হুয়াওয়ে পিছিয়ে দিল তাদের প্রথম ফোল্ডেবল স্মার্টফোন Huawei Mate X এর অফিসিয়াল লঞ্চ। বিভিন্ন সুত্র থেকে জানা গিয়েছে যে, অরিজিনালি এই মাসে লঞ্চ হবার কথা থাকলেও বেশ কিছু টেকনিক্যাল সমস্যার সম্মুখীন হবার কারণে Mate X এর অফিসিয়াল লঞ্চ পিছিয়ে দিতে অনেকটা বাধ্য হয়েছে হুয়াওয়ে।

লঞ্চ পিছিয়ে দেবার কারণ

সম্ভাব্য ডিসপ্লে ও হার্ডওয়্যার ফল্ট

CNBC হতে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী স্যামসাং গ্যালাক্সি ফোল্ডের ডিসপ্লে সমস্যা দেখা দেওয়ার পর হুয়াওয়ে তাদের সকল ইউনিটের ডিসপ্লে নিয়ে আবার পরীক্ষা নিরীক্ষা শুরু করেছে। এছাড়াও বেশ কিছু আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম হতে প্রাপ্ত তথ্য মতে হুয়াওয়ে তাদের Mate X ফোনের ফোল্ডিং ডিস্প্লের কোয়ালিটি একেবারেই ফল্ট বিহীন রাখতে চায় যাতে কেনার পর ইউজারদের কোন প্রকার সমস্যার সম্মুখীন না হতে হয়।

উল্লেখ্য স্যামসাং গ্যালাক্সি ফোল্ডের রিভিউ ইউনিট পাওয়ার পর অনেক রিভিউয়ার ২য় দিন থেকেই সেই ফোনের মধ্যে বিভিন্ন সমস্যার সম্মুখীন হতে থাকে। যাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য ছিল ডিসপ্লের মাঝখানের অংশ ফেটে যাওয়া, ফোনে সফটওয়ার ম্যালফাংশন দেখা, ডিসপ্লের কোটিং ভুল করে উঠিয়ে ফেলা ইত্যাদি। গ্যালাক্সি ফোল্ডের খবরটি পড়তে এখানে ক্লিক করুন। এই ঘটনাগুলো ঘটার পরেই স্যামসাং তাদের রিভিউ ইউনিটগুলো ফেরত নিয়ে আসে এবং অফিসিয়াল লঞ্চ ক্যান্সেল করে দেয়। স্যামসাঙ্গের পক্ষ থেকে এখনো গ্যালাক্সি ফোল্ডের নেক্সট অফিসিয়াল লঞ্চ ডেট নিয়ে কোন ঘোষণা আসে নি।

অবশ্য শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত কোন রিভিউয়ারদের এখনো কোন রিভিউ স্যাম্পল দেয় নি হুয়াওয়ে। তবে এন্ড্রয়েড অথরিটির ক্রিস কারলোন কিছু সময়ের জন্য একটি মডেল হাতে পেয়েছিলেন যেখানে তিনি দেখেছিলেন যে জায়গাটায় একচুয়ালি ফোল্ড হয় সেখানে স্যামসাঙ্গের মডেলের মত হালকা বাম্প রয়েছে। তবে তাদের মতে এই বাম্প প্রথম জেনারেশনের সকল ফোল্ডিং ডিভাইসেই পাওয়া যেতে পারে। তবে অদূর ভবিষ্যতে দ্বিতীয় বা তৃতীয় জেনারেশনের ডিভাইস থেকে প্রোপার ফোল্ডেবল ডিভাইস মার্কেটে দেখতে পাওয়া যাওয়ার আশা করা যাচ্ছে।

ইউ এস ব্যান এবং নো এন্ড্রয়েড

Mate X এর লঞ্চ ডেট পিছিয়ে দেবার আরো একটি মুখ্য কারণ হতে পারে ট্রাম্প সরকারের আমেরিকায় হুয়াওয়ের সকল ধরণের ডিভাইস সেল ব্যান করে দেয়া। আমেরিকান সরকারের এই ব্যানের কারণে হুয়াওয়ের সাথে অনেকটা জোরপূর্বক বাধ্যহয়েই একে একে গুগোল, কোয়ালকম, ইন্টেল সহ অনেক প্রতিষ্ঠান ব্যবসায়িক সম্পর্ক ছিন্ন করেছে। এন্ড্রয়েড ব্যবহার করার জন্য যে লাইসেন্সের প্রয়োজন হয় তা দেয় গুগোল। ইতিমধ্যে আপনারা জানেন যে হুয়াওয়ের ভবিষ্যৎ ডিভাইসগুলো আর এন্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম চালাতে পারবে না। এর প্রতিকার হিসেবে হুয়াওয়ে তাদের নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেম তৈরি করছে। তবে গুগোল এবং হুয়াওয়ের মধ্যে সম্পর্ক ঠিক হয় কিনা সেটির উপরও নির্ভর করছে অনেক কিছু।

তাই নিজস্ব অপারেটিং সিস্টেমকে Mate X এ প্রয়োগ এবং অপ্টিমাইজ করার জন্যই ফোনের লঞ্চ পিছিয়ে দেয়া হয়েছে। Huawei Mate X অরিজিনালি লঞ্চ হবার কথা ছিল এই মাসের শেষ সপ্তাহে প্রায় ২ লাখ ১৫ হাজার টাকা দাম নিয়ে। আশা করা যাচ্ছে এই ডিভাইসটি নিয়ে সকল আপডেট আমরা আপনাদের জানাতে পারব।