24 C
Dhaka
Friday, February 26, 2021

Exynos 2100 Spec Analysis : এইবার কি পারবে Snapdragon এর সমক্ষক হতে?

- Advertisement -asus motherboards

প্রথমবারের মত এইবার Samsung কোনো প্রসেসর লঞ্চিং এর জন্য আলাদা ইভেন্টের আয়োজন করেছে। যেমনটা আমরা সচরাচর Qualcomm কে করতে দেখি তাঁদের Snapdragon চিপসেট লঞ্চিং এর জন্য। লঞ্চিং ইভেন্টটি হয়েছিল Samsung S21 series এনাউন্স করার ঠিক দুইদিন আগে এবং এই ইভেন্টে এনাউন্স করা হয়েছিল Samsung এর লেটেস্ট ফ্ল্যাগশিপ Soc Exynos 2100। এই চিপসেট দিয়েই ইতিমধ্যে চলে এসছে S21 Series এর Exynos ভ্যারিয়েন্ট এবং কিছুদিন পর আসবে Note, Fold সিরিজে এমনকি Fan Edition এও দেখা মিলতে পারে এই চিপসেটের।

লঞ্চিং ইভেন্টে Samsung কে বেশ কনফিডেন্ট ও এন্থুজিয়াস্টিক দেখাচ্ছিল নতুন এই চিপসেটকে নিয়ে। কেননা এই চিপসেটে এসেছে বেশ বড় ধরনের পরিবর্তন। Exynos এর কাউন্টার পার্টনার Snapdragon কে নিয়ে সব চেয়ে বেশি বিড়ম্বনায় পড়তে হয় Samsung কে কেননা তাঁদেরকে একই স্মার্টফোন বিভিন্ন রিজিওয়নের জন্য আলদা আলদা ভ্যারিয়েন্ট বের করতে হয় যেখানে Snapdragon এর চিপসেট ওয়ালা ফোন বেশ বড়সড় মার্জিনে এগিয়ে থাকে সিপিউ, জিপিউ ও থার্মাল পারফরমেন্সের ক্ষেত্রে। এইবার আশা করা যাচ্ছে Exynos 2100 দিয়ে গ্যাপ কিছুটা কমিয়ে আনা যাবে। অন্যদিকে এই ইভেন্টে আরো একটি বড় এনাউন্সমেন্ট ছিল। সেটা হচ্ছে নেক্সট ফ্ল্যাগশিপ Soc গুলোতে Samsung ব্যবহার করবে AMD এর ডিজাইন করা কাস্টম জিপিউ। Exynos 2100 স্পেক এনালাইসিস শুরু করার আগে চাইলে পড়ে নিতে পারেন Snapdragon 888 নিয়ে বিস্তারিত দুইটি আর্টিকেল

- Advertisement -

Snapdragon 888: সিপিউ ও জিপিউতে নতুনত্ব কোথায় কোথায় ?(১ম পর্ব)
Snapdragon 888: ইমেজ প্রসেসিং, 5G মডেম ও AI নিয়ে বিস্তারিত(২য় পর্ব)

