Galaxy S10 Is Coming

স্যামসংয়ের রিসেন্ট বছরগুলোর সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ রিলিজ হতে যাচ্ছে Galaxy S10 (এবং S10+) ডিভাইসটি। কারণ হিসেবে গ্যালাক্সি এস৯ এর ধীরগতির সেলসকেই ধরা হচ্ছে না বরং সাউথ কোরিয়ান টেক জায়ান্টের ফ্ল্যাগশীপ স্মার্টফোনের Anniversary হিসেবেও গ্যালাক্সি এস১০ কে ফোকাস করা হবে। তাই বর্তমানে স্যামসং তাদের সর্বোচ্চ প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে গ্যালাক্সি এস ১০ ডিভাইসকে যতটা পারা যায় সুন্দর এবং যুগোপযোগী ফিচার দেবার জন্য। ধারণা করা হচ্ছে স্যামসং গ্যালাক্সি এস১০ ডিভাইসটিকে অ্যাপলের লেটেস্ট iPhone XS, XS Max এবং XR ডিভাইসগুলো যাতে প্রতিযোগীয় নামার জন্য উপযুক্ত করে বাজারে ছাড়া হবে। আর গুজব রয়েছে যে এটাই স্যামসংয়ের প্রথম স্মার্টফোন হতে যাচ্ছে যেটায় থ্রিডি ফেইস স্ক্যানার থাকবে। আমি আজ গ্যালাক্সি এস ১০ ডিভাইস এখন পর্যন্ত যত গুজব এবং কনফার্ম লিকস রয়েছে সেগুলো নিয়েই আজকের পোষ্টটিতে সাজিয়েছি। তো চলুন দেখে নেই স্যামসং গ্যালাক্সি এস১০ ডিভাইসটিতে কি কি থাকতে পারে এবং কি কি থাকবে:

অক্টোবর মাসের লিকস এবং গুজবসমূহ:

এ মাসে গ্যালাক্সি এস১০ সম্পর্কে যত লিকস এবং গুজব রয়েছে সেগুলো নিচে পিন আউট করে দেওয়া হলো:

  • ১) সবশের্ষ লিক হওয়া একটি রিপোর্ট থেকে জানা গিয়েছে যে গ্যালাক্সি এস ১০ স্মাটফোনের মডেলগুলোতে 6.44 ইঞ্চির ডিসপ্লে থাকবে। উল্লেখ্য যে গ্যালাক্সি এস৯+ ডিভাইসে ৬.২ ইঞ্চির ডিসপ্লে প্ল্যানেল ছিলো।
  • ২) স্যামসংয়ের অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই ফার্মওয়্যারে স্ন্যাপড্রাগন ৮১৫০ এর কোড খুঁজে পাওয়া গিয়েছে। মানে গ্যালাক্সি এস১০ ডিভাইসগুলোতে স্ন্যাপড্রাগনের আপকামিং ৮১৫০ থাকতে পারে। নিচে এ বিষয়ে বিস্তারিত লেখা হয়েছে।
  • ৩) গ্যালাক্সি এস ১০ ডিভাইসে থাকবে ট্রিপল রেয়ার ক্যামেরা সিস্টেম, যেটা আগে গুজব হলে এ মাসে এই বিষয়টি লিক হয়ে গিয়েছে।
  • ৪) সর্বশেষ লিক অনুযায়ী জানা গিয়েছে, এবারের গ্যালাক্সি এস ডিভাইসটি ৯টির বেশি কালারে বাজারে আসবে। এছাড়াও স্যামসংয়ের মোবাইল চিফ DJ Koh বলেছেন যে গ্যালাক্সি এস১০ য়ে “চমৎকার” রংয়ের ডিজাইন থাকবে।

গ্যালাক্সি এস১০ মুক্তির দিন

গ্যলাক্সি এস ১০ কবে মুক্তি পাচ্ছে সেটা নিয়ে এখনই বলা বেশ মুশকিল। তবে আমরা যদি অতীতের দিকে তাকাই তাহলে বুঝতে পারবো যে স্যামসং তাদের আগের টাইমলাইনকেই ২০১৯ সালে ফলো করতে পারে। আর যদি সেটা হয় তাহলে আগামী বছরের Mobile World Congress সম্মেলনে স্যামসং তাদের গ্যালাক্সি এস১০ আনুষ্ঠানিক ভাবে এনাউন্স করবে। ২০১৯ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারীতে সম্মেলনটি হবে, আর সেই হিসেবে ২০১৯ সালের মার্চের দিকে গ্যালাক্সি এস১০ ডিভাইসটির শিপিং শুরু হতে পারে।

