স্যামসাং গ্যালাক্সি ফোল্ড এর ডিজাইন হচ্ছে বর্তমান টেকনোলজির দিক দিয়েন সত্যিই অনেক ইউনিক। কিন্তু এই ইউনিক ডিজাইনের বেশ কিছু সমস্যা আমরা ইতিমধ্যেই প্রি প্রোডাকশন রিভিউ ইউনিটগুলোতে দেখতে পাচ্ছি। স্যামসাং গ্যালাক্সি ফোল্ড এর ডিজাইন এবং ওভারঅল কোয়ালিটি নিয়ে স্যামসাং চুপ থাকলেও বেশ কয়েকদিন আগে থেকেই তারা বিশ্বের জনপ্রিয় টেক রিভিউয়ারদের প্রি প্রোডাকশন রিভিউ ইউনিট পাঠানো শুরু করে। আর যারা ফার্স্ট ইম্প্রেশন ভিডিওগুলো দেখেছেন তাদের আলাদা করে বলতে হবে না, রিভিউয়ারদের এটি নিয়ে কি বলার ছিল। কিন্তু, সেই ভিডিওগুলো শুট করার সময় কোন সমস্যা না দেখা দিলেও এর ঠিক পরের দিন থেকেই দেখা দেয় একের পর এক সমস্যা। বিশেষ করে মডেলগুলোর ডিসপ্লে নষ্ট বা ফল্টি হয়ে যেতে থাকে যা একদমই সারপ্রাইজিং আবার তেমন সারপ্রাইজিংও নয়।

Reviewers’ Tweet About Galaxy Fold Faulty Display

স্যামসাং গ্যালাক্সি ফোল্ড এর ফল্টি ডিসপ্লের প্রথম রিপোর্ট আসে The Verge এর রিপোর্ট থেকে। সেখানে দেখানো হয় মাত্র একদিন ব্যবহারের পরেই ভেঙ্গে গেছে তাদের রিভিউ ইউনিটের স্ক্রিন। ফেটে গেছে স্ক্রিনকে নিরাপত্তা দেবার জন্য সেই স্পেশাল কোটিং। কিন্তু The Verge ই একমাত্র ভিক্টিম নয়।

CNBC চ্যানেলের Steve Kovach এর মডেলের স্ক্রিন একদিন ব্যবহারের পরেই ভেঙ্গে গিয়েছে। এছাড়া নস্ট হয়ে গিয়েছে বাম পাশের ডিসপ্লেটি।

ঠিক একই ঘটনা ঘটেছে Bloomberg এর Mark Guirman এর সাথে। তার প্রকাশিত এক টুইটে তিনি এই তথ্যগুলো প্রকাশ করেন।

এছাড়া ওয়ার্ল্ড ফেমাস টেক রিভিউয়ার মারকাস ব্রাউনলি কৌতূহলবশত ফোনের ডিসপ্লের উপরে থাকা কোটিংকে প্রটেক্টিভ কভার মনে করে সেটি তুলে ফেলায় নস্ট হয়ে যায় তার মডেলের ডিসপ্লে। এছাড়াও, ফেটে যায় সেটি। প্যাকেটের মধ্যে স্পস্ট কোটিং নিয়ে ঘাটাঘাটি না করার নির্দেশনা থাকলেও সেটা অবশ্য কেউ লক্ষ্য করে নি।

এছাড়া CNBC এর টড হাসেলটোন তার রিভিউ ইউনিটের ডিসপ্লে ইরেগুলারিটি নিয়ে টুইট করেন।

অবশ্য মনে রাখা ভালো এগুলো হচ্ছে সব প্রি প্রোডাকশন ইঞ্জিনিয়ারিং স্যাম্পল। ফাইনাল প্রোডাক্টে আশা করা যাচ্ছে এসবের কোনকিছুই থাকবে না। এটি হবে সম্পূর্ণ লাক্সারি একটি আইটেম যা রিলিজ করা হবে অনেক লিমিটেড এডিশনে। তবে এই সকল সমস্যা নিয়ে স্যামসাং কি জবাব দেয় তা দেখার জন্য অপেক্ষায় আছি আমরা।