সিপিউ

অনেকটা অনুমিত ছিল যে Samsung এই চিপসেটেও ক্ষেত্রেও তাঁদের নিজস্ব কাস্টম সিপিউ কোর ব্যবহার করবে না। কেননা গত নভেম্বরে যখন Exynos 1080 এনাউন্স করে ছিল তখন প্রথম দেখা গিয়েছিল তাঁরা তাঁদের কাস্টম কোর M5 থেকে সরে এসেছে। গত পাঁচ বছর ধরে Samsung অনেক চেষ্টা করেও তাঁদের কাস্টম সিপিউ ডিজাইন দিয়ে অন্যান্য চিপসেট গুলোর সাথে পেরে উঠতে পারছিল না। এমনকি Samsung M6 কোর ডিজাইনের রিসার্চ প্রোগ্রাম ও ইতিমধ্যে বন্ধ করে দিয়েছে। Exynos 1080 এর মত এইখানেও 1+3+4 কোর স্ট্র্যাকচার ব্যবহার করেছে যেটা কিনা প্রথম Qualcomm ইন্ট্রোডিউস করেছিল Snapdragon 855 এর মাধ্যমে। গত বছর ARM নতুন দুইটি কোর ডিজাইন উন্মোচন করেছিল যার মধ্যে Cortex X1 এক্সক্লুসিভলি CXC প্রোগ্রামে যারা আওতাধীন তাঁরাই ব্যবহার করতে পারে। যেহেতু Samsung CXC প্রোগ্রামে আওতাধীন তাই তাঁরা প্রাইম কোর হিসেবে ব্যবহার করেছে Cortex X1 যার রান করবে 2.9GHz এ। অন্যদিকে পারফরমেন্স কোর হিসেবে দেওয়া হয়েছে গত বছর এনাউন্স করা Cortex A78 এর তিনটি কোর যার ক্লক স্পিড 2.8GHz করে। এবং ইফিসিয়েন্সি কোর হিসেবে রয়েছে চারটি Cortex A78 কোর যাদের ক্লক স্পিড 2.2GHz। এইসব দেখে অনেকের কাছে পরিচিত লাগতে পারে হ্যাঁ অনেকটা একই শুধু ক্লক স্পিড ছাড়া এটি Snapdragon 888 এর সাথে মিলে যায়। কিন্তু Snapdragon 888 এ পারফরমেন্স ও ইফিসিয়েন্সি কোরের ক্লক স্পিড  400Mhz এবং প্রাইম কোরের ক্লক স্পিড 60Mhz কম।

- Advertisement -

পুরো চিপসেটটি Samsung নিজস্ব 5nm EUV FinEET প্রসেসে তৈরি। অন্যদিকে ক্যাশ মেমোরি নিয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি। Samsung ক্লেইম করেছে আগের Exynos এর তুলনায় 19% সিংগেল কোর ও 33% মাল্টি কোর পারফরমেন্স বেশি পাওয়া যাবে। অন্যদিকে ক্যাশ মেমোরি নিয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি তবে 20% পাওয়ার কম কাঞ্জাম্পশন হবে যেটি খুবি অব্রিয়াস যেহেতু 7nm থেকে 5nm এ এসেছে।

জিপিউ

- Advertisement -

গ্রাফিকাল সেগমেন্টে Samsung এই চিপসেটে ব্যবহার করেছে Mali এর লেটেস্ট জিপিউ Mali G78MP14। যদিও এই জিপিউ প্রথমবার না কারন Exynos 1080 এ এই জিপিউ প্রথম দেওয়া হয়েছিল কিন্তু তখন কোর সংখ্যা ছিল ৩টি কম অর্থাৎ Mali G78MP11। নতুন ৩টি কোর এড করলেও কত ফ্রিকোয়েন্সিতে অপারেট করছে তা ডিসক্লোজ করেনি। নতুন জিপিউ এরেঞ্জমেন্টের ফলে Samsung দাবি করছে আগের(Exynos 990) এর চেয়ে 40% গ্রাফিক্স পারফরমেন্স লিফট পাওয়া যাবে। এছাড়া এই জিপিউতে দেওয়া হয়েছে AMIGO aka Advanced Multi-IP Governor ফলে সাসটেনেবল জিপিউ পারফরমেন্স পাওয়া যাবে। কিন্তু Mali G77MP থেকে Mali G78MP এ পারফরমেন্স হচ্ছে মাত্র 10% সেইখানে Samsung এত বড় সংখ্যা কিভাবে ক্লেইম করছে তা অবাক করার বিষয়। ওভারল 20% পাওয়া ইফিশিয়েন্সি ও 32% বেশি পারফরমেন্স ইমপ্রুভমেন্ট পাওয়া যাবে। সত্যি বলতে এই আপগ্রেডটি মাচ নিডেড ছিল কারণ Qualcomm এর কাস্টম সিপিউ Adreno এর সাথে গেমিং পারফরমেন্সে ব্যবধান কমানো দরকার ছিল। এছাড়া যেহেতু সামনে ফ্ল্যাগশিপ চিপসেট গুলোতে AMD পার্টনার শিপে কাস্টম সিপিউ থাকবে তাই আশা করা যাচ্ছে Mali ব্যবহৃত লাস্ট ফ্ল্যাগশিপ SoC হতে যাচ্ছে এটি যদি সব ঠিক থাকে।

