28 C
Dhaka
Monday, July 4, 2022

Samsung S20 Fan Edition কি কি অফার করছে?

- Advertisement -

স্যামস্যাং এর ফ্ল্যাগশিপ ফোনগুলোতে একটা মডার্ন স্মার্টফোন যা যা থাকা দরকার তা সবই অফার করে। কিন্তু তাঁদের আকাশ ছোয়া প্রাইসিং এর কারনে তা অনেক সময় অনেকের সাধ্যের বাহিরে থাকে। এই অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য স্মার্টফোন নির্মাতা কোম্পানিগুলো প্রিমিয়াম ফ্ল্যাগশিপ অফার করার পাশাপাশিও কিছু ফিচারকাট করে “এফোর্ডেবল ফ্ল্যাগশিপ” অফার করছে। যেমনঃ কিছুদিন আগে Apple iPhone 12 Pro/Max ছাড়াও আরো দুইটি(iPhone 12/mini) ও নিয়ে আসে, OnePlus বরবাবর এর মতই এইবছরও T ওয়ালা একটা এডিশন (OnePlus 8T) নিয়ে এসেছে।

একইভাবে Samsung এই অক্টোবরের শুরুতে $৬০০-৭০০ ডলার রেঞ্জে একটি এফোর্ডেবল ফ্ল্যাগশিপ স্মার্টফোন নিয়ে আসে যার নাম হচ্ছে Samsung S20 FE aka (Fan Edition) মানে হচ্ছে Samsung ক্লেইম করছে ফ্যানরা কি চায় এই উপর বেসিস করেই Fan Edition বানানো হয়েছে।

- Advertisement -

তো, এই FE এডিশনে উল্লেখ করার মত কি থাকছে?

  • একটি ফ্ল্যাগশিপ প্রসেসর
  • এক্সপেন্ডবল স্টোরেজ
  • IP68 rating
  • এমোলেড ডিসপ্লে
  • ওয়্যারলেস চার্জিং
  • ওয়্যারলেস পাওয়ার শেয়ার
  • ট্রিপল লেন্স ক্যামেরা

Samsung S20 FE এর 6.5 ইঞ্চির ডিসপ্লে প্যানেলটি 120hz এর এমোলেড প্যানেল দেওয়া হলেও প্রোটেকশন এর জন্য দেওয়া হয়েছে প্রায় চার জেনেরাশন আগের গরিলা গ্লাস ৩। ডিসপ্লে প্যানলেটি সিংগেল পাঞ্চহোল কাটওয়াট যুক্ত ফ্ল্যাট ডিসপ্লে। সাইড ফ্রেইম এলুমিনিয়ামের দেওয়া হলেও পিছনের ব্যাট পার্টটি হচ্ছে প্লাস্টিক এর তৈরি। এমোলেড প্যানেল হওয়াতে ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গার প্রিন্টও রয়েছে সিকিউরিটি জন্য।

- Advertisement -

অপারেটিং সিস্টেম হিসেবে এর সাথে এসেছে Android 10 এর উপরে রয়েছে Samsung এর কাস্টম স্কিন OneUI 2.5। এছাড়াও সব গ্যালাক্সী ফোনের মত এটিও তিনটি মেজর এন্ড্রয়েড আপডেট পাবে।

দুইটি ভার্সন অর্থাৎ 4G ও 5G রয়েছে Samsung S20 FE এর। 5Gতে দেওয়া হয়েছে Snapdragon 865 যার জিপিউ Adreno 650 অন্যদিকে 4G ভার্সনে দেওয়া হয়েছে তাঁদের নিজস্ব প্রসেসর Exynos 990 যার জিপিউ Arm Mali-G77 MP11। 5G ভার্সনের এর দাম হচ্ছে $699 যা শুধু আমেরিকার জন্য। ইউকে’তে 4G,5G দুটো ভার্সনই পাওয়া যাবে যাদের দাম যথাক্রমে  £599 ও £699 (ইউরো)। 6GB র‍্যাম ও 128GB UFS3.0 স্টোরেজ রয়েছে এতে।

পিছনে কোয়াড ক্যামেরা সেটাপে ১২মেগাপিক্সেলর মেইল ক্যামেরা সেন্সরে OIS সাপোর্ট রয়েছে। আল্ট্রাওয়াইড সেন্সরটিও ১২মেগাপিক্সেলর। তৃতীয় ও সর্বশেষ ক্যামেরা সেন্সর হচ্ছে ৮মেগাপিক্সলের টেলিফটো যা দিয়ে 3x optical zoom এবং 30x digital Space Zoom এ ছবি তোলা যাবে। সামনের সিংগেল ক্যামেরাটি ৩২মেগাপিক্সলের।

- Advertisement -

ফোনটির পাওয়ার হাউসের জন্য রয়েছে ৪৫০০মিলি এম্পাওয়ারের ব্যাটারি। যা চার্জ দেওয়া যাবে ২৫ওয়াট ফাস্ট চার্জার দিয়ে। কিন্তু আউট অফ দ্য বক্স এডাপ্টরটি ১৫ ওয়াটের। এছাড়া ১৫ ওয়াট ওয়্যারলেস চার্জিং সাপোর্ট করে। ফ্ল্যাগশিপ ফোনের মত এটিতেও ওয়্যারলেস পাওয়ার শেয়ার মানে স্মার্ট ওয়াচ ও এয়ারবাড ইসিলি ফোন থেকেই চার্জ দেওয়া যাবে তার ছাড়ায়।

ক্লাউড নেভি, ক্লাউড রেড, ক্লাউড লেভেন্ডার, ক্লাউড মিন্ট, ক্লাউড ওয়াইট ও ক্লাউড অরেঞ্জ ইত্যাদি কালারে পাওয়া যাচ্ছে।

বিঃদ্রঃ স্যামস্যাং বাংলাদেশে এইফোনটি এখনো অফিশিয়ালি এনাউন্স করেনি তাই বাংলাদেশে এর এভাইবিলিটি ও প্রাইসিং নিয়ে কিছু জানানো হয়নি এই আর্টিকেলে।

- Advertisement -
Kowcher Chy
Kowcher Chy
A tech enthusiast ,amateur photographer and sluggish coder with an Engineering degree to destroy them all.

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here