GEO টেগিং, একই সাথে 4K ভিডিও ও ৯ মেগাপিক্সেল ছবি রেকর্ড করার ক্ষমতা, টাচ ফোকাস, ফেস/স্মাইল ডিটেকশন, অটো HDR এবং প্যানোরামা মোড। এছাড়া প্রাইমারি ক্যামেরা দিয়ে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে 4K রেজোল্যুশনে ৩০ এফপিএসে অথবা 1080p রেজোল্যুশনে ৬০ এফপিএসে। দুটি রেজোল্যুশনেই আপনি HDR রেকর্ডিঙের সুবিধা পাবেন।

সেকেন্ডারি ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরায় প্রাইমারি ক্যামেরার কিছু ফিচার থাকলেও রেকর্ডিং রেজোল্যুশন হবে ১৪৪০পি এবং ডুয়াল ভিডিও কল সিস্টেম থাকবে এই ক্যামেরায়। এছাড়া ফ্রন্টে আপনি পাবেন ৮ মেগাপিক্সলের অটোফোকাস সেলফি ক্যামেরা।

Sound

Samsung বেশ কয়েক বছর ধরেই অস্ট্রিয়ান কোম্পানি AKG Acoustics এর সাথে চুক্তিবদ্ধ। Samsung এর ফ্ল্যাগশিপ সকল ফোনের সাউন্ড সিস্টেম AKG Acoustics তৈরি করে থাকে। অন্যান্যবারের মত এবারো ফোনের মধ্যে থাকছে AKG সারটিফাইড ডুয়াল স্টেরিয়ো স্পীকারস এবং প্যাকেজের সাথে আসা ইয়ারবাডটিও AKG দ্বারা তৈরি। AKG সম্পর্কে জানতে ঘুরে আসতে পারেন তাদের ওয়েবসাইট থেকে।

তবে যারা শঙ্কায় আছেন Samsung তাদের S9 মডেলে অন্যান্য কোম্পানির মত 3.5 mm বিহীন সেটের ট্রেন্ডে আসবে তাদের চিন্তার অবসান ঘটিয়ে Samsung নিশ্চিত করেছে Samsung Galaxy S9 এর দুটি মডেলেই আপনারা 3.5 mm হেডফোন জ্যাক পাচ্ছেন।

samsung 3.5mm jack এর ছবি ফলাফল

এছাড়া ভয়েস রেকর্ডিঙের জন্য আপানারা পাবেন একটিভ নয়েস কেন্সেলেশন ফিচার করা ডেডিকেটেড মাইক।

Connectivity

ফোনের মধ্যে দেয়া হয়েছে USB 3.1 Type C রিভারসেবল কানেক্টর যা ফাস্ট চার্জ সাপোর্ট করে। ওয়্যারলেস কানেক্টিভিটির জন্য আপনি পাচ্ছেন ব্লুটুথ ৫.০ এবং 802.11 AC ওয়াইফাই। এছাড়া ফোনটিতে জিপিএস এবং এনএফসি সাপোর্ট করবে। Samsung Galxy S9 ও S9+ এ FM রেডিও রাখা হয়েছে তবে কেবল শুধু নর্থ আমেরিকা (ইউ এস এ ও কানাডা) রিজিওনের জন্য তৈরিকৃত ফোনগুলোর জন্য এক্সক্লুসিভ।

Other Features

সেন্সর হিসবে আপনারা পাচ্ছেন আইরিশ স্ক্যানার, ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার (যা পেছনে থাকবে), এক্সেলেরোমিটার, জাইরো সেন্সর, গ্রেভিটি সেন্সর, প্রক্সিমিটি সেন্সর, বারোমিটার এবং হার্টরেট ও SpO2 মিটার।

samsung galaxy s9 এর ছবি ফলাফল

ওয়্যারলেস চারজিং, ফাস্ট চারজিং, ফটো/ভিডিও ইডিটর, ডকুমেন্ট ইডিটর, ANT+ সাপোর্টসহ অন্যান্য যে সকল ফিচার কল্পনা করা সম্ভব সবই পাবেন Samsung Galaxy S9 ও S9+ স্মার্টফোনে।

Conclusion

পরিশেষে, Samsung Galaxy S9 ও S9+ এর অফিসিয়াল দাম এখনো প্রকাশ করা হয় নি, তবে কিছু গুজবমতে Samsung Galaxy S9 এর দাম হতে পারে ৯৫০ আমেরিকান ডলার এবং S9+ এর দাম হতে পারে ১১০০ আমেরিকান ডলার। আমাদের কাছে আসা স্পেসিফিকেশন যদি আমরা বিবেচনা করি আর এর বাস্তব প্রয়োগ আমরা যদি দেখতে পাই তাহলে হলফ করে বলা যায় Samsung Galaxy S9 এবং S9+ হবে বর্তমান মার্কেটের সবচেয়ে এডভান্সড স্মার্টফোন।

আশা করি আর্টিকেলটি পড়ে আপনাদের মন থেকে Samsung Galaxy S9 নিয়ে কিছুটা সন্দেহ দূর হয়েছে। টেক জগতের আরো নতুন কিছু জানার জন্য অবশ্যই আমাদের ফলো করুন। আপনারা সবাই ভাল থাকুন, সুস্থ থাকুন আর সঙ্গে থাকুন পিসিবি বিডির সাথেই।