 

এনপিউ

নিউরাল প্রসেসিং ইউনিটেও এসেবে ব্যাপক পরিবর্তন। নতুন আর্কিটেকচাররাল ডিজাইনে আগের ২ কোর ডিজাইনের বাদ দিয়ে নতুন ৩ কোর ডিজাইন সংযোজনের ফলে দ্বিগুণ পাওয়ার ইফিশিয়েন্সি পাওয়া যাবে জানিয়েছে। এছাড়া AI পারফরমেন্স এর দিকে দেখা যাচ্ছে থিওরিটিক্যালি Snapdragon 888 এর মতই 26TOPS করতে সক্ষম। Exynos 990তে যেটা ছিল 15TOPS।

ইমেজ প্রসেসিং

 

Qualcomm ট্রিপল ISP দিয়ে যেখানে চমকে দিয়েছিল সেইখানে Samsung Exynos 2100 এ নিয়ে এল কোয়াড  ISP যা দিলে একই সাথে ৪টি ক্যামেরা ভিডিও বা ছবি তুলতে পারবে। সর্বোচ্চ ৬টি ইমেজ সেন্সর সাপোর্ট করবে এই চিপসেট। এছাড়া ২০০মেগা পিক্সেল পর্যন্ত ক্যামেরা সেন্সর সাপোর্ট করবে যদিও এই রেঞ্জে এখনো কোনো সেন্সর আসে নাই।

অন্যদিকে 4K 120FPS ভিডিও রেকর্ড ও 8K 60FPS এ ভিডিও প্লেব্যাক সাপোর্ট করবে। এছাড়া Dimensity 1000+ এর পর দ্বিতীয় চিপসেট হিসেবে AV1 ডিকোডার দেওয়া হয়েছে এতে। কিন্তু Snapdragon 888 এর Spectra 580 ISP 8K ভিডিও রেকর্ড, 4K HDR, ভিডিও রেকর্ড ও Computational HDR এর মত এক্সাইটিং আরো অনেক কিছু ছিল।

5G & অন্যান্য 

Snapdragon 888 এর মত Exynos 2100 এও থাকছে ইন্ট্রিগেটেড 5G Modem। কিন্তু Qualcomm নতুন মডেম সংযোজন করলেও Samsung তাঁদের প্রিভিয়াস জেনেরাশন চিপসেট Exynos 990 এ দেওয়া Exynos 5123 মডেম শুধু চিপসেটের ভিতর সংযোজন করে দিয়েছ। এই মডেমে sub 6Ghz এর পাশাপাশি mmWave স্পেট্রামের সাপোর্ট থাকছে। LPDDR5 র‍্যাম সাপোর্ট থাকছে যার ম্যাক্স স্পিড 51.2GB/s। স্টোরেজ অপশান হিসেবে থাকছে eMMC5.1 ও UFS2.1 পর্যন্ত। QHD+ রেজ্যুলেশনে 120 Hz রিফ্রেশ রেট সাপোর্ট করবে।

এই ছিল মোটামুটি স্পেকস অনুযায়ী বিশ্লেষন। কিন্তু বাস্তবে কেমন পার্ফম করছে অন্যদের তুলনায় তার জন্য আমাদের বেঞ্চমার্ক স্কোর ও রিভিও এর জন্য অপেক্ষা করতে হবে। যেহেতু ইতিমধ্যে Samsung S21 series চলে এসেছে তাই আমাদেরকে বেশিদিন অপেক্ষা করতে হবে না।

- Advertisement -asus graphics card
Kowcher Chy
Kowcher Chy
A tech enthusiast ,amateur photographer and sluggish coder with an Engineering degree to destroy them all.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here