শুধু তাই নয় আগামী বছর স্যামসং তাদের আরেকটি প্রিমিয়াম ফোনেও উন্মোচন করতে পারে। একটি ওয়েবসাইটের লিকস থেকে জানা গিয়েছে যে আগামী বছর স্যামসং তাদের প্রথম Foldable ফিচারের Galaxy X ফোনটিও CES 2019 জানুয়ারীতে এনাউন্স করতে পারে।

৩ বা ৪টি মডেলস

অনেকগুলো সোর্স থেকে গুজব রয়েছে যে এবার স্যামসং তাদের গ্যালাক্সি এস সিরিজের দুটি নয় বরং ৩টি ডিভাইস মুক্তি দিতে পারে।  TF International Securities এর এনালিস্ট Ming-Chi Kue বলেছেন যে এবারের গ্যালাক্সি এস সিরিজে ৩টি ডিভাইস মুক্তি হবে, এদের মধ্যে একটি হবে 5.8 ইঞ্চির, আরেকটি হবে 6.1 ইঞ্চির এবং সবথেকে প্রিমিয়াম ডিভাইসটি হবে 6.4 ইঞ্চির। আর এই তিনটি ডিভাইসের মধ্যে দুটিতে থাকবে ডিসপ্লের ভেতর ফিঙ্গারপ্রিন্ট টেকনোলজি।

In-Display ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর

স্যামসংয়ের কাছে In-Display ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরযুক্ত স্মার্টফোন বানানোর সকল টেকনোলজি থাকা স্বত্বেও কোম্পানিটি বিশ্বের প্রথম স্মার্টফোন কোম্পানি হিসেবে  In-Display ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরযুক্ত স্মার্টফোন বানানোর  রেকর্ডটি মিস করে গিয়েছে তাদের গ্যালাক্সি এস৯ ডিভাইসগুলোতে। তবে তাদের গ্যালাক্সির বার্ষিকী উপলক্ষ্যে Galaxy S10 ডিভাইসে ডিসপ্লে প্যানেলের ভেতর ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর আনতে পারে এরকম গুজব রয়েছে। গুজবের থেকে এটা এখন একটি লিক হিসেবে পরিণত হয়েছে যখন ETNews এর একটি রির্পোটে বলা হয় যে Galaxy S10 ডিভাইসে In-Display ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর থাকবে। সেন্সরটি কোয়ালকমের হবে এবং এটাকে সবথেকে প্রিমিয়াম গ্যালাক্সি এস ১০ ডিভাইসে দেওয়া থাকবে।

স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ সিপিইউ

এ বছরের ফেব্রুয়ারীতে স্যামসং এনাউন্স করেছিলো যে তারা প্রায় ৫.৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ইনভেস্ট করে একটি নতুন ফ্যাক্টরি বানিয়েছে যেখানে 7 nanometer এর চিপসেট বানানো হবে। এর থেকে বোঝা যায় যে আপকামিং গ্যালাক্সি ডিভাইসগুলোতে স্ন্যাপড্রাগনের আপকামিং ৮৫৫ চিপসেটটি থাকতে পারে। তবে উল্লেখ্য যে, XDA Developers দের একটি সাম্প্রতিক লিকস থেকে জানা গিয়েছে যে Samsung এর Android 9 Pie ফার্মওয়্যারের কোডিংয়ে স্ন্যাপড্রাগন ৮১৫০ মডেলের চিপসেটর কোড রয়েছে। তাই অনেকেই মনে করছেন যে স্ন্যানড্রাগন ৮৫৫ চিপসেটকে স্ন্যানড্রাগন ৮১৫০ নামে বাজারে ছাড়া হতে পারে। তবে নাম যেটাই হোক, গ্যালাক্সি এস এর আপকামিং ডিভাইসগুলোতে যে 7nm প্রসেসের চিপসেট থাকবে সেটা নিশ্চিত। তবে মনে রাখতে হবে যে, স্যামসং Exynos এবং কোয়ালাকমের স্ন্যাপড্রাগন দুটি চিপসেটকেই তাদের প্রিমিয়াম ডিভাইসগুলোতে ব্যবহার করে থাকে। তাই অঞ্চল ভেদে গ্যালাক্সি এস ১০ ডিভাইসেও Exynos চিপসেট ব্যবহৃত হবার চান্স রয়েছে।

৫টি ক্যামেরা

এ বছর পেছনের তিনটি ক্যামেরা লেন্সের কনসেপ্ট সর্বপ্রথম Huawei তাদের P20 Pro ডিভাইসে নিয়ে আসে। বাকিটা ইতিহাস! স্যামসং ইতিমধ্যেই তাদের A9 (2018) ডিভাইসে পেছনে ৪টি ক্যামেরা নিয়ে এসেছে। তবে গুজব রয়েছে গ্যালাক্সি এস ১০ ডিভাইসগুলোর পেছনে তিনটি ক্যামেরা সেটআপ করার পরিকল্পনা রয়েছে স্যামসংয়ের। SamMobile এর একটি লিক থেকে আরো জানা গিয়েছে যে, প্রথম সেন্সরটি ১২ মেগাপিক্সেলের f/1.5 aperture হবে যেখানে থাকবে ৭৮ ডিগ্রি ফিল্ড-অফ-ভিউ, দ্বিতীয়টি হবে ১৬ মেগাপিক্সেলের f/1.9 aperture যেখানে থাকবে ১২৩ ডিগ্রি field-of-view আর শেষের ক্যামেরায় থাকবে f/2.4 aperture এর ১৩ মেগাপিক্সেলের লেন্স। আর The Bell এর আরেকটি লিক থেকে জানা গিয়েছে যে, গ্যালাক্সি এস ১০ এর সবথেকে প্রিমিয়াম ভার্সনে সামনে থাকতে পারে ২টি ক্যামেরা লেন্স যেটায় উন্নতমানের Portrait Mode ইফেক্ট থাকবে। তাহলে গ্যালাক্সি এস ১০ ডিভাইসে মোট ৪ থেকে ৫টি ক্যামেরা লেন্স থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।

True bezel-free ডিজাইন

Samsung Galaxy S9+

গ্যালাক্সি এস ৯ এর ডিজাইনে অনেকটাই এস৮ এর ডিজাইনকে ফলো করা হয়েছে তাই ধারণা করা হচ্ছে যে এবারের গ্যালাক্সি এস এর ডিজাইনে অনেক ধরণের পরিবর্তন আনা হতে পারে। খোদ স্যামসংয়ের মোবাইল চিফ D.J. Koh গত সপ্তাহে চাইনিজ মিডিয়াকে জানিয়েছেন যে স্যামসং এস১০ এর ডিজাইনে “very significant” পরিবর্তন আসতে যাচ্ছে।

Galaxy X

গ্যালাক্সি এস১০ এর পাশাপাশি স্যামসং তাদের বহুল প্রতিক্ষিত ফোল্ডেবল স্মার্টফোন “Galaxy X” কেও ২০১৯ সালে রিলিজ করার সম্ভাবনা রয়েছে, তবে এই ডিভাইসের মুক্তির দিন বা শিডিউলটি গ্যালাক্সি এস ১০ সাথে কোনো সংযোগ থাকবে না। তবে এখানে নামের ব্যাপারে একটি কনফিউজ রয়ে যাবে। কারণ রোমান ভাষায় X এর মানে হচ্ছে ১০ আর একই সাথে Galaxy X (গ্যালাক্সি টেন) এবং Galaxy S10 (গ্যালাক্সি এস১০) মুক্তির মাধ্যমে কিছুটা কনফিউজিং থেকে যাবে। তবে নিশ্চিত হওয়া গিয়েছে ফোল্ডেবল galaxy x ডিভাইসটি স্যামসংয়ের সর্বপ্রথম 5G স্মার্টফোন হতে যাচ্ছে।

আর যদি আপনার পছন্দ হয়ে থাকে iOs তাহলে পড়ে আসতে পারেন iPad Pro সম্পর্